X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

তৃতীয় দিনের মতো বন্ধ দূরপাল্লার গণপরিবহন

আপডেট : ২৪ জুন ২০২১, ১১:২৩

তৃতীয় দিনের মতো বন্ধ রয়েছে রাজধানীর সঙ্গে সব ধরণের দূরপাল্লার গণপরিবহন চলাচল। এ ছাড়া বাস কাউন্টারগুলোও বন্ধ রয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, যাত্রীদের আনাগোনা রয়েছে দূরপাল্লার গন্তব্যে। অনেকেই আসছেন বাস টার্মিনালে। অপেক্ষায় রয়েছেন বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার জন্য।

কাউন্টারের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী দূরপাল্লার কোনও পরিবহন বন্ধ রয়েছে। এতে আমাদের আয় ইনকাম কমে গেছে। গাড়ি চললে আমাদের পেট চলে। এদিকে, রংপুর যাওয়ার জন্য অপেক্ষায় ছিলেন আফজাল মিয়া। কাউন্টারে এসে দীর্ঘ অপেক্ষায় ছিলেন। লকডাউনের কথা জেনে আসলেও পারিবারিক কারণে তাকে বের হতে হয়েছে। এ জন্যই কোনওভাবে যাবার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি।

সপ্তাহ দুয়েক আগে রাজধানীতে কাজের সন্ধানে এসেছেন রাজমিস্ত্রি মোহাম্মদ রফিক। করোনার কারণে কনস্ট্রাকশনের কাজ বন্ধ থাকায় এবং রাজধানীতে কোনও কাজ না মেলায় ফিরতে হচ্ছে বাড়ি। পরিবহন বন্ধ থাকায় কীভাবে ফিরবেন তা নিয়ে যেন দুশ্চিন্তার শেষ নেই তার।

এদিকে, আজও রাজধানীতে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না কোনও গণপরিবহন। আমিন বাজার ব্রিজ এলাকা থেকে হেঁটেই গাবতলীতে এসে গণপরিবহনে উঠছেন যাত্রীরা। এসময় আমিন নামের একজন ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, সাধারণ পাবলিক যারা তাদের জন্যই হয়রানি। যারা ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার করছে তারা গাড়িতে করেই আসতে যেতে পারছে। আমরা যারা বাসে চলাচল করি তাদের জন্য যত দুর্ভোগ।

গাবতলী জোনের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর কাজী মাহাবুব আলী বলেন, লকডাউনের আওতায় থাকার কারণে মানিকগঞ্জগামী যেকোনও যানবাহনকে আমরা জিজ্ঞাসা করছি। তাদের গন্তব্য সম্পর্কে জানতে চাচ্ছি। কোনও গণপরিবহনকে আমরা রাজধানীর বাইরে যেতে দিচ্ছি না।

 

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

কামরাঙ্গীরচরে বাসা থেকে মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার

কামরাঙ্গীরচরে বাসা থেকে মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২২

দেশে করোনায় এখন পর্যন্ত আট হাজার ৮৯০ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে চিকিৎসকদের জাতীয় সংগঠন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ)।

রবিবার ( ২৫ জুলাই) বিএমএ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

বিএমএ জানায়, আট হাজার ৮৯০ জনের মধ্যে চিকিৎসক তিন হাজার ৫৮ জন, নার্স দুই হাজার ১৭৫ জন আর অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন তিন হাজার ৬৭৫ জন।

বিএমএ আরও জানিয়েছে, গত ২০ জুলাই পর্যন্ত করোনা এবং করোনার উপসর্গ নিয়ে ১৬৯ জন চিকিৎসক মারা গিয়েছেন।

করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম চিকিৎসক মারা যান গত বছরের ১৫ এপ্রিল। সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দীন আহমেদ করোনাতে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণকারী চিকিৎসক।

/জেএ/এমআর/

সম্পর্কিত

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২৫

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়সহ কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের করোনা ভাইরাস রোধক টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হলেও কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা কবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। আর টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু না হওয়ায় কবে থেকে ক্লাস শুরু হবে, তাও জানতে পারছেন না মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা। কোনও কোনও শীর্ষ পর্যায়ের দায়িত্বশীল আলেমরা টিকা গ্রহণ করলেও শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কী সিদ্ধান্ত, তা এখনও ঠিক করতে পারেননি তারা।

কওমি মাদ্রাসার কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক ও একাধিক মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সমন্বিত কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। এক্ষেত্রে বেফাক ও অন্যান্য আঞ্চলিক বোর্ডগুলোসহ কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ও এ বিষয়ে কোনও আলোচনা শুরু করেনি।

ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া মাখজানুল উলুম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও হেফাজতের মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার ছাত্ররা টিকা নেবে কিনা, সেটা মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষ ও আল হাইআতুল উলয়া ঠিক করবে। ভ্যাকসিন কী জিনিস, আমি বুঝি না। এ বিষয়ে আমার কোনও অভিজ্ঞতা নেই।’

ঢাকার একটি মাদ্রাসার মেশকাত জামাতের (স্নাতক চূড়ান্ত) একজন শিক্ষার্থী রবিবার বিকালে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, তাদের প্রতিষ্ঠান থেকে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কোনও কিছুই জানানো হয়নি। আর মাদ্রাসাও কবে নাগাদ খোলা হবে, তা অনিশ্চিত।

ঢাকার একটি কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) সরকারিভাবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ পর্যায়ে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রক্রিয়া শুরু করেছে। টিকা কার্যক্রম গুছিয়ে এনেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ও। এরইমধ্যে টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন বয়স ১৮ করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শেষ হলেই প্রতিষ্ঠান খুলবে, সরকারের পক্ষ থেকে এমন সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে।

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) একাধিক দায়িত্বশীল আলেম জানান, মাদ্রাসার ছাত্রদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে কোনও রোডম্যাপ হয়নি। ব্যক্তিগতভাবে শিক্ষার্থীদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যোগাযোগ করে টিকা দেওয়ার বিষয়ে উৎসাহ দেওয়া হলেও প্রাতিষ্ঠানিক কোনও নির্দেশনা নেই।

ঢাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক বলেন, টিকা নেওয়ার বিষয়ে শুরুতে বিভ্রান্তি থাকলেও এখন টিকা নেওয়ার পক্ষে সবাই। সুস্থ থাকতে টিকার বিকল্প নেই, এ কথাটিও ছাত্রদের কাছে তুলে ধরা হচ্ছে বিভিন্ন উপায়ে। যদিও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় অধিকাংশ শিক্ষার্থী টিকার ব্যাপারে অন্ধকারে আছে।

জামিয়া আরাবিয়া দারুল উলুম নতুনবাগ, রামপুরা মাদ্রাসার হাদিসের শিক্ষক মাওলানা ইমরানুল বারী সিরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমাদের বেফাক বা হাইআ বা কোনও বোর্ড থেকেই কিছু জানানো হয়নি। কোনও ঘোষণাও আসেনি টিকার বিষয়ে। এখনও মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় বোর্ডই ঠিক করবে করণীয়।’

ইমরানুল বারী জানান, মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা টিকাগ্রহণে ইতিবাচক। তবে, কী প্রক্রিয়ায় টিকা দেওয়া হবে সেজন্য অপেক্ষা করছে সবাই।

জানতে চাইলে বেফাক ও আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’র সদস্য মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা, শিক্ষকরা কীভাবে টিকা পাবেন, এ নিয়ে বোর্ডগুলো এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। হাইআতুল উলয়ার দায়িত্বশীলরা এ বিষয়ে আলোচনা শুরু করেছেন। তবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।’

আল হাইআতুল উলয়া’র স্থায়ী কমিটির সদস্য ও জাতীয় দ্বীনী মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সহসভাপতি মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘টিকার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে আমরা একটা গাইডলাইন করছি, চেষ্টা করছি। আমরা নিজেরা পরামর্শ করে গাইডলাইন তৈরি করেছি।’

সরকারের কাছে কোনও প্রস্তাব দেওয়া হবে কিনা, এমন প্রশ্নে ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘এটা হাইয়ার মুরুব্বিরা সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন। আমরা আমাদের মতো চেষ্টা করছি।’

টিকা নিয়েছেন হাইআতুল উলয়ার চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান

সাধারণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত না হলেও কওমি মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সরকারি বিধিবদ্ধ প্রতিষ্ঠান ‘আল-হাইআতুল উলয়া লি-জামিআতিল কওমিয়্যাহ’ চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসান টিকা নিয়েছেন। আল-হাইআতুল উলয়া’র একজন কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে এ কথা জানান।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, সিনিয়র আলেমদের মধ্যে অনেকেই নিবন্ধন করেছেন। তারা নিজ উদ্যোগে টিকা নিচ্ছেন।

কওমি মাদ্রাসায় পাঠরত শিক্ষার্থীরা (ফাইল ফটো) মাদ্রাসা খুলবে কবে?

কওমি মাদ্রাসা কবে নাগাদ ক্লাস শুরু করতে পারবে, এ নিয়ে এখনও অন্ধকারে বোর্ড ও দায়িত্বশীল আলেমরা। শিক্ষার্থীরাও বলছেন, তারা মাদ্রাসা খোলা বা ক্লাস শুরু হওয়া নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানতে পারছেন না।

সিলেটের একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু বলেন, ‘মুরুব্বিরা চেষ্টা করছেন আগে মক্তব বিভাগ ও হেফজ বিভাগ (কোরআন শিক্ষা কার্যক্রম) চালু করতে। এরপর সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে অন্য ক্লাসগুলো শুরু হবে।’

দায়িত্বশীল একাধিক আলেম বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নয়, বরং সরকারের ক্ষোভের কারণে প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে।

তারা জানান, হেফাজত ইস্যুতে সরকার মাদ্রাসাগুলোকে বন্ধ রেখেছে। কওমি মাদ্রাসার সংশ্লিষ্ট হেফাজত নেতাদের মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনবিরোধী অবস্থানের কারণে মাদ্রাসার প্রতি বিরূপ মনোভাব তৈরি হয়েছে সরকারের। আর এই ক্ষোভ উপশমে চেষ্টা করা প্রয়োজন বলে মনে করেন কোনও কোনও আলেম। এই অংশের অনেকেই মনে করেন, মাদ্রাসার ছাত্র- শিক্ষকদের বর্তমান পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিন দেওয়া প্রয়োজন।

মাওলানা ইয়াহইয়া মাহমূদ বলেন, ‘ক্ষোভটা তো সকলেরই জানা। করোনা ভাইরাসজনিত ও লকডাউন পরিস্থিতিতে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ ছিল। কিন্তু এবার প্রজ্ঞাপন দিয়ে কওমি মাদ্রাসা বন্ধ করা হয়েছে। কেন বন্ধ হলো, সেটা সকলের জানা। কওমি মাদ্রাসাগুলোকে সরাসরি প্রজ্ঞাপন দিয়ে বন্ধ করা হয়েছে বিশেষ কারণে। কারণ আর উল্লেখ করার দরকার নাই। এই ক্ষোভ আমরা চাচ্ছি প্রশমন করতে। সরকারকে আস্থায় নিয়ে মাদ্রাসা খোলা দরকার।’

জানতে চাইলে হেফাজতের মহাসচিব ও ঢাকার একটি মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম বলেন, ‘ এখনও তো লকডাউন চলছে। এই মুহূর্তে মাদ্রাসা খোলা সম্ভব না। লকডাউন শেষ হলে পরিস্থিতি বুঝে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন:

‘ঐতিহাসিক’ পদ্ধতিতে শিক্ষা দিচ্ছে কওমি মাদ্রাসা

সরকারি স্বীকৃতির তিন বছর: কতটা বদলেছে কওমি মাদ্রাসা?

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০৬

জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন পাওয়ার পর বাড়িতে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করা এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে চাঁদপুর থানা পুলিশ।

রবিবার (২৫ জুলাই) জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এর পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বাংলা ট্রিবিউনকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন,  শনিবার (২৪ জুলাই)  সকাল সাড়ে দশটায় চাঁদপুর সদর থানার ওয়ারলেস স্কুল সংলগ্ন একটি ভবন থেকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে একজন তরুণী (১৮) ৯৯৯ নম্বরে ফোন করেন। তিনি অভিযোগ করেন, তার বাড়ি চাঁদপুরের মতলব থানায়। সাড়ে তিনমাস আগে তাকে মাহি এবং তার স্বামী রিপন নামে এক দম্পতি তাদের বাসায় কাজের কথা বলে নিয়ে আসে। কিন্তু তাকে দিয়ে ঘরের কাজের পরিবর্তে জোর করে পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছিল। এ ধরণের কাজ করতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করা হতো। একজন খদ্দেরের ফোন থেকে টয়লেটে লুকিয়ে ৯৯৯ এ ফোন করেন ওই তরুণী। তিনি তাকে উদ্ধারের জন্য অনুরোধ জানান।

তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি চাঁদপুর সদর থানায় জানিয়ে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানায় ৯৯৯। সংবাদ পেয়ে চাঁদপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। বাড়িটি শনাক্ত করেন।

চাঁদপুর সদর থানার উপ-পরিদর্শক মো. রাশেদুজ্জামান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করেন এবং তাকে আটকে রেখে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তির অভিযোগে মাহি আক্তার বর্ষা ওরফে মাকসুদা বেগম মাহিকে (২৬) গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এসময় তার স্বামী রিপন বাসায় ছিলেন না।

এই ঘটনায় চাঁদপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

/এআরআর/এমএস/

সম্পর্কিত

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

চাঁদা দাবি করে প্রতিবন্ধীর দোকান বন্ধের অভিযোগ, পুলিশের উদ্যোগে ফের চালু

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত অনলাইনে নব্য জেএমবির প্রচারণায় সক্রিয় ছিল ইমন: সিটিটিসি

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

স্লিপার সেলের মাধ্যমে চলছিলো জঙ্গি কার্যক্রম: সিটিটিসি

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৭

এই বছরের সর্বোচ্চ সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী পাওয়া গেছে চলতি জুলাই মাসেই। এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৩০৭ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন শুধু জুলাই মাসেই। তাদের ৯৯ শতাংশই ঢাকায়। আর গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১০৫ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে, তাদের মধ্যে ১০২ জনই ঢাকার আর বাকিরা ঢাকার বাইরে। এর আগে একদিনে সর্বোচ্চ ১০৪ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছিল গতকাল। 

রবিবার  (২৫ জুলাই)  স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্য থেকে এসব জানা যায়। 

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, সারাদেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে এখন পর্যন্ত ৪৬০ জন রোগী ভর্তি আছে । এর মধ্যে ঢাকাতেই আছে  ৪৫৪ জন , আর বাকি ৬ জন ঢাকার বাইরে অন্য বিভাগে। এই বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত ১ হাজার ৬৭৯ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন এবং ছাড়া পেয়েছেন ১ হাজার ২১৬ জন। এই বছর এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনার জন্য রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

/এসও/এমআর/

সম্পর্কিত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

৫ দিনে করোনায় ১ হাজার মানুষের মৃত্যু

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

ঢাকায় একদিনে ১০৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

কর্মীর দক্ষতা বাড়ালে রেমিট্যান্সও বাড়বে: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৬

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, বৈদেশিক কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে দক্ষতা নিশ্চিত করা গেলে বিদেশে বাংলাদেশি কর্মীর চাহিদার পাশাপাশি রেমিট্যান্সও প্রবাহও বৃদ্ধি পাবে।

রবিবার (২৫ জুলাই) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে কারিগরি শিক্ষার মানোন্নয়ন বিষয়ে এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।

দেশে কারিগরি শিক্ষা বিস্তারের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকার বদ্ধপরিকর। ছাত্র ও যুবসমাজকে যথাযথ প্রশিক্ষণ দিয়ে আন্তর্জাতিক শ্রমবাজারে দক্ষ কর্মী প্রেরণের লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।’

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীনের সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন— কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো আমিনুল ইসলাম খান, জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান দুলাল কৃষ্ণ সাহা, কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. হেলাল উদ্দিন, জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো’র মহাপরিচালক মো. শহীদুল আলম, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান প্রমুখ।

 

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

থুতনিতে মাস্ক রেখে সিগারেট খাওয়ায় ৫০০ টাকা জরিমানা

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

ধান বেচে ১৯৮টি আবেদন করেছিলেন মনিরুল

সর্বশেষ

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

ঢাকায় আরও ১০২ ডেঙ্গু রোগী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রামপুরায় যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

লকডাউন অমান্য: রাজধানীতে গ্রেফতার ৩৮৩ জন

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

কমলাপুর বিআরটিসি ডিপোতে হঠাৎ আগুনে পুড়লো বাস

কামরাঙ্গীরচরে বাসা থেকে মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার

কামরাঙ্গীরচরে বাসা থেকে মা-মেয়ের লাশ উদ্ধার

কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন ঢাকায় গ্রেফতার চারশতাধিক

কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন ঢাকায় গ্রেফতার চারশতাধিক

তবুও বাইরে মানুষ

তবুও বাইরে মানুষ

পোস্তার রাস্তায় পচা চামড়ার স্তূপ

পোস্তার রাস্তায় পচা চামড়ার স্তূপ

‘এত বছর বয়সে এমন কষ্ট কখনো করিনি বাবা’ 

‘এত বছর বয়সে এমন কষ্ট কখনো করিনি বাবা’ 

অযৌক্তিক কারণে বের হলে করা হচ্ছে জরিমানা

অযৌক্তিক কারণে বের হলে করা হচ্ছে জরিমানা

মূল সড়ক ফাঁকা, পাড়া-মহল্লায় আড্ডা 

মূল সড়ক ফাঁকা, পাড়া-মহল্লায় আড্ডা 

© 2021 Bangla Tribune