X
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশের এএসআই আটক

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪৪

ধর্ষণ


রংপুর ডিবি পুলিশের এক এএসআইয়ের বিরুদ্ধে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে পুলিশের এএসআই রায়হান ওরফে রাজু এবং আলেয়া নামের এক নারীকে। 

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) আবু মারুফ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। 
পুলিশ জানায়, রংপুর মহানগরীর হারাগাছ থানার ময়নাকুঠি কচুটারি এলাকার নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এএসআই রায়হানুল ইসলাম। পরিচয়ের সময় রায়হান তার ডাক নাম রাজু বলে জানায় ওই ছাত্রীকে। সম্পর্কের সূত্র ধরে রবিবার (২৫ অক্টোবর) সকালে ওই ছাত্রীকে রায়হান ডেকে নেয় ক্যাদারের পুল এলাকার শহিদুল্লাহ মিয়ার ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমের বাড়িতে। সেখানে রায়হান মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। এরপর তার পরিচিত আরও কয়েকজন যুবকও তাকে ধর্ষণ করে। পরে মেয়েটি নিজেই পুলিশকে বিষয়টি জানায়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় এবং পরিবারকে খবর দেয়। রাতেই মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে পুলিশ সদস্য রাজুসহ ২ জনের নাম উল্লেখ করে ধর্ষণ মামলা করেন। রাত সাড়ে ১২টায় পুলিশ মেয়েটিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করে। 
মেয়েটির মা বলেন, ‘ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানের সঙ্গে আমার মেয়ে কথা বলতো এবং মাঝে মধ্যে দেখা সাক্ষাৎ করতো।’

মেয়েটির চাচা বলেন, ‘মামলার আসামি ধরতে গিয়ে আমার ভাতিজির সঙ্গে পরিচয় এএসআই রায়হানুলের। তারপর থেকেই তাদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। আমার ভাতিজি তার সঙ্গে কথাবার্তা বলতো।’

এ ঘটনার খবর পেয়ে রাতে হারাগাছ থানায় আসেন মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটিকে দু’জন ধর্ষণ করেছে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে রাজু নামের একজন পুলিশ সদস্যের কথা জানিয়েছে মেয়েটি। তবে ওই রাজু ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল কিনা তা নিশ্চিত হতে তাকে পুলিশের জিম্মায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মামলার তদন্ত কার্যক্রম এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।

/এসটি/এমএমজে/

সম্পর্কিত

সাংবাদিক নির্যাতনকারী ফৌজদারি মামলার আসামি ফের স্বপদে বহাল!

সাংবাদিক নির্যাতনকারী ফৌজদারি মামলার আসামি ফের স্বপদে বহাল!

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরি: ৭ কারখানাকে জরিমানা 

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরি: ৭ কারখানাকে জরিমানা 

চাকিরপশার খাল দখলমুক্ত ও পুনর্খনন কাজ শুরু

চাকিরপশার খাল দখলমুক্ত ও পুনর্খনন কাজ শুরু

ভারতীয় আমে বাজার সয়লাব, নাগালের বাইরে দাম

ভারতীয় আমে বাজার সয়লাব, নাগালের বাইরে দাম

প্রধানমন্ত্রীর নাতি পরিচয়ে প্রতারণা, আ.লীগ নেতার ভাই গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর নাতি পরিচয়ে প্রতারণা, আ.লীগ নেতার ভাই গ্রেফতার

করোনায় মৃত্যুবরণ করা ২ নার্সের পরিবার পেলো আর্থিক অনুদান

করোনায় মৃত্যুবরণ করা ২ নার্সের পরিবার পেলো আর্থিক অনুদান

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, আটক ৫

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, আটক ৫

আমদানি বন্ধের ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

আমদানি বন্ধের ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

মামলা থেকে বাঁচতে ‘অলৌকিক' আগুন!

মামলা থেকে বাঁচতে ‘অলৌকিক' আগুন!

স্থলবন্দরের আমদানি রফতানি কার্যক্রম কমলো আড়াই ঘণ্টা

স্থলবন্দরের আমদানি রফতানি কার্যক্রম কমলো আড়াই ঘণ্টা

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ জনকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ জনকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

করোনায় দিনাজপুরে আরও ৪ জনের মৃত্যু

করোনায় দিনাজপুরে আরও ৪ জনের মৃত্যু

সর্বশেষ

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

বাংলাদেশ থেকে কৃষি শ্রমিক নিতে চায় গ্রিস

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে ফাইনালে চেলসি

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

যে চরিত্র বদলে যায়, সেটাই চাই: কঙ্কনা সেন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

ছেলেদের জন্য বিশ্বরঙের ঈদ আয়োজন

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

নাতনির সামনে চাকায় পিষ্ট দাদি

নাতনির সামনে চাকায় পিষ্ট দাদি

শহর ভীষণ অকৃতজ্ঞ

শহর ভীষণ অকৃতজ্ঞ

লাল কার্ডের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধাকে হারালো শেখ জামাল

লাল কার্ডের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধাকে হারালো শেখ জামাল

সকাল থেকে শহরের ভেতরে গণপরিবহন চলবে

সকাল থেকে শহরের ভেতরে গণপরিবহন চলবে

খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদা জিয়ার আবেদন ইতিবাচকভাবে দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পণ্য চালান দ্রুত খালাসে বন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

পণ্য চালান দ্রুত খালাসে বন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

প্রাইম ব্যাংকে যোগ দিয়েছেন জিয়াউর রহমান

প্রাইম ব্যাংকে যোগ দিয়েছেন জিয়াউর রহমান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সাংবাদিক নির্যাতনকারী ফৌজদারি মামলার আসামি ফের স্বপদে বহাল!

সাংবাদিক নির্যাতনকারী ফৌজদারি মামলার আসামি ফের স্বপদে বহাল!

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরি: ৭ কারখানাকে জরিমানা 

অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরি: ৭ কারখানাকে জরিমানা 

চাকিরপশার খাল দখলমুক্ত ও পুনর্খনন কাজ শুরু

চাকিরপশার খাল দখলমুক্ত ও পুনর্খনন কাজ শুরু

ভারতীয় আমে বাজার সয়লাব, নাগালের বাইরে দাম

ভারতীয় আমে বাজার সয়লাব, নাগালের বাইরে দাম

প্রধানমন্ত্রীর নাতি পরিচয়ে প্রতারণা, আ.লীগ নেতার ভাই গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর নাতি পরিচয়ে প্রতারণা, আ.লীগ নেতার ভাই গ্রেফতার

করোনায় মৃত্যুবরণ করা ২ নার্সের পরিবার পেলো আর্থিক অনুদান

করোনায় মৃত্যুবরণ করা ২ নার্সের পরিবার পেলো আর্থিক অনুদান

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, আটক ৫

শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ ৩ কিশোরকে গাছে বেঁধে নির্যাতন, আটক ৫

আমদানি বন্ধের ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

আমদানি বন্ধের ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম

মামলা থেকে বাঁচতে ‘অলৌকিক' আগুন!

মামলা থেকে বাঁচতে ‘অলৌকিক' আগুন!

স্থলবন্দরের আমদানি রফতানি কার্যক্রম কমলো আড়াই ঘণ্টা

স্থলবন্দরের আমদানি রফতানি কার্যক্রম কমলো আড়াই ঘণ্টা

© 2021 Bangla Tribune