লবণ তদারকিতে কন্ট্রোল রুম

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৩৬, নভেম্বর ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৪৩, নভেম্বর ১৯, ২০১৯




 দেশে বর্তমানে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি ভোজ্য লবণ মজুত আছে। এর মধ্যে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের লবণ চাষিদের কাছে ৪ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন এবং বিভিন্ন লবণ মিলের গুদামে ২ লাখ ৪৫ হাজার মেট্রিক টন মজুত রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) তথ্য অধিদফতর থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, লবণ সংক্রান্ত বিষয়ে তদারকির জন্য শিল্প মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) প্রধান কার্যালয়ে ইতোমধ্যে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। যার নং: ০২-৯৫৭৩৫০৫ ও ০১৭১৫২২৩৯৪৯।

লবণ বিষয়ে যেকোনও তথ্যের জন্য কন্ট্রোল রুমের নম্বরগুলোতে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

তথ্য বিবরণীতে আরও বলা হয়, সারাদেশে বিভিন্ন লবণ কোম্পানির ডিলার, পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের কাছে পর্যাপ্ত লবণ মজুত রয়েছে। পাশাপাশি এ মাস (নভেম্বর) থেকে লবণের উৎপাদন মওসুম শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া ও মহেশখালী উপজেলায় উৎপাদিত নতুন লবণও বাজারে আসতে শুরু করেছে। দেশে প্রতি মাসে ভোজ্য লবণের চাহিদা প্রায় এক লাখ মেট্রিক টন। অন্যদিকে লবণের মজুত আছে সাড়ে ৬ লাখ মেট্রিক টন। সে হিসাবে লবণের কোনও ঘাটতি হওয়ার কথা নেই।

তথ্য বিবরণীতে আরও বলা হয়, একটি স্বার্থান্বেষী মহল লবণের সংকট রয়েছে, এমন গুজব ছড়িয়ে অধিক মুনাফা লাভের আশায় লবণের দাম অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এ ধরনের গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

 

আরও পড়ুন:
লবণের বাজারে গুজব ছড়িয়েছে কারা?
গুজব ছড়িয়ে লবণের বাজারে অস্থিরতা

/জেইউ/টিটি/

লাইভ

টপ