মেসিকে পেতে ‘প্রাণপণে’ লড়েছে ইন্টার মিলান

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:১১, মে ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:১১, মে ২৫, ২০২০

বিশ্বের প্রায় সব ক্লাবই লিওনেল মেসিকে তাদের দলে দেখতে চাইবে। ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়কে পেতে অনেক ক্লাব আগ্রহও দেখিয়েছে, অনেকে চেষ্টা চালিয়েছে সাধ্যের সবটা দিয়ে। তাদের মধ্যে সবচেয়ে ওপরে থাকবে সম্ভবত ইন্টার মিলান। ইতালিয়ান ক্লাবটি সেই ২০০৮ সাল থেকে কয়েক দফা চেষ্টা চালিয়েছে, দিয়েছে বিশাল অঙ্কের লোভনীয় সব প্রস্তাব। কিন্তু মেসি বারবারই বলেছেন ‘না’।

২০০৮ সালে ইন্টার ‘প্রাণপণে’ চেষ্টা করেছিল মেসিকে নিয়ে আসার। অবিশ্বাস্য প্রস্তাবও দিয়েছিল তারা। এরপরও মেসি আসতে চাননি। পরবর্তীতে আরও কয়েকবার নানাভাবে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকের মন গলানোর চেষ্টা করেছিল, কিন্তু পারেনি। মেসিকে কেনার ব্যাপারে ইতালিয়ান ক্লাবটির সাবেক টেকনিক্যাল ডিরেক্টর মার্কো ব্রানকা জানিয়েছেন তেমনটাই।

৩২ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন গত বছর জিতেছেন ষষ্ঠ ব্যালন ডি’অর। ক্লাব ফুটবলে এমন কিছু নেই যে জেতেননি। সাফল্যের সর্বোচ্চ শৃঙ্গে উঠলেও আঁকড়ে আছেন শৈশবের ক্লাব বার্সেলোনাকে। যদিও তার বয়স যখন ২১, তখন ন্যু ক্যাম্প ছাড়ার সুবর্ণ ‍সুযোগ এসেছিল তার সামনে। ইন্টার থেকে এসেছিল চোখ কপালে তোলার মতো প্রস্তাব। ওই সময় বার্সেলোনায় যে সব সুবিধা পেতেন, তার চেয়ে ঢের ভালো প্রস্তাব দিয়েছিল মিলানের ক্লাবটি।

নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে নেমেছিল ইন্টার ‘মিশন মেসি’তে। ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যম লিবেরোয় দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্রানকা বলেছেন, ‘হ্যাঁ, আমরা তাকে (মেসি) কিনতে গিয়েছিলাম। প্রাণপণে চেষ্টা করেছিল ইন্টার। কিন্তু সে রাজি হয়নি বার্সেলোনা ছাড়তে।’ কেন ছাড়তে চাননি মেসি, সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন ইন্টারের সাবেক টেকনিক্যাল ডিরেক্টর, ‘সে ক্লাবের (বার্সেলোনা) প্রতি ভীষণ কৃতজ্ঞ। টাকার বিষয়টা আসলে সবসময় প্রথমে আসে না।’

ব্রানকা ২০০২ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সামলেছেন ইন্টারের টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের পদ। এই সময়ে তিনি সান সিরোতে এনেছিলেন ডিয়েগো মিলিতো, স্যামুয়েল এতো ও ওলেসলি স্নেইডারকে।

/কেআর/

লাইভ

টপ