X
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

নভেম্বরে এসএসসি ও ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা

আপডেট : ১৫ জুলাই ২০২১, ১৪:৩৪

কোভিড-১৯ পরিস্থিতি অনুকূলে আসলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে সময়, বিষয় ও নম্বর কমিয়ে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গ্রুপভিত্তিক তিনটি বিষয়ের ছয়টি পত্রের নৈর্বাচনিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। অন্যান্য বিষয় ম্যাপিং করে পরীক্ষা মূল্যায়ন করা হবে আগের পাবলিক পরীক্ষার মূল্যায়নের ভিত্তিতে। এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এবং এইচএসসি ও সমমানের  পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা-উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী যুক্ত ছিলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরীক্ষা নেওয়া যদি সম্ভব না হয় তাহলে দুটি অপশনে মূল্যায়ন করা হবে। একটি অপশন হচ্ছে— এসএসসির জন্য ২৪টি এবং এইচএসসির জন্য ৩০টি অ্যাসাইনমেন্ট করিয়ে তা মূল্যায়নের মাধ্যমে ফলাফল দেওয়া। আর একটি হতে পারে শুধু সাবজেক্ট ম্যাপিং করে মূল্যায়ন করা।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘চলতি মাস থেকে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ১২ সপ্তাহে ২৪টি অ্যাসাইনমেন্ট এবং এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ৩০টি অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হবে। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্টের মূল্যায়ন সঠিকভাবে হচ্ছে কিনা সেটিও দৈবচয়ন ভিত্তিতে নজরদারি করা হবে।  ঈদের পর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু হবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়ন করবেন স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।  মূল্যায়ন সঠিক হল কিনা তা যাচাই করা হবে।

ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ গোলাম ফারুক, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্যরা যুক্ত ছিলেন।

 /এসএমএ/এমএস/

সম্পর্কিত

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

অষ্টম-নবম শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের

অষ্টম-নবম শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের

এসএসসির নৈর্বাচনিক বিষয়ে মাত্র দুটি ব্যবহারিক বিষয় জমা দিতে হবে

এসএসসির নৈর্বাচনিক বিষয়ে মাত্র দুটি ব্যবহারিক বিষয় জমা দিতে হবে

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:১৯

চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) এবং উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার সময়সূচি চূড়ান্ত করে তা প্রকাশ করেছে সরকার। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে এসএসসি এবং ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। 

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের উপ-সচিব খালেদা আক্তার সাক্ষরিত এই সময় সূচি প্রকাশ করা হয়।

সূচির বিশেষ নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এক্ষেত্রে এমসিকিউ ও সিকিউ উভয় অংশের পরীক্ষার মধ্যে কোনও বিরতি থাকবে না।

এসএসসি পরীক্ষার সূচি

এইচএসসি পরীক্ষার সূচি

/এসএমএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করোনা চিকিৎসার ব্যয় কার?

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করোনা চিকিৎসার ব্যয় কার?

এসএসসি পরীক্ষার সূচির প্রস্তাবে মন্ত্রণালয়ের সম্মতি সোমবার

এসএসসি পরীক্ষার সূচির প্রস্তাবে মন্ত্রণালয়ের সম্মতি সোমবার

প্রাথমিকে নতুন ক্লাস যুক্ত হচ্ছে না

প্রাথমিকে নতুন ক্লাস যুক্ত হচ্ছে না

নভেম্বরে ‘বিশেষ পরীক্ষা’ নেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

নভেম্বরে ‘বিশেষ পরীক্ষা’ নেবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

বিদেশগমনে দুদক নিষেধাজ্ঞা দিতে পারবে কি না- সিদ্ধান্তের অপেক্ষা বাড়লো

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৪

‘আদালতের অনুমতি ছাড়া কারও বিদেশ যাত্রায় দুদক নিষেধাজ্ঞা দিতে পারবে না’ মর্মে হাইকোর্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদনটি পর্যবেক্ষণসহ নিষ্পত্তি করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। তবে পর্যবেক্ষণে কী থাকছে সে বিষয়ে জানতে রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ হওয়ার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিলি বিভাগ এ রায় দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন। অন্যদিকে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

এর আগে গত ১৬ মার্চ ‘সুনির্দিষ্ট বিধি বা আইন প্রণয়ন না করা পর্যন্ত দুর্নীতি মামলার আসামি বা সন্দেহভাজন কোনও ব্যক্তির বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার বিষয়ে দুদক নয়, সিদ্ধান্ত নেবেন বিশেষ জজ আদালত’ মর্মে পর্যবেক্ষণ দেন হাইকোর্ট। বিদেশ যাওয়ায় দুদকের নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে নরসিংদীর আতাউর রহমান ওরফে সুইডেন আতাউর রহমানের করা এক আবেদনের ওপর শুনানিকালে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ পর্যবেক্ষণ দেন। হাইকোর্ট বলেন, এ বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ আদেশ দেওয়ার সময় প্রয়োজনীয় গাইডলাইন ঠিক করে দেওয়া হবে।

আদালতে আতাউর রহমানের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মুন্সী মনিরুজ্জামান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন বাপ্পী। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট একেএম ফজলুল হক।

আদালত বলেছেন, বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার বিষয়ে দুদকের সুনির্দিষ্ট আইন বা বিধি নেই। এ কারণে এ বিষয়ে দ্রুত সুনির্দিষ্ট আইন বা বিধিমালা করা প্রয়োজন। তাই আশা করছি, এ বিষয়ে দুদক বা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় আইন বা বিধি করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে।

পরে হাইকোর্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) দায়ের করে দুদক।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৪ আগস্ট আতাউর রহমানের সম্পদের তথ্য চেয়ে নোটিশ দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন। এই নোটিশের পর ২২ অক্টোবর তিনি তার সম্পদের তথ্য দুদকে দাখিল করেন। এরপর দুদক অনুসন্ধানে নামে। এই অনুসন্ধানকালে দুদক গত বছরের ২০ ডিসেম্বর আতাউর রহমানের বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে পুলিশের বিশেষ শাখায় (এসবি) চিঠি দেয়। ওই চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করেন আতাউর রহমান। সেই রিটে জারি করা রুল শুনানি নিয়ে গত ১৬ মার্চ রায় দেন হাইকোর্ট। রায়ে ওই চিঠিকে অবৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট।

/বিআই/ইউএস/

সম্পর্কিত

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা স্থগিত

রাবির সাবেক ভিসির বিরুদ্ধে দুদককে তদন্তের নির্দেশনা স্থগিত

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীর গায়ে ফুটন্ত তেল

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চাওয়ায় ঘুমন্ত স্বামীর গায়ে ফুটন্ত তেল

টিকটক আসক্তিতে ঘর ছাড়া কিশোরী ময়মনসিংহে উদ্ধার

টিকটক আসক্তিতে ঘর ছাড়া কিশোরী ময়মনসিংহে উদ্ধার

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ ১২ অক্টোবর

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ ১২ অক্টোবর

ভারতের উপকূল অতিক্রম করেছে ‘গুলাব’, নেমেছে সংকেত 

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৮

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হওয়া ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’ ভারতের উপকূল অতিক্রম করেছে। এর প্রভাবে আর বাংলাদেশের সমুদ্রবন্দর ও নদীবন্দরে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাওয়ার শংকাও দূর হয়েছে। তাই সমুদ্রবন্দরগুলোকে দেয়া ২ নম্বর (দুই নম্বর) দূরবর্তী সতর্কতা সংকেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে এবং তবে নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর (এক নম্বর) সর্তকতা সংকেত এখনও দেখাতে বলা হয়েছে।
 
সমুদ্রবন্দরগুলোর সতর্ক বার্তায় বলা হয়, উত্তর পশ্চিয় ও উত্তর-মধ্য বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় গুলাব মধ্যরাতে ভারতের উত্তর অন্ধ্র প্রদেশ এবং দক্ষিণ উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করে গভীর নিম্নচাপ হিসেবে উত্তর অন্ধ্র প্রদেশ ও দক্ষিণ উড়িষ্যায় অবস্থান করছে। এটি আরও পশ্চিম ও উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আস্তে আস্তে দুর্বল হয়ে পড়তে পারে। এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে ২ নম্বর (দুই নম্বর) দূরবর্তী হুশিয়ারি সতর্কতা সংকেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে। তবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে বিকাল পর্যন্ত সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের পূবাভাসে বলা হয়, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেটের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী বৃষ্টি হতে পারে।
 
নদীবন্দরগুলোর সতর্ক বার্তায় বলা হয়, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, কুষ্টিয়া, যশোর,  খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী,  নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলগুলোর ওপর দক্ষিণ-দক্ষিণ পূর্বদিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ী দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ জন্য এসব এলাকার বন্দরগুলোকে ১ নম্বর (এক নম্বর) সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

/এসএনএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

ভ্যাপসা গরমের পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ভ্যাপসা গরমের পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ঘূর্ণিঝড় 'গুলাব' ভারতের দিকে যাচ্ছে, গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৮ কিলোমিটার

ঘূর্ণিঝড় 'গুলাব' ভারতের দিকে যাচ্ছে, গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৮ কিলোমিটার

গভীর নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’-এ পরিণত, বাতাসের গতিবেগ ৬২ কিলোমিটার

গভীর নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’-এ পরিণত, বাতাসের গতিবেগ ৬২ কিলোমিটার

দুর্বল হয়েছে নিম্নচাপ, নামলো সমুদ্র বন্দরের সতর্কতা সংকেত

দুর্বল হয়েছে নিম্নচাপ, নামলো সমুদ্র বন্দরের সতর্কতা সংকেত

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ওয়ান টাইম প্লাস্টিক’ বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫৭

উপকূলীয় ১২টি জেলার ৪০ উপজেলা এবং চট্টগ্রাম মহানগরীর আটটি এলাকায় সিঙ্গেল ইউজ (ওয়ান টাইম) প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে পরিবেশ অধিদফতর। তিন বছর মেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে এসব এলাকার সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করা হবে। সম্প্রতি পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি কর্ম পরিকল্পনার প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

যেসব এলাকায় সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক বন্ধে পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে সেগুলো হলো- বাগেরহাট জেলার মোংলা, শরণখোলা ও মোড়েলগঞ্জ; বরগুনা জেলার আমতলী, সদর, পাথরঘাটা ও বামনা; ভোলা জেলার সদর, বোরহানউদ্দিন, চরফ্যাশনে, দৌলতখান লালমোহন, মনপুরা ও তজুমুদ্দিন; চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা, বাঁশখালী, মীরসরাই, সন্দ্বীপ ও সীতাকুণ্ড এবং চট্টগ্রাম মহানগরীর বন্দর, ডাবলমুরিং, পাহাড়তলী, পাঁচলাইশ, পতেঙ্গা, হালিশহর, কোতোয়ালী ও বায়েজীদ বোস্তামী; কক্সবাজার জেলার চকরিয়া, সদর, কুতুবদিয়া, মহেশখালী, রামু ও টেকনাফ; ফেনী জেলার সোনাগাজী; খুলনার দাকোপ ও কয়রা; লক্ষ্মীপুরের রামগতি; নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ, হাতিয়া ও সদর; পটুয়াখালী জেলার দশমিনা, রাঙ্গাবালী, গলাচিপা ও কলাপাড়া; পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া; এবং সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি ও শ্যামনগর।

তিন ধাপে আগামী ২০২৩ সালের মধ্যে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়। যেসব সিঙ্গেল ইউজ প্লাস্টিক পণ্য বন্ধ করা হবে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে- ওয়ান টাইম গ্লাস প্লেট ও অন্যান্য পণ্য; জুসের স্ট্র, ললিপপ কভার, স্যাসেট, সিগারেটের ফিল্টার, কটন বাড, সার্জিক্যাল গ্লভস বা মাস্ক এবং নন-রিসাইকেবল পণ্য (মাল্টিলেয়ার প্যাকেট)।

পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রথম ধাপে ২০২১ সালের মধ্যে যাত্রী ও পণ্যবাহী নৌযান, অভ্যন্তরীণ বিমান বন্দর; দ্বিতীয় ধাপে ২০২১ সালের জুনের মধ্যে সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন হোটেল-মোটেল রেস্টুরেন্ট; একই বছর ডিসেম্বরের মধ্যে সৈকত সংলগ্ন হাট বাজার, বাস স্টান্ড, ঘোষিত পাবলিক প্লেস উপজেলা অন্তর্গত সরকারি-আধা সরকারি দপ্তর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং সর্বশেষ তৃতীয় ধাপে ২০২৩ সালের জুনের মধ্যে সৈকত সংলগ্ন সকল উপজেলা এবং ডিসেম্বরের মধ্যে সৈকত সংলগ্ন জেলায় সিঙ্গেল প্লাস্টিক পণ্য বন্ধ করা হবে।

এ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কোস্টাল এলাকায় পরিবেশসম্মতভাবে পাইলট প্রকল্প হিসেবে কক্সবাজার ও পটুয়াখালীতে বর্জ্য সংগ্রহ ও বর্জ্য ফেলার সুবিধাদি স্থাপনের কথা বলা হয়েছে। 

/ইএইচএস/ইউএস/

সম্পর্কিত

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

খবর পেতে দিন গুনতে হয় না তাদের

খবর পেতে দিন গুনতে হয় না তাদের

উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করোনা চিকিৎসার ব্যয় কার?

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৩

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হলে দ্রুত চিকিৎসা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। কিন্তু আক্রান্ত শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার ব্যয় মেটানোর বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনও নির্দেশনা নেই। ফলে কে তাদের ব্যয় মেটাবে তা নিয়ে প্রশ্ন শিক্ষক ও অভিভাবকদের।

জানতে চাইলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ‘যাদের সামর্থ্য আছে তারা করোনা চিকিৎসা নিজেরাই করবেন। কারণ চিকিৎসা সরকারি হাসপাতালে ফ্রি। তারপরও যে অনুষঙ্গিক বাড়তি খরচ তাতে যাদের সামর্থ্য নেই তাদের বিষয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির তত্ত্বাবধানে স্থানীয় প্রশাসন সহযোগিতা নিয়ে করতে হবে।’

প্রসঙ্গত, গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সশরীরে শ্রেণি কার্যক্রম শুরুর পর শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত হচ্ছে। বিগত কয়েকদিনে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক ও শিক্ষার্থী করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

প্রাথমিকে নতুন ক্লাস যুক্ত হচ্ছে না
করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে এলে পর্যায়ক্রমে পুরোপুরি শ্রেণি পাঠদান শুরুর পরিকল্পনা থাকলেও সংক্রমণের এই অবস্থায় সরকারি প্রাথমিকে বিদ্যালয়ের শ্রেণি কার্যক্রমে নতুন করে কোনও ক্লাস যুক্ত হবে না।

করোনা সংক্রমণ কমলেও শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনা যাতে না ছড়িয়ে পড়ে সে লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আপাতত যেভাবে চলছে সেভাবেই বিদ্যালয়ে শ্রেণি পাঠদান চলবে। প্রত্যেক শ্রেণির জন্য প্রতিদিন তিনটি করে বিষয়ের শ্রেণি পাঠদান চলছে। স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) অনুসারে পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে স্থানীয়ভাবে পাঠদান পরিকল্পনা নতুন করে করার কথা বলা থাকলেও এই পরিস্থিতিতে আপাতত নতুন ক্লাস যুক্ত হবে না।

/এসএমএ/এমআর/ইউএস/

সম্পর্কিত

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

এসএসসি পরীক্ষার সূচির প্রস্তাবে মন্ত্রণালয়ের সম্মতি সোমবার

এসএসসি পরীক্ষার সূচির প্রস্তাবে মন্ত্রণালয়ের সম্মতি সোমবার

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

রবিবার টিকা দেওয়া হয়েছে সাড়ে ৬ লাখ  

প্রাথমিকে নতুন ক্লাস যুক্ত হচ্ছে না

প্রাথমিকে নতুন ক্লাস যুক্ত হচ্ছে না

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

এইচএসসির ফরম পূরণের সময় বাড়লো

অষ্টম-নবম শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের

অষ্টম-নবম শ্রেণির নিয়মিত ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ের

এসএসসির নৈর্বাচনিক বিষয়ে মাত্র দুটি ব্যবহারিক বিষয় জমা দিতে হবে

এসএসসির নৈর্বাচনিক বিষয়ে মাত্র দুটি ব্যবহারিক বিষয় জমা দিতে হবে

এসএসসির সপ্তম সপ্তাহের সংশোধিত অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এসএসসির সপ্তম সপ্তাহের সংশোধিত অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এইচএসসি’র পঞ্চম সপ্তাহের সংশোধিত অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এইচএসসি’র পঞ্চম সপ্তাহের সংশোধিত অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এইচএসসির সপ্তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এইচএসসির সপ্তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

এইচএসসির ফরম পূরণ ও ভুয়া বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে সতর্ক করেছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড

এইচএসসির ফরম পূরণ ও ভুয়া বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে সতর্ক করেছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড

২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

২০২২ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

২০২২ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ষষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

সর্বশেষ

রাসেলের চোটে উদ্বিগ্ন কেকেআর

রাসেলের চোটে উদ্বিগ্ন কেকেআর

৩১ বছরের পুরোনো শতাধিক গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ

৩১ বছরের পুরোনো শতাধিক গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ

১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

বিকৃত জাতীয় পতাকা প্রদর্শন১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি বেরোবি কর্তৃপক্ষ

এসেনসিয়াল ড্রাগসে চাকরি, বয়স ৩০ থেকে ৩৫ বছর

এসেনসিয়াল ড্রাগসে চাকরি, বয়স ৩০ থেকে ৩৫ বছর

© 2021 Bangla Tribune