করোনা চিকিৎসায় ই-মেন্টরিং প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন মার্কিন রাষ্ট্রদূতের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:১০, অক্টোবর ১৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:১৪, অক্টোবর ১৮, ২০২০

কোভিড-১৯ আক্রান্তের ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশি ডাক্তারদের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে শেখা ও তাদের সঙ্গে অভিজ্ঞতা আদান-প্রদানের জন্য ই-মেন্টরিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রবিবার (১৮ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার ও বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (ইউএসএআইডি) ভারপ্রাপ্ত মিশন ডিরেক্টর জন এ লেলো এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।
দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কোভিড-১৯ ভাইরাসের নজিরবিহীন সংক্রমণ ক্ষমতার কারণে সৃষ্ট মহামারি পরিস্থিতিতে কোভিড-১৯ হাসপাতাল বা অন্যান্য সাধারণ হাসপাতালের স্বাস্থ্য সেবাদানকারীদের জন্য সশরীর উপস্থিতিতে প্রদত্ত বিদ্যমান সকল ধরনের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

এ কার্যক্রমে পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান হিসাবে নির্বাচিত হয়েছে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি। অন্যদিকে পরামর্শ গ্রহীতা হাসপাতাল হিসাবে প্রায় ৪০টি সরকারি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন হাসপাতালকে নির্বাচন করা হয়েছে। পরামর্শ গ্রহীতা হাসপাতালগুলোর প্রায় ১ হাজার ডাক্তার পরামর্শদাতা হাসপাতালের মেডিসিন বিষয়ের জাতীয় অধ্যাপকদের কাছে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের তথ্য ও চিকিৎসা ফলাফল তুলে ধরবেন এবং জ্ঞান আদান-প্রদান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে শিখবেন।এর বাইরে আরও ৩,০০০ ডাক্তার এসব পারস্পরিক কথোপকথন মূলক শিক্ষা অধিবেশনে সংযুক্ত হওয়ার মাধ্যমে পরোক্ষভাবে উপকৃত হবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূত মিলার বলেন,বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্রগুলোতে কোভিড-১৯ আক্রান্তের ব্যবস্থাপনায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সক্ষমতা জোরদারকরণে যুক্তরাষ্ট্র এই উদ্ভাবনী ই-মেন্টরিং কার্যক্রমে অংশ নিয়েছে বলে আমি গর্বিত। আমি বিশ্বাস করি, এর সক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে বাংলাদেশের ডাক্তাররা আরও কার্যকর ভাবে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের ব্যবস্থাপনা এবং রোগের বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হবেন।

 

/এসএসজেড/এমআর/

লাইভ

টপ
X