ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাওয়ের ঘোষণা সম্মিলিত ইসলামি দলের

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:১০, অক্টোবর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:১৪, অক্টোবর ৩০, ২০২০

ফ্রান্সের পণ্য বর্জন এবং বাংলাদেশে অবস্থিত ফ্রান্সের দূতাবাস বন্ধের দাবিতে আগামী সোমবার (২ নভেম্বর) দূতাবাস ঘেরাওয়ের কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়া হয়েছে সম্মিলিত ইসলামি দলগুলোর ব্যানারে। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর সভাপতি নূর হোসাইন কাসেমী বলেন,  ‘ফ্রান্সের পণ্য বর্জন করতে হবে। বাংলাদেশে ফ্রান্সের দূতাবাস বন্ধ করতে হবে। আমাদের দাবি পূরণ না হলে আগামী সোমবার বেলা ১১টায় বায়তুল মোকাররম থেকে ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি পালন করা হবে।’

শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সামনে ফ্রান্সে ইসলামের শেষ নবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)-এর ‘ব্যঙ্গচিত্র’ প্রদর্শনের প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশে এই কর্মসূচির ঘোষণা করেন তিনি। সম্মিলিত ইসলামি দলগুলোর ব্যানারে বিক্ষোভ সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।  বিক্ষোভে অংশ নেওয়া বিভিন্ন মাদ্রাসার ছাত্রদের মাথায় বাঁধা কাপড়ে লেখা ছিল- ‘ ইসলাম প্রিয় তৌহিদী জনতা, ফ্রান্সের কালো হাত ভেঙে দাও,গুঁড়িয়ে দাওসহ’ বিভিন্ন স্লোগান।

বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা মুহাম্মাদ মামুনুল হক বলেন, ‘বিশ্বের মুসলিম নেতৃবৃন্দ ফ্রান্সের অসভ্যতার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোগান ফ্রান্সের বিরুদ্ধে স্পষ্ট অবস্থান গ্রহণ করেছেন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান  স্পষ্ট বক্তব্য রেখেছেন। আমরা প্রশ্ন করতে চাই, ৯০ ভাগ মুসলমান দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য কী ?’

বিক্ষোভ শেষে বায়তুল মোকাররম থেকে নাইটিঙ্গেল মোড় পর্যন্ত মিছিল করেন তারা।  এতে বিভিন্ন মাদ্রাসার কয়েক হাজার ছাত্র অংশ নেন।  এসময় বায়তুল মোকাররমসহ বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে পুলিশসহ সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

বিক্ষোভ সমাবেশ চলাকালে বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনের রাস্তায় এবং মিছিলচলাকালে পল্টনসহ আশপাশের রাস্তায় সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন—  জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের  মুনির হোসাইন কাসেমী, জালাল উদ্দিন আলম, মুসলিম লীগের খান মোহাম্মদ আসাদ, ইসলামী ঐক্যজোটের শওকত আমীন, খেলাফত মজলিসের আহমেদ আব্দুল কাদের প্রমুখ।

এদিকে একই দাবিতে রাজধানীর পান্থপথ, গ্রিন রোড, মিরপুর-১ নম্বর এলাকায় জুমার নামাজের পর বিক্ষোভের  মিছিল করার খবর পাওয়া যায় গেছে।

ছবি: নাসিরুল ইসলাম

 

/এএইচআর/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ