পাকিস্তানের নেতৃত্ব হারানোর ‘গুজবে’ মুখ খুললেন আজহার

Send
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৪:৪৮, অক্টোবর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৪৮, অক্টোবর ৩০, ২০২০

পাকিস্তানের টেস্ট অধিনায়ক আজহার আলীগত সপ্তাহে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যমের ছাপা হয়, পাকিস্তানের টেস্ট দলের নেতৃত্ব হারাচ্ছেন আজহার আলী। তাদের মধ্যে ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকইনফোর খবর ছিল, এরই মধ্যে এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে নেতৃত্ব বিষয়ে আলোচনা করেছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান। এতদিনে এসে মুখ খুললেন আজহার। পাকিস্তানের টেস্ট অধিনায়কের দাবি, তার সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়নি, তাই নেতৃত্ব হারানোর আলোচনা শুধু গুজব।

ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে পাকিস্তান। তার আগেই নাকি অধিনায়ক ঠিক করে ফেলতে চায় পিসিবি। তরুণ নেতৃত্ব খুঁজছে তারা। ক্রিকইনফোর খবর ছিল, সীমিত ওভারের বর্তমান অধিনায়ক বাবর আজম কিংবা উইকেটকিপার মোহাম্মদ রিজওয়ানের কাঁধে দেওয়া হতে পারে পাকিস্তানের টেস্ট দলের নেতৃত্ব।

ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইটটি এও জানিয়েছিল, ইতিমধ্যে প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম দেখা করেছেন, আগামী ১০ দিনের মধ্যে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি দেখা করবেন এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে। কিন্তু আজহার বলছেন অন্যকথা। যেহেতু তার সঙ্গে পিসিবির কেউ দেখাই করেননি, তাই অধিনায়কত্বের বিষয়ে কথা বলা তার কাছে অর্থহীন।

করাচিতে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে আজহার বলেছেন, ‘পিসিবি এই বিষয়ে (নেতৃত্ব বদল) আমার সঙ্গে কোনও কথা বলেনি, আর আমি এই গুজব শুনেছি মিডিয়ার মাধ্যমে। তাই এই মুহূর্তে আমি কোনও কিছু বলার অবস্থানে নেই।’

কিন্তু নিউজিল্যান্ডের সফরের আগে যে পিসিবি নতুন ও তরুণ টেস্ট নেতৃত্ব খুঁজছে? একই প্রশ্ন আবারও শুনে একটু যেন ক্ষুব্ধই হয়ে উঠলেন আজহার, ‘যখন আমার সঙ্গে কেউ কোনও কথাই বলেনি, তাহলে আমি এই বিষয়ে কী বলতে পারি। আমার কাছে এটা এখন শুধুই গুজব, এছাড়া কিছু নয়।’

গত বছরের অক্টোবরে সরফরাজ আহমেদকে সরিয়ে টেস্টের দায়িত্ব দেওয়া হয় আজহারকে। ১২ মাসের মাথায় নেতৃত্ব তার হুমকির মুখে। এই সময়ে আজহারের নেতৃত্বে পাকিস্তান ২-০ ব্যধানে হারে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলেও ইংল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হারতে হয় ১-০ ব্যবধানে।

পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম এক টিভি চ্যানেলকে জানিয়েছিলেন, আগামী ১১ নভেম্বরের সভায় আজহারের ভবিষ্যৎ ঠিক করা হবে। তখন থেকেই শুরু হয়েছে এই ব্যাটসম্যানের নেতৃত্ব হারানোর আলোচনা।

/কেআর/

লাইভ

টপ