অধিনায়ক চাইলে বোলার মুশফিক প্রস্তুত

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:০৫, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:২১, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

মুশফিক যখন লেগ স্পিনারমিরপুরে চলছে ক্রিকেটারদের স্কিল অনুশীলন ক্যাম্প। সচরাচর ব্যাটসম্যানরা আগে ব্যাটিং করার সুযোগ পেলেও মঙ্গলবার হোম অব ক্রিকেটে উল্টো দৃশ্য! লাইন ধরে ব্যাটিং করছেন তাসকিন আহমেদ, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেনরা। আর বোলারের ভূমিকায় মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েস ও সাদমান ইসলাম! বাদ যাননি বোলিং কোচ ওটিস গিবসনও।

টেল এন্ডারদের প্রস্তুতি যথাযথভাবে করতেই মূলত বোলারদের ব্যাটিংটা গুরুত্বসহকারে করাচ্ছিলেন পেস বোলিং কোচ। এই সেশনেই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিককে লেগ স্পিনার হয়ে উঠতে দেখা গেলো। এখানেও অন্যদের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন মুশফিক। ব্যাটসম্যানরা নেটে যাওয়ার আগেই ঝলক দেখা গেলো তার ‘লেগির’।

বোলিং করে সম্ভবত আত্মবিশ্বাস ‍বেড়েছে মুশফিকের। শুধু নেটে নয়, ম্যাচেরও বোলিংয়ের সাহস দেখাচ্ছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের বোলিংয়ের ছবি দিয়ে সেটাই প্রকাশ করেছেন এই ব্যাটসম্যান। অধিনায়ক চাইলে বোলারের ভূমিকাতেও আসতে রাজি মুশফিক, ‘শহরে নতুন লেগি। অধিনায়ক প্রয়োজন ‍মনে করলে আমি প্রস্তুত।’ পোস্টের শেষে দুটো হাসির ইমোজি যোগ করে রসিকতা বোঝালেও বোলার মুশফিককে কিন্তু প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচেও পাওয়া গেছে।

এর আগে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে মাত্র তিনবার বোলিং করেছেন মুশফিক। তিনবারই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে, বিসিবি উত্তরাঞ্চলের হয়ে বিসিএলে। ২০১৩ সালে মধ্যাঞ্চলের বিপক্ষে এক ইনিংসে ১০ ওভার বোলিং করে ২৩ রান দিয়ে উইকেটও পেয়েছিলেন মুশফিক। নুরুল হাসান এলবিডব্লিউ হয়েছিলেন তার বলে। প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে মুশফিকের ওই একটিই উইকেট।

নেটে মুশফিককে বোলারের ভূমিকায় দেখে আগ্রহী হয়ে উঠলেন ইমরুল-সাদমানও। দুজনে বোলিং আনন্দে মাতলেন বেশ কিছুক্ষণ। তামিমও বেশ কয়েকবার হাত ঘুরালেন। যদিও তাকে বোলিংয়ের চেয়ে আম্পায়ারের ভূমিকাতেই বেশি দেখা গেছে। তবে তাইজুলের ব্যাটিংয়ের সময় কোচের ভূমিকাতে ছিলেন দেশসেরা এই ওপেনার। বোলিং প্রান্তে দাঁড়িয়ে পুরোদস্তুর কোচের মতই নির্দেশনা দিয়ে যাচ্ছিলেন তামিম। ভালো ছাত্রের মতো তাইজুলও তা অনুসরণ করছিলেন। সেটাই দূর থেকে প্রত্যক্ষ করলেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

ব্যাটিং অনুশীলনের এই ভিন্ন অভিজ্ঞতা তাসকিন আহমেদ ভাগাভাগি করলেন এভাবে, ‘আজ আমাদের সব বোলারের ব্যাটিং সেশন ছিল, উপভোগ করেছি। যদিও নেটে বোলার ও থ্রোয়াররা বেশ টাফ টাইম দিচ্ছিল। কিন্তু এই চ্যালেঞ্জগুলো নেওয়া শিখতে হবে। কারণ টেল এন্ডারে ব্যাটসম্যানদের সাপোর্ট দিতে হলে, আমাদের উন্নতি করতে হবে। আমরাও চেষ্টা করছি, আগের থেকে উন্নতি হচ্ছে। আশা করি, সামনে টেল এন্ডাররা আরও ভালো করবে।’

/আরআই/কেআর/

লাইভ

টপ