X
শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
Bangla Tribune Eid

সেকশনস

‘ব্লক করা হতো বিমানের টিকিট’

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২০, ২৩:৩৫




বিমানের টিকিট নিয়ে অসৎ কর্মীরা দুর্নীতি করতো বলে সংসদকে জানিয়েছেন বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী। তিনি বলেন, ‘বিমানের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না, অথচ বিমান ফাঁকা যাচ্ছে, এমন অভিযোগের ভিত্তিতে এবং প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা বিষয়টি তদন্ত করেছি। মনিটরিং করেছি। এটি অসত্য ছিল না, কোনও কোনও অসৎ কর্মী টিকিট ব্লক করে রাখতো।’

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে একটি বিলের ওপর বক্তব্যকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘এটি আমরা স্টাডি করেছি, তার পরে আমরা সার্ভিস সেন্টারগুলো তদন্ত করে দেখেছি। কিছু কিছু সেন্টারে টিকিট ব্লক করা হতো। এর সঙ্গে যারা জড়িত তাদের আমরা শাস্তির ব্যবস্থা করেছি। সব টিকিট যাতে ওপেন থাকে তার ব্যবস্থা নিয়েছি। এর ফলে এ বছরের মার্চ মাস থেকে বিমানের কোনও টিকিট ব্লক করার উপায় নেই, এমনকি মন্ত্রী বা ভিআইপিদের জন্যও কোনও টিকিট ব্লক করার কোনও উপায় নেই। এর ফলে মার্চ মাস থেকে বিমানের সব সিটে যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে। বিমান ভর্তি হয়ে যাচ্ছে।’

বিমান পরিবহন বা মন্ট্রিল কনভেনশন বিল পাসের সময় বেশ কয়েকজন এমপির অভিযোগের জবাব দিতে গিয়ে তিনি এসব তথ্য জানান।

বিএনপির হারুন আর রশীদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে শাহজালাল বিমানবন্দরের অবস্থা আমূল পরিবর্তন হয়েছে। বিমানবন্দরে কোনও যাত্রী হয়রানি ঘটে না, আর ল্যাগেজ নিয়ে কোনও সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে না। বিশ্বের অন্য বিমানবন্দরে এক-দেড় ঘণ্টা পর লাগেজ পাওয়া গেলেও আমাদের বিমান বন্দরে ৩০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে লাগেজ হাতে পাওয়া যায়।

মাহবুব আলী বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের যাত্রীরা আগে নামেন বিমানবন্দরে, সেখান থেকে দেশের প্রতি তারা যেন একটা ভালো ধারণা-মনোভাব নিয়ে দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করেন সে জন্য বিমানবন্দরগুলোকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। আমরা তৃতীয় টার্মিনাল করছি। এর ফলে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার বিমানবন্দরের চিত্র একেবারে নান্দনিক হবে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, মন্ত্রী-এমপিদের জন্য টিকিট আপডেটের কোনও নিয়ম বিমানে নেই। যে যেখানে সিট পাবেন, সেখানে বসে তাকে যেতে হবে। নিজে প্রতিমন্ত্রী হয়েও তৃতীয় শ্রেণিতে বিমান ভ্রমণ করেছেন বলে জানান মাহবুব আলী।

/ইএইচএস/টিটি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

আজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটআজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

পাকিস্তানের অপচেষ্টা ব্যর্থ

পাকিস্তানের অপচেষ্টা ব্যর্থ

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

আসামের হিমন্তকে অভিনন্দনে শেখ হাসিনার কুশলী কূটনীতি

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

গাজায় ইসরায়েলি বর্বরতা (ফটো স্টোরি)

নিখোঁজ, কারাবন্দি ও করোনায় মৃত নেতাকর্মীদের বাসায় বিএনপি নেতারা

নিখোঁজ, কারাবন্দি ও করোনায় মৃত নেতাকর্মীদের বাসায় বিএনপি নেতারা

ইউনিফর্মেই তাদের ঈদ আনন্দ

ইউনিফর্মেই তাদের ঈদ আনন্দ

মহীসোপান নিয়ে মিয়ানমার ও ভারতের বিরোধিতার ভিত্তি নেই

মহীসোপান নিয়ে মিয়ানমার ও ভারতের বিরোধিতার ভিত্তি নেই

‘জন্মগত কালো’কে সাদা করে দেওয়ার রমরমা ব্যবসা!

‘জন্মগত কালো’কে সাদা করে দেওয়ার রমরমা ব্যবসা!

ঈদে স্বজনদের সঙ্গে বাড়তি কথা বলার সুযোগ পেলেন বন্দিরা

ঈদে স্বজনদের সঙ্গে বাড়তি কথা বলার সুযোগ পেলেন বন্দিরা

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

নেতা চলে যাওয়ার পর ফাঁকা

নেতা চলে যাওয়ার পর ফাঁকা

সর্বশেষ

ইসরায়েলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

ইসরায়েলের একক আধিপত্যের যুগ শেষ: হামাস

মুম্বাই থেকে ফিরে ‘বঙ্গবন্ধু’র অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন শুভ

ঈদ বিশেষমুম্বাই থেকে ফিরে ‘বঙ্গবন্ধু’র অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন শুভ

ক্ষতি নেই ফরমালিন বা কার্বাইড মেশানো আমে?

ক্ষতি নেই ফরমালিন বা কার্বাইড মেশানো আমে?

বেনাপোলে গাড়িচাপায় বন্দরের সিকিউরিটি গার্ড নিহত

বেনাপোলে গাড়িচাপায় বন্দরের সিকিউরিটি গার্ড নিহত

রাঙ্গাবালীতে মুদি দোকানিকে কুপিয়ে হত্যা

রাঙ্গাবালীতে মুদি দোকানিকে কুপিয়ে হত্যা

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

যে কারণে মুখ থুবড়ে পড়েছে ভারতের টিকাদান কর্মসূচি

গোসলে নেমে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

গোসলে নেমে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

আজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটআজও ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

এঁকেবেঁকে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ গেলো কলেজছাত্রের

এঁকেবেঁকে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সড়কে প্রাণ গেলো কলেজছাত্রের

স্বামী-স্ত্রীর দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭

ঈদে ছেলেকে নতুন জামা না দেওয়া নিয়ে দ্বন্দ্বস্বামী-স্ত্রীর দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৭

লকডাউনে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়া নিয়ে যত মত

লকডাউনে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়া নিয়ে যত মত

তালায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

তালায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পাকিস্তানের অপচেষ্টা ব্যর্থ

পাকিস্তানের অপচেষ্টা ব্যর্থ

মহীসোপান নিয়ে মিয়ানমার ও ভারতের বিরোধিতার ভিত্তি নেই

মহীসোপান নিয়ে মিয়ানমার ও ভারতের বিরোধিতার ভিত্তি নেই

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

২ মাস পর শনাক্ত হাজারের নিচে

‘করোনা বলে কোনও রোগ নেই’

‘করোনা বলে কোনও রোগ নেই’

সরকারের কাছে উপহারের ৩০ হাজার টিকা চেয়েছে চীনা দূতাবাস

সরকারের কাছে উপহারের ৩০ হাজার টিকা চেয়েছে চীনা দূতাবাস

ঈদ-পরবর্তী শহরমুখী জনস্রোত উদ্বেগের কারণ হতে পারে: কাদের

ঈদ-পরবর্তী শহরমুখী জনস্রোত উদ্বেগের কারণ হতে পারে: কাদের

যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের মিষ্টান্ন পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের মিষ্টান্ন পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী

আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানুন: রাষ্ট্রপতি

আতঙ্কিত না হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মানুন: রাষ্ট্রপতি

দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের প্রচারে বিদেশ যাওয়ায় ভাটা

দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের প্রচারে বিদেশ যাওয়ায় ভাটা

ঘরে বসে ঈদের আনন্দ উপভোগ করুন: প্রধানমন্ত্রী

ঘরে বসে ঈদের আনন্দ উপভোগ করুন: প্রধানমন্ত্রী

© 2021 Bangla Tribune