X
রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মাছ ধরতে গিয়ে বন্যভাল্লুকের হামলা

আপডেট : ১৪ মার্চ ২০২১, ১৮:৩০

রাতে মাছ ধরার জাল পেতেছিলেন ঝিরিতে। সকালে উঠে মাছ কেমন পড়েছে দেখতে গিয়ে বন্য ভাল্লুকের আক্রমণের শিকার হয়েছেন এক ম্রো বৃদ্ধ।

রবিবার (১৪ মার্চ) সকাল ৬টার সময় বান্দরবানের আলীকদমের বলাইপাড়া আর্মি ক্যাম্প হতে দেড় কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে   কুরুকপাতার সমথং পাড়া এলাকার একটি ঝিরিতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহত ব্যক্তির নাম নাম ক্রইল মুরং (৭৬) । তিনি আলীকদমের কুরুক পাতা ইউনিয়নের সমথং পাড়ার মৃত রেংহান ম্রোর ছেলে।

স্থানীয় ম্রো সম্পদায়ের মানুষ ও সেনাবাহিনী জানায়, রাতে সমথং পাড়ার পাশের একটি ঝিরিতে মাছ ধরার জন্য একটি জাল পেতে আসেন ক্রইল মুরং। 

রবিবার সকাল ৬টার সময় মাছ সংগ্রহ করতে ঝিরিতে গেলে সেখানে গিয়ে ভাল্লুকের মুখোমুখি হন তিনি। ভাল্লুকটি তাকে আক্রমণ করে। পরে স্থানীয় লোকজন সকাল ৮টার সময় বলাই পাড়া আর্মি ক্যাম্পে তাকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার সময় সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার যোগে বলাইপাড়া আর্মি ক্যাম্প হতে  উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তাকে পাঠানো হয়।

বান্দরবান ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেড কমান্ডার মো. জিয়াউল হক জানান, উন্নত চিকিৎসার জন্য সেনাবাহিনী নিজস্ব হেলিকপ্টারে করে আহত ব্যক্তিকে চট্টগ্রামে নিয়ে গেছে। পাহাড়ের মানুষের উন্নয়নের জন্য সেনাবাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আগামীতেও তাদের এ কার্যক্রম চলমান থাকবে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেও পার্বত্য চট্টগ্রামে ভাল্লুকের হামলার ঘটনা ঘটে। সেসময় আরও দুই ব্যক্তিকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। ভাল্লুকের হামলায় তাদের একজনের খুলি ভেঙে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধারের পর সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসায় তিনি এখন সুস্থ হওয়ার পথে।

/টিএন/

সম্পর্কিত

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৫

খুলনা বিভাগের ১০ ইউনিয়ন পরিষদে প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট অনুষ্ঠিত হবে সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর)। ইতোমধ্যে এসব ইউনিয়নের ভোটকেন্দ্রে মক ভোটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

খুলনার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী জানান, খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার সাতটি উপজেলায় ১০টি ইউপির ৯৫টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি আরও জানান, খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার গংগারামপুর ইউনিয়নের ১০টি ভোট কেন্দ্রের ৪৯ ভোটকক্ষে, দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৫৭ ভোটকক্ষে, বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার বেতাগা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, রামপাল উপজেলার বাইনতলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, মোংলা উপজেলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৩৭ ভোটকক্ষে, সোনাইল তলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ২৫ ভোটকক্ষে, সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৪৪ ভোটকক্ষে এবং তালা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের ৫১ ভোটকক্ষে, তালা ইউনিয়নের ১১টি কেন্দ্রের ৭৭ ভোটকক্ষে ও খলিলনগর ইউনিয়নের ১১টি কেন্দ্রের ৬৪ ভোটকক্ষে ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে।

খুলনার সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের একজন, ইসলামী আন্দোলনের একজন এবং তিন জন স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন। এ ছাড়া সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১৩ জন, সাধারণ ওয়ার্ডে ৪৫ জন প্রার্থী রয়েছেন। ইউনিয়নের ৯টি ভোট কেন্দ্রে ১৯ হাজার ৪৮৫ জন ভোটার রয়েছেন। এ ছাড়া বটিয়াঘাটা উপজেলার গংগারামপুর ইউনিয়ন পরিষদে ছয় জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ ও ইসলামী আন্দোলনের একজন করে এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১১ জন প্রার্থী ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ইউনিয়নের ১০টি ভোট কেন্দ্রে ১৬ হাজার ১৪৭ জন ভোটার রয়েছেন।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:১৪

বাগেরহাটের ৯ উপজেলার ৬৫ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আগামীকাল সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে সহিংসতার আশঙ্কায় এসব ইউনিয়নের ৫৯৯টি কেন্দ্রের সবকটিকেই ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ হিসেবে ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

জানা গেছে, নির্বাচনটি শান্তিপূর্ণ করতে নেওয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইতোমধ্যেই জেলার ৬৫ ইউনিয়নের ৩৮টিতে চেয়ারম্যান পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নৌকার প্রার্থীরা নির্বাচিত হয়েছেন। আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিপক্ষে দলটির বিদ্রোহীরা স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় সহিংসতার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকেই জেলার ৯ উপজেলার সদর থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে নির্বাচনি সরঞ্জাম। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে প্রতিটি কেন্দ্রে পুলিশ ও আনসারের ২২ সদস্যের পাশাপাশি তিন প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের তিনটি টহল টিম, চার জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ২৫ জন বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফারাজি বেনজির আহমেদ বলেন, ‘জেলায় প্রথম ধাপে ৭৫টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৭০টিতে তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। করোনার কারণে দুই দফা পেছানো (স্থগিত) হয়। এ অবস্থায় তিন ইউনিয়নের প্রার্থীর মৃত্যু, একটিতে মামলা ও একটি ইউনিয়নের সব পদের একক প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় ভোটের আগেই নির্বাচিত হওয়ায় এই পাঁচ ইউনিয়নে ভোট হচ্ছে না।’

তিনি বলেন, ‘৬৫ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ১০০, সদস্য পদে দুই হাজার ২৫৫ ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ৭৬৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। নির্বাচনে ৫৯৯টি কেন্দ্রে বুথ সংখ্যা দুই হাজার ৮১৯টি। জেলার সব কেন্দ্রকেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

দেড় বছর পর দর্শনা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের কার্যক্রম শুরু

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

অপকর্মে জড়িতদের আ.লীগে স্থান নেই: তথ্যমন্ত্রী 

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৪৩

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, মাদক, চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসীসহ নানা অপকর্মে জড়িতদের আওয়ামী লীগে স্থান নেই। ত্যাগী, পরিশ্রমী ও দুর্দিনের নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে, তারাই দলের নেতৃত্ব দেবেন। তবে যারা আওয়ামী লীগের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন অপকর্ম চালাচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে হবে দলের নেতাকর্মীদের। 

রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে গাইবান্ধায় জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় যোগদানের আগে সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এখন খালি পায়ে কেউ হাঁটেন না, না খেয়ে থাকেন না। দেশের সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকা আজ অনেক উন্নত। দেশের উন্নয়ন ও অবকাঠামোর পরিবর্তন ঘটেছে। এসব সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারের নেতৃত্বের কারণে। 

হাছান মাহমুদ বলেন, গত সাড়ে ১৩ বছর ধরে যারা আওয়ামী লীগ করছেন; তারা আওয়ামী লীগের দুঃসময় দেখেননি। আওয়ামী লীগে আসা অতিথি পাখিদের ওপর নজর রাখতে হবে দলের নেতাকর্মীদের। সেই সঙ্গে দেশ এবং মানুষের স্বার্থে কাজ করতে হবে।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, জাতীয় সংসদের হুইপ ও গাইবান্ধা-১ আসনের এমপি মাহাবুব আরা বেগম গিনি, গাইবান্ধা-৩ আসনের এমপি ও কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদুল হাসান রিপন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ ছামছুল আলম হিরু ও সাধারণ সম্পাদক আবুবক্কর সিদ্দিক। 

এদিকে, বর্ধিত সভায় যোগ দিতে জেলা, উপজেলা, তৃণমূল আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের হাজারো নেতাকর্মী বিভিন্ন যানবাহনে মিছিল নিয়ে শহরে আসেন। 

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সড়কপথে সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে গাইবান্ধা সার্কিট হাউসে এসে পৌঁছান তথ্যমন্ত্রী।

/এএম/

সম্পর্কিত

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

মোটরসাইকেলে ৩ জন, ট্রাকের ধাক্কায় রাজস্ব কর্মকর্তা নিহত

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ধর্ষণ মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

কুড়িগ্রাম সীমান্তে অনুপ্রবেশের দায়ে আটক ২

কুড়িগ্রাম সীমান্তে অনুপ্রবেশের দায়ে আটক ২

ফেসবুক লাইভে গাঁজা সেবন, যুবককে খুঁজছে পুলিশ

ফেসবুক লাইভে গাঁজা সেবন, যুবককে খুঁজছে পুলিশ

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৩৭

কুমিল্লায় হোমনায় বিয়েবাড়িতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দুটি গ্রামবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় হোমনা উপজেলার দুটি গ্রামে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার বড় ঘারমোড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ঘারমোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান মোল্লা জানান, ঘারমোড়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের বাকপ্রতিবন্ধী মেয়ের বিয়ে ঠিক হয় উপজেলার বাগমারা গ্রামের এক ছেলের সঙ্গে। গত শুক্রবার বিয়ের দিন নির্ধারিত হয়। বৃহস্পতিবার রাতে ওই বিয়ের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে গিয়ে পার্শ্ববর্তী হুজুরকান্দি গ্রামের কয়েকজন ছেলে মোবাইল ফোনে ছবি তোলে। এই ছবি তোলা নিয়ে ওই রাতেই বিয়েবাড়ির লোকজন হুজুরকান্দির চার-পাঁচজন ছেলেকে মারধর করেন। পরদিন সকালে ইউনিয়নের বড় ঘারমোড়া বাজারে বাগাকান্দা গ্রামের এক বৃদ্ধ দুধ বিক্রি করতে আসলে রাতে মারধরের জেরে হুজুরকান্দির কয়েকজন ছেলে তাকে মারধর করে। এই ঘটনায় ঘারমোড়া গ্রামের সাব মিয়ার ভাই জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে হুজুরকান্দি গ্রামের ১৫ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। পুলিশ হুজুরকান্দি গ্রামের বকুল নামের একজনকে গ্রেফতার করে। এরপর থেকে ঘারমোড়া ও হুজুরকান্দি গ্রামবাসীদের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। পাল্টাপাল্টি মারধরের বিষয়কে কেন্দ্র করে রবিবার সকালে হোমনার বড় ঘারমোড়া বাজারে ঘারমোড়ার বাগাকান্দা ও হুজুরকান্দি গ্রামবাসী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। ঘারমোড়া গ্রামবাসীর দাবি, সংঘর্ষের সময় হুজুরকান্দি গ্রামের লোকজন তাদের ওপর গুলি করেছে। গুলিতে তাদের একাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

চেয়ারম্যান শাহজাহান আরও বলেন, ‘সংঘর্ষের সময় আমি উপস্থিত ছিলাম। তবে সংঘর্ষে দুই গ্রামের কতজন আহত হয়েছেন, তার সঠিক তথ্য আমার কাছে নেই। শুনেছি যে কয়জন আহত হয়েছেন তাদের মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।’

ঘারমোরা গ্রামের আউয়াল মিয়া বলেন, ‘বৃহস্পতিবার হুজুরকান্দি গ্রামের কয়েকজন বখাটে ছেলে আমাদের বাড়িতে এসে মেয়েদের ছবি তোলে। সেই ছবি ডিলিট করা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। আজ সকালে হুজুরকান্দি গ্রামের লোকজন ইয়ারগানসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমাদের গ্রামের লোকজন ওপর হামলা করে। তাদের হামলা ও গুলিতে ১৫ জন আহত হয়েছেন।’

এদিকে হুজুর কান্দিগ্রামের গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘ছেলেপেলেদের মধ্যে সমস্যার ঘটনা আমরা মিটমাট করার জন্য চেষ্টা করছিলাম। সে সময় ঘারমোরা গ্রামের লোকজন আমাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে ১০-১২ জন আহত হয়েছেন। কোনও গুলির ঘটনা ঘটেনি। তাদের ইটের আঘাতে আমাদের লোকজন আহত হয়েছে।’

হোমনা থানার ওসি মো. আবুল কায়েস আখন্দ বলেন, ‘তিন দিন আগে বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে ঘারমোড়ার বাগাকান্দা ও হুজুরকান্দির গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। দুই গ্রামবাসীর সঙ্গে বসে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।’  

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

যশোরে তিন ফুট উচ্চতার বর-কনের ধুমধামে বিয়ে

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

অনির্দিষ্টকালের জন্য সুনামগঞ্জে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৩৭

সড়কে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে সুনামগঞ্জ থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে সড়ক পরিবহন শ্রমিক মালিক ঐক্য পরিষদ। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য এ বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

জানা গেছে, সরাসরি বাস চলাচল বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। সুনামগঞ্জ সদর, দিরাই ও ছাতক থেকে প্রতিদিন অর্ধশতাধিক আন্তঃজেলা বাস ঢাকা, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, গাজীপুর, কুমিল্লা, দাউদকান্দি রুটে চলাচল করে। প্রতিটি দূরপাল্লার বাস থেকে সিলেটের কুমারগাঁও ও তেলিরবাজার বাইপাস এলাকায় প্রতিদিন ৫০ টাকা করে তোলে একটি প্রভাবশালী পরিবহন শ্রমিক সংগঠন। এতে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে সুনামগঞ্জের পরিবহন শ্রমিক মালিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

সুনামগঞ্জ বাস মিনিবাস শ্রমিক রোড কমিটির সভাপতি হাজী লায়েক মিয়া বলেন, ‘চাঁদাবাজি বন্ধ হলে দূরপাল্লার রুটে বাস চলাচল করবে।’

সাধারণ সম্পাদক আলীম উদ্দিন বলেন, ‘সিলেটের সড়ক পরিবহন শ্রমিকরা অন্যায়ভাবে সুনামগঞ্জের বাস থেকে চাঁদাবাজি করে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সুনামগঞ্জ থেকে আন্তজেলা বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা

সুনামগঞ্জ থেকে আন্তজেলা বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা

পরিবারের ৪ সদস্যকে অজ্ঞান করে স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট

পরিবারের ৪ সদস্যকে অজ্ঞান করে স্বর্ণালংকার ও টাকা লুট

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা

দেশে দক্ষ জনশক্তির অভাব: পরিকল্পনামন্ত্রী

দেশে দক্ষ জনশক্তির অভাব: পরিকল্পনামন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

বিয়েবাড়িতে ছবি তোলা নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, আহত ১৫

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

শত কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মগোপনের ১০ বছর পর গ্রেফতার

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

যাত্রীবাহী গাড়িটিতে সন্ত্রাসীদের ৪০-৫০ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

কক্সবাজারে বছরজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি, দুর্ভোগের শেষ নেই

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বিদ্যালয়ের টয়লেট থেকে ছাত্রী উদ্ধার, প্রধান শিক্ষককে শোকজ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

বান্দরবানে যাত্রীবাহী গাড়িতে সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণ

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

গার্মেন্টসকর্মীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ৬

খুতবার আজান নিয়ে সংঘর্ষে নিহত: যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

খুতবার আজান নিয়ে সংঘর্ষে নিহত: যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

সর্বশেষ

বাঁশপাতার ভেতরে ভেসে যাবার প্রাক্কালে

বাঁশপাতার ভেতরে ভেসে যাবার প্রাক্কালে

‘১২-১৭ বছর বয়সীদের টিকার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি’

‘১২-১৭ বছর বয়সীদের টিকার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি’

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

সোমবার খুলনা বিভাগের ৯৫ কেন্দ্রে ইভিএমে ভোট

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাগেরহাটে ইউপি নির্বাচনে সব কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

© 2021 Bangla Tribune