X
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২
১৬ আশ্বিন ১৪২৯

শোকের মাসে জাতীয় জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলছে বিশেষ প্রদর্শনী

আবিদ হাসান
১৩ আগস্ট ২০২২, ১৪:০৫আপডেট : ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৪:১৩

জাদুঘর বর্তমানের সঙ্গে অতীতের সেতুবন্ধ তৈরি করে। পরিচয় করিয়ে দেয় নানা সভ্যতা, ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও মনীষীদের সঙ্গে। মনীষীদের কর্মের সঙ্গেও পরিচয় ঘটনায় জাদুঘর। বাংলাদেশের মানুষের জন্য জাতীয় জাদুঘর যেন এক মিলনস্থল। 

প্রতিদিনই দেশের নানা প্রান্ত থেকে মানুষ ছুটে আসে এসব সংগ্রহশালা দেখতে। স্বাভাবিক দিনগুলোতে দর্শার্থীর সংখ্যা দেড় থেকে দুই হাজার। বিশেষ দিনগুলোসহ শুক্র-শনিবার এই সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় চার থেকে পাঁচ হাজারে।

জাতীয় জাদুঘরে দর্শনার্থীরা চলছে শোকের মাস আগস্ট। শোকের মাসে জাদুঘরে চলছে বাঙালি জাতির মুক্তির নায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিশেষ প্রদর্শনী। জাদুঘরের নিচ তলায় নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে চলছে বঙ্গবন্ধুর সংরক্ষিত স্মৃতি নিদর্শন, বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের দুর্লভ আলোকচিত্র এবং বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গ্রন্থের বিশেষ প্রদর্শনী ‘মুক্তির অগ্রনায়ক’। ৭ আগস্ট থেকে এ প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। চলবে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত। প্রদর্শনীটি সবার জন্য উন্মুক্ত। এছাড়াও জাদুঘরের প্রধান লবিতে ও উত্তর-পূর্ব কর্নারে ডিজিটাল মনিটরে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর বিশেষ প্রদর্শনী চলছে। প্রদর্শনী রয়েছে বঙ্গমাতাকে নিয়েও।

শনিবার (১৩ আগস্ট) সরেজমিনে দেখা যায়, সকালে জাদুঘরের মূল ফটক খোলার আগেই অনেকে এসে হাজির হয়েছেন। টিকিট কাউন্টারে লম্বা লাইন। দুটি কাউন্টারের একটি বন্ধ থাকায় কিছুটা ভোগান্তি হয়েছে বলে জানান এক পরিদর্শক। নানান বয়সের মানুষ এসেছেন জাদুঘরের সংগ্রহশালা দেখতে।

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গ্রন্থের বিশেষ প্রদর্শনী ‘মুক্তির অগ্রনায়ক’ বরিশাল থেকে দাদার সঙ্গে ঢাকায় আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে এসেছে ১০ বছরের মাহিন। শনিবার ঘুরতে এসেছে জাদুঘরে। মাহিনের ভাষ্য, দাদুর সঙ্গে ঢাকায় এসেছি ঘুরতে। গতকাল চিড়িয়াখানায় গিয়েছি। আজ জাদুঘরে আসলাম। অনেক কিছু দেখবো।

মোহাম্মদপুর থেকে বন্ধুদের সঙ্গে জাদুঘর দেখতে এসেছেন কলেজ পড়ুয়া তাহিয়া তারান্নুম। তাহিয়া বলেন, ‘জাদুঘরে আসলাম আমাদের প্রাচীন ইতিহাস, ঐতিহ্য দেখতে। জাদুঘরের ইতিহাস জীবন্ত ও প্রানবন্ত। যেন ইতিহাস আমার সঙ্গে কথা বলছে।’

জাদুঘরে ঘুরতে আসা আফজাল খান নামে এক গবেষক বলেন, ‘আমি প্রায়ই আসি নিজের গবেষণার কাজে। জাদুঘর আগের চেয়ে গোছালো হচ্ছে। আশা করছি, আরও আধুনিকায়ন হবে। দুটি টিকিট কাউন্টার সবসময় খোলা থাকবে বলে আশা রাখছি।’

শোকের মাসে জাতীয় জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলছে বিশেষ প্রদর্শনী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাদুঘরের এক প্রশাসনিক কর্মকর্তা বলেন, প্রায় প্রতি মাসেই আমাদের বিশেষ প্রদর্শনীর ব্যবস্থা থাকে। আগস্টে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রয়েছে বিশেষ প্রদর্শনী। নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারীতে চলছে, যা সবার জন্য উন্মুক্ত।

টিকিটের দাম নিয়ে তিনি বলেন, দাম আগের মতোই আছে। কোনও প্রকার টিকিটের দাম বাড়েনি। দাম বাড়ানোর এখতিয়ার সম্পূর্ণ ট্রাস্টি বোর্ডের হাতে।

জাদুঘরে বর্তমানে কেমন দর্শক আসেন জানতে চাইলে তিনি জানান, করোনাকালীন সময়ে জাদুঘর বন্ধ ছিল। তবে স্বাভাবিক সময়ে দৈনিক দেড় থেকে দুই হাজার, আর বিশেষ দিনগুলোসহ শুক্র-শনিবার গড়ে চার থেকে পাঁচ হাজার দর্শনার্থী আসেন।

 

/আরকে/
সম্পর্কিত
খিলগাঁওয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক আহত
খিলগাঁওয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক আহত
এক বছরের মধ্যে শ্যামপুরের জলাবদ্ধতা নিরসন চায় ডিএসসিসি
এক বছরের মধ্যে শ্যামপুরের জলাবদ্ধতা নিরসন চায় ডিএসসিসি
উত্তরায় পোশাক কর্মকর্তাকে অজ্ঞান করে প্রায় ৩ লাখ টাকা ছিনতাই
উত্তরায় পোশাক কর্মকর্তাকে অজ্ঞান করে প্রায় ৩ লাখ টাকা ছিনতাই
রাজধানীর বস্তিতে বসবাস করছে ৪৪ শতাংশের বেশি মানুষ : ইকবাল হাবিব
রাজধানীর বস্তিতে বসবাস করছে ৪৪ শতাংশের বেশি মানুষ : ইকবাল হাবিব
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
পারমাণবিক কেন্দ্রের প্রধান রাশিয়ার হাতে আটক: আইএইএ
পারমাণবিক কেন্দ্রের প্রধান রাশিয়ার হাতে আটক: আইএইএ
স্বামীকে ফিরে পেতে ওঝার কাছে গিয়ে ‘ধর্ষণের শিকার’ তরুণী
স্বামীকে ফিরে পেতে ওঝার কাছে গিয়ে ‘ধর্ষণের শিকার’ তরুণী
জাসদের সুবর্ণজয়ন্তী, বছরব্যাপী উদযাপন শুরু
জাসদের সুবর্ণজয়ন্তী, বছরব্যাপী উদযাপন শুরু
তোয়াব খানের দাফন সোমবার
তোয়াব খানের দাফন সোমবার
এ বিভাগের সর্বশেষ
খিলগাঁওয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক আহত
খিলগাঁওয়ে ছুরিকাঘাতে যুবক আহত
এক বছরের মধ্যে শ্যামপুরের জলাবদ্ধতা নিরসন চায় ডিএসসিসি
এক বছরের মধ্যে শ্যামপুরের জলাবদ্ধতা নিরসন চায় ডিএসসিসি
উত্তরায় পোশাক কর্মকর্তাকে অজ্ঞান করে প্রায় ৩ লাখ টাকা ছিনতাই
উত্তরায় পোশাক কর্মকর্তাকে অজ্ঞান করে প্রায় ৩ লাখ টাকা ছিনতাই
রাজধানীর বস্তিতে বসবাস করছে ৪৪ শতাংশের বেশি মানুষ : ইকবাল হাবিব
রাজধানীর বস্তিতে বসবাস করছে ৪৪ শতাংশের বেশি মানুষ : ইকবাল হাবিব
‘ড্যাপ বাস্তবায়নের ক্ষমতা রাজউকের নেই, প্রয়োজন নগর সরকার’
‘ড্যাপ বাস্তবায়নের ক্ষমতা রাজউকের নেই, প্রয়োজন নগর সরকার’