X
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
৫ বৈশাখ ১৪৩১

নানা আয়োজনে রাজধানীবাসীর বিজয় উদযাপন

বাংলা ট্রিবিউনে রিপোর্ট
১৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:২০আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:৪৫

একজন বাঙালির জন্য বিজয় দিবস আনন্দের ও গর্বের। এদিন বাংলাভাষীরা পেয়েছে বাংলাদেশ নামে নিজস্ব একটি ভূখণ্ড। তাই এদিন মুক্তিযুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন তারা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শুরু হয় বিজয় উৎসব। প্রতিবছর এই উৎসবকে নানা আয়োজনে উযাপন করেন রাজধানীবাসী।

রাজধানীর পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্রগুলোয় করা হয়েছে আলোকসজ্জা। এসব জায়গায় পরিবার-পরিজন নিয়ে ঘুরতে বেড়ানো ও দেশাত্মবোধক গানে সারা দিন এক উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করে।

বিজয় দিবসে অনুষ্ঠিত হয় কনসার্ট

এ বছর উৎসবে ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে মেট্রোরেল ও এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে। উত্তর ঢাকার সঙ্গে দক্ষিণ ঢাকার সংযোগ সহজ হওয়ায় জাতীয় সংসদ ভবনসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি বিনোদনকেন্দ্রে দূর-দূরান্ত থেকেও এসেছে মানুষ। এ ছাড়া বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে লাল-সবুজের আলোকসজ্জা সন্ধ্যার পর ঢাকাকে বিজয়ী আমেজে ফুটিয়ে তোলে।

শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) রাজধানীর মতিঝিল, শাহবাগ, বিজয় সরণি ও আগারগাঁও এলাকাগুলোয় দেখা যায় পরিবার নিয়ে ঘুরে বেড়ানো মানুষের ভিড়।

বিজয় দিবস উপলক্ষে ছিল গানবাজনার আয়োজন  ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

বিকাল ৪টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অবস্থিত স্বাধীনতা জাদুঘর সরেজমিনে দেখা যায়, জাদুঘরে দর্শনার্থীরা ভিড় করেন। তারা জাদুঘরে থাকা মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন ছবি, ব্যানার ও ভাস্কর্যের পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলছেন। বিজয় দিবস হওয়ায় অন্যান্য দিনের তুলনায় আজ দর্শনার্থীর আনাগোনা বেশি দেখা গিয়েছে। এ ছাড়া উদ্যানেও ঘুরতে আসা মানুষের উপস্থিতি ছিল অনেক। বিজয় দিবসে পাঞ্জাবি-শাড়ি পরে তরুণ-তরুণীদেরও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক ও হলে বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে সময় কাটাতে দেখা যায়।

বিজয় সরণিতে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সামরিক জাদুঘরেও দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। পাশাপাশি সংসদ ভবন ও চন্দ্রিমা উদ্যানেও ছিল ভিড়। মেট্রোরেল আর এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েতে বিশেষ বাস সার্ভিসের কারণে উত্তরা, এয়ারপোর্ট, খিলগাঁও এলাকাগুলো থেকে মানুষ এসেছে এসব কেন্দ্রে।

পুরান ঢাকার নারিন্দায় বসুবাজার মহল্লায় কিশোররা সড়কে আলো জ্বালিয়ে অয়োজন করে ফুটবল খেলা

সন্ধ্যায় রাস্তায় বাতি জ্বলার সঙ্গে সঙ্গেই বিজয় দিবসের লাল-সবুজের আলোকসজ্জা আরও রঙিন করে দিয়েছে বিজয় দিবসের সন্ধ্যাকে। সন্ধ্যায় অফিসপাড়ায় করা আলোকসজ্জার পাশে, পাড়ায় পাড়ায়, এমনকি অনেক বাড়িতেও বিজয় দিবসে উৎসব শুরু হয়। দেশীয় গান, নাচ আর কবিতা আবৃত্তির সন্ধ্যার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

মতিঝিল শাপলা চত্বর থেকে দৈনিক বাংলা ও টিকাটুলি পর্যন্ত ছিল বিজয়ের লাল-সবুজ আলোকসজ্জা। এই আলোকসজ্জা দেখতে এবং সেলফি তোলার হিড়িক দেখা গেছে। একই অবস্থা ছিল সংসদ ভবন এলাকায়ও।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

বনানী, গুলশান ও ধানমন্ডি এলাকার বিভিন্ন ওয়েলফেয়ার ও কালচারাল সোসাইটির উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে বিজয় উৎসব। সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, মুক্তিযুদ্ধের ছবি ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী হয়। পাশাপাশি চলে খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন।

পুরান ঢাকাসহ বেশ কিছু এলাকায় স্থানীয়ভাবে পাড়ার তরুণ-তরুণীরা চাঁদা তুলে প্রতিবছরই করেন বিজয় উৎসব। তারই অংশ হিসেবে আজও তারা গেট বানিয়ে, কোথাও কোথাও প্যান্ডেল করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। গান, নাচ ও আবৃত্তি চলেছে এসব অনুষ্ঠানে। আবার কোথাও কোথাও ভিনদেশি গান বাজানোর আওয়াজও ভেসে এসেছে।

জাতীয় পতাকা ও আলোকসজ্জায় সেজেছে রাজধানী  ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

পুরান ঢাকার কলতাবাজার থেকে আতিক হাসান শুভ জানান, এলাকায় বেশ কয়েকটা ডিজে পার্টি হচ্ছে। বাংলা গানের পাশাপাশি চলছে ভিনদেশি গানও।

পাড়ায় পাড়ায়, এমনকি অনেক বাড়িতেও বিজয় দিবসে উৎসব শুরু হয়  ছবি: সাজ্জাদ হোসেন

তবে রাস্তায় মানুষের উপস্থিতি বেশি থাকলেও গণপরিবহন ছিল কম। তাই সন্ধ্যার পর বাড়ি ফিরতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে। তবু দিন শেষে বিজয় আনন্দে নিজেদের অংশীদার করে খুশি সাধারণ মানুষ।

/জেডএ/এসএনএস/এসএ/এনএআর/
সম্পর্কিত
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি
৮ জনকে গ্রেফতারের পর ডিবি’র দাবিমাদক-চাঁদাবাজি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে পল্লবীতে পাভেল হত্যা
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
সর্বশেষ খবর
গরু অথবা মাংস আমদানির বিকল্প কী?
গরু অথবা মাংস আমদানির বিকল্প কী?
ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের দাবি ইউক্রেনের
ক্রিমিয়ায় রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংসের দাবি ইউক্রেনের
প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে উদ্যোক্তা হিসেবে দেখতে চান প্রধানমন্ত্রী
প্রাণিসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে উদ্যোক্তা হিসেবে দেখতে চান প্রধানমন্ত্রী
গরমে হাসপাতালে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগী
গরমে হাসপাতালে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগী
সর্বাধিক পঠিত
এএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
রেস্তোরাঁয় ‘মদ না পেয়ে’ হামলার অভিযোগএএসপি বললেন ‌‘মদ নয়, রাতের খাবার খেতে গিয়েছিলাম’
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
মেট্রোরেল চলাচলে আসতে পারে নতুন সূচি
রাজধানীকে ঝুঁকিমুক্ত করতে নতুন উদ্যোগ রাজউকের
রাজধানীকে ঝুঁকিমুক্ত করতে নতুন উদ্যোগ রাজউকের
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
‘আমি এএসপির বউ, মদ না দিলে রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দেবো’ বলে হামলা, আহত ৫
ফিলিস্তিনের পূর্ণ সদস্যপদ নিয়ে জাতিসংঘে ভোট
ফিলিস্তিনের পূর্ণ সদস্যপদ নিয়ে জাতিসংঘে ভোট