সম্পদ কমেছে আতিকের, বেড়েছে স্ত্রীর

Send
এমরান হোসাইন শেখ
প্রকাশিত : ০৯:৫৫, জানুয়ারি ০২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০২, জানুয়ারি ০২, ২০২০

ডিএনসিসি-আতিকুলঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন থেকে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী মো. আতিকুল ইসলামের সম্পদ কমছে। তবে, বেড়েছে তার বার্ষিক আয়। বিপরীতে আতিকুলের স্ত্রী শায়লা সাগুফতা ইসলামের বেড়েছে সম্পদ, কমেছে তার বার্ষিক আয়।

আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় যে হলফনামা দাখিল করেছেন তা এবং গত বছর ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত একই সিটির উপনির্বাচনে দাখিল করা হলফনামা তুলনামূলক পর্যালোচনা করে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

আতিকুল ইসলামের ১৬টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। তার বর্তমান স্থাবর অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ১১ কোটি ৮৫ লাখ ৬৭ হাজার ৩৪৪ টাকা। উপনির্বাচনে জমা দেওয়া হলফনামায় এর পরিমাণ ছিল ১১ কোটি ৯৮ লাখ ৯১ হাজার ৯০৪ টাকা। এ সময়ে তার স্থাবর সম্পদ বাড়েনি বা কমেনি। এর পরিমাণ ৬ কোটি ৯৮ লাখ ৯৬ হাজার ২৪ টাকা। তার অস্থাবর সম্পদ আগের ৪ কোটি ৯৯ লাখ ৯৫ হাজার ৭০ টাকা থেকে কমে  ৪ কোটি ৮৬ লাখ ৭১ হাজার ৩২০ টাকায় দাঁড়িয়েছে। তার অস্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে নগদ ৮ লাখ ৭৫ হাজার ৭৫৩ টাকা ও ১ হাজার ৫৮৩ দশমিক ৪৬ মার্কিন ডলার, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা ৮৯ লাখ ৩৫ হাজার ৩৯০ টাকা, সোনার মূল্য দুই লাখ টাকা, আসবাবপত্র ৫ লাখ ও ইলেকট্রনিক সামগ্রী ৫ লাখ টাকা।

আতিকুল স্থাবর সম্পদের ৬ কোটি ৯৮ লাখ ৯৬ হাজার ২৪ টাকা মূল্য দেখিয়েছেন। তার স্থাবর সম্পদের মধ্যে রয়েছে ১ হাজার ৭৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ কৃষি জমি, ১১৬ শতাংশের মৎস্য খামার, ৩৫ শতাংশ অকৃষি জমি ও বাড়ি-অ্যাপার্টমেন্ট।

আতিকুলের আয় আগের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। আগের হলফনামা অনুযায়ী তার বার্ষিক আয় ছিল এক কোটি ৯ লাখ ৩১ হাজার ৯৭৫ টাকা। বর্তমানে তা বেড়ে এক কোটি ২৯ লাখ ৬৮ হাজার ৭৩৫ টাকা হয়েছে। তার আয়ের উৎস হচ্ছে−কৃষিখাত, ব্যবসা, বাড়ি-অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া, মৎস্য চাষ ও ব্যাংক সুদ। ডিএনসিসির মেয়র হিসেবে কোনও আয় আছে কিনা, তা উল্লেখ নেই।

আতিকুলের স্ত্রী শায়লা সাগুফতা ইসলামের অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ বর্তমানে তিন কোটি ৮১ লাখ ১৭ হাজার ৪১০ টাকা। আগে এর পরিমাণ ছিল তিন কোটি ৫৭ লাখ ৮১ হাজার ৪২২ টাকা। আতিকুলের মতো তার স্ত্রীরও স্থাবর সম্পদের কোনও পরিবর্তন হয়নি।  তার অস্থাবর সম্পদ দুই কোটি ৭৫ লাখ ৭৯ হাজার ৬৬৯ টাকা থেকে বেড়ে দুই কোটি ৯৯ লাখ ১৫ হাজার ৬৫৭ টাকা হয়েছে।

এদিকে, আগে আতিকুল ইসলামের মেয়ে বুশরা আফরীনের অস্থাবর সম্পত্তি ১৭ লাখ ৭৯ হাজার ৯৩৫ টাকা থাকলেও বর্তমানে তা কমে ৩১ হাজার ১০২ টাকায় দাঁড়িয়েছে।

আতিকুল ইসলামের ব্যক্তিগত নামে আইএফআইসি ব্যাংকে ৯৮ লাখ ৮৯ হাজার টাকা ঋণ রয়েছে। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামে ৫৯১ কোটি ৬ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। এর মধ্যে আইএফআইসি ব্যাংকে ফান্ডেড ১৮৬ কোটি ৬২ লাখ টাকা ও নন ফান্ডেড ২৪৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। ইস্টার্ন ব্যাংকে ৪৭ কোটি ২৯ লাখ টাকা ফান্ডেড ও ১৩ কোটি ৯ লাখ টাকা নন ফান্ডেড এবং শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকে ২৬ কোটি ১৫ লাখ টাকা ফান্ডেড ও ৭৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা নন ফান্ডেড ঋণ রয়েছে। বি.কম ডিগ্রিধারী আতিকুল ইসলামের নামে বর্তমানে কোনও মামলা নেই। অতীতেও ছিল না।


আরও পড়ুন:

সোয়া শ’ কোটি টাকার মালিক তাপস, ইশরাকের সাড়ে ৫ কোটি

তাবিথের ৫ বছরে আয় বেড়েছে তিনগুণ
মেয়র প্রার্থী আয়াতুল্লাহর আয় নেই

/এমএনএইচ/এমএমজে/

লাইভ

টপ