X
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

এস আলমের বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষ, ৫ জন নিহত

আপডেট : ১৭ এপ্রিল ২০২১, ২৩:৫৭

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা এলাকায় এস আলম গ্রুপের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২৩ জন। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকালে বেতন-ভাতাসহ বিভিন্ন দাবি নিয়ে শ্রমিকরা আন্দোলন শুরু করলে পুলিশের সঙ্গে এ সংঘর্ষ হয়। পুলিশ ও শ্রমিকরা সহিংসতার জন্য পরস্পরকে দায়ী করছেন। এলাকাবাসীও শ্রমিকদের সঙ্গে আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

নিহতরা হলেন আহমদ রেজা (১৮), রনি হোসেন (২২), শুভ (২৪), মো. রাহাত (২৪) ও রায়হান (২৫)। তারা সবাই শ্রমিক নাকি এলাকাবাসীও রয়েছেন তা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত করা যায়নি।

. এর আগে ২০১৬ সালের ৪ এপ্রিল বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীদের দুটি পক্ষ ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে চার জন নিহত হন। বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা এলাকায় দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প প্রতিষ্ঠান এস আলম গ্রুপ কয়লাভিত্তিক এই বিদ্যুৎকেন্দ্রটি স্থাপন করছে। এখনও এর নির্মাণকাজ শেষ হয়নি। 

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমি জানতে পেরেছি, বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকরা বেতনভাতা নিয়ে বিক্ষোভ করেন। ওই বিক্ষোভের জের ধরে সংঘর্ষে পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। সংঘর্ষে স্থানীয় গ্রামবাসীও অংশ নেয়। নিহতরা শ্রমিক নাকি গ্রামবাসী, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।’

স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, সংঘর্ষে আরও অন্তত ২৩ জন আহত হয়েছেন। তাদের বেশিরভাগই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। হতাহতের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, 'বাঁশখালীর ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৪ জনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তাদের অধিকাংশের শরীরে গুলির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ একজনকে হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেছেন। তার নাম রায়হান। তিনি নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার আদর্শ গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে।'

শ্রমিকরা বলছেন, নিজেদের দাবি নিয়ে শুক্রবারও তারা আন্দোলন করেছেন। শনিবার সকালে আবার বিক্ষোভ করতে জড়ো হলে পুলিশ তাদের ওপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে গুলি চালায়। তবে পুলিশের ভাষ্য, শ্রমিকরা আগুন জ্বালিয়ে সহিংসতা শুরু করে এবং পুলিশ সদস্যদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়ে। ফলে বাধ্য হয়ে গুলি চালায় তারা। 

বাঁশখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সকালে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করলে পুলিশ তাদের থামানোর চেষ্টা করে। এ সময় তারা পুলিশের ওপর হামলা করলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি চালাতে বাধ্য হয়। শ্রমিকদের হামলায় আমাদের তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।’

চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘পুলিশ কখনও আগে গুলি করে না। গন্ডামারায় শনিবার কেন সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে, সেটি জানতে পুলিশের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদের সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন প্রদান করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। প্রতিবেদনে সংঘর্ষের মূল কারণ উঠে আসবে।’

/আইএ/এফএস/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩:১৭

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় তদন্ত প্রতিবেদন জমা হচ্ছে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর)। পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি এই প্রতিবেদন জমা দেবে বলে জানা গেছে। প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে বিকালে সিন্ডিকেট সভায় অভিযুক্ত শিক্ষিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

ভিডিও প্রকাশ: কাঁচি হাতে চুল কাটার অপেক্ষায় সেই শিক্ষিকা

এদিকে দুই দফা সময় নেওয়ার পর দুপুরে তদন্ত কমিটির সামনে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের। তবে তিনি তদন্ত কমিটির কাছে বক্তব্য না দিলেও প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে বলে নিশ্চিত করেছেন রবীন্দ্র অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল।

‘চুল কাটা ছাত্রদের চিনি না’ বলায় ফের উত্তপ্ত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়

তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল বলেন, ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে দুই দফায় তদন্ত কমিটি ডাকার পরেও না এসে সময় প্রার্থনা করেন। প্রথমে তাকে সময় দেওয়ার সিদ্ধান্ত ছিল না। তবে তিনি বার বার ই-মেইলে সময় আবেদন করায় দুই সপ্তাহ সময় দিয়ে বৃহস্পতিবার বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, তবে তিনি যদি নাও আসেন, তবু নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে। এছাড়াও আজ সিন্ডিকেট সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। 

তিন পদ থেকে সরে দাঁড়ালেন শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকা 

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা ট্রেজারার আব্দুল লতিফ বলেন, তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পরে সিন্ডিকেট সভায় সদস্যদের সামনে প্রতিবেদন খোলা হবে। আশা করি তদন্ত কমিটি সবকিছু বিবেচনা করেই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবেন। কমিটির দেওয়া প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

রাজশাহীতে সাড়ে ৬ হাজার ছাত্রীর বাল্যবিয়ে

রাজশাহীতে সাড়ে ৬ হাজার ছাত্রীর বাল্যবিয়ে

মামলার ভয় দেখিয়ে ৯৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার ২

মামলার ভয় দেখিয়ে ৯৫ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার ২

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সারাদেশে সমাবেশ-শোভাযাত্রা

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সারাদেশে সমাবেশ-শোভাযাত্রা

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৫৯

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজারে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় জড়িত অভিযোগে ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে বেগমগঞ্জের আট মামলায় ১০৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর বিশৃঙ্খলার ঘটনায় জেলায় মোট ১৮টি মামলার বিপরীতে গ্রেফতারের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩০ জনে।

‘চৌমুহনীর ঘটনায় জেলা প্রশাসককে জবাবদিহি করতে হবে’  

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকাল ৯ টা ১৪ মিনিটে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম এক বার্তায় এ তথ্য জানান। 

সাম্প্রদায়িক অপশক্তির শাস্তি দাবি রানা দাশগুপ্তের

তিনি আরও জানান, এ নিয়ে জেলায় মোট ১৩০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নোয়াখালীর ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৯

উল্লেখ্য, জেলার পূজামণ্ডপ, বিভিন্ন মন্দির, হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও হত্যার ঘটনায় আটটি মামলায় ২১৯ জন এজাহার নামীয়সহ জেলার মোট ১৮টি মামলায় এজাহার নামীয় ২৮৫ জন এবং অজ্ঞাত ৪-৫ হাজার জনকে আসামি করে মামলা করা হয়।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

১০ মামলায় আসামি ৫ হাজার 

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩২

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ১০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাতনামা প্রায় পাঁচ হাজার জনকে। ঘটনার পর থেকে এখন পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছেন ২৯ জন। পরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়। এদিকে ঘটনার তদন্তে চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটি সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে আরও সময় চেয়েছে তদন্ত দল।

চাঁদপুরে সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি আরও বলেন, ঘটনার তদন্তে পাঁচ সদস্যের কমিটিকে এক সপ্তাহের সময় দেওয়া হয়েছিল। তবে তারা আরও সময় চেয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তাদেরকে আরও সময় দেওয়া হয়েছে।

চাঁদপুরে ৪ জন নিহতের কথা জানালেন ডিআইজি আনোয়ার

হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশিদ ও পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত ইব্রাহীম খলিল জানান, সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১০টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমেই পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা দুই হাজার থেকে ২২শ’ জনকে আসামি করে দুটি করে মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে গত কয়েকদিনে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিরা আরও আটটি মামলা দায়ের করেছেন। সর্বশেষ মামলা হয়েছে ২০ অক্টোবর বুধবার। প্রতিটি মামলায় অজ্ঞাতনামা তিন থেকে চারশ’ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে ২৯ জনকে।

উল্লেখ্য, কুমিল্লার ঘটনার জের ধরে গত বুধবার (১৩ অক্টোবর) রাতে হাজীগঞ্জ পৌর এলাকায় সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায় পুলিশ। সংঘর্ষের পর ঘটনাস্থলে তিন জন, হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর একজন এবং ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও একজনসহ মোট পাঁচ জনের মৃত্যু হয়।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

৫ কোটি টাকায় হলো শ্রীপুর পৌর ভবন 

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১২:৩৭

প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর মূল ভবনে দাফতরিক কার্যক্রম শুরু করেছে শ্রীপুর পৌরসভা। বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) গাজীপুর-৩ আসনের এমপি মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ নবনির্মিত পৌর ভবনের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র অনিছুর রহমান। ভবনের প্রবেশদ্বারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মিত হয়েছে। 

পৌরসভার প্রকৌশলী তবিবুর রহমান জানান, চার কোটি ৯৫ লাখ টাকা ব্যয়ে মূল ভবনটি নির্মিত হয়েছে। ১০ হাজার ৫০০ বর্গফুটের ভবনটি নির্মাণে সময় লেগেছে দেড় বছর। নবনির্মিত ভবনে জনপ্রতিনিধি ও সব দাফতরিক শাখা সমূহের আলাদা কক্ষ রয়েছে। এতে জনপ্রতিনিধিসহ ৫০ জন স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীর অফিস স্থান সংকুলান হবে। প্রস্তাবিত ১০ তলা ভবনের মধ্যে তিন তলার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ভবনটির একটি বেজমেন্ট যানবাহনের জন্য নির্ধারিত। বাড়তি জনবলের জন্য ভবনের অন্যান্য ফ্লোর নির্মাণকাজ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

ভবন উদ্বোধনের পর গাজীপুর-৩ আসনের এমপি মুহাম্মদ ইকবাল হোসেন সবুজ বলেন, শ্রীপুর পৌর ভবন উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে পৌরবাসীর দীর্ঘদিনের আশা পূরণ হয়েছে। এতে এ অঞ্চলের নাগরিকদের উন্নত সেবা প্রদান নিশ্চিত হয়েছে।

শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান বলেন, জায়গা নির্ধারণ ও তা বন্দোবস্তের জন্য মামলা সংক্রান্ত জটিলতা ছিল। মামলা মোকাবিলা করে প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর মূল ভবনে যাচ্ছে পৌরসভার সব ধরনের কার্যক্রম।

ভবন উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শামসুল আলম প্রধান, শ্রীপুর থানার ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন, শ্রীপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি প্রভাষক আবু বকর ছিদ্দিক আকন্দ, শ্রীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আলমগীর হোসেন, শ্রীপুর উপজেলা সাংবাদিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ-আল মামুন, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক আতিকুর রহমান জুয়েল প্রমুখ।  

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

টাঙ্গাইলে একই ইউনিয়নে দুই স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

টাঙ্গাইলে একই ইউনিয়নে দুই স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী শ্যালক-দুলাভাই নিহত

বাসচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী শ্যালক-দুলাভাই নিহত

গাজীপুরে প্রতিমা ভাঙচুরে জামায়াত-শিবিরের সম্পৃক্ততা পেলো পুলিশ

গাজীপুরে প্রতিমা ভাঙচুরে জামায়াত-শিবিরের সম্পৃক্ততা পেলো পুলিশ

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১১:২৫

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা উপসর্গ নিয়ে পাঁচ জন মারা গেছেন। এদিন করোনা আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি। এছাড়া গত কয়েকদিন ধরে করোনা শনাক্তের হার শূন্যের কোঠায় নেমে এলেও তা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন জেলার সিভিল সার্জনের কার্যালয়।

২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ময়মনসিংহের চার জন ও কিশোরগঞ্জের এক রোগী রয়েছেন। মৃতদের মধ্যে তিন জন পুরুষ ও দুই জন নারী। 

এ নিয়ে অক্টোবর মাসে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা ও উপসর্গে ৮০ জনের মৃত্যু হলো। তবে গত জুলাই, আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা ও উপসর্গে এক হাজার ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান জানান, করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে নতুন ছয় জন ভর্তিসহ ৬১ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এদের মধ্যে আইসিউতে একজন চিকিৎসাধীন আছেন। এছাড়া সুস্থ হয়ে ছয় জন হাসপাতাল ছেড়েছেন।

সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩৫ টি নমুনা পরীক্ষায় ছয় জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৪৫ শতাংশ। এ পর্যন্ত জেলায় মোট আক্রান্ত ২২ হাজার ৬৬ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২১ হাজার ৪৩৬ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে জেলা জামায়াতের আমিরসহ গ্রেফতার ১৪ 

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে জেলা জামায়াতের আমিরসহ গ্রেফতার ১৪ 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

নোয়াখালীতে বিশৃঙ্খলায় গ্রেফতার ১৩০ 

হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

১০ মামলায় আসামি ৫ হাজার হাজীগঞ্জে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় গ্রেফতার ২৯

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

ময়মনসিংহে শনাক্তের সঙ্গে বেড়েছে মৃত্যু 

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

কুমিল্লায় বিশৃঙ্খলার ঘটনায় আরও এক মামলা

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

কোটি টাকার বালু তোলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা

কোটি টাকার বালু তোলায় আড়াই লাখ টাকা জরিমানা

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে জেলা জামায়াতের আমিরসহ গ্রেফতার ১৪ 

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে জেলা জামায়াতের আমিরসহ গ্রেফতার ১৪ 

ফানুস উড়ি‌য়ে পাপ মোচনের প্রার্থনা 

ফানুস উড়ি‌য়ে পাপ মোচনের প্রার্থনা 

সর্বশেষ

‘ডিজিটাল ডিভাইস হবে সবচেয়ে বড় রফতানি পণ্য’

‘ডিজিটাল ডিভাইস হবে সবচেয়ে বড় রফতানি পণ্য’

ছেলেকে দেখতে কারাগারে শাহরুখ

ছেলেকে দেখতে কারাগারে শাহরুখ

অতি প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র: উ. কোরিয়া

অতি প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র: উ. কোরিয়া

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

মুগদা হাসপাতালের আগুন নিয়ন্ত্রণে

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

© 2021 Bangla Tribune