X
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
১১ আশ্বিন ১৪২৯

জার্মান নাগরিক কাউসমান আত্মহত্যা করেছেন, ধারণা পুলিশের

রিয়াদ তালুকদার
০৮ আগস্ট ২০২২, ০২:৩৩আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০২২, ০২:৩৪

মৃত্যু ভয়ে ভীত হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন ২০১৪ সাল থেকে বাংলাদেশে বসবাস করা জার্মান নাগরিক হোলগার কাউসমান (৫৫)। এমনটাই ধারণা করছে পুলিশ। কাউসমানের সহকারি জুয়েলের গ্রামের বাড়ি শ্রীমঙ্গলে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করার জন্য একটি সুইসাইডাল নোটে লিখে রেখে গেছেন তিনি।

রবিবার ৭ আগস্ট উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকার পাঁচ নম্বর সেক্টরের তিন নম্বর বাসার ফ্ল্যাট থেকে কাউসমানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় মরদেহের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয় দুইশ’র মতো ঘুমের ওষুধসহ বিভিন্ন ওষুধের খালি প্যাকেট এবং একটি সুইসাইডাল নোট। তদন্ত সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

উদ্ধার হওয়া সুইসাইডাল নোটে কাউসমান লিখেছেন, আমি আর বাঁচতে চাই না। আজ মারা যাবো। মৃত্যুর পর তার শেষকৃত্য যেন শ্রীমঙ্গল এ করা হয়। বাসার ভাড়া এবং শেষকৃত্য সম্পন্ন করার সব খরচ আমার সহকারী মামুন সবকিছু যেন করে। এই মৃত্যুর জন্য সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থী।

কাউসমানের সহকারী মামুনের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ ধারণা করছে, তিনি মৃত্যু ভয়ে ভীত হয়ে মরতে চাননি। এছাড়া বিভিন্ন সময় বয়স হয়ে গেলে অন্যের সহযোগিতা ছাড়া কিভাবে চলবেন,  কি করবেন এসব বিষয় নিয়ে খুবই চিন্তাভাবনায় মগ্ন থাকতেন। ৫৫ বছর বয়সী অবিবাহিত কাউসমান অনেকটাই ছিলেন ডিপ্রেশনে। ২০১৪ সালে বাংলাদেশে এসে পরবর্তীতে উত্তরায় একটি ট্রাভেল এজেন্সি দেন। সেখান থেকে তিনি ইউরোপ থেকে আসা বিভিন্ন ব্যক্তিদের বাংলাদেশে গাইড সরবরাহের কাজ করছিলেন। করোনার কারনে দ্য লনসাম ট্রাভেল লিমিটেড নামে তার পরিচালিত এজেন্সির অফিস বাদ দিয়ে বাসা থেকেই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছেন তিনি প্রায়ই বলাবলি করতেন তিনি বুড়ো হয়ে মরবেন না। অসুস্থ হয়ে বিছানায় পড়ে থাকবো। কারো বোঝা হয়ে থাকতে চান না। লাঠি ভর দিয়ে তিনি হাঁটবেন না।

কি এমন ডিপ্রেশনে ছিলেন এই জার্মান নাগরিক এ বিষয়ে তার সহকারী কিংবা তার বন্ধুরাও বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেননি। সব বিষয় খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তাদের সঙ্গে কোন বিষয় সেভাবে শেয়ার করেননি। দীর্ঘ সময় কাউসমানের সাথে থাকার পরও বাংলাদেশি বন্ধু আলামিন কোন কিছুই বুঝতে পারেননি। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ২০১৪ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত আমরা একসাথে এক রুমে ছিলাম। তারপর আমি অন্য জায়গায় চলে আসি কিন্তু তার সাথে আমার যোগাযোগ হতো কথা হতো। তবে কিছুটা চুপচাপ থাকতো। ডিপ্রেশনের বিষয়গুলো তিনি কাউকে বুঝতে দিতেন না বলে আমার মনে হয়।

উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মোহসীন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। তবে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানার জন্য আমরা মরদেহ ময়নাতদন্ত করার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট এলেই পরবর্তীতে এ বিষয়ে প্রকৃত কারণ জানা যাবে। তার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হবে।

উত্তরা পশ্চিম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াসিন গাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, করোনার কারণে দীর্ঘদিন ট্রাভেল এজেন্সি কার্যক্রম বন্ধ ছিল পরবর্তীতে তিনি বাসা থেকেই এর কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছিলেন। ২০১৪ সাল থেকে বৈধভাবে তিনি বাংলাদেশ অবস্থান করছিলেন। প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পেরেছি তিনি অনেকটাই ডিপ্রেশনে ছিলেন। আর সেটি থেকে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারেন। সুইসাইডাল নোটে তার যে সহকারী মামুনের কথা বলা হয়েছে সেই ছেলেটির বাড়ি শ্রীমঙ্গল। ঘুরতে গিয়ে মামুনের সাথে পরিচয় হয় তারপর থেকে কাউসমানের সহকারী হিসেবে কাজ করে আসছিল মামুন।

আরও পড়ুন: উত্তরায় জার্মান নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার

/জেজে/
সম্পর্কিত
জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা (ফটো স্টোরি)
জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা (ফটো স্টোরি)
তুলির আঁচড়ে প্রতিমা সাজাতে ব্যস্ত শিল্পীরা
তুলির আঁচড়ে প্রতিমা সাজাতে ব্যস্ত শিল্পীরা
উত্তরায় বহুতল ভবন থেকে পড়ে গৃহপরিচারিকার মৃত্যু
উত্তরায় বহুতল ভবন থেকে পড়ে গৃহপরিচারিকার মৃত্যু
কামরাঙ্গীরচরে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
কামরাঙ্গীরচরে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
কলকাতা থেকে আখাউড়া হয়ে ট্রেন যাবে আগরতলা
কলকাতা থেকে আখাউড়া হয়ে ট্রেন যাবে আগরতলা
আলমডাঙ্গায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধারে ঘটনায় মামলা
আলমডাঙ্গায় স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধারে ঘটনায় মামলা
দলীয় পদ ছাড়লেও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শাহাদাৎ
ফরিদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনদলীয় পদ ছাড়লেও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শাহাদাৎ
মদনে বউ-শাশুড়ির দ্বন্দ্বে  মৌলভি নিহত, আহত ৭
মদনে বউ-শাশুড়ির দ্বন্দ্বে মৌলভি নিহত, আহত ৭
এ বিভাগের সর্বশেষ
জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা (ফটো স্টোরি)
জমে উঠেছে পূজার কেনাকাটা (ফটো স্টোরি)
তুলির আঁচড়ে প্রতিমা সাজাতে ব্যস্ত শিল্পীরা
তুলির আঁচড়ে প্রতিমা সাজাতে ব্যস্ত শিল্পীরা
উত্তরায় বহুতল ভবন থেকে পড়ে গৃহপরিচারিকার মৃত্যু
উত্তরায় বহুতল ভবন থেকে পড়ে গৃহপরিচারিকার মৃত্যু
কামরাঙ্গীরচরে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
কামরাঙ্গীরচরে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
আবু হেনা রনিকে কেবিনে নেওয়া হয়েছে
আবু হেনা রনিকে কেবিনে নেওয়া হয়েছে