সেকশনস

কীভাবে ফিরিয়ে আনা হবে পিকে হালদারকে?

আপডেট : ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ২৩:৩৫

প্রায় সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে রিলায়েন্স ফাইন্যান্স ও এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পি কে হালদার দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান। বিদেশে পলাতক প্রশান্ত কুমার হালদারকে (পি কে হালদার) ফেরত আনতে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করেছে পুলিশ।

এরইমধ্যে তাকে গ্রেফতার করে দেশে ফিরিয়ে আনতে পুলিশের আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারপোল (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল পুলিশ অর্গানাইজেশন) থেকে রেড নোটিশ জারি করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হলে কীভাবে ফিরিয়ে আনা হবে সেটি নিয়ে কাজ করছেন সংশ্লিষ্টরা।

দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়া পি কে হালদারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়া জারি করতে গত ৪ জানুয়ারি পুলিশ সদর দফতরের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো (এনসিবি) থেকে ইন্টারপোলকে চিঠি দেওয়া হয়। পরদিন ৫ জানুয়ারি বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন এনসিবি’র এআইজি মহিউল ইসলাম। চিঠিতে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারি করার সুপারিশ করা হয়। এরপর ৮ জানুয়ারি  পি কে হালদারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের রেড নোটিশ জারির বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সদর দফতরের জনসংযোগ বিভাগের এআইজি সোহেল রানা।

তিনি জানান, বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে ইন্টারপোলের কাছে যে আবেদন করা হয়েছিল সেই আবেদনে পি কে হালদারের সম্ভাব্য অবস্থান তুলে ধরা হয়। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলাসহ আরও যেসব অভিযোগ রয়েছে, সেগুলো সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা হয় ইন্টারপোলের কাছে। এরপরই ইন্টারপোল পি কে হালদারের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারি করে।

রেড নোটিশ জারির পর কীভাবে পি কে হালদারকে ফিরিয়ে আনা সম্ভব জানতে চাইলে পুলিশ সদর দফতরের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) এআইজি মহিউল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আন্তর্জাতিক অপরাধ পুলিশ সংস্থায় (ইন্টারপোল) রেড নোটিশ জারির জন্য প্রথমে আবেদন করতে হয়। তারপর এটা জারি হলে আসামিকে ধরার জন্য চেষ্টা চলতে থাকে। আর আমরা যেটা করি, মাঝে মাঝেই ইন্টারপোলের কাছে আসামিদের আপডেট চেয়ে মেইল করি।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ইন্টারপোলের সহযোগিতায় যখন কোনও আসামি গ্রেফতার হয়, তখন তারা সংশ্লিষ্ট দেশকে বিষয়টি অবগত করে জানায় যে অমুক দেশ বা স্থান থেকে গ্রেফতার হয়েছে। পরে ওই দেশের পুলিশের মাধ্যমে আসামিকে আদালতে উপস্থাপনের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর শুরু হয় দেশে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া। ৪০ কার্যদিবসের মধ্যে এই প্রক্রিয়া শেষ করার একটা বাধ্যবাধকতা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানিয়েছে, প্রত্যর্পণ বা বন্দি বিনিময় চুক্তি না থাকলে ইন্টারপোল সংক্রান্ত বিষয়ে দুদেশের পুলিশের যোগাযোগের মাধ্যমে আসামি হস্তান্তর হয়ে থাকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন রাষ্ট্রদূত বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ইন্টারপোলের মাধ্যমে কোনও আসামিকে বিদেশে চিহ্নিত করা হলে ওই দেশের পুলিশ বাংলাদেশ পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে থাকে। এখানে দূতাবাস ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুধু সহায়ক ভূমিকা পালন করে। তবে অনেক সময় বিদেশে আসামি চিহ্নিত করার পরও ওই দেশ তাকে ফেরত দিতে অপারগতা প্রকাশ করতে পারে। সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আসামিকে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া জটিল হয়ে যায়।

কোন কোন ক্ষেত্রে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় জানতে চাইলে এই রাষ্ট্রদূত বলেন, আসামিকে যে শাস্তি দেওয়া হয়েছে সেটি যদি অন্য দেশের আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হয় তবে আসামিকে ফেরত দিতে অস্বীকার করা হতে পারে। যেমন, যেসব দেশে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়া হয় না সেসব দেশ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে হস্তান্তর করতে চায় না।

প্রসঙ্গত, আর্থিক খাত থেকে আত্মীয়-স্বজনসহ চক্রের মাধ্যমে অন্তত ১০ হাজার কোটি টাকা সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে। তবে এখন পর্যন্ত তার ৪০০ কোটি টাকা বিদেশে পাচারের তথ্য পেয়েছে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো। দুদক ছাড়াও বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা বিভাগ ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ পি কে হালদার এবং তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করছে। এছাড়া দুদকের ক্যাসিনো মামলায় চার্জশিট তালিকায় লিজিং কোম্পানি ও আর্থিক খাত থেকে কয়েক হাজার কোটি টাকা পাচারেও তার নাম এসেছে।

 

/এমআর/এমওএফ/

সম্পর্কিত

কারাবন্দি মুশতাকের মৃত্যু: তদন্ত কমিটির সময় বাড়লো

কারাবন্দি মুশতাকের মৃত্যু: তদন্ত কমিটির সময় বাড়লো

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

মুশতাকের মৃত্যুতে বিদেশিদের বক্তব্য শিষ্টাচার বহির্ভূত: তথ্যমন্ত্রী

মুশতাকের মৃত্যুতে বিদেশিদের বক্তব্য শিষ্টাচার বহির্ভূত: তথ্যমন্ত্রী

চকলেটের প্যাকেটে ইয়াবা পাচার, গ্রেফতার ১

চকলেটের প্যাকেটে ইয়াবা পাচার, গ্রেফতার ১

কাশিমপুরে অজ্ঞাত কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

কাশিমপুরে অজ্ঞাত কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক

বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় ভারতে আটকে আছে ৫৫০০ পণ্যবাহী ট্রাক

কিশোর গ্যাংবিরোধী অভিযানে আটক ৪৭

কিশোর গ্যাংবিরোধী অভিযানে আটক ৪৭

বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী চাচা-ভাতিজা নিহত

বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী চাচা-ভাতিজা নিহত

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

২৬ মার্চ থেকে ঢাকা-জলপাইগুড়ি চলবে ট্রেন

২৬ মার্চ থেকে ঢাকা-জলপাইগুড়ি চলবে ট্রেন

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

সর্বশেষ

ভাবির বিরুদ্ধে দেবরকে খুনের অভিযোগ

ভাবির বিরুদ্ধে দেবরকে খুনের অভিযোগ

করোনায় জুমের জয়-জয়কার

করোনায় জুমের জয়-জয়কার

‘‌একটি গন্ধমের লাগিয়া’-খ্যাত শিল্পী জানে আলম আর নেই

‘‌একটি গন্ধমের লাগিয়া’-খ্যাত শিল্পী জানে আলম আর নেই

ঢিলে নিরাপত্তায় ইবিতে বাড়ছে চুরি

ঢিলে নিরাপত্তায় ইবিতে বাড়ছে চুরি

মৌলবাদীদের সঙ্গে জোট নিয়ে কংগ্রেসে বিরোধ

মৌলবাদীদের সঙ্গে জোট নিয়ে কংগ্রেসে বিরোধ

যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা: স্বামী কারাগারে

যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা: স্বামী কারাগারে

যুক্তরাজ্যের টিকা সংক্রান্ত তথ্য অন্যদেরও কাজে লাগবে: অ্যাস্ট্রাজেনেকা

যুক্তরাজ্যের টিকা সংক্রান্ত তথ্য অন্যদেরও কাজে লাগবে: অ্যাস্ট্রাজেনেকা

কারাবন্দি মুশতাকের মৃত্যু: তদন্ত কমিটির সময় বাড়লো

কারাবন্দি মুশতাকের মৃত্যু: তদন্ত কমিটির সময় বাড়লো

টেলিটকসহ ৪ অপারেটরই তরঙ্গ নিলামে অংশ নিচ্ছে

টেলিটকসহ ৪ অপারেটরই তরঙ্গ নিলামে অংশ নিচ্ছে

রাতটা কাটলো শুধু পুলিশ হেফাজতে

রাতটা কাটলো শুধু পুলিশ হেফাজতে

‘এক মাস আগে মাটি কাটছি, আইজও টেকা দেয় না পিআইসি’

‘এক মাস আগে মাটি কাটছি, আইজও টেকা দেয় না পিআইসি’

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

ধানমন্ডিতে শিক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু: আসামিদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ এপ্রিল

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

দুদকের তদন্ত কর্মকর্তার অনৈতিক দাবির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আসামিরা

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

নথি নিখোঁজ: দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পেশকারসহ দুই জন রিমান্ডে

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

স্পিকারের সঙ্গে নরওয়ের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

বিদেশি হিন্দু ধর্মাবলম্বী স্ত্রীকে বাড়ি উইল: স্পেশাল ম্যারেজ রেজিস্ট্রারকে তলব

বিদেশি হিন্দু ধর্মাবলম্বী স্ত্রীকে বাড়ি উইল: স্পেশাল ম্যারেজ রেজিস্ট্রারকে তলব

বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি: শাখা ব্যবস্থাপককে জামিন দিলেন হাইকোর্ট

বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি: শাখা ব্যবস্থাপককে জামিন দিলেন হাইকোর্ট

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দুজন রিমান্ডে

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দুজন রিমান্ডে

মানিলন্ডারিং মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে চার্জশিট

মানিলন্ডারিং মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের বিরুদ্ধে চার্জশিট

দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার তথ্য আগেই পেয়েছিলেন পি কে হালদার

দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার তথ্য আগেই পেয়েছিলেন পি কে হালদার


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.