ফেদেরার চান পুরুষ ও নারী টেনিস আসুক এক ছাদের নিচে

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৩:৪৩, এপ্রিল ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৫৩, এপ্রিল ২৩, ২০২০

সেরেনা উইলিয়ামসের সঙ্গে রজার ফেদেরাররজার ফেদেরারের মনে এটি ঘুরে বেড়াচ্ছিল অনেকদিন ধরেই। কিন্তু বুধবার, ২২ এপ্রিল, তিনি তার ১২.৭ মিলিয়ন টু্ইটার অনুসরণকারীর কাছে যে প্রস্তাবনা তুলে ধরলেন, একটু অপ্রত্যাশিতই বটে। কিন্তু করোনা মহামারিতে বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংকটের এই সময়টায় প্রত্যাশিতভাবেই এই প্রস্তাবনা বিপুল সমর্থন পাচ্ছে। সর্বোচ্চ ২০টি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী সুইস টেনিস তারকা বলেছেন, পুরুষ ও নারীদের টেনিসের আলাদা দুটি নিয়ন্ত্রক সংস্থার দরকার নেই। এখনই সময় এটিপি ও ডব্লিউটিএর এক হয়ে একটি শক্তিশালী একক সংস্থায় পরিণত হওয়ার।

প্রায় চার যুগ ধরে পুরুষ ও নারীদের পেশাদার টেনিস আলাদা দুটি বৈশ্বিক সংস্থার মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে আসছে। উন্মুক্ত যুগের পর পরই টেনিসের রমরমা যখন ক্রমেই বাড়ছে,  ১৯৭২ সালে গঠিত অ্যাসোসিয়েশন অব টেনিস প্লেয়ার্স (এটিপি) দেখভাল করে পুরুষদের টেনিস। যেটির সদর দফতর লন্ডন। এর ঠিক এক বছর পর ১৯৭৩ সালে নারীদের টেনিসের নিয়ন্ত্রক হিসেবে গঠিত হয় উইমেন টেনিস অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউটিএ), সদর দফতর ফ্লোরিডা।

দুটি সংস্থার একত্রীকরণ নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে বলাবলি হচ্ছিল বেশ আগে থেকেই। তবে এটি গুরুত্বসহকারে আলোচিত হচ্ছে সম্প্রতি করোনাভাইরাস ভয়ঙ্কর চেহারা নিয়ে সারা বিশ্বে আসার পর। গত সপ্তাহে এটিপির নতুন প্রধান নির্বাহী আন্দ্রিয়া গাউদেঞ্জি প্রশাসনিকভাবে একীভূত হওয়ার চেয়ে দুটি সংস্থার আরও কাছাকাছি এসে পরস্পরের সহযোগিতাপরায়ণ হয়ে কাজ করা উচিত বলে প্রস্তাব করেন।

এর পরই ফেদেরার টুইট করেন, ‘আমি অবাক হচ্ছি, আমিই কি একমাত্র ব্যক্তি যে ভাবছে এখনই সময় নারী ও পুরুষদের টেনিস এক হয়ে একটি একক সংস্থায় রূপ নেওয়ার?’ অস্ট্রেলীয় টেনিস তারকা নিক কিরিয়স সঙ্গে সঙ্গেই ফেদেরারকে, ‘হ্যাঁ’ বলে দেন। প্রিয় বন্ধু ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ১৯টি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী রাফায়েল নাদালও সমর্থন জানিয়ে টুইট করেছেন, ‘পুরুষ ও নারী টেনিসের একটি ঐকবদ্ধ সংগঠন গড়ে তুলে এই বৈশ্বিক সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে পারলে সেটি হবে দারুণ।’ স্প্যানিশ তারকার পর পরই যার নেতৃত্বে ডব্লিউটিএ’র সৃষ্টি বলে ধরা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের সেই  টেনিস কিংবদন্তি বিলি জিন কিং বলেছেন, ‘এক হওয়াটাই ছিল আমার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন। আমরা একই জায়গায় দাঁড়িয়ে আছি। চলুন এটাকেই আমরা সত্যি করে তুলি।’

ফেদেরার স্পষ্ট করেই বলেছেন, ‘আমি শুধু কোর্টের প্রতিযোগিতা একসঙ্গে হওয়ার কথা বলছি না, আমি বলছি দুটি পরিচালনা সংস্থা এক হয়ে যেন পুরুষ ও নারী পেশাদার টেনিসের দায়িত্ব নেয়। দুটি র‌্যাঙ্কিং পদ্ধতি, আলাদা লোগো, আলাদা ওয়েবসাইট, ভিন্ন ক্যাটাগরির টুর্নামেন্ট টেনিসের দর্শকদের কাছে বিভ্রান্তিকর।’

বিবিসির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, উইম্বলডনের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সিমোনা হালেপ, দুইবারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন পেত্রা কেভিতোভা, দুইবারের গ্র্যান্ড স্লাম চ্যাম্পিয়ন গারবিনিয়ে মুগুরুজা ও আজেন্টাইন তারকা ডিয়েগো সুয়ার্টজমানের মতো সব টেনিস খেলোয়াড়েরা ফেদেরারকে সমর্থন করছেন। তার মানেে এরাও চান এটিপি ও ডব্লিউটিএ এক হয়ে যাক।

তাহলে করোনা সংকটটা কাটিয়ে উঠলেই কি বিশ্ব টেনিস দেখতে চলেছে নারী ও পুরুষদের টেনিস একটি একক বিশ্ব সংস্থার অধীন পরিচালিত হচ্ছে?

 

 

/পিকে/

লাইভ

টপ