X
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

খুলনার গুরুত্বপূর্ণ ৫ সড়কের বেহাল দশা

আপডেট : ০৮ জুলাই ২০২১, ২১:০৬

খুলনার গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি সড়কের বেহাল দশা। খানাখন্দে ভরা এ সড়কগুলোর কোথাও কোথাও এত বড় গর্ত হয়েছে যে, যানবাহন পারাপারের উপায় নেই। তবু পাশ কাটিয়ে ঝুঁকি নিয়ে পার হতে হচ্ছে চালকদের। এদিকে বৃষ্টিতে গর্তগুলো পানিপূর্ণ হওয়ায় সড়কগুলোতে চলাচলে দুর্ভোগ চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে।

সড়কগুলো হলো- মহানগরীর মুজগুন্নী মহাসড়ক, ডুমুরিয়ার কাঁঠালতলা-কপিলমুনি হয়ে মাগুরখালীর পাকা সড়ক, রূপসার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন সড়ক, আটরা গিলাতলার আফিলগেটের প্রধান সড়ক ও রূপসা শিপইয়ার্ড সড়ক।

এর মধ্যে, খুলনা মহানগরীর প্রাণকেন্দ্রের মুজগুন্নী মহাসড়কটি সংস্কারের অভাবে এর দশা বেহাল। মহাসড়কটির একটু পর পর টানিয়ে রাখা হয়েছে সতর্কবার্তা। উঠে গেছে বিটুমিন। তৈরি হয়েছে ছোট-বড় গর্ত। বৃষ্টিতে গর্ত হয়েছে ডোবা। প্রায়ই উল্টে যাচ্ছে ইজিবাইক। কাদাপানিতে নাকাল হচ্ছে মানুষ।

নগরীর সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে বয়রা বাজার হয়ে নতুন রাস্তা পর্যন্ত মহাসড়কটি বিস্তৃত। প্রায় ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ এ সড়কটির সর্বশেষ সংস্কার হয়েছিলো ২০১২ সালে। টানা ৯ বছর সংস্কারের অভাবে এর পুরোটাই খানাখন্দে ভরে গেছে। সবচেয়ে খারাপ বয়রা বাজার থেকে নতুন রাস্তা মোড় পর্যন্ত।

খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) থেকে জানা গেছে, জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতায় মহাসড়কটির দুই পাশে ড্রেন নির্মাণের জন্য ব্যয় প্রাক্কলন করা হচ্ছে। ড্রেন নির্মাণ শেষ হলে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সংস্কার ও মেরামত প্রকল্পের আওতায় এটি পুনর্নির্মাণ করা হবে। সেই প্রস্তুতিও চলছে।

করপোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী লিয়াকত আলী খান বলেন, ড্রেন না থাকার কারণে বৃষ্টির সময় পানি জমে সড়কটি দ্রুত নষ্ট হয়ে গেছে। এজন্য আগে ড্রেন নির্মাণ, পরেই সড়ক সংস্কার করা হবে। দরপত্র প্রক্রিয়া শেষ করে চলতি শীতেই ড্রেনের কাজ শুরু হবে।

ডুমুরিয়ার কাঁঠালতলা-কপিলমুনি হয়ে মাগুরখালী পাকা সড়কটির দশাও একই। সংস্কারের অভাবে প্রায় ৩০ কিলোমিটার সড়কটির বেশিরভাগ জায়গায় রয়েছে ছোট-বড় গর্ত। বর্তমানে বৃষ্টির পানি জমে দশা আরও বেহাল হয়েছে।

জানা গেছে, ডুমুরিয়া-পাইকগাছা আন্তঃসড়ক হিসেবে সড়কটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের কাঁঠালতলা বাজার থেকে পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি পর্যন্ত প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সড়ক। এর মধ্যে কাঁঠালতলা থেকে মাগুরখালী ইউনিয়নের শিবনগর-চটচটিয়া ব্রিজ পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন স্থানে বিটুমিন, খোয়া পাথর উঠে ছোট-বড় গর্তে পরিণত হয়েছে।

স্থানীয় কৃষক কুন্তল কুমার মণ্ডল জানান, সড়কটির অবস্থা খারাপ। প্রায় ১৬ বছর আগে এটি নির্মিত হয়। কিন্তু অনেকদিন সংস্কারের অভাবে সৃষ্ট খানাখন্দের মধ্যে পড়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা।

উপজেলা প্রকৌশলী বিদ্যুৎ কুমার দাস জানান, সড়কটি প্রশস্ত ও পুনঃসংস্কারের লক্ষ্যে প্রকল্প তৈরি করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে অফিসের কাজে বিড়ম্বনা হওয়ায় একটু দেরি হচ্ছে। অনুমোদন পেলে দ্রুত সড়ক সংস্কারের কাজ করা সম্ভব হবে।

রূপসার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন সড়কটির দশা দীর্ঘদিন ধরে খারাপ হলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোনও উদ্যোগ নেয়নি। এ সড়কের প্রায় আড়াই কিলোমিটারই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ভ্যানচালক আকরাম হোসেন বলেন, রাস্তাটি দিয়ে চলতে ভ্যানের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে রাস্তাটি নতুন করে করা জরুরি। আরেক ভ্যানচালক মো. সেলিম বলেন, রাস্তাটি এতটা ভেঙেছে এতে চলাচল করতে খুব অসুবিধা হয়ে পড়েছে। এ রাস্তা দিয়ে ভ্যান চালিয়ে যা ইনকাম হয়, এর থেকে ভ্যানের পেছনে ব্যয় হয় বেশি।

ট্রাক ড্রাইভার মো. জামাল বলেন, এ রাস্তা দিয়ে চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এ সড়ক দিয়ে ভারী যানচলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এরপরও হাই লোড (অতিভারী) দিয়ে বড় গাড়ি চালাতে হচ্ছে।

নৈহাটী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল হোসেন বুলবুল বলেন, এ রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে রাস্তাটির দুই পাশে ২৪টির মতো মাছ কোম্পানি রয়েছে। এখানে হাজার হাজার শ্রমিক কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। রাস্তাটি অতি জরুরি সংস্কার করা না হলে আর কিছুদিন পর একেবারেই চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়বে।

আটরা গিলাতলার আফিলগেটের প্রধান সড়কের অবস্থাও একই। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। রাস্তার কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় খানাখন্দে পরিণত হয়েছে। অনেক জায়গায় রাস্তার দুই ধারের মাটি সরে ভেঙে পড়েছে। ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা, ভ্যানগাড়ি ও মোটরসাইকেল আরোহীদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তা যেন ডুবে গেছে।

আফিলগেট বাজারের ব্যবসায়ী রমজান আলী বলেন, দুইদিন পর পর রাস্তা ঠিক করে, আবার নষ্ট হয়ে যায়। ট্রাক চলাচলের কারণে পিচ-পাথর উঠে জায়গায় জায়গায় গর্ত হয়ে আছে। এর মধ্যে একটু বৃষ্টি এলে সব ডুবে যায়। যানবাহন ঠিকমতো চলাচল তো দূরের কথা, মানুষ ঠিকভাবে চলাচল করতে পারে না।

আটরা গিলাতলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ মনিরুল ইসলাম বলেন, ভোগান্তির কথাটি মাথায় রেখে এই মুহূর্তে কোনও বরাদ্দ না থাকলেও ব্যক্তিগত অর্থ দিয়ে ইতোমধ্যে রাস্তার কাজ শুরু করা হয়েছে। বর্ষা মৌসুমের কারণে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে, আশা করি অতিদ্রুত রাস্তাটি সংস্কার করা হবে।

এদিকে আট বছরেও শিপইয়ার্ড সড়কটির প্রশস্তের কাজ শেষ হয়নি। ফলে এ সড়কেও চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চলাচলকারীদের। রূপসা শিপইয়ার্ড সড়কটি প্রশস্তের কাজ ২০১৩ সালে শুরু হয়। কিন্তু লম্বা এ সময়ে শুধুমাত্র জমি অধিগ্রহণ ছাড়া কিছুই হয়নি। প্রকল্প যথাসময়ে সমাপ্ত না হওয়ায় প্রকল্প ব্যয় ৯৯ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে ২৫৯ কোটি ৫১ লাখ টাকা করা হয়। এরপর টেন্ডার কার্যক্রম শেষ হয়নি। ফলে এ সড়কেও দুর্ভোগ পোহাতে সাধারণ মানুষকে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

মোটরসাইকেল না পেয়ে ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা

মোটরসাইকেল না পেয়ে ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা

করোনার টিকা নিয়ে ফেরার পথে মৃত্যু 

করোনার টিকা নিয়ে ফেরার পথে মৃত্যু 

টানা বৃষ্টিতে নষ্টের শঙ্কায় দুবলার চরের ৩ কোটি টাকার শুঁটকি

টানা বৃষ্টিতে নষ্টের শঙ্কায় দুবলার চরের ৩ কোটি টাকার শুঁটকি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বৃষ্টি, ভোগান্তিতে খেটে খাওয়া মানুষ

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বৃষ্টি, ভোগান্তিতে খেটে খাওয়া মানুষ

কুয়েট শিক্ষক সেলিমের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন পুলিশের

কুয়েট শিক্ষক সেলিমের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন পুলিশের

সর্বশেষ

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

নমুনা না দিয়েই করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট পেলেন তিন বিদেশগামী

মেসি-এমবাপ্পের জোড়ায় ব্রুজকে উড়িয়ে  দিলো পিএসজি, হেরেছে ম্যান সিটি

মেসি-এমবাপ্পের জোড়ায় ব্রুজকে উড়িয়ে দিলো পিএসজি, হেরেছে ম্যান সিটি

৬ রোহিঙ্গাকে হত্যা, একজনের স্বীকারোক্তি

৬ রোহিঙ্গাকে হত্যা, একজনের স্বীকারোক্তি

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি: আলালের বিরুদ্ধে ঢাবি শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ও জিডি

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি: আলালের বিরুদ্ধে ঢাবি শিক্ষার্থীদের অভিযোগ ও জিডি

বেগম রোকেয়া পদক ২০২১ পাচ্ছেন যারা

বেগম রোকেয়া পদক ২০২১ পাচ্ছেন যারা

© 2021 Bangla Tribune