‘রেমিট্যান্স ছাড়া কোনও সূচকই ঊর্ধ্বমুখী নয়’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৪২, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:১৬, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০

গোলাম মওলা

শুধু রেমিট্যান্স ছাড়া আমাদের অর্থনীতির যতগুলো সূচক আছে তার কোনোটিই ঊর্ধ্বমুখী নয় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলা ট্রিবিউনের সিনিয়র রিপোর্টার গোলাম মওলা। দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনের আয়োজনে ‘অর্থনীতির সূচক কেন অধোমুখী?’ শীর্ষক বৈঠকিতে এ মন্তব্য করেন তিনি। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকালে অনুষ্ঠিত হয় বাংলা ট্রিবিউনের সাপ্তাহিক এই আয়োজন।

গোলাম মওলা বলেন, ‘গত আগস্ট থেকে রফতানি আয় নিম্নমুখী। হয়তো সামনের দিনগুলোতে আরও খারাপ হবে। আমরা চাই সেখান থেকে দ্রুত বেরিয়ে আসতে। কারণ হলো করোনা ভাইরাসের প্রভাব আমরা কিন্তু এখনও সরাসরি পাচ্ছি না। ব্যবসায়ীরা হয়তো পাচ্ছেন, কিন্তু ভোক্তা পর্যায়ে এখনও সেই প্রভাব পড়েনি। এটা যখন আসবে সেটা আমাদের জন্য আরও খারাপ হবে। আমাদের অর্থনীতির যতগুলো সূচক আছে শুধু রেমিট্যান্স ছাড়া কোনোটিই ঊর্ধ্বমুখী নয়। যদি বেসরকারি খাতের ঋণের কথা বলি এই নিম্নমুখিতা প্রায় দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে। বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তারা ঋণ পাচ্ছে না, বেসরকারি খাতের প্রবৃদ্ধি দেখলেই সেটা বোঝা যায়। এখন প্রবৃদ্ধি একক সংখ্যায় নেমে এসেছে, কিন্তু একটা সময় ছিল ২৭ শতাংশে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বেসরকারি উদ্যোক্তারা যখন ঋণ পাচ্ছেন না, ঠিক একই সময়ে সরকারের ঋণ নেওয়ার প্রবণতা অনেক বেড়েছে। একটা সময়ে সরকারের ঋণ নেওয়ার প্রবৃদ্ধি ছিল ১২ শতাংশ, সেটা এখন প্রায় ৬০ শতাংশে পৌঁছেছে। গত অর্থবছরে প্রথম সাত মাসে সরকার ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছিল ৫৫০ কোটি টাকা। আর এই অর্থবছরে একইসময়ে নিয়েছে ৫৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি। গত ১২ মাসের হিসাব ধরলে এখন পর্যন্ত সরকার ঋণ নিয়েছে ৭২ হাজার কোটি টাকা। এটা বাংলাদেশের ইতিহাসে রেকর্ড। সাধারণত সরকার ব্যাংক থেকে ঋণ নেয় অর্থবছরের শেষের দিকে, কিন্তু এবার আমরা দেখছি যে অর্থবছর শুরুই হয়েছে ব্যাংক খাতের ঋণের ওপর দিয়ে।’

বাংলা ট্রিবিউন বৈঠকি

মুন্নী সাহার সঞ্চালনায় বৈঠকিতে আরও অংশ নেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, গাজী টেলিভিশনের এডিটর ইন চিফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা ও বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডি’র রিসার্চ ফেলো তৌফিকুল ইসলাম। রাজধানীর পান্হপথে বাংলা ট্রিবিউন স্টুডিও থেকে এ বৈঠকি সরাসরি সম্প্রচার করে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজ। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) সহযোগিতায় বৈঠকিটি অনুষ্ঠিত হয়।

/এসও/এমআর/এমওএফ/

লাইভ

টপ