X
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

রমজানে কোরআন নাজিলের রহস্য

শায়েখ সাদ সাইফুল্লাহ মাদানী হাফিজাহুল্লাহ
০২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৩আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৩

রমজান মাসে সপ্তম আকাশের লাওহে মাহফুজ থেকে দুনিয়ার আকাশ বায়তুল ইজ্জতে পবিত্র কোরআন একবারে নাজিল হয়েছে। সেখান থেকে আবার রমজান মাসে অল্প অল্প করে বিশ্ব নবী মুহাম্মদের (সা.) প্রতি নাজিল হতে শুরু করে। আরেকটু স্পষ্ট করে বললে পবিত্র কোরআন কদরের রাতে লাওহে মাহফুয থেকে দুনিয়ার আসমানে একত্রে অবতীর্ণ হয়। পরবর্তী সময়ে বিশ্বনবী মুহাম্মদের (সা.) নবুয়তের সুদীর্ঘ ২৩ বছর জীবনে প্রয়োজন অনুযায়ী অল্প অল্প করে নাজিল হয়। আর এই মতটিই সবচেয়ে বিশুদ্ধ ও প্রসিদ্ধ। কোরআন নাজিলের দুটি স্তরই রমজান মাসকে ধন্য করেছে।

আল্লাহ তায়ালা বলেন, شَهۡرُ رَمَضَانَ الَّذِیۡۤ اُنۡزِلَ فِیۡهِ الۡقُرۡاٰنُ هُدًی لِّلنَّاسِ وَ بَیِّنٰتٍ مِّنَ الۡهُدٰی وَ الۡفُرۡقَانِ ۚঅর্থাৎ রমজান মাস, এতে নাজিল হয়েছে কোরআন, যা মানুষের দিশারি এবং স্পষ্ট নিদর্শন ও সত্যাসত্যের পার্থক্যকারী। (সূরা বাকারা, আয়াত ১৮৫)

রমজান মাসের সঙ্গে আসমানি গ্রন্থগুলো, বিশেষ করে কোরআনের এমন অবিচ্ছেদ্য সম্পর্কের কারণে রমজান মহিমান্বিত হয়েছে— এতে কোনও সন্দেহ নেই। এমনকি কোরআনের সঙ্গে এর সম্পর্ক এত গভীর যে, রমজানকে কোরআনের মাস বলেই অভিহিত করা হয়। ইমাম যুহরি (রহ.) বলেন, ‘রমজান হচ্ছে কোরআন তিলাওয়াত ও আহার বিতরণের মাস।’ (ইবনে আব্দুল বার, আত তামহিদ, ৬/১১১)

রমজানে কেন কোরআন নাজিল হয়েছে— এর কারণ তো একমাত্র আল্লাহ তায়ালাই ভালো জানেন। তবে কোরআনের বিভিন্ন আয়াত, হাদিসের ভাষ্য এবং সময়ের সাক্ষ্য থেকে বোঝা যায় বিশেষত তিনটি কারণে রমজানে কোরআন নাজিল করা হয়েছে বা হতে পারে।

এক. রমজান আসমানি গ্রন্থ নাজিলের মাস 

আল্লাহ তায়ালার সাধারণ আদত অনুসারে রমজানেই তিনি আসমানি গ্রন্থগুলো নাজিল করে করেছেন। তাই কোরআনসহ শ্রেষ্ঠ আসমানি গ্রন্থাবলি রমজানে অবতীর্ণ হয়েছে বলে বিশুদ্ধ হাদিসে উল্লেখ করা হয়েছে। বিশুদ্ধ হাদিসে উল্লেখ করা হয়। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘রমজান মাসের প্রথম ইবরাহিম (আ.) সহিফা লাভ করেন, ৬ তারিখে মুসার (আ.) কাছে ‘তাওরাত’ নাজিল হয়। দাউদের (আ.) কাছে পবিত্র যবুর নাজিল হয় পবিত্র এ মাসের ১২ তারিখে, আর ঈসা (আ.) পবিত্র ‘ইঞ্জিল’ লাভ করেন এবং কোরআন নাজিল হয় রমজানের ২৪ তারিখে। (তাবারানি, হাদিস ১৮৫; তাফসিরে তাবারি, ২৪/৩৭৭)

দুই. রমজান ও কোরআনের উদ্দেশ্য অভিন্ন

রমজান ও কোরআন উভয়ের উদ্দেশ্য এক, আর তা হলো তাকওয়া অর্জন। কোরআনে এসেছে, یٰۤاَیُّهَا الَّذِیۡنَ اٰمَنُوۡا کُتِبَ عَلَیۡکُمُ الصِّیَامُ کَمَا کُتِبَ عَلَی الَّذِیۡنَ مِنۡ قَبۡلِکُمۡ لَعَلَّکُمۡ تَتَّقُوۡنَ অর্থাৎ ‘হে মুমিনগণ, তোমাদের উপর রোজা/সিয়াম ফরয করা হয়েছে, যেভাবে ফরয করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের উপর। যাতে তোমরা তাকওয়া অবলম্বন করতে পারো।’ (সুরা বাকারা, আয়াত ১৮৩)

কোরআন যদিও সমগ্র মানবজাতির জন্য অবতীর্ণ হয়েছে, কিন্তু এর দ্বারা শুধু মুত্তাকি ব্যক্তিরাই সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে— এমনটাও কোরআন আল্লাহ তায়ালা বলেন, ذٰلك الۡکِتٰبُ لَا رَیۡبَ فِیۡهِ هُدًی لِّلۡمُتَّقِیۡنَ অর্থাৎ ‘এটা ওই (মহান) কিতাব যাতে কোন সন্দেহ নেই, মুত্তাকিদের জন্য হিদায়াত।’ (সুরা বাকারা, আয়াত ২)

ইবনে হাজার (রহ.) বলেন, ‘তিলাওয়াত দ্বারা উদ্দেশ্য আত্মিক উপস্থিতি ও উপলব্ধি।’ (ফাতহুল বারি, ৯/৪৫)

ইবনে বাত্তাল (রহ.) বলেন, ‘রাসূলের এ কোরআন শিক্ষা ও অনুশীলনের একমাত্র কারণ ছিল পরকালের আকাঙ্ক্ষা ও ব্যাকুল ভাবনার জাগরণ এবং পার্থিব বিষয়ে অনীহার সৃষ্টি করা।’ (ইবনে বাত্তাল, শরহে বোখারি, ১/১৩) আর এসবই তাকওয়া অর্জনের উদ্দেশ্য।

তিন. কোরআন সংরক্ষণ

রমজান মাস হল কোরআন সংরক্ষণের মাস। যদিও কোরআন সংরক্ষণের দায়িত্ব আল্লাহ তায়ালারই হাতে। যেমন তিনি বলেছেন, اِنَّا نَحۡنُ نَزَّلۡنَا الذِّکۡرَ وَ اِنَّا لَهٗ لَحٰفِظُوۡنَ অর্থাৎ নিশ্চয় আমি কোরআন* নাযিল করেছি, আর আমিই তার হেফাযতকারী। (সূরা হিজর, আয়াত ৯)

কিন্তু মানুষই হলো আল্লাহ তায়ালার খলিফা বা পৃথিবীতে তার প্রতিনিধি এবং মানুষের জন্য তিনি দিয়েছেন রমজান ও কোরআন। রাসূলুল্লাহর (সা.) জীবন থেকে দেখা যায়, রমজান মাসকেই তিনি কোরআন অনুশীলেন জন্য বিশেষভাবে বেছে নিয়েছেন, যেমনি তার সাহাবি ও পরবর্তী সালাফরাও গ্রহণ করেছেন। কোরআনে সেই সব মহান ব্যক্তিদের উল্লেখ করে এরশাদ করা হয়েছে— اِنَّ عَلَیۡنَا جَمۡعَهٗ وَ قُرۡاٰنَهٗ অর্থাৎ নিশ্চয়ই এর সংরক্ষণ ও পাঠ করানোর দায়িত্ব আমারই।

فَاِذَا قَرَاۡنٰهُ فَاتَّبِعۡ قُرۡاٰنَهٗ অর্থাৎ কাজেই আমি যখন তা পাঠ করাই তুমি সেই পাঠের অনুসরণ কর। (সূরা কিয়ামাহ, আয়াত ১৭, ১৮)

একটা বিষয় যদি খেয়াল করেন তাহলে উপলব্ধি করতে পারবেন, তিনি রমজানে রোজা ফরজ করে দিয়ে তার সঙ্গে তারাবির মতো এমন একটি কোরআনি আমল জুড়ে দিয়েছেন, যা বর্তমান পৃথিবীর বাস্তবতায় তারাবিহ কেন্দ্র করে হাফেজরা কোরআন চর্চার জন্য এক সুবর্ণ সুযোগ পান। বিশ্বজুড়ে হাফেজদের ঐক্যবদ্ধ অনুশীলন প্রমাণ করে রমজান ছাড়া তাদের জন্য কোরআন হেফাজত করা যারপরনাই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়তো।

এমনকি এ-কারণে বিশ্ব নবী মুহাম্মদ (সা.) অধিক পরিমাণে কোরআন তিলাওয়াতে ব্যস্ত থাকতেন। রমজানে কোরআন শিক্ষায় রাসূলের সহপাঠী হওয়ার জন্য জিবরাইল (আ.) আল্লাহ কর্তৃক নিয়োজিত ছিলেন। এ বিষয়ে হাদিসে বিভিন্ন বর্ণনা পাওয়া যায়— ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, জিবরাইল (আ.) রমজানের প্রতি রাতে রাসূলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেন এবং ফজর অবধি তার সঙ্গে অবস্থান করতেন। (বুখারি, হাদিস ১৯০২)

রাসূল তাকে কোরআন শোনাতেন এবং তিনি রাতভর তারাবি ও কিয়ামুল লাইলে দীর্ঘক্ষণ কোরআন তিলাওয়াত করতেন। আরও এসেছে, রাসূল তার প্রিয়তমা কন্যা ফাতেমাকে (রা.) গোপনে জানালেন যে, জিবরাইল প্রতি বছর (রমজানে) আমাকে একবার কোরআন শোনাতেন এবং শুনতেন, এ বছর তিনি দুবার আমাকে শুনিয়েছেন এবং শুনেছেন। একে আমি আমার সময় সমাগত হওয়ার ইঙ্গিত বলে মনে করি। (বুখারি, হাদিস ৩৬২৪)

ইবনে হাজার (রহ.) বলেন, জিবরাইল প্রতি বছর রাসূলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে এক রমজান হতে অন্য রমজান অবধি যা নাজিল হয়েছে, তা শোনাতেন এবং শুনতেন। যে বছর রাসূলের ওফাত হয়, সে বছর তিনি দুবার শোনান ও শোনেন। (ফাতহুল বারি, ১/৪২)

লেখক: মহাসচিব, আন্তর্জাতিক কিরাত সংস্থা বাংলাদেশ

/ইউএস/
সম্পর্কিত
ঈদুল ফিতরে করণীয়
চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ বৃহস্পতিবার
রমজানে নবীজির রাতের আমল
সর্বশেষ খবর
মিয়ানমারে তীব্র গোলাগুলি, শাহপরীর দ্বীপে নির্ঘুম রাত 
মিয়ানমারে তীব্র গোলাগুলি, শাহপরীর দ্বীপে নির্ঘুম রাত 
কোপার প্রস্তুতিতে ব্রাজিলকে জিততে দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র 
কোপার প্রস্তুতিতে ব্রাজিলকে জিততে দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র 
২৩ হাজার কর্মী নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি সিলগালা
২৩ হাজার কর্মী নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি সিলগালা
প্রতি বছর বাড়ছে তাপমাত্রা: পরিবেশ ধ্বংসের বিরূপ প্রভাব বলছেন বিশেষজ্ঞরা
প্রতি বছর বাড়ছে তাপমাত্রা: পরিবেশ ধ্বংসের বিরূপ প্রভাব বলছেন বিশেষজ্ঞরা
সর্বাধিক পঠিত
ড. ইউনূসের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে: দুদক পিপি
ড. ইউনূসের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে: দুদক পিপি
অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, আমরা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করি: ডোনাল্ড লু
অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, আমরা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করি: ডোনাল্ড লু
কাঁপছে সেন্ট মার্টিন, আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান
কাঁপছে সেন্ট মার্টিন, আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান
আম-চিয়া সিডের পদটি সকালের নাস্তায় কেন রাখবেন?
আম-চিয়া সিডের পদটি সকালের নাস্তায় কেন রাখবেন?
সীমান্তে গুলি চালাতে পারে বিএসএফ, সতর্ক করে বিজিবির মাইকিং
সীমান্তে গুলি চালাতে পারে বিএসএফ, সতর্ক করে বিজিবির মাইকিং