২০১৯ সালে প্রযুক্তি দুনিয়ার যত অঘটন

Send
মোখলেছুর রহমান
প্রকাশিত : ১২:৩০, জানুয়ারি ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩০, জানুয়ারি ০১, ২০২০

ফেসবুকের ক্রিপটো কারেন্সি বিতর্কআমরা এখন ২০২০ সালে। ২০১৯ সালে বিশ্বের প্রযুক্তি কোম্পানিগুলো অনেক উদ্ভাবনী পণ্য দিয়ে যেমন বাজিমাত করেছেন ঠিক তেমনি বেশ কিছু অঘটনেরও জন্ম দিয়েছে। ২০১৯ সালে প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর অঘটনের কিছু তথ্য তুলে ধরা হলো এই লেখায়।

১. অ্যাপলের ফেসটাইম অ্যাপের নিরাপত্তা ত্রুটি কাজে লাগিয়ে সাইবার আক্রমণকারীরা ফেসটাইম কলে ব্যবহারকারীর কোনও ইন্টারঅ্যাকশান ছাড়াই কল করতে এবং কলদাতার প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম হয়। এর মাধ্যমে গোপন নজরদারির দরজাও খুলে যায়।





২. এক প্রতিবেদনে দেখানো হয়েছে, কয়েকটি নিম্নমানের এবং অখ্যাত ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলো বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে। এগুলোর মাধ্যমে হ্যাকাররা যেকোনও সময় ব্যবহারকারীদের তহবিল চুরি করতে পারে। নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা এধরনের ২৬টি নিম্নমানের, অখ্যাত ক্রিপ্টোকারেন্সি খুঁজে পেয়েছেন। 
৩. ওয়াইফাই ফার্মওয়্যার নিরাপত্তা ত্রুটির ফলে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ, স্মার্টফোন, রাউটার, গেমিং ডিভাইস সাইবার আক্রমণের শিকার হয়। ডিভাইসের তালিকায় পিএস-ফোর, এক্সবক্স ওয়ান, স্যামসাং ক্রোমবুকস ও মাইক্রোসফ্ট সারফেস ডিভাইস অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
৪. এ বছর দু’বার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোতে প্রি-ইন্সটল ম্যালওয়্যার পাওয়া যায়। প্রথমত, জানুয়ারিতে গবেষকরা একটি অ্যালকাটেল অ্যাপের মধ্যে ম্যালওয়্যার খুঁজে পায় যখন অ্যালকাটেল স্মার্টফোনে আগে ইন্সটল করা ছিল। দ্বিতীয়ত, জুনে যখন জার্মানির সাইবার-সুরক্ষা সংস্থাগুলো চারটি চীনা স্মার্টফোন মডেলের ওপর অনুসন্ধান করেছিল।
৫. হ্যাকাররা ই-মেইল সরবরাহকারী ভিএফ ই-মেলের মার্কিন সার্ভারগুলো মুছে দেয়।
৬. আসুসের সাপ্লাই-চেইনে হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটে। হ্যাকাররা ব্যবহারকারীদের সিস্টেমে ম্যালওয়্যার স্থাপন করতে আসুস লাইভ আপডেট ইউটিলিটি হ্যাক করে। এই ঘটনায় এক মিলিয়নেরও বেশি পিসি আক্রমণের শিকার হয়।
৭. ফেসবুক কয়েক মিলিয়ন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর প্লেইন টেক্সট পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করার কথা স্বীকার করে। এছাড়া কোম্পানিটি ফেসবুক অ্যাকাউন্টের প্লেইন টেক্সট পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করার কথাও স্বীকার করে।
৮. ভারতের একটি সংস্থা কয়েক মিলিয়ন গর্ভবতী নারীর স্পর্শকাতর তথ্য বিবরণ ভূলবশত অনলাইনে প্রকাশ করে ফেলে। এই ঘটনায় ১২ দশমিক ৫ মিলিয়নেরও বেশি মেডিকেল রেকর্ড উন্মুক্ত হয়ে যায়। তিন সপ্তাহেরও বেশি সময় পরে সার্ভার থেকে রেকর্ড সরানো হয়।
৯. মে মাসের মাঝামাঝি সময়ে মাইক্রোসফ্ট একটি নিরাপত্তা ত্রুটি সম্পর্কে সতর্ক করেছিল যা পরে ব্লুকিপ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। পরে আগস্টে দুটি নতুন ব্লুকিপের মতো নিরাপত্তা ত্রুটি প্রকাশ পায়।
১০. প্রধান ব্রাউজারগুলো নিরাপদ ব্রাউজিং নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়। মোবাইল ক্রোম, সাফারি ও ফায়ারফক্স এক বছরেরও বেশি সময় ধরে ফিশিংয়ের সতর্কতা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছিল।
১১. হ্যাকাররা বিশ্বের বৃহৎ ১০টি টেলিকম কোম্পানিতে সাইবার আক্রমণ চালায়। সাইবারিসনের গবেষকরা জানায় একটি রাষ্ট্র-সমর্থিত গোয়েন্দা অভিযানে কমপক্ষে ১০টি বৈশ্বিক টেলকো সংস্থা এ আক্রমণের শিকার হয়।
১২. অ্যাপলের এডাব্লুডিএল প্রোটোকলে নিরাপত্তা ত্রুটি দেখা দেয়। মে মাসে অ্যাপলের কিছু অংশের সমাধান করলেও নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের মতে বাকি ত্রুটিগুলো সারাতে অ্যাপলের কয়েকটি পরিষেবা নতুন করে তৈরির প্রয়োজন হয়েছিল।
১৩. ব্লুটুথ আইওএস ও মাইক্রোসফ্ট মোবাইল ডিভাইস ব্যবহারকারীদের ট্র্যাক করতে এবং সনাক্ত করতে পারে বলে এক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। উইন্ডোজ ১০, আইওএস এবং ম্যাকওএস মেশিনগুলোর ব্লুটুথ ডিভাইস ব্যবহারকারীদের ওপর নজর রাখতে পারত।
১৪. ইনস্টাগ্রাম তাদের বিজ্ঞাপন অংশীদার হাইপ-৩আর -এর সঙ্গে চুক্তি থেকে সরে আসে। কারণ ওই বিজ্ঞাপন অংশীদার ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের তথ্য সংগ্রহ করত।
১৫. স্মার্ট টিভির গুপ্তচরবৃত্তির খবর প্রথমবারের মত নজরে আসে এ বছর। দুটি একাডেমিক গবেষণাপত্রে দেখা গেছে যে স্মার্ট টিভি ব্যবহারকারীদের টিভি দেখার অভ্যাসের তথ্য সংগ্রহ করছে।
১৬. ইউটিউব ক্রিয়েটরদের বিপুল পরিমাণ অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়। অটো এবং গাড়ি কমিউনিটির ইউটিউব ক্রিয়েটরদের অ্যাকাউন্টগুলোই মূলত এই আক্রমণে শিকার হয়েছিল। ফলে হ্যাকারা এই ক্রিয়েটরদের গুগল এবং ইউটিউব অ্যাকাউন্ট দখল করে নেয়।
১৭. অ্যান্টিভাইরাস সফ্টওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাভাস্ট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়। কোম্পানিটির হালনাগাদ সি-ক্লিনার অবমুক্তির ঠিক আগেই এই আক্রমণের শিকার হয়।

 

/এইচএএইচ/

লাইভ

টপ