X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

ভারতের মিডিয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা

আপডেট : ৩০ মে ২০২১, ১০:৫০

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি বিশ্বের বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও দেশের প্রশংসা অর্জন করে চলেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি ভারতকে ছাড়িয়ে যাওয়ার খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে গুরত্বের সঙ্গে প্রকাশিত হয়েছে। করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারত যখন বিপর্যস্ত তখন পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। একই সঙ্গে বিদেশি ঋণে জর্জরিত শ্রীলঙ্কাকে বাড়িয়ে দিয়েছে সহযোগিতার হাত। এই দুই ঘটনা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উত্থানের নমুনা প্রদর্শন বলে এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য প্রিন্ট। ২৮ মে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি বাংলা ট্রিবিউন পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো।

ভারতকে কোভিড ত্রাণ সরঞ্জাম পাঠানো থেকে শুরু করে শ্রীলঙ্কাকে সংকটের সময় আর্থিক সহযোগিতা, বাংলাদেশ নিজেদের অর্থনৈতিক উত্থানের প্রদর্শন শুরু করেছে এবং প্রতিবেশীদের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক গড়ে তুলতে এটিকে কাজে লাগাচ্ছে।

এই সপ্তাহের শুরুতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ২০ কোটি ডলার মুদ্রা বিনিময়ে রাজি হয়েছে বাংলাদেশ। কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, এই অর্থ শ্রীলঙ্কাকে তাদের অর্থনীতি শক্তিশালী করতে সহযোগিতা করবে। দেশটির বর্তমান বড় ধরনের ঋণ সংকট কাটিয়ে ওঠতেও কলম্বোর তা কাজে লাগবে।

শ্রীলঙ্কার বিদেশি ঋণ পরিস্থিতি দেশকে বড় ধরনের অর্থ পরিশোধের ভারসাম্য রক্ষার জটিল মুহূর্তের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এই বছর দেশটির বিদেশি ঋণের পরিমাণ দাঁড়াবে ৩৭০ কোটি ডলার। ফলে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই সহযোগিতা লঙ্কান অর্থনীতির সংকট কাটিয়ে ওঠার একটি প্রত্যাশিত উপায় হতে পারে।

সূত্র মতে, এই বছর মার্চ মাসে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসার ঢাকা সফরের সময় এই চুক্তি চূড়ান্ত হয়েছিল।

অর্থনীতিতে মুদ্রা বিনিময় এমন একটি লেনদেন যাতে উভয়পক্ষ সমান অর্থ বিনিময় করে কিন্তু ভিন্ন মুদ্রায়। এই ব্যবস্থা বিদেশি মুদ্রায় ঋণ গ্রহণের খরচ কমাতে সহযোগিতা করে।

২০১৯ সালের ইস্টারে বোমা হামলার পর থেকেই শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি গভীর সংকটে রয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারিতে আরও প্রকট হয়েছে। এতে দেশটির পর্যটন শিল্প ও অন্যান্য খাতে ধস নেমেছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতকে যে ৪০টি দেশ দুই বার কোভিড ত্রাণ সহযোগিতা পাঠিয়েছে বাংলাদেশও এই তালিকায় রয়েছে।

১৮ মে ঢাকা ২ হাজার ৬৭২ বক্স বিভিন্ন অ্যান্টি-ভাইরাল ওষুধ এবং কোভিড সুরক্ষা সরঞ্জাম ভারতের হাতে তুলে দেয়। এর আগে ৬ মে ১০ হাজার ভায়াল রেমডেসিভির নয়া দিল্লিতে পাঠায় ঢাকা।

এই অর্থবছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫.৮ শতাংশ হতে পারে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। ইন্দো-প্রশান্ত অঞ্চলে কৌশলগত ভূগৌলিক অবস্থানের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের নজরে রয়েছে বাংলাদেশ।

এই বছরের এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের চেম্বার অব কমার্স ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল শুরু করেছে। এর লক্ষ্য হলো বাংলাদেশে মার্কিন বিনিয়োগের সম্ভাব্যতা খোঁজা এবং দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সম্প্রসারণ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ সরকার ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক দক্ষতার জন্য চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানেরও প্রশংসা অর্জন করেছে।

বিশ্বব্যাংকের পাকিস্তান কমূর্সচির সাবেক উপদেষ্টা আবিদ হাসান শীর্ষস্থানীয় একটি পাকিস্তানি দৈনিক পত্রিকায় এক নিবন্ধে লিখেছেন, পাকিস্তানের বর্তমান সরকারসহ সবাই বিশ্বের কাছে ভিক্ষার থালা হাতে হাজির হয়েছেন। বিশ বছর আগে এমনটি অকল্পনীয় ছিল যে, ২০২০ সালে বাংলাদেশের মাথাপিছু জিডিপি পাকিস্তানের চেয়ে দ্বিগুণ হবে। একই গতিতে এগিয়ে যাওয়া অব্যাহত থাকলে ২০৩০ সালে বাংলাদেশ একটি অর্থনৈতিক পাওয়ার হাউসে পরিণত হবে। পাকিস্তান যদি নিজেদের হতাশাজনক কর্মক্ষমতা বজায় রাখে তাহলে ২০৩০ সালে বাংলাদেশের কাছ থেকে সহযোগিতা চাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

এশিয়ার নতুন রয়েল বেঙ্গল টাইগার

রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম ফর ডেভেলপিং কান্ট্রিজ (আরআইএস)-এর অধ্যাপক প্রবীর দে’র মতে, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির মূলে রয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জেনারেলাইজড স্কিম অফ প্রিফারেন্সেস (জিএসপি) কর্মসূচির সুবিধা আদায় এবং অন্যান্য বাণিজ্যিক সিদ্ধান্তগুলো।

প্রবীর দে বলেন, ইইউ’র জিএসপি স্কিমের মাধ্যমে অব্যাহত সহযোগিতায় বাংলাদেশ কৌশলগত রফতানি থেকে উল্লেখযোগ্য রাজস্ব আয় করতে পারছে। এছাড়া, বেশ বড় অংকের রেমিট্যান্সও আসে বাংলাদেশে।

বাংলাদেশের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কমিশনার মিজানুর রহমান দ্য প্রিন্টকে জানান, বাংলাদেশের ফরেক্স রিজার্ভ ২০২১ সালে বেড়ে দাঁড়িয়েছে সাড়ে চার হাজার কোটি ডলার। ২০১০ সালে যা ছিল ৯০০ কোটি ডলার। দেশে আসা রেমিট্যান্সের পরিমাণ ২০ হাজার কোটি ডলার ছুঁয়েছে।

মিজানুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ প্রতিবেশীদের সঙ্গে দায়িত্বশীল আচরণে বিশ্বাস করে এবং যাদের সহযোগিতা প্রয়োজন তাদের পাশে দাঁড়াচ্ছে। ঢাকা এখন প্রতিবেশীদের সঙ্গে গভীর সংহতকরনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে কিন্তু অন্যদের অবদমন করে নয়।

প্রবীর দে বলেন, বাংলাদেশ হলো এশিয়ার নতুন রয়েল বেঙ্গল টাইগার। তারা সব জায়গায় একই ভাষায় কথা বলে এবং রয়েছে সুসংগঠিত প্রশাসন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ আসিয়ান দেশগুলোর সঙ্গে বাণিজ্য করছে। একই সঙ্গে কয়েকটি আসিয়ান দেশের সঙ্গে বাণিজ্যচুক্তি করতে চাইছে এবং কানেক্টিভিটি প্রকল্পে যুক্ত হচ্ছে।

/এএ/

সম্পর্কিত

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রবল বর্ষণে মহারাষ্ট্রে মৃত বেড়ে ১১০

প্রবল বর্ষণে মহারাষ্ট্রে মৃত বেড়ে ১১০

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২১:০৮

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে আয়োজিত এক সমাবেশে কথা বলেছেন তালেবানের সর্বোচ্চ নেতা হিবাতুল্লাহ আখুন্দজাদাকে নিয়ে। ‘টার্নিং পয়েন্ট ইউএসএ গ্যাদারিং’ নামের এই সমাবেশে তালেবান নেতার সঙ্গে এক বৈঠকের স্মৃতিচারণ করেন তিনি।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি তালেবান নেতাকে বলি, আমি নেতাদের সঙ্গে কথা বলি’। এসময় আখুন্দজাদার নাম মনে করতে না পারায় থেমে যান ট্রাম্প। পরে বলেন, 'আসুন তাকে মোহাম্মদ নামেই ডাকি'।

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টি ইঙ্গিত করে ট্রাম্প বলেন, আমি মোহাম্মদকে বলি, আমরা চলে যাচ্ছি।

ভাষণের এক পর্যায়ে আখুন্দজাদাকে নকল করার চেষ্টা করেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ট্রাম্প ঘোঁৎ ঘোঁৎ করা শুরু করেন। বলেন, ‘তিনি কঠিন প্রকৃতির লোক’। এসময় উপস্থিত মানুষের মধ্যে হাসির রোল পড়ে যায়।

ট্রাম্প আরও বলেন, খুব একটা সামাজিক না... তারা শুধু যুদ্ধ করতে জানে।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আফগানিস্তানের বিভিন্ন এলাকার দখল নিয়েছে তালেবান। মার্কিন ও ন্যাটো ৯৫ শতাংশ সেনা দেশটি ছেড়ে যাওয়ার সুযোগে এই সামরিক অগ্রগতি অর্জন করেছে সশস্ত্র গোষ্ঠীটি। ৩১ আগস্ট মার্কিন সেনা প্রত্যাহার সম্পূর্ণ হবে। সূত্র: হারেৎজ

/এএ/

সম্পর্কিত

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২১:১০

আফগানিস্তানের সেনাবাহিনীর বিমান হামলায় অন্তত ২৬২ জন তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। শনিবার (২৪ জুলাই) আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন স্থানে একাধিক বিমান হামলা চালানো হয়। এতে তালেবানের একাধিক গাড়ি ও বাঙ্কার গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। তালেবানের পক্ষ থেকে বিমান হামলায় নিহতের সংখ্যা নিয়ে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

টুইটারে দেওয়া আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, শুক্রবার জাওঝান প্রদেশের মুরঘাব ও হাসান তাবিন গ্রামে অবস্থান করে তালেবানরা। শুক্রবার সেখানে বিমান হামলা চালায় আফগান বাহিনী। এতে ১৯ জন তালেবান যোদ্ধার মৃত্যু হয় এবং আহত হয়েছে ১৫ জন।

মার্কিন ও ন্যাটোর বেশিরভাগ সেনা প্রত্যাহারের পর এই এলাকার দখল নিয়েছিল তালেবান। তৈরি করে অনেক বাঙ্কার। এবার এলাকাটিতে আফগান বাহিনীর পাল্টাঘাতের মুখে পড়লো তারা।  

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, হেলমান্দ প্রদেশের লস্কর ঘা এলাকায় অভিযান চালায় আফগান বাহিনী। সেখানে দুই বিদেশি তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে। এছাড়া নিহত হয়েছে ১২ তালেবান যোদ্ধা। আহত হয়েছে ২ জন।

আফগান বাহিনীর পাল্টা হামলায় তিনটি গাড়ি, ৬টি মোটরসাইকেল, দুটি বাঙ্কার ধ্বংস করা হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। নষ্ট করা হয়েছে বিপুল অস্ত্রও।

সব মিলিয়ে শনিবার দেওয়া তথ্য অনুসারে, গত চব্বিশ ঘণ্টায় বিভিন্ন এলাকায় বিমান হামলায় নিহত তালেবান যোদ্ধার সংখ্যা ২৬২ জন। আহত হয়েছে ১৭৬ জন।

রবিবার আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় একাধিক টুইটে আরও কয়েকজন তালেবান যোদ্ধা সরকারি বাহিনীর অভিযানে নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে। নাঙ্গারহার, পাকটিকা, লোগার, গজনি, কান্দাহার, হেরাত, বালখ, জউজান, সামাঙ্গান, সার-ই-পল, হেলমান্দ, বাডাখশান, কুন্দুজ ও বাঘলান প্রদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭৫ তালেবান যোদ্ধা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে মন্ত্রণালয়।

এদিকে তালেবান হামলা রুখতে আফগানিস্তান জুড়ে নাইট কারফিউ জারি করেছে আফগান প্রশাসন।

 

/এএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তালেবানের উত্থান, আফগানিস্তানে কারফিউ জারি

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৯:৩১

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কোভিড-১৯ টিকা নিয়ে উপহাস যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। আক্রান্ত হওয়ার পর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত প্রায় একমাস অসুস্থ ছিলেন স্টিফেন হারমন নামের ওই ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার হিলসং প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান হউস্টন বৃহস্পতিবার হারমনের মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

স্টিফেন লস অ্যাঞ্জেলসের হিলসং মেগাচার্চের সদস্য ছিলেন। তিনি করোনা টিকার একজন সরব বিরোধিতাকারী। টিকা না নেওয়ার বিষয়ে তিনি ধারাবাহিক উপহাস করেছেন।

জুন মাসে সাত হাজার ফলোয়ারকে ৩৪ বছর বয়সী হারমন লিখেছিলেন, ৯৯টা সমস্যা রয়েছে। কিন্তু টিকা কোনও সমস্যা নয়।

লস অ্যাঞ্জেলসের বাইরে একটি হাসপাতালে তার নিউমোনিয়া ও করোনার চিকিৎসা চলছিল। বুধবার সেখানে তার মৃত্যু হয়।

মৃত্যুর আগে হারমন হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকার ছবি প্রকাশ করে নিজের বেঁচে থাকার লড়াইয়ের প্রমাণ রেখে গেছেন। তিনি লিখেছেন, সবাই আমার জন্য প্রার্থনা করুন। সত্যি সত্যি তারা আমাকে ভেন্টিলেটরে রাখতে চাইছে।

বুধবার শেষ টুইটে তিনি জানান, ইনটিউবেশনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। লিখেছেন, জানি না কখন আমি জাগব। আমার জন্য প্রার্থনা করুন।

ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরও হারমন জানিয়েছেন তিনি টিকা নেবেন না। ধর্মীয় বিশ্বাস তাকে রক্ষা করবে।

অসুস্থ হওয়ার আগে তিনি মহামারি ও টিকা নিয়ে উপহাস করেছেন। বিভিন্ন মেমেতে তিনি জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচির চেয়ে বাইবেলের ওপর তা বিশ্বাস বেশি।  

/এএ/

সম্পর্কিত

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

লকডাউনের বিরোধিতাকারীদের ‘স্বার্থপর’ বললেন অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৮:৫২

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জারি করা বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের নিন্দা জানিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার রাজনীতিকরা। শনিবার সিডনিতে কয়েক হাজার মানুষ মিছিল করে লকডাউন প্রত্যাহারের দাবি জানান। ছোট আকারের বিক্ষোভ হয়েছে মেলবোর্ন ও ব্রিসবেনে। বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার কারণে অন্তত ৫৭ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ও পাঁচ শতাধিককে জরিমানা করা হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এখবর জানিয়েছে।

রবিবার নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রিমিয়ার গ্ল্যাডিস বেরেজিকলিয়ান বলেছেন, বিক্ষোভকারীদের লজ্জিত হওয়া উচিত। রাজ্যের লাখ লাখ মানুষ সঠিক কাজ করছেন। এই বিক্ষোভকারীরা নিজেদের নাগরিকদের অবজ্ঞা করায় আমার মন ভেঙে গেছে।

রাজ্যটিতে রবিবার ১৪১ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। যা এই বছরের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। শনিবারের বিক্ষোভের পর আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ চলমান লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়াতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চলমান লকডাউনের মেয়াদ শেষ হবে ৩০ জুলাই।

সম্প্রতি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট মোকবিলায় পুনরায় বিধিনিষেধ জারির পর অস্ট্রেলিয়ার প্রায় ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষ আবারও লকডাউনের আওতায় পড়েছেন।  

দেশটির মাত্র ১৪ শতাংশের কম মানুষ পুরোপুরি টিকা নিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় দেশগুলোর তুলনায় অস্ট্রেলিয়ায় টিকাদানের হার অনেক কম।

টিকা কর্মসূচি নিয়ে সমালোচনার মুখে থাকা অস্ট্রেলীয় প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন নর্থ সাউথ ওয়েলসকে আরও ডোজ দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন। কিন্তু তিনি বলেছেন, দেশজুড়ে টিকাদানকে বিঘ্নিত কার যাবে না। আক্রান্তের সংখ্যা কমে গেলেই কেবল লকডাউন প্রত্যাহার করা হবে।

শনিবার বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের ‘স্বার্থপর’ এবং ‘নিজেরাই-পরাজিত’ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, বিক্ষোভের ফলে লকডাউন আরও দীর্ঘায়িত হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়েছে মাত্র।

রবিবার সিডনি পুলিশ জানায়, বিক্ষোভের সময় পুলিশের ঘোড়াকে আঘাতের জন্য দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। ৩৩ ও ৩৬ বছর বয়সের এই দুই ব্যক্তির আজ আদালতে হাজির হওয়ার কথা।

/এএ/

সম্পর্কিত

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

টিকা নিয়ে উপহাস করা মার্কিনির করোনায় মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

দেশে দেশে লকডাউন বিরোধী বিক্ষোভ

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

‘অপ্রতিরোধ্য হামলা’ চালানোর সক্ষমতা রয়েছে রাশিয়ার: পুতিন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:২৪

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, রুশ নৌবাহিনীর যেকোনও শত্রুকে শনাক্ত এবং প্রয়োজনে অপ্রতিরোধ্য হামলা চালানোর সক্ষমতা রয়েছে। মস্কোকে ক্ষুব্ধ করে ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজের ক্রিমিয়া উপদ্বীপ অতিক্রমের কয়েক সপ্তাহ পর রবিবার তিনি এ মন্তব্য করেছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

সেন্ট পিটার্সবুর্গে নৌবাহিনী দিবসের প্যারেডে পুতিন বলেন, পানির নিচে, উপরে, আকাশে যেকোনও শত্রুকে শনাক্তের সামর্থ্য আমাদের রয়েছে। প্রয়োজন হলে ওই শত্রুর বিরুদ্ধে অপ্রতিরোধ্য হামলা চালানোর সক্ষমতাও রয়েছে।

পুতিনের এই মন্তব্যের আগে জুন মাসে কৃষ্ণ সাগরে ক্রিমিয়ার জলসীমায় রাশিয়া ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজ লক্ষ্য করে সতর্কতামূলক গোলা ও নৌপথে বোমা ফেলে।

ঘটনাটি নিয়ে রাশিয়ার বর্ণনা প্রত্যাখ্যান করেছে ব্রিটেন। তারা জানিয়েছে, গোলাবর্ষণ ছিল রাশিয়ার পূর্বঘোষিত অনুশীলনের অংশ এবং কোনও বোমা নিক্ষেপ করা হয়নি।

২০১৪ সালে ক্রিমিয়াকে ইউক্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন করে নিজেদের ভূখণ্ডে অন্তর্ভুক্ত করে রাশিয়া। কৃষ্ণসাগর উপদ্বীপকে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ ইউক্রেনের বলে স্বীকৃতি দিয়েছে।

গত মাসে পুতিন বলেছিলেন, নিজেদের জলসীমায় অবৈধভাবে প্রবেশ করা ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজ এইচএমএস ডিফেন্ডারকে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু না করেই ডুবিয়ে দিতে পারতো রাশিয়া। যুক্তরাষ্ট্র এই ঘটনায় উসকানিদাতার ভূমিকা পালন করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

/এএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

শীতে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট আসবে! আশঙ্কা ফরাসি বিশেষজ্ঞের

ক্ষমা চাইলেন সেই জার্মান সাংবাদিক

ক্ষমা চাইলেন সেই জার্মান সাংবাদিক

জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় মুখ্য হিট অফিসার নিয়োগ

জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় মুখ্য হিট অফিসার নিয়োগ

সর্বশেষ

অলিম্পিক ইতিহাসে একই দিনে সোনা জিতলেন ভাই-বোন

অলিম্পিক ইতিহাসে একই দিনে সোনা জিতলেন ভাই-বোন

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

তালেবান নেতা আখুন্দজাদাকে নিয়ে যা বললেন ট্রাম্প

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

নিশো-মেহজাবীনের ‘ঘটনা সত্য’ প্রত্যাহার, ক্ষমা প্রার্থনা

নিশো-মেহজাবীনের ‘ঘটনা সত্য’ প্রত্যাহার, ক্ষমা প্রার্থনা

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

চামড়া নিয়ে এবার কোনও অভিযোগ পাইনি: শিল্পমন্ত্রী

চামড়া নিয়ে এবার কোনও অভিযোগ পাইনি: শিল্পমন্ত্রী

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

যেখানে ডেঙ্গু রোগী সেখানেই বিশেষ অভিযান: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

যেখানে ডেঙ্গু রোগী সেখানেই বিশেষ অভিযান: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

তিন মাসে ২ বার করোনা আক্রান্ত, হতাশায় দম্পতির আত্মহত্যা

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

মহারাষ্ট্রে টানা ভারী বৃষ্টিতে বন্যা-ভূমিধস, জীবিতদের খোঁজে অভিযান

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চীনকে মাথায় রেখে ভারত আসছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রবল বর্ষণে মহারাষ্ট্রে মৃত বেড়ে ১১০

প্রবল বর্ষণে মহারাষ্ট্রে মৃত বেড়ে ১১০

বরকে নিয়ে বিয়ের ঘোড়ার চম্পট (ভিডিও)

বরকে নিয়ে বিয়ের ঘোড়ার চম্পট (ভিডিও)

অতি বর্ষণে ভূমিধস, মহারাষ্ট্রে ৩৬ জনের মৃত্যু

অতি বর্ষণে ভূমিধস, মহারাষ্ট্রে ৩৬ জনের মৃত্যু

আগস্টে ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

আগস্টে ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা

ভারতে বার্ড ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মানুষের মৃত্যু

ভারতে বার্ড ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মানুষের মৃত্যু

করোনা আতঙ্কে দেড় বছর তাঁবুতে

করোনা আতঙ্কে দেড় বছর তাঁবুতে

ভারতে ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’ সংক্রমণের মৃতের সংখ্যা ৪,৩০০

ভারতে ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’ সংক্রমণের মৃতের সংখ্যা ৪,৩০০

© 2021 Bangla Tribune