বাসায় বসে অফিস: যে সব প্রযুক্তিগত ভুল করবেন না

Send
আসির আহবাব নির্ঝর
প্রকাশিত : ০৬:৪৮, মার্চ ২৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৭:০২, মার্চ ২৯, ২০২০

বাসায় বসে অফিস (ছবি সংগৃহীত)বিশ্বজুড়ে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯)। ভাইরাসটির বিস্তার ঠেকাতে দেশের পর দেশ লকডাউনে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে বাসা থেকে কাজ করছেন অনেকেই। প্রতিদিনই এ তালিকায় যুক্ত হচ্ছে হাজার হাজার মানুষ।

বাসা থেকে কাজ করা হলেও সেগুলোর গুরুত্ব মোটেও কম নয়। প্রতিনিয়ত অফিসের গোপন তথ্য নিয়ে কাজ করছেন আপনি। এ ধরনের কোনও তথ্য বাইরে বের হয়ে এলে সেটি আপনার জন্য যেমন মারাত্মক হতে পারে, তেমনি আপনার প্রতিষ্ঠানও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এ কারণে বাসায় থেকে কাজ করার সময় বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। সঙ্গে বেশকিছু প্রযুক্তিগত ভুল এড়িয়ে চলতে হবে।

১. অফিসের তথ্য কখনোই ব্যক্তিগত গুগল ড্রাইভ বা মেইলে সেভ করে রাখবেন না। এতে দুর্ঘটনাবশত যে কোনও সময় সবার সামনে উন্মুক্ত হয়ে যেতে পারে। এতে আপনি নিশ্চিতভাবেই ভয়াবহ সমস্যায় পড়বেন। এমনকি এ কারণে চাকরিও হারাতে হতে পারে।

২. অন্য যেকোনও সময়ের চেয়ে বর্তমানে বাসায় থেকে কাজ করা মানুষের সংখ্যা বেশি। ফলে হ্যাকাররা এখন হোম নেটওয়ার্ককে টার্গেট করবে। এ কারণে বাসায় থেকে গুরুত্বপূর্ণ কোনও কাজ করলে আপনি ভিপিএন ব্যবহার করুন। এটি আপনার কাছে ঝামেলার মনে হলেও অফিসের সুরক্ষার জন্য করতেই হবে।

৩. বাসা থেকে কাজ করার সময় হুট করে কোথাও যেতে হতে পারে। কিংবা আপনি ওয়াশরুমেও যেতে পারেন। এ অবস্থায় অবশ্যই আপনার কম্পিউটার লক করে যাবেন। নইলে হয়তো আপনার শিশু সন্তানরা এসে কম্পিউটার থেকে আপনার বসের কাছে অপ্রয়োজনীয় মেইল পাঠিয়ে দিতে পারে। এমনকি অফিসের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বাইরে কারও কাছে পাঠিয়ে দিতে পারে।

৪. বাসায় থেকে কাজ করার সময় অনেকে ছবি তোলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেন। এ বিষয়টি নিয়েও সতর্ক থাকতে হবে। আপনি যখন ছবি তুলছেন তখন কম্পিউটারের স্ক্রিনে অফিসের কোনও গোপন তথ্য থাকতে পারে। আর সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করলে গোপন তথ্য সবার সামনে উন্মুক্ত হয়ে যাবে। কাজেই এটি নিয়ে সাবধান হোন।

সূত্র : গেজেটস নাউ

/টিটি/

লাইভ

টপ