দুর্গা পূজায় ৩ দিনের সরকারি ছুটির দাবি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৪:০২, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:০২, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০

মানববন্ধনদুর্গা পূজায় ৩ দিনের সরকারী ছুটির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট (ঢাকা জেলা)। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনটি আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দুর্গা পূজা হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। হিন্দু সম্প্রদায়ের সদস্যরা পরিবার পরিজনের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য সারাবছর এই দিনগুলো জন্য অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, দুর্গা পূজায় ৫ দিনের ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা থাকলেও সরকারিভাবে মাত্র এক দিনের ছুটি থাকে, সেটাও বিজয়া দশমীর দিন। যার ফলে কারো পক্ষেই পরিবার পরিজনের সাথে ধর্মীয় কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার সুযোগ থাকে না। বিজয়া দশমীতে বাবা-মা, গুরুজন ও প্রতিবেশীদের প্রণাম করা ও আর্শীবাদ গ্রহণ একটি ধর্মীয় সামাজিক রীতি। কিন্তু একদিন ছুটি থাকায় চাকরিজীবী কারও পক্ষেই গ্রামে গিয়ে বাবা-মা বা গুরুজনদের সান্নিধ্য লাভের সুযোগ থাকে না। ফলে পূজার দিনগুলো বাবা-মা সন্তান ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের মানসিক কষ্টের মধ্যেই কাটাতে হয়।

তারা আরও বলেন, সংবিধানের মূলনীতিতে ধর্ম নিরপেক্ষতার কথা বলা হলেও কার্যক্ষেত্রে তার কোনও প্রয়োগ নেই। দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ সম্প্রদায় দু’টি ধর্মীয় উৎসবে ৬ দিনের সরকারি ছুটি ভোগ করলেও হিন্দু সম্প্রদায়ের দীর্ঘদিনের দাবি দুর্গা পূজায় ৩ দিনের ছুটির দাবীটি উপেক্ষিত। তাই আমরা আশা করছি, আসন্ন দুর্গা পূজার আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার নির্বাহী আদেশে ৩ দিনের ছুটি ঘোষণা করে হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে থাকবে। 

মানববন্ধনে হিন্দু মহাজোট ঢাকা জেলার সভাপতি অ্যাডভোকেট উজ্জ্বল কুমার মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক গোপাল পাল, যুগ্ম সাধালন সম্পাদক তপন বর্মন, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন সরকার, দফতর সম্পাদক সুমন কর্মকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

/এইচএন/এসটি/

লাইভ

টপ