মানের জোড়া গোলে চেলসিকে ব্যবধান বোঝালো লিভারপুল

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ০৪:১৭, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৩০, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০

মানের গোলের আনন্দ। রবিবার, চেলসির মাঠে            -টুইটারসমান-সমান দু’দলের একটি ৪৫ মিনিটেই ১০ জনের দলে পরিণত হলে প্রতিপক্ষের সঙ্গে তারা যুঝতে পারে না। রবিবার স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে প্রথমার্ধের একেবারে শেষ মুহূর্তে চেলসি ডিফেন্ডার আন্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেন সরাসরি দেখেছেন লাল কার্ড। যাকে ‘রাগবি ট্যাকল’ করে ক্রিস্টেনসেনকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে, সেই সাদিও মানের জোড়া গোলেই লিভারপুল হারিয়ে দিয়েছে চেলসিকে (২-০)।

ম্যাচের অর্ধেকটা প্রতিপক্ষ খেলেছে সংখ্যাতাত্ত্বিক সুবিধা নিয়ে , গোলকিপার কেপা মানের পায়ে বল দিয়ে একটি গোল খাইয়েছেন, ৭৪ মিনিটে পেনাল্টি মিস করেছেন জর্জিনিয়ো। ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের চেলসি বলতে পারে- লিভারপুল জেতেনি, আমরাই হেরেছি। কিন্তু না, শ্রেয়তর দল হিসেবেই জিতেছে চ্যাম্পিয়নরা। ১১ বনাম ১১ অবস্থায়ও নিজেদের মাঠে চেলসি ছিল রক্ষণাত্মক। শুধু টিমো ভারনারের মাধ্যমে পাল্টা আক্রমণে গোল করতে চেয়েছে তারা।

বিরতির মিনিট দশেক আগে থেকে লিভারপুল যেভাবে চাপ বাড়াচ্ছিল, তাতে কিছু একটা ঘটতোই। সেটাই ঘটেছে ক্রিস্টিয়ানসেনের মার্চিং অর্ডারে। বাকি কাজটা অলরেডস সেরে ফেলেছে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই। প্রভাব ও প্রচেষ্টায় পুরো ম্যাচেই দুর্দান্ত সাদিও মানে চার মিনিটের ব্যবধানে করেছেন দুই গোল। সালাহ ও ফিরমিনোর সমন্বয়ে বল পেয়ে দারুণ হেডে ৫০ মিনিটে প্রথম গোল, চার মিনিট পর বক্সে নেকড়ের মতো ঘুরতে থাকা তার থেকে বাঁচতে কেপাকে ব্যাক পাস দেন তোমোরি, কেপা রিচ জেমসকে বল দিতে গিয়ে জমা দেন মানের পায়ে। ব্যস, মুহূর্তেই বলের ঠিকানা ফাঁকা জাল!

দুদিন আগেই বায়ার্ন থেকে সাইন করা থিয়াগো আলকান্তারার অভিষেকটা অম্লমধুর হতে হতে শেষ পর্যন্ত মধুরই হয়েছে। দ্বিতীয়ার্ধে নেমে আক্রমণে ও রক্ষণে সমান উজ্জ্বল থিয়াগোই ৭৩ মিনিটে পেনাল্টি উপহার দেন চেলসিকে। অকারণ বক্সের মধ্যে বল নিয়ে ঢোকা ভারনারের পায়ে মেরে দেন। ভারনার নিজে স্পটকিক না নিয়ে দেন জর্জিনিয়োকে, যিনি ব্রাইটনের বিপক্ষে আগের ম্যাচে পেনাল্টি থেকে গোল করেছেন। কিন্তু তার এবারের পেনাল্টিটি ছিল দুর্বল, আগেই পড়ে ফেলা আলিসন বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে তা রুখে দিয়েছেন।

করোনাকালের মন্দার মধ্যেও ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডেরও বেশি খরচ করেছে চেলসি দলবদলের বাজারে। লক্ষ্য একটাই, আবার প্রিমিয়ার লিগ জেতা, লিভারপুলের অগ্রযাত্রা রুখে দেওয়া। কিন্তু রবিবার রাতের ম্যাচ দেখালো লিভারপুলের কাছ থেকে শিরোপা কেড়ে নেওয়া কঠিন। অন্তত এই চেলসির পক্ষে তা খুবই কঠিন। প্রায়ই হাবুডুবু খাওয়া এমন গোলকিপার আর এই দুর্বল রক্ষণভাগ নিয়ে প্রায় অসম্ভব। শেষ ১২ সাক্ষাতে প্রতিদ্বন্দ্বী লিভারপুলের কাছে চেলসির জয় মাত্র একটি, সেটিও সেই ২০১৮ সালে।

রবিবার রাতের অন্য তিন ম্যাচে টটেনহাম সন হিউন-মিঙের চার গোলের সুবাদে সাউদাম্পটনকে ৫-২ গোলে, ব্রাইটন ৩-০ গোলে নিউক্যাসলকে এবং লেস্টার ৪-২ গোলে বার্নলিকে হারিয়েছে। দুটি করে ম্যাচ শেষে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষে লেস্টার, এভারটন, আর্সেনাল, লিভারপুল এবং ক্রিস্টাল প্যালেস। পাঁচটি দলেরই হাতে পুরো ৬ পয়েন্ট, তবে গোল ব্যবধানে সবার ওপরে লেস্টার। এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় অঘটন শনিবার নিজের মাঠে ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পরাজয়।  

   

/পিকে/

লাইভ

টপ