বিএনপির নৈরাজ্য মোকাবিলায় প্রস্তুত আওয়ামী লীগ: ওবায়দুল কাদের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২২:০৭, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:০৭, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

ওবায়দুল কাদের (ফাইল ছবি)

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন ইস্যুতে গত সপ্তাহে আদালতে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হয়েছিল। আজ  (বুধবার) মোটরসাইকেলে আগুন দেওয়া হয়েছে। বিএনপি আদালতকে ভয় দেখাচ্ছে। আবারও অগ্নি-সন্ত্রাসের হুমকি দিচ্ছে। যদি আগামীকালও (বৃহস্পতিবার) নৈরাজ্য ও তাণ্ডব করতে চায়, তা মোকাবিলায় আওয়ামী লীগ প্রস্তুত।’

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজনীতিকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করবো। আওয়ামী লীগ একটি ঐক্যবদ্ধ সুসংগঠিত সংগঠন। যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবিলা করার মতো সক্ষমতা আওয়ামী লীগের আছে। কিন্তু কেউ অরাজনৈতিকভাবে সহিংসতার দিকে গেলে, সংঘাতের উস্কানি দিলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সমুচিত জবাব দেবে। এটা পঁচাত্তর সাল নয়, এটা ২০০৪ সালও নয়। চক্রান্তের জবাব দিতে আওয়ামী লীগও প্রস্তুত।’

তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়ার জামিনকে কেন্দ্র করে বিচার ব্যবস্থার বিরুদ্ধে, আদালতের বিরুদ্ধেও বিএনপি অঘোষিত যুদ্ধ ঘোষণা করেছে।’

নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার নির্দেশনা দিয়ে তিনি বলেন, ‘কেউ গায়ে পড়ে আক্রমণ করবেন না। কিন্তু আক্রান্ত হলে কী আমরা ছেড়ে দেবো? সেক্ষেত্রে কী করতে হবে, সে নির্দেশ আমরা দেবো। নির্দেশের বাইরে কেউ কিছু করবেন না। ঠাণ্ডা মাথায় পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে। জনগণের জন্য যেটা ভালো, তাদের কাছে যেটা গ্রহণযোগ্য, আমরা তাই করবো।’

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিবেদন নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলামের সন্দেহ বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ বলে মন্তব্য করেছেন ওবায়দুল কাদের। খালেদা জিয়া স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিবেদন নিয়ে কোনও সন্দেহ থাকলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আদালতকে জানানোর পরামর্শ দেন।

গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ড. কামাল হোসেনের ‘যারা মৌলিক অধিকার থেকে জনগণকে বঞ্চিত করছে, তারা ডাকাত’ বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজনীতিতে জনগণের কাছে তার অবস্থানটা কী এটা তার একটু ভেবে দেখা উচিত। তার কাছ থেকে আমরা অশালীন অমার্জিত বক্তব্য আশা করি না। যদি তার সে ধরণের সাহস থাকতো, নির্বাচনে অংশ নিতেন। নির্বাচন না করে আজকে তার ফ্রন্টের ব্যর্থতার পরাজয়ের পর আবোল-তাবোল বকতে শুরু করেছেন।’

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘ক্ষমতার পরিবর্তন নিয়ে, যে যেটাই ভাবুন, যতই স্বপ্ন দেখুন, অন্য কোনোভাবে হবে না। ক্ষমতার পরিবর্তন আরেকটা নির্বাচন ছাড়া সম্ভব না। বাংলাদেশে বন্দুক উঁচিয়ে ক্ষমতা দখলের দিন শেষ। সে অবস্থা আর দেশে ফিরে আসবে না। জনগণ সরকারে কাকে চায় এটা দেখার জন্য আরেকটা নির্বাচনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।’

 

/এমএইচবি/এএইচ/

লাইভ

টপ