সেকশনস

পিকে হালদারসহ ৩৩ সহযোগীর বিরুদ্ধে দুদকের ৫ মামলা

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২১, ২২:২৫

প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ মাথায় নিয়ে কানাডায় পালিয়ে থাকা প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পিকে হালদারসহ তার ৩৩ সহযোগীর বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা দায়ের করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক।  এর মধ্যে একটি মামলা  রবিবার (২৪ জানুয়ারি) ও বাকি চারটি মামলা সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দায়ের করা হয়।

দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান, সহকারী পরিচালক নারগিস সুলতানা ও উপ-সহকারী পরিচালক আফনান জান্নাত কেয়া বাদী হয়ে সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ মামলাগুলো দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে পাঁচটি নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৩৫০ কোটি ৯৯ লাখ টাকা ঋণের নামে আত্মসাত করার কথা বলা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো— আনাম কেমিক্যাল লিমিটেড, সুখাদা প্রোপার্টিজ লিমিটেড, মেসার্স বর্ণ এন্টারপ্রাইজ, রাহমান কেমিক্যালস লিমিটেড এবং মুন এন্টারপ্রাইজ। এর মধ্যে আনাম কেমিক্যাল লিমিটেডের নামে ৭০ কোটি ৮২ লাখ টাকা, সুখাদা প্রোপার্টিজ লিমিটেডের নামে ৬৯ কোটি ৮০ লাখ টাকা, মেসার্স বর্ণ এন্টারপ্রাইজের নামে ৬৬ কোটি ৯৮ লাখ টাকা, রাহমান কেমিক্যালস লিমিটেডের নামে ৫৪ কোটি ৫৫ লাখ টাকা এবং মুন এন্টারপ্রাইজের নামে ৮৩ কোটি ৮৪ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাৎ ও পাচার করার অভিযোগ রয়েছে।

দুদক সচিব মুহা. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার জানান, পিকে হালদারের নেতৃত্বে ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেডের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং বোর্ডের সদস্যরা অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভুয়া ও কাগুজে পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের নামে ৩৫০ কোটি ৯৯ লাখ টাকা ঋণ দিয়ে আত্মসাৎ ও মানিলন্ডারিং করেছেন।

দুদক সচিব বলেন, ‘এসব মামলায় পিকে হালদার ছাড়াও ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের সাবেক টেয়ারম্যান এম এ হাশেম, সাবেক এমডি মো. রাশেদুল হক,৯ জন বোর্ড সদস্য, পিপলস লিজিংয়ের চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দী, পিকে হালদারের আত্মীয় স্বজন ও সহযোগীসহ ৩৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।’

মামলার আসামিরা হলেন— পিকে হালদার, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ হাশেম, সাবেক এমডি রাশেদুল হক, পরিচালক আনোয়ারুল কবীর, মো. নুরুল আলম, নাসিম আনোয়ার, মো. নুরুজ্জামান, জহিরুল আলম, নওশেরুল ইসলাম, বাসুদেব ব্যানার্জি, পাপিয়া ব্যানার্জি, মিজানুর রহমান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত এমডি সৈয়দ আবেদ হাসান, ভাইস প্রেসিডেন্ট নাহিদা রুনাই, অ্যাসিটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট আল মামুন সোহাগ, সিনিয়র ম্যানেজার রাফসান রিয়াদ চৌধুরী, কোম্পানি সেক্রেটারি রফিকুল ইসলাম খান, পিপলস লিজিংয়ের চেয়ারম্যান উজ্জ্বল কুমার নন্দী, আনান কেমিক্যাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অমিতাভ অধিকারী, পরিচালক প্রিতিশ কুমার হালদার, পূর্ণিমা রানী হালদার, রাজীব সোম, রতন কুমার বিশ্বাস, পরিচালক ওমর শরীফ, রাহমান কেমিক্যাল লিমিটেডের পরিচালক স্বপন কমার মিস্ত্রি, কাজী মমরেজ মাহমুদ, ব্রাক্ষণবাড়িয়ার কসবার বাসিন্দা মর্জিনা বেগম, মেসার্স বর্ণ  লিমিটেডের মালিক অনঙ্গ মোহন রায় ও মুন এন্টারপ্রাইজের মালিক শঙ্খ বেপারী, অবন্তিকা বড়াল, সুকুমার মৃধা ও অনিন্দিতা মৃধা।

আসামিদের মধ্যে উজ্জ্বল কুমার নন্দী ও রাশেদুল হককে রবিবার গ্রেফতারের পর পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে দুদক। এর আগে শঙ্খ ব্যাপারী, অবন্তিকা বড়াল, সুকুমার মৃধা ও অনিন্দিতা মৃধাকে চলতি মাসেই গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

দুদক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত তারা পিকে হালদারের ৬২ জন সহযোগীকে চিহ্নিত করেছেন। পিকে হালদার ও তার সহযোগীদের মোট এক হাজার ৫৭ কোটি ৮০ লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের জানুয়ারিতে পিকে হালদারের বিরুদ্ধে ২৭৫ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও পাচারের অভিযোগে একটি মামলা করে দুদক। সেই মামলার তদন্তে এখনও পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের তথ্য পেয়েছে মামলার তদন্ত সংস্থা। তবে মামলা দায়েরের আগেই পিকে হালদার পালিয়ে কানাডা চলে যান। পাচারের টাকায় কানাডায় তিনি ব্যবসা করছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে ধরিয়ে দিতে ইন্টারপোল রেড নোটিশ জারি করেছে।

দুদক সূত্র জানায়, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছিলেন পিকে হালদার। একই সময়ে তিনি চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (আইএলএফএসএল), পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস, এফএএস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড এবং বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানি (বিআইএফসি) নিজের নিয়ন্ত্রণে ধরে রাখেন। এসব প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা তুলে তা আত্মসাৎ ও বিদেশে পাচার করেন। এর  মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের এক গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে দুদক তার বিরুদ্ধে অনুসন্ধান ও পরে মামলা দায়ের করে।

/এনএল/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

ভেঙে পড়া গাছচাপায় নিহত ২

ভেঙে পড়া গাছচাপায় নিহত ২

রামেক হাসপাতালে যৌন হয়রানিতে অভিযুক্ত চিকিৎসককে অব্যাহতি

রামেক হাসপাতালে যৌন হয়রানিতে অভিযুক্ত চিকিৎসককে অব্যাহতি

কাশিমপুর কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু

কাশিমপুর কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু

গ্রামীণফোনের সিকিউরড ইন্টারনেট সেবা নিবে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

গ্রামীণফোনের সিকিউরড ইন্টারনেট সেবা নিবে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক

সর্বশেষ

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ৭ জন নিহত

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

সৈয়দপুরের সব কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

ভারত বায়োটেকের ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনবে ব্রাজিল

ভারত বায়োটেকের ২ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনবে ব্রাজিল

যুক্তরাষ্ট্রে যথাযথ কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

যুক্তরাষ্ট্রে যথাযথ কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের বৈধ করার আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

সিরিয়ায় ইরানপন্থী মিলিশিয়াদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের হামলা

সিরিয়ায় ইরানপন্থী মিলিশিয়াদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের হামলা

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেলো চার জনের

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

করোনার প্রভাব সুদূরপ্রসারী, পুরোপুরি সারে না ক্ষতিগ্রস্ত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ 

খাশোগি হত্যার প্রতিবেদন প্রকাশের আগে বাইডেন-সৌদি বাদশাহ ফোনালাপ

খাশোগি হত্যার প্রতিবেদন প্রকাশের আগে বাইডেন-সৌদি বাদশাহ ফোনালাপ

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

চিনিকলের ডিজেল বিক্রি করা হচ্ছিলো দোকানে, আটক ৩

ফাইজারের টিকা ৯৪ শতাংশ কার্যকর: আন্তর্জাতিক জরিপ

ফাইজারের টিকা ৯৪ শতাংশ কার্যকর: আন্তর্জাতিক জরিপ

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

চানাচুর বিক্রির ছুরি দিয়ে বোনজামাইকে খুন!

আটক বাঙালিদের ভাগ্যে কী ঘটেছে জানতে চান বঙ্গবন্ধু

আটক বাঙালিদের ভাগ্যে কী ঘটেছে জানতে চান বঙ্গবন্ধু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, মধ্যরাতে বিক্ষোভ

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

আপত্তির মুখে দেশে বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা খোলার অনুমোদন

কাশিমপুর কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু

কাশিমপুর কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু

পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের ৭০ একর জমি  ক্রোকের আদেশ

পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের ৭০ একর জমি  ক্রোকের আদেশ

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

শাহবাগে আটককৃত শিক্ষার্থীদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর

লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট ফর ডিজিটাল ব্যাংকিং পুরস্কার পাচ্ছেন ড. আতিউর


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.