সেকশনস

ঘরে থাকার দিনগুলোতে বিশেষ শিশুর জন্য করণীয়

আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২০, ২১:২৮
image

বর্তমানে বিশ্বজুড়ে মহামারী রূপ ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। এর প্রাদুর্ভাবে সারা বিশ্ব প্রায় অচল। অধিকাংশ দেশে ঘোষণা করা হয়েছে লকডাউন। আমাদের দেশেও চলছে সাধারণ ছুটি, অর্থাৎ ঘরে থাকতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। যাদের ঘরে বিশেষ শিশু আছে, তাদের অভিভাবকদের আরও সচেতন হয়ে কর্মপরিকল্পনা করা উচিৎ বলে আমি মনে করি। কারণ এ ধরনের অনেক শিশু তাদের কষ্টের কথা প্রকাশ করতে পারে না। জেনে নিন প্রয়োজনীয় কিছু বিষয়।

পুষ্টিকর খাবার ও পানি নিয়ম মতো খাওয়ান
শিশুকে নিয়মিত পানি ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়ানো জরুরি। ভিটামিন সি জাতীয় খাবার যেন বেশি থাকে সে দিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।

নিয়মিত এক্সারসাইজ প্রতিদিন ঘরের ভেতর ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘন্টা এক্সারসাইজ করা খুবই প্রয়োজন বিশেষ শিশুদের জন্য। এর ফলে শিশুটি যেমন ফিজিক্যালি ফিট থাকবে, তেমনি সে  নিজেকে ব্যস্ত রেখে আনন্দ পাবে। ঘরে থেকে যেধরনের এক্সারসাইজ করাতে পারেন- শিশুর হাত ধরে ৫-১০বার ঘরের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে হাটাহাটি করা, ৫-১০বার সিটডাউন- স্টান্ডআপ বা উঠা-বসা করানো, টুল বা কোন উঁচু স্থানে ১০-২০বার আপ-ডাউন করানো। এক্ষেত্রে সিঁড়িতে ওঠা নামার মতো কাজ হবে। কোনও ভারি বস্তু যেমন পানির বোতল ২ লিটার বা তার বেশি (সামর্থ্য অনুযায়ী) হাতে দিয়ে উপরে ওঠানামা করানো। এতে শিশুর হাতের জয়েন্ট রেঞ্জ অব মোশন ঠিক থাকবে। বাসায় সাইকেল থাকলে ১০ মিনিট সাইকেল চালাবে (একা একা বা সাহায্য লাগলে সাহায্য নিয়ে)। স্পোর্টস ড্যান্স করবে যেকোনও মিউজিকের সাথে। স্পোর্টস অ্যাকটিভিটি যেমন বল থ্রো, বল কিক করা। জিম বল থাকলে ৫-১০ মিনিট এক্সারসাইজ করানো। এতে শরীরের ভারসাম্য বজায় থাকবে। অবশ্যই শিশুকে আনন্দের সাথে এক্সারসাইজ করাতে হবে। কোনও রকম জোর করে করানো যাবে না। তাতে শিশুর হাইপার অ্যাকটিভ বিহ্যাভিয়ার বা অস্থিরতা বা বেড়ে যেতে পারে।


ছবি এঁকে বোঝান
বিশেষ শিশুদের মধ্যে যারা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী তাদের কিছু অস্বাভাবিক আচরণ আমরা লক্ষ করে থাকি। তারা অনেকেই (এসপারজাস গ্রপ ছাড়া) বুঝতে পারে না কোন কাজটি করা যাবে আর কোনটি করা যাবে না। তাদের জন্য অভিভাবকরা সচেতনামূলক কর্মকাণ্ডগুলোর ছবি এঁকে বোঝাতে পারেন। হাত ধোয়ার সঠিক পদ্ধতি, কাউকে জড়িয়ে না ধরা, বাইরে না যাওয়া ইত্যাদির ছবি এঁকে সঠিক ছবিটিকে টিক চিহ্ন এবং যেটি করা যাবে না সেই ছবিটিকে ক্রস চিহ্ন দিয়ে শিশুকে বোঝান। এতে শিশু আগ্রহও পাবে এবং সাথে ভিজুয়াল শিক্ষার মাধ্যমে সে মনে রাখতেও সক্ষম হবে। সবগুলো না পারলেও যতটুকু করা সম্ভব সেগুলো নিয়মিত করলে আশা করি আমাদের এই বিশেষ শিশুরা তাদের ফিজিক্যাল ফিটনেস বাড়িয়ে দৈনন্দিন কাজের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারবে এবং সাথে তাদের ইমিউনিটি পাওয়ার অর্থাৎ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়াতে সক্ষম হবে। ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন,করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সবাই এগিয়ে আসুন।

লেখক: থেরাপিস্ট ও ইনচার্জ, বিউটিফুল মাইন্ড

/এনএ/

সম্পর্কিত

যেভাবে বসনে উঠে এলো বর্ণমালা

যেভাবে বসনে উঠে এলো বর্ণমালা

ফুলেল বসন্তে ভালোবাসার বার্তা

ফুলেল বসন্তে ভালোবাসার বার্তা

ভ্রমণপ্রিয় সঙ্গীর জন্য ভালোবাসা দিবসের উপহার

ভ্রমণপ্রিয় সঙ্গীর জন্য ভালোবাসা দিবসের উপহার

৫০০ কাউন্ট মানে কী?

১৭০ বছর পর ঢাকাই মসলিন৫০০ কাউন্ট মানে কী?

আমি সময়কে ধরার চেষ্টা করেছি: সাজিয়া লুবনা আফরিন

আমি সময়কে ধরার চেষ্টা করেছি: সাজিয়া লুবনা আফরিন

কোন দেশ কোন খাবার দিয়ে শুরু করে নতুন বছর

কোন দেশ কোন খাবার দিয়ে শুরু করে নতুন বছর

দেশীয় পিঠায় হয় বড়দিনের আয়োজন

দেশীয় পিঠায় হয় বড়দিনের আয়োজন

বড়দিনের আয়োজনে ভাটা তারকা হোটেলে

বড়দিনের আয়োজনে ভাটা তারকা হোটেলে

বিক্রি বাড়লেও করোনায় চাঙা হয়নি পূজার বাজার

বিক্রি বাড়লেও করোনায় চাঙা হয়নি পূজার বাজার

‘ভালোবাসি বাবা’

‘ভালোবাসি বাবা’

ঘরেই হোক ঈদ আনন্দ

ঘরেই হোক ঈদ আনন্দ

মা দিবসের শুরুর কথা

মা দিবসের শুরুর কথা

সর্বশেষ

নারীর মৃত্যুতে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ বাতিল করলো অস্ট্রিয়া

নারীর মৃত্যুতে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের একটি ব্যাচ বাতিল করলো অস্ট্রিয়া

‘৭ মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে মানুষ স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল’

‘৭ মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে মানুষ স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল’

ব্যাংক খাতে ৯ বছরে অনিয়ম বেড়েছে ১৬ গুণের বেশি

ব্যাংক খাতে ৯ বছরে অনিয়ম বেড়েছে ১৬ গুণের বেশি

৭ মার্চের ভাষণ সারা বিশ্বে স্বাধীনতার প্রামাণ্য দলিল: তাপস

৭ মার্চের ভাষণ সারা বিশ্বে স্বাধীনতার প্রামাণ্য দলিল: তাপস

শেষ মুহূর্তে বেনজেমার গোলে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

শেষ মুহূর্তে বেনজেমার গোলে হার এড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ

সমাবেশের বক্তব্যের জন্য বিএনপি নেতা মিনুর দুঃখ প্রকাশ

সমাবেশের বক্তব্যের জন্য বিএনপি নেতা মিনুর দুঃখ প্রকাশ

উইঘুর গণহত্যার অভিযোগ  অযৌক্তিক ও মিথ্যা: চীন

উইঘুর গণহত্যার অভিযোগ  অযৌক্তিক ও মিথ্যা: চীন

বাংলাদেশের হার ছাপিয়ে আলোচনায় পিটারসন

বাংলাদেশের হার ছাপিয়ে আলোচনায় পিটারসন

কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

‘ভারতের সঙ্গে খুলছে বাণিজ্যের নতুন দুয়ার’

‘ভারতের সঙ্গে খুলছে বাণিজ্যের নতুন দুয়ার’

ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

৮ ইস্যুতে বাংলাদেশ-ভারত সচিব পর্যায়ের বৈঠক সোমবার

৮ ইস্যুতে বাংলাদেশ-ভারত সচিব পর্যায়ের বৈঠক সোমবার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

যেভাবে বসনে উঠে এলো বর্ণমালা

যেভাবে বসনে উঠে এলো বর্ণমালা

ফুলেল বসন্তে ভালোবাসার বার্তা

ফুলেল বসন্তে ভালোবাসার বার্তা

ভ্রমণপ্রিয় সঙ্গীর জন্য ভালোবাসা দিবসের উপহার

ভ্রমণপ্রিয় সঙ্গীর জন্য ভালোবাসা দিবসের উপহার

৫০০ কাউন্ট মানে কী?

১৭০ বছর পর ঢাকাই মসলিন৫০০ কাউন্ট মানে কী?

আমি সময়কে ধরার চেষ্টা করেছি: সাজিয়া লুবনা আফরিন

আমি সময়কে ধরার চেষ্টা করেছি: সাজিয়া লুবনা আফরিন

কোন দেশ কোন খাবার দিয়ে শুরু করে নতুন বছর

কোন দেশ কোন খাবার দিয়ে শুরু করে নতুন বছর

দেশীয় পিঠায় হয় বড়দিনের আয়োজন

দেশীয় পিঠায় হয় বড়দিনের আয়োজন

বড়দিনের আয়োজনে ভাটা তারকা হোটেলে

বড়দিনের আয়োজনে ভাটা তারকা হোটেলে

বিক্রি বাড়লেও করোনায় চাঙা হয়নি পূজার বাজার

বিক্রি বাড়লেও করোনায় চাঙা হয়নি পূজার বাজার

‘ভালোবাসি বাবা’

‘ভালোবাসি বাবা’


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.