X
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২৬ মাঘ ১৪২৯

চাকরি ছাড়ছেন ডিএনসিসির পাঁচ ভেটেরিনারি কর্মকর্তাই!

রাশেদুল হাসান 
২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৩:১১আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০৩:১১

গত বছরের অক্টোবরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ভেটেরিনারি কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন পাঁচ কর্মকর্তা।তবে এক বছর না পেরোতেই পাঁচ কর্মকর্তা একসঙ্গে সিটি করপোরেশনের চাকরি ছাড়ার জন্য আবেদন করেছেন। তারা সবাই ৪০তম বিসিএসের পশুসম্পদ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। 

সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ,  লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা শেষে ২০২১ সালের ২৭ অক্টোবর মো. খোকন হোসেন, সেমন্ত কুমার ভৌমিক, হেমায়েত হোসেন, মো. মুসা মিয়া ও আবু তারেক নামে পাঁচজনকে ভেটেরিনারি কর্মকর্তাকে হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। তাদের ঢাকা উত্তর সিটির ৬, ৭, ৮, ৯ ও ১০ নম্বর অঞ্চলে পদায়ন করা হয়। ইউনিয়ন থেকে সিটি করপোরেশনে আসা  এ অঞ্চলগুলোর জন্য  আঞ্চলিক কার্যালয় নেই। ফলে তারা সবাই বসতেন পুরাতন অঞ্চলগুলোর কার্যালয়ে। 

এছাড়া, এ নতুন অঞ্চলে নেই কোনও পশু জবাইখানা, নেই পশু-পাখির জন্য কোনও হাসপাতাল। ফলে তাদের করার মতো তেমন কোনও কাজও ছিল না। 

ভেটেরিনারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, উত্তর সিটির পুরনো অঞ্চলে মাত্র দুটি ছোট জবাইখানা আছে। সেখানে দুই জনকে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া তারা মশক নিধন ও কুকুর দমনের কাজই করতেন। 

চাকরি ছাড়ার বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে ভেটেরিনারি কর্মকর্তা খোকন হোসেন বলেন, ‘তুলনামূলক ভালো সুযোগ পেলে সবাই চলে যাবে। আর সিটি করপোরেশনের কিছু পদ আছে যেগুলোতে ব্লক পোস্ট মানে পদোন্নতি নাই। থাকলেও একটা অনেক বছর পরে হবে। এজন্যই সবাই চলে যায়।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যদি পাঁচজনই থাকতাম, তাহলে একজনের শুধু জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা পদে পদোন্নতি হতো। আর বাকি সবাই এক জায়গায়ই থেকে যেতো।’ 

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা বলেন, ‘চলে গেছে তো আমরা নিয়োগ দেবো। কারও যদি বিসিএস হয়ে যায়, ভালো সুযোগ হয়। তার ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ।' 

টাকা খরচ করে নিয়োগ পরীক্ষা দিয়ে মেধাবীদের রাখতে না পারার বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘আমরা লুজার হচ্ছি। কিন্তু আমরা তো মেধার সঙ্গে আপস করে কাউকে নিয়োগ দিতে পারবো না।’

তিনি জানান,  চাকরিকে আকর্ষণীয় করার অর্গানোগ্রাম সংশোধন  ও সেবার খাত সৃষ্টির জন্য পশু হাসপাতাল ও জবাইখানা নির্মাণ করার পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। 

 

 

/এফএস/ 
সর্বশেষ খবর
’অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায়’ গর্ভের সন্তানের মৃত্যু, পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ
’অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায়’ গর্ভের সন্তানের মৃত্যু, পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ
তারেক-জোবায়দার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নতুন দিন ধার্য 
তারেক-জোবায়দার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নতুন দিন ধার্য 
চাঁদাবাজির অভিযোগে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা 
চাঁদাবাজির অভিযোগে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা 
১১-১৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় হবে বাংলাদেশ সীড কংগ্রেস
১১-১৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় হবে বাংলাদেশ সীড কংগ্রেস
সর্বাধিক পঠিত
ইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে হত্যাচেষ্টাইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
ইউক্রেনের একমাত্র সাবমেরিন কোথায়?
ইউক্রেনের একমাত্র সাবমেরিন কোথায়?
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতের সেই নাজিরকে বদলি করলো কোর্ট প্রশাসন
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতের সেই নাজিরকে বদলি করলো কোর্ট প্রশাসন
জবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে প্রশ্ন সরবরাহের অভিযোগ
জবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে প্রশ্ন সরবরাহের অভিযোগ
শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি, রুয়েট ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩
শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি, রুয়েট ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩