X
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪
২১ ফাল্গুন ১৪৩০

ফিলিস্তিন ইস্যুতে বিএনপির নীরবতার রহস্য কী?

সালমান তারেক শাকিল
১৩ অক্টোবর ২০২৩, ২১:০৯আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২৩, ২৩:২১

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি নিয়ে দেশের বাম ও ধর্মভিত্তিক ঘরানার রাজনৈতিক দলগুলো প্রতিবাদ-বিক্ষোভে সরব থাকলেও এই ইস্যুতে নীরব বিএনপি। দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান (৯ অক্টোবর) সোশ্যাল হ্যান্ডেল এক্স-এ টুইট করলেও দেশের অভ্যন্তরে দলের নেতৃত্বে থাকা নেতারা চুপ রয়েছেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় পর্যায়ের একাধিক নেতা ও দায়িত্বশীল বলছেন, প্রথমত ফিলিস্তিন ইস্যুটি আন্তর্জাতিক। এই ইস্যুতে দলের চেয়ারম্যানের টুইটটিই দলের অবস্থানকে তুলে ধরেছে। দ্বিতীয়ত, বিএনপি দেশের উদার গণতান্ত্রিক দল, কোনও ধর্মভিত্তিক দল নয়। এক্ষেত্রে সতর্কতার সঙ্গে ইস্যুটিকে ফেস করতে হচ্ছে।

দলের প্রভাবশালী একজন দায়িত্বশীল শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বিএনপি তো সরকারে নেই। বিষয়টিতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখার দায়িত্ব সরকারের। উদার গণতান্ত্রিক দল হিসেবে বিএনপি সুনির্দিষ্ট কোনও ধর্মের পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নেবে না। পাশাপাশি ফিলিস্তিন ইস্যুতে ইসরায়েলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের গভীর সুসম্পর্কের কারণে কোনোভাবেই বিতর্কিত কোনও অবস্থান নেবে না বিএনপি।’

এ প্রসঙ্গে বিএনপির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ফিলিস্তিন ইস্যু নিয়ে আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিবৃতি দিয়েছেন। এটাই দলের অবস্থান। যখনই এই ইস্যুতে কথা বলার দরকার হবে, তার বিবৃতিটি দলের পলিসি হিসেবে কাজ করবে।’

গত ৭ অক্টোবর প্রথমে ইসরায়েলে হামলা চালায় ফিলিস্তিনের হামাসের যোদ্ধারা। এতে ইসরায়েলে নারী, শিশুসহ অসংখ্য মানুষ মারা যান ও হতাহত হন। প্রতিক্রিয়ায় ধারাবাহিকভাবে গাজায় পাল্টা আক্রমণ চালাচ্ছে ইসরায়েল। এতে ফিলিস্তিনের অসংখ্য মানুষ মারা যান ও হতাহত হন। সাধারণত এসব ঘটনায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলের বিদেশ বিষয়ক কমিটির সদস্যরাও কথা বলেন। কিন্তু ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধে তারা নীরব।

দলের বিদেশ বিষয়ক সূত্রগুলো জানায়, মূলত যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা বিশ্বের কাছে বিএনপি নতুন করে নিজেদের উদার গণতান্ত্রিক দল হিসেবে উপস্থাপন করায় ফিলিস্তিন ইস্যুতে পশ্চিমাদের পলিসি অনুসরণ করছে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। এ কারণে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নিজে পক্ষে-বিপক্ষে না থেকে নৈর্ব্যক্তিক অবস্থান থেকে বিবৃতি দিয়েছেন। দলের ডানপন্থি অংশের নেতারা বিষয়টিকে সহজভাবে না নিলেও তারাও প্রকাশ্যে কুলুপ এঁটেছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার নওশাদ জমির বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘কাউকে খুশি বা অখুশি করার জন্য নয়, ফিলিস্তিন ইস্যুতে আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বক্তব্য রেখেছেন। তার পজিশন থেকে তিনি যা বলেছেন, সেটাই দলের অবস্থান। অন্য কারও ব্যক্তিগত মতামত এখানে গ্রহণযোগ্য নয়।’

বিএনপির একজন দায়িত্বশীল মনে করেন, ‘আন্তর্জাতিক পলিসির সঙ্গে মিল রেখে বিএনপি আন্দোলনে আছে। এই ইস্যুটিকে ডাইভার্ট করা যাবে না।’

দলের মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খানের ভাষ্য, ‘বিএনপি যেকোনও ধরনের সংঘাতের বিরুদ্ধে। ইতোমধ্যে দলের শীর্ষনেতৃত্ব থেকে সমস্যাটিকে কূটনৈতিক উপায়ে সমাধান করার জন্য জাতিসংঘ, ওআইসি ও বিশ্বনেতৃত্বকে আহ্বান করা হয়েছে।’

খেলাফত মজলিসের বিক্ষোভ

প্রতিবাদে সরব বাম ধর্মভিত্তিক দলগুলো

বিএনপি নীরব থাকলেও ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলের অব্যাহত হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও বিবৃতি দিয়েছে বাম ও ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো। গত কয়েক দিন ধরে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছে সরকার সমর্থিত ও বিরোধী মতাদর্শের বাম ও ধর্মভিত্তিক দলগুলো। বিক্ষোভে এসব দল অবিলম্বে ইসরায়েলের হামলা বন্ধ ও ফিলিস্তিনে ত্রাণ পাঠাতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি জোরালো আহ্বান জানায়।

শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকায় বিক্ষোভ করেছে খেলাফত মজলিস ও ইসলামী আন্দোলন। লালবাগে বিক্ষোভ করেছে ইসলামী ঐক্যজোট। ঢাকার মতো বিশ্বের বেশ কয়েকটি মুসলিম নাগরিক-প্রধান শহরেও ফিলিস্তিনের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ হয়েছে।

শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেট থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ। এতে অংশ নিয়ে খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণ নিজের ভূমিতে নিজেরাই আজ দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। গাজায় পানি, বিদ্যুৎসহ সকল জনসুবিধা বন্ধ করে একটি মরণকূপে পরিণত করা হয়েছে। সেখানকার মানুষ আজ মানবেতর জীবনযাপন করছেন। জাতিসংঘের জোরালো হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

শুক্রবার ঢাকার লালবাগ শাহী মসজিদের পূর্ব গেট থেকে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে লালবাগ চৌরাস্তা, ঢাকেশ্বরী রোড হয়ে আজিমপুর এতিমখানার সামনে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

সমাবেশে ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনে ইসলাম, মুসলমানদের নির্মূলের মহড়া চলছে। মধ্যপ্রাচ্যের বিষফোঁড়া দখলদার ইসরায়েল গাজায় নিরপরাধ নারী, শিশু ও বয়স্কদের নির্বিচারে গুলি করে বোমা মেরে হত্যা করছে। গাজা নগরীকে কবরস্থানে পরিণত করা হয়েছে। পানি, বিদ্যুৎ, খাদ্য সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই জঘন্যতম বর্বরতার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

ইসলামী আন্দোলনের প্রচার ও দাওয়াহ বিষয়ক সম্পাদক আহমদ আবদুল কাইয়ূম জানান, ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে আজ শুক্রবার সারা দেশে জেলায় জেলায় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। কোনও কোনও জেলায় বিক্ষোভ সমাবেশ করলেও মিছিল করতে দেয়নি পুলিশ। ঢাকাসহ কর্মসূচি পালিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর, কিশোরগঞ্জ, গাজীপুর মহানগর, গাজীপুর জেলা, গোপালগঞ্জ, নরসিংদী, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, মাদারীপুর, মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, শরীয়তপুর, রাজবাড়ী, নেত্রকোনা, শেরপুর, জামালপুর, ময়মনসিংহ মহানগর, ময়মনসিংহ উত্তর, ময়মনসিংহ দক্ষিণ, রাজশাহী মহানগর, রাজশাহী জেলা, জয়পুরহাট, বগুড়া, পাবনা পূর্ব, পাবনা পশ্চিম, নাটোর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, চট্টগ্রাম মহানগর, নোয়াখালী উত্তর, নোয়াখালী, ফেনী, চাঁদপুর, কুমিল্লা মহানগর, কুমিল্লা উত্তর, কুমিল্লা দক্ষিণ, রংপুর জেলা, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর উত্তর, পঞ্চগড়, পিরোজপুর, বরিশাল, ভোলা, ঝালকাঠি, বরগুনা, পটুয়াখালীসহ বিভিন্ন এলাকায়।

শুক্রবার জোহরের নামাজের পর খিলগাঁও চৌরাস্তা মোড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়াত বাংলাদেশ। মাওলানা ইউনুস ঢালির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে সংগঠনের মহাসচিব মাওলানা মুহিউদ্দিন রব্বানীসহ অনেকে ছিলেন।

এর আগে বুধবার (১১ অক্টোবর) ‘সরকার যেন অবিলম্বে ফিলিস্তিনের যুদ্ধকবলিত মুসলিমদের কাছে ত্রাণ পাঠায়’- এমন দাবি করেন প্রগতিশীল ইসলামী জোটের পক্ষ থেকে জোটের চেয়ারম্যান, সাবেক সংসদ সদস্য এম এ আউয়াল। তিনি প্রশ্ন তোলেন, ফিলিস্তিন ইস্যুতে বিএনপি নীরব কেন?

১০ অক্টোবর (মঙ্গলবার) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান শাহজাদা ড. সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনের নির্যাতিত-নিপীড়িত মুসলমানদের ওপর অবৈধ ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর আগ্রাসী হামলার নিন্দা জানানোর কোনও ভাষা আমাদের জানা নেই।’

ধর্মভিত্তিক দলগুলোর মতো বাম ও গণতান্ত্রিক ধারার কয়েকটি দলও ফিলিস্তিন ইস্যুতে সরব হয়। বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) ফিলিস্তিনের জনগণের ওপর ইসরায়েলি আগ্রাসন বন্ধ, নির্বিচারে ফিলিস্তিনি জনগণকে হত্যা বন্ধ ও স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে সমাবেশ করে বাংলাদেশ শান্তি পরিষদ। এতে বাংলাদেশ শান্তি পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী যেখানে ফিলিস্তিনি শিশু হত্যার বিরুদ্ধে সবসময় সোচ্চার, তখন এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় যে বিবৃতি দিয়েছে তা দ্বিধান্বিত বিবৃতি।’

ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলী নির্বিচার বোমা হামলা, বর্বর হত্যাযজ্ঞ ও অমানবিক অবিরোধের  প্রতিবাদে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ শুক্রবার (১২ অক্টোবর) বিকাল ৪টায় রাজধানী ঢাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে। মিছিলটি বঙ্গবন্ধু এভিনিউ, গুলিস্তান, পল্টন, তোপখানা, প্রেসক্লাব এলাকা প্রদক্ষিণ করে দলটি। মিছিল শুরুর আগে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য দেন জাসদের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সফি উদ্দিন মোল্লা, জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুজ্জামান বাদশা।

৯ অক্টোবর গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ‘ফিলিস্তিনের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের সর্বাত্মক যুদ্ধ ঘোষণা জায়নবাদী আগ্রাসনের ভয়াবহ নজির। গাজায় ইসরায়েলের আগ্রাসন ইতোমধ্যে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় সৃষ্টি করেছে। ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের যুদ্ধ বন্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাই।’

/আরআইজে/এমওএফ/
সম্পর্কিত
ইসরায়েলকে ছাড়াই যুদ্ধবিরতি নিয়ে আলোচনা চলছে: হামাস
পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর বৃহত্তম অভিযান, নিহত এক
ক্ষুধার্ত গাজাবাসীদের জন্য আরও সাহায্যের আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের
সর্বশেষ খবর
৩০ ঘণ্টা ধরে আগুন জ্বলছে চিনিকলে
৩০ ঘণ্টা ধরে আগুন জ্বলছে চিনিকলে
দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর এসি চালুর আগে যে ৫ সতর্কতা জরুরি
দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর এসি চালুর আগে যে ৫ সতর্কতা জরুরি
গর্ভপাতকে সাংবিধানিক অধিকার দিলো ফ্রান্স
গর্ভপাতকে সাংবিধানিক অধিকার দিলো ফ্রান্স
চাকরি না করেই নিয়েছেন বেতন-ভাতা, শখ অধ্যক্ষ হওয়া
চাকরি না করেই নিয়েছেন বেতন-ভাতা, শখ অধ্যক্ষ হওয়া
সর্বাধিক পঠিত
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের
৩ কারণে কাক কমছে ঢাকায়, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা
৩ কারণে কাক কমছে ঢাকায়, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা
সাত মসজিদ রোডের সব বুফে রেস্তোরাঁ বন্ধ
সাত মসজিদ রোডের সব বুফে রেস্তোরাঁ বন্ধ
বাংলাদেশ ভ্রমণ শেষে ভারতে গিয়েই সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ব্রাজিলিয়ান তরুণী
বাংলাদেশ ভ্রমণ শেষে ভারতে গিয়েই সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার ব্রাজিলিয়ান তরুণী
ইউক্রেন অবশ্যই রাশিয়ার অংশ: পুতিন মিত্র
ইউক্রেন অবশ্যই রাশিয়ার অংশ: পুতিন মিত্র