ভারতেই হচ্ছে ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ২১:০০, আগস্ট ০৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:৩৮, আগস্ট ০৭, ২০২০

আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে ভারতে। করোনার কারণে স্থগিত হয়ে গেছে এ বছরে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। নতুন সিদ্ধান্তের ফলে পর পর দুই বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আইসিসি। তবে দুটি ইভেন্টে কারা আয়োজক থাকছে, সেটি ঝুলিয়ে রেখেছিল। শুক্রবার আইসিসির বিজনেস কর্পোরেশনের ভার্চুয়াল সভায় সিদ্ধান্ত এলো, পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক থাকছে ভারতই। ফলে এই বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২২ সালে। যার আয়োজক থাকছে অস্ট্রেলিয়া। 

এছাড়া আগামী বছরে অনুষ্ঠেয় মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপটিও স্থগিত করা হয়েছে করোনার কারণে। নতুন ঘোষণার ফলে মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপ একই সূচিতে অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ সালে। সূচি অনুযায়ী এটি হওয়ার কথা ছিল ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ মার্চ।

মূলত অস্ট্রেলিয়ায় এই বছর ১৮ অক্টোবর থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে সেটি স্থগিত হয়ে গেছে। অস্ট্রেলিয়া অবশ্য আগামী বছরেই সেটি আয়োজন করতে চেয়েছিল। কিন্তু আইসিসি অস্ট্রেলিয়াকে ২০২২ সালের জন্যই আয়োজক হতে বলেছে।
অবশ্য এর কারণও আছে। ২০২৩ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত। ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হলে পর পর দুটি বৈশ্বিক ইভেন্ট হয়ে যেত সেখানে। ফলে ২০২৩ সালের ইভেন্টটি কতটা সফল হবে এ নিয়ে সংশয় ছিল বিসিসিআইয়ের। তাই ভারতের ক্রিকেট বোর্ড চেয়েছিল দুটি ইভেন্টের মধ্যে যেন এক বছর ব্যবধান থাকে। 

এর ফলে এখন ২০২১ সালের ইভেন্টটি ভারতে অনুষ্ঠিত হবে অক্টোবর থেকে নভেম্বর। ফাইনাল হবে ১৪ নভেম্বর। তার পরের বছর অস্ট্রেলিয়ায় অক্টোবর-নভেম্বরেই হবে ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। যার ফাইনাল হচ্ছে ১৩ নভেম্বর।

অবশ্য ২০২১ সালের ইভেন্টটির জন্য ২০২০ সালের ফরম্যাটই বহাল থাকছে। এই বছরের জন্য যেসব দল কোয়ালিফাই করেছিল, তারা ঠিকই খেলবে ভারতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। তবে ২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় ইভেন্টটির জন্য নতুন কোয়ালিফিকেশন সিস্টেম রাখা হবে।  

/এফআইআর/

লাইভ

টপ