X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ
বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদ

এখনও স্বমহিমায় শায়েস্তা খাঁর লালমাটিয়া শাহী মসজিদ

আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:২৭

বাংলাদেশের যে স্থাপনাশৈলী এখনও বিমোহিত করে চলেছে অগণিত মানুষকে, তার মধ্যে আছে দেশজুড়ে থাকা অগণিত নয়নাভিরাম মসজিদ। এ নিয়েই বাংলা ট্রিবিউন-এর ধারাবাহিক আয়োজন বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ মসজিদ। আজ থাকছে লালমাটিয়া শাহী মসজিদ।

 

১৬৬৫ সালে তৎকালীন বাংলার সুবেদার শায়েস্তা খাঁ একটি দৃষ্টিনন্দন মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন। এটিই লালমাটিয়া শাহী মসজিদ। লালমাটিয়া বিবির মসজিদ নামেও প্রসিদ্ধ এটি। ধারণা করা হয়, মসজিদের এক পাশে দারা বিবি নামে কথিত এক শাহজাদী বা বেগমের অদৃশ্য সমাধি আছে, সে থেকেই মসজিদটি বিবির মসজিদ পরিচয় লাভ করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. আহমাদ হাসান দানী রচিত ‘মুসলিম আর্কিটেকচার ইন বেঙ্গল’ গ্রন্থে এ তথ্য রয়েছে।

বর্তমানে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়ায় সুবিশাল পুকুর, ঈদগাহ চত্বর ও মসজিদকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা জামিয়া ইসলামিয়া লালমাটিয়া (লালমাটিয়া মাদ্রাসা) মিলিয়ে বিবির মসজিদের চারপাশে অন্তত তিন একর জায়গা। চুন-সুরকির মসজিদটির মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ ও অনন্য নির্মাণশৈলী মুগ্ধ করে অনেককে। মাটির অনেক গভীরে এর ভিত্তিপ্রস্তর।

সরু ইটের দেয়ালগুলোর ওপরের অংশ কমপক্ষে পাঁচ হাত পুরু। বৃহদাকার গম্বুজাকৃতির ছাদটি ২৭ বর্গফুট প্রকোষ্ঠের ওপর অষ্টকোণ চৌকির ভিত্তির ওপর স্থাপিত। পার্সিয়ান ক্যালিগ্রাফি সজ্জিত মেহরাব এবং ছাদের চারপাশে শোভাবর্ধনকারী ছয়টি মিনার।

কালের বিবর্তনে এসবের কিছু কিছু আজ ধ্বংসের পথে। এখন মসজিদের মূল প্রাচীন স্থাপনাকে ঠিক রেখে এর ব্যাপক সংস্কার, পরিবর্ধন ও আধুনিকায়ন করা হয়েছে। বিগত শতাব্দীর ষাটের দশকে লালমাটিয়া মাদ্রাসা নির্মিত হওয়ার পরে মসজিদটি আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় জৌলুসপূর্ণ হয়ে ওঠে।

আজকের প্রাণবন্ত মসজিদটি একসময় তার আসল চেহারা হারিয়ে বিবর্ণ হয়ে পড়েছিল। ব্রিটিশ উপনিবেশ কায়েম হলে তা বন্ধ হয়ে যায় এবং তাদের অত্যাচারে লালমাটিয়া জনশূন্য হয়ে পড়ে।

ফলে মসজিদটিও বিরান পড়ে থাকে দীর্ঘদিন এবং বিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি পর্যন্ত মসজিদটি অনাবাদ থাকে। ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পরে লালমাটিয়ায় আবার মানুষের আবাস গড়ে উঠলে ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা এটিকে নামাজ আদায়ের উপযোগী করে তোলার উদ্যোগ নেয়। আর এ কাজে এগিয়ে আসেন  মাওলানা মোহাম্মদুল্লাহ হাফেজ্জি হুজুর (রহ.)-এর একনিষ্ঠ ছাত্র মাওলানা আব্দুর রউফ (রহ.)।

এলাকাবাসীর সহযোগিতায় জঙ্গলাকীর্ণ মসজিদটি পরিষ্কার করে তিনি পুনরায় ইবাদতের উপযুক্ত করে তোলেন। কিছুদিন পর বুজুর্গ এ আলেম মসজিদকে কেন্দ্র করে মক্তব-হিফজ বিভাগ চালুর মাধ্যমে একটি মাদ্রাসা গড়ে তোলেন, যা আজ গোটা দেশে জামিয়া ইসলামিয়া লালমাটিয়া নামে সুপ্রসিদ্ধ।

বিবির মসজিদের বর্তমান খতিব মাওলানা মাসরুরুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ‘মরহুম বড় হুজুর মাওলানা আব্দুর রউফ (রহ.) মসজিদ পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও মাদ্রাসা চালুর মাধ্যমে এলাকায় ইসলামি সভ্যতা-সংস্কৃতি ও জ্ঞান-বিজ্ঞানের যে সোনালি ধারার সূচনা করেছেন, তা আজও অব্যাহত। মাদ্রাসায় নিয়মতান্ত্রিক পাঠদানের পাশাপাশি আমাদের শাহী মসজিদেও সাধারণ মুসল্লিদের মধ্যে ধর্মীয় চেতনাকে শানিত করতে সাপ্তাহিক তাফসির, দৈনিক কোরআন শিক্ষার আসর এবং সময়োপযোগী আরো নানা আয়োজন করা হয়। আমরা চেষ্টা করছি লালমাটিয়া মসজিদ-মাদরাসা কমপ্লেক্সকে গণমুখী একটি পূর্ণাঙ্গ ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্রে পরিণত করতে।’

 

ছবি: শেইখ আশিক

/এফএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষের সাক্ষাৎ
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চলচ্চিত্র নির্মাতা গৌতম ঘোষের সাক্ষাৎ
পাঞ্জাবকে হারিয়ে প্লে-অফের আশায় দিল্লি
আইপিএলপাঞ্জাবকে হারিয়ে প্লে-অফের আশায় দিল্লি
৪ ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
৪ ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু
এশিয়ান কাপ ফুটবল: ছিটকে গেলেন বাংলাদেশ গোলকিপার
এশিয়ান কাপ ফুটবল: ছিটকে গেলেন বাংলাদেশ গোলকিপার
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
হজযাত্রীদের উদ্দেশে জরুরি বিজ্ঞপ্তি
হজযাত্রীদের উদ্দেশে জরুরি বিজ্ঞপ্তি