শাজাহান সিরাজ বাংলাদেশের ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ: মির্জা ফখরুল

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:০১, জুলাই ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২০, জুলাই ১৫, ২০২০

শাজাহান সিরাজের এই চলে যাওয়া বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটা বিরাট শূন্যতা সৃষ্টি করলো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘এই শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। তিনি বাংলাদেশের ইতিহাসের একটা অবিচ্ছেদ্য অংশ।’

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) গুলশানের ২৩ নম্বর সড়কের ২৮ নম্বর বাসায় গিয়ে প্রয়াত নেতা শাজাহান সিরাজের  স্ত্রী রাবেয়া সিরাজের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাকেসহ পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সেখান থেকে বেরিয়ে এসে এসব কথা বলেন তিনি।

লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে রাখা শাজাহান সিরাজের মরদেহের সামনে মির্জা ফখরুল ইসলাম শ্রদ্ধা জানান। কাচঘেরা মরদেহের সামনে তিনি কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় শাজাহান সিরাজের মেয়ে ব্যারিস্টার শুক্লা সিরাজ ও জামাতা ওমর সাহাদাত উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ‘আমরা জাতীয়তাবাদী দলের পক্ষ থেকে, আমাদের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষ থেকে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি, গভীর শোক জানাচ্ছি এবং আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করছি, তিনি যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন।’

শাজাহান সিরাজের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন বিএনপি মহাসচিব।

শাজাহান সিরাজের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ইতিহাস তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘স্বাধীনতা সংগ্রাম ও স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম নায়ক ছিলেন তিনি। দীর্ঘকাল তার শৈশব থেকে কৈশোর এবং ছাত্র অবস্থায় এ দেশের স্বাধীনতার জন্য তিনি সংগ্রাম করেছেন, গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছেন, মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম করেছেন।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘শাজাহান সিরাজ স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং পরবর্তীকালে স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে, একদলীয় একনায়ক শাসনের বিরুদ্ধেও তিনি সংগ্রাম করেছেন। জনগণের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য এবং জনগণের অধিকার রক্ষার জন্য শাজাহান সিরাজ সংগ্রাম করেছেন, লড়াই করেছেন। এ দেশের মানুষের কল্যাণে তিনি আজীবন কাজ করেছেন। অসুস্থ হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি দেশের মানুষের কল্যাণের কথাই চিন্তা করেছেন।’

প্রয়াত নেতার মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান, স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদের ছেলে আবেদ আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, সাবেক জাসদ নেতা ও সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী,  বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাজাহান সিরাজ মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) বিকালে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। 

 

/এএইচআর/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ