X
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

জনতা ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি পর্ব-১

দুই প্রতিষ্ঠানের কাছে আটকা ৫ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা!

আপডেট : ০৬ আগস্ট ২০২১, ১০:৪২

ব্যাংকিং খ্যাতের যাবতীয় নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে হাজার কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে জনতা ব্যাংক। ব্যাংকটির আর্থিক কেলেঙ্কারি নিয়ে বাংলা ট্রিবিউন-এর ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ থাকছে প্রথম পর্ব।

ব্যাংকিং নীতিমালা উপেক্ষা করে গ্যালাক্সি সোয়েটার অ্যান্ড ইয়ার্ন ডাইং লিমিটেড ও এর সহযোগী প্রতিষ্ঠানের নামে আমদানিকৃত পণ্যে অনৈতিক সুবিধা দেওয়ায় জনতা ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের করপোরেট শাখার ৫ হাজার ৬৩৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির ২০১৬ সালের হিসাবের ওপর সরকারের একটি বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠানের অনুসন্ধানে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে। এ টাকা উদ্ধার করে জড়িতদের দায় নির্ধারণের ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে প্রতিবেদনে।

বাংলা ট্রিবিউনের হাতে আসা নথিপত্রে দেখা গেছে, ব্যাংকিং নীতিমালা উপেক্ষা করে আমদানিকৃত পণ্যের মূল্য নগদে আদায় না করে ডকুমেন্টস ছাড়করণ করা হয়েছে। ফলে ব্যাংকের অনিয়মিত দায় সৃষ্টি হয়েছে।

এ ছাড়া ডেফার্ড এলসির মাল রফতানি বা বিক্রয় সত্ত্বেও ঋণ হিসাবে জমা করা হয়নি। আবার ব্যাংকের মূলধনের নির্ধারিত সীমার বাইরেও ঋণ দেওয়া হয়েছে।

এতে আরও দেখা গেছে, জনতা ভবন করপোরেট শাখার গ্রাহক মেসার্স গ্যালাক্সি সোয়েটার অ্যান্ড ইয়ার্ন ডাইং লিমিটেড ও তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানের নামে ২০১০ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রকল্প ঋণ মঞ্জুর করা হয়। পাশাপাশি ৫টি প্রতিষ্ঠানের নামে সিসি হাইপো ঋণ মঞ্জুর করা হয়। গ্রাহকরা ঠিক সময়ে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হওয়ায় ১০টি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে অনুসন্ধানকালীন (অডিটকালীন সময়) পর্যন্ত পিসিআর ইস্যু করা হয়নি।

ওই প্রতিষ্ঠানের দায়-দেনার বিবরণী পর্যালোচনা করে দেখা যায়, তাদের এলসি লিমিট দেওয়া হয় ২৯০ কোটি টাকার। বিপরীতে পিএডি দায় সৃষ্টি হয় ৪৫০ কোটি ৭৫ লাখ টাকার। যা টার্মলোনে পরিণত হয়েছে। এক্ষেত্রে সীমার অতিরিক্ত এলসি স্থাপন করা হয়।

একইভাবে সুপ্রভ স্পিনিং লিমিটেডের এলসি লিমিট ছিল ১৫০ কোটি টাকা। বিপরীতে পিএডি টার্মলোন হয় ১৭৮ কোটি ৯১ কোটি টাকা। ওই প্রতিষ্ঠানের কাছে বর্তমানে পেমেন্ট এগেইনস্ট ডকুমেন্ট (পিএডি) ক্যাশ এলসি (এট সাইট) ৩ কোটি ৯১ লাখ, ডিমান্ড লোন ১৫৩ কোটি ৩৮ লাখ, ননফান্ডেড ১৪১ কোটি ৫১ লাখসহ মোট ২৯৮ কোটি ৮০ লাখ টাকার এলসি স্থাপন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে ১৪৮ কোটি ৮০ লাখ টাকার অতিরিক্ত এলসি স্থাপন করা হয়।

জামানত ৪৩২ কোটি, ঋণ ৪ হাজার ৯৭৭ কোটি!
মেসার্স গ্যালাক্সি সোয়েটার অ্যান্ড ইয়ার্ন ডাইয়িং লিমিটেডের ৯০৩ কোটি ৭ লাখ টাকা ঋণের বিপরীতে জামানত আছে ২৯৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকার। ঋণের বিপরীতে জামানত ঘাটতি ৬১২ কোটি ৭১ লাখ টাকা। মেসার্স সুপ্রভ কম্পোজিট লিমিটেডের ঋণের দায় রয়েছে ৬২০ কোটি ২৬ লাখ টাকা। জামানত আছে মাত্র ১২৪ কোটি ৯৮ কোটি টাকার। ঘাটতি ৪৯৫ কোটি ২৮ কোটি টাকা।

২০১৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর পরিচালনা পর্ষদে পেশ করা স্মারকে দেখা যায়, গ্যালাক্সি সোয়েটার, সুপ্রভ কম্পোজিট নিট ও সিমরান কম্পোজিট লিমিটেডের তিনটি ঋণ ডিএফ ও বিএল (খেলাপি ঋণ) হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়াই নিয়মিত দেখিয়ে উপর্যুপরি এলসি স্থাপন করে অনিয়মিত দায় সৃষ্টি করা হয়েছে। যা ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১-এর পরিপন্থী।

মঞ্জুরিপত্রের শর্তাবলীর ১১ (ক) অনুযায়ী যন্ত্রপাতি আমদানির ৬ মাসের মধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়নের শর্ত থাকলেও তা পালন করা হয়নি। বাংলাদেশ ব্যাংক হতে প্রকল্প লোন পুনঃতফসিল করা হলেও শর্তানুসারে ২০১৭ সালের জুন হতে কিস্তি আদায়যোগ্য। কিন্তু গ্রাহক কোনও টাকা পরিশোধ করেনি।

৩টি চলমান প্রকল্পের ৩টি সিসি বা ক্যাশ ক্রাডিট (হাইপো) টার্মলোনে পরিণত করে ২০২১ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত মেয়াদ প্রদান করা হয়েছে। সিসি হাইপো ঋণের কাঁচামাল দ্বারা উৎপাদিত পণ্য রপ্তানি বা বিক্রয় করা সত্ত্বেও ঋণ হিসাবে জমা না করায় ব্যাংকের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

আলোচ্য গ্রাহক ও তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানের ঋণগুলো ২য় বার পুনঃতফসিলের জন্য ২০১৭ সালে পর্ষদের অনুমোদন ছাড়া পাঠানো হয়। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংক তা অনুমোদন করেনি। পর্ষদের অনুমোদন ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকে পুনঃতফসিলের জন্য পাঠানা গুরুতর আর্থিক অনিয়ম হিসেবেই ধরা হয়।

ঋণগুলো শ্রেণিকৃত ঋণ হওয়া সত্ত্বেও ব্যাংক ঋণগুলোকে নিয়মিত দেখিয়ে এলসি স্থাপনের সুবিধা দিয়েছে। এটিও ব্যাংকের বিধি-বিধানের পরিপন্থী।

জনতা ব্যাংক লিমিটেডের ২০১৬ সালে মোট মূলধন ছিল ৪ হাজার ৩১৮ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। সমঝোতা স্মারকের (এমওইউ) শর্তানুসারে কোনও একক গ্রাহক বা গ্রুপভুক্ত প্রতিষ্ঠানকে ব্যাংকের মোট মূলধনের ১০ শতাংশের বেশি ঋণ দেওয়া যাবে না। কিন্তু এ ক্ষেত্রে ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ঋণের স্থিতি রয়েছে (ফান্ডেড) ৪ হাজার ৯৭৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকা।

অপরদিকে ওই সময় ব্যাংকটির ননফান্ডেড দায় ৬৫৭ কোটি টাকা। এমওইউর শর্তানুসারে ব্যাংকের মূলধনের ৫ শতাংশের বেশি ননফান্ডেড দায় রাখা যাবে না। এক্ষেত্রেও স্মারকের শর্ত না মেনে ৪৪১ কোটি ৫৪ লাখ টাকার অতিরিক্ত ননফান্ডেড দায় তৈরি করা হয়েছে।

মেসার্স গ্যালাক্সি সোয়েটার অ্যান্ড ইয়ার্ন ডাইং লিমিটেডের অনুকূলে ১৪৫টি ক্যাশ এলসি (এট সাইট) স্থাপন করা হয়। এলসির পেমেন্ট চুক্তির নথি (পিএডি) বাবদ দায় ১৮১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা নগদে আদায় না করে ডকুমেন্টস ছাড়করণ করায় ব্যাংকের অনুকূলে অনিয়মিত দায় হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটি শীর্ষ ৩০০ ঋণখেলাপি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি।

একইভাবে সুপ্রভ স্পিনিংয়ের ৪টি, সুপ্রভ কম্পোজিট লিমিটেডের অনুকূলে ৩৬টি, সুপ্রভ রোটর স্পিনিংয়ের অনুকূলে ২টি এবং সিমরান কম্পেজিট লিমিটেডের অনুকূলে ১টি ক্যাশ এলসির পিএডিসহ মোট ১৫৪ কোটি ৬০ লাখ টাকার পিএডি দায় আদায় না করেই ডকুমেন্ট ছাড় করা হয়েছে। এটিও নীতিমালা বিরুদ্ধ।

গ্রাহক ও তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে এক হাজার ৩৪৮ কোটি ৫২ লাখ টাকার পিএডি ও ডিমান্ড লোনের মালামাল আমদানি করা হয়। উক্ত টাকার মালামাল বিক্রি করা সত্ত্বেও গ্রাহক ঋণের টাকা জমা করেনি। বরং অনবরত আমদানি এলসি স্থাপনের মাধ্যমে ব্যাংকের ক্ষতি করে গেছে।

এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও তার সহযোগী প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে ১৬৫টি সাইট এলসি ও ডেফার্ড এলসি স্থাপন করা হয়েছে যার মূল্য ৩৭৪ কোটি ৭১ কোটি টাকা। এই এলসির দায়ও যে কোনও সময় ফান্ডেড ঋণে পরিণত হবে।

গ্যালাক্সি সোয়েটার অ্যান্ড ইয়ার্ন ডাইং লিমিটেড ৪ বছরে প্রায় ২ হাজার ২৫২ কোটি টাকা আমদানির বিপরীতে ৪৮১ কোটি ৩৬ লাখ টাকার রফতানি করেছে। আমদানির তুলনায় যা প্রায় এক হাজার ৭৭০ কোটি টাকা কম। এ আমদানির এলসি জনতা ব্যাংক ভবন করপোরেট শাখা হতে করা হয়েছে। অথচ গ্রাহক জনতা ব্যাংকের মাধ্যমে রফতানি কার্যক্রম পরিচালনা করে না এবং বিক্রয়লব্ধ টাকা ঋণ হিসাবে জমা করেনি।

এলসি মূল্য নগদে আদায় না করে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক পুনঃতফসিলকরণের মাধ্যমে মেয়াদী ঋণে পরিণত করা ব্যাংকের আর্থিক শৃঙ্খলার পরিপন্থী। সুপ্রভ স্পিনিং মিলস লিমিটেড ও সুপ্রভ রোটটের সিসি ঋণ হিসাবে সীমার অতিরিক্ত দায় আদায়ে কোনও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। উল্টো ক্রমাগত ডেফার্ড এলসি স্থাপন করে দিনদিন দায় বাড়ানো হয়েছে।

অনিয়মের কারণ উল্লেখ করে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমদানিকৃত পণ্যের মূল্য নগদে আদায় না করে ডকুমেন্টস ছাড়করণ, সমঝোতা চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন, নীতিমালা ভেঙে পিএডি’কে টার্মলোনে রূপান্তর, পর্যাপ্ত সহায়ক জামানত থাকা, লিমিট অতিরিক্ত এলসি স্থাপন করায় এ অনিয়ম হয়েছে। এতে একক ঋণ দানে ব্যাংকের পেইড আপ ক্যাপিটালের সীমা অতিক্রম করেছে। ক্রমশ ব্যাংকের দায় বেড়েছে ও ঋণ আদায়ের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে।

এসব বিষয়ে জনতা ব্যাংক বলেছে, গ্যালাক্সি সোয়েটার ও সুপ্রভ স্পিনিংয়ের অনুকূলে তৈরি পিএডি বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতিমালা ও অনাপত্তির আওতায় টার্মলোনে রূপান্তর করা হয়েছে। কোম্পানিগুলোর সহজামানত ১:১ এ উন্নীত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কয়েকটি প্রকল্পের অবকাঠামোগত ত্রুটি থাকায় ওই প্রকল্পের পিসিআর ইস্যু করা যায়নি। এ কাজ চলমান আছে।

জনতা ব্যাংকের এই জবাব গ্রহণযোগ্য নয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, এমওইউর শর্ত লংঘন করে অনবরত দায় সৃষ্টি করে ব্যাংকের ক্ষতি করা হয়েছে। তাছাড়া পিএডির টাকা নগদে আদায় না করে টার্মলোনে রূপান্তর করা, সিসি (হাঃ) ঋণকে টার্মলোনে রূপান্তর করা ও পিসিআর ইস্যু না করা ব্যাংক নীতিমালার পরিপন্থী।

সহজামানত না বাড়িয়ে সীমার বাইরে এলসি খোলার অনুমোদন প্রদান করায় ব্যাংকের ক্ষতিও হয়েছে। এ অনিয়মের বিষয়ে ২০১৮ সালের ২৮ জুন অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর অগ্রিম অনুচ্ছেদ জারি করা হয় এবং ৮ আগস্ট তাগিদপত্র দেওয়া হয়। জবাব না পাওয়ায় ২০১৯ সালের ১৮ মার্চ সচিব বরাবর আধাসরকারি পত্র দেওয়া হলেও জবাব পাওয়া যায়নি।

এ অবস্থায় অনিয়মের দায়-দায়িত্ব নির্ধারণ করে আপত্তিতে জড়িত টাকা আদায় করা জরুরি বলা হয়েছে। অনাদায়ী অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই করে অনিয়মে জড়িত প্রকৃত অর্থের পরিমাণ নির্ধারণ করাও জরুরি বলা হয়েছে প্রতিবেদনে।

এ বিষয়ে জানতে জনতা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আবদুছ ছালাম আজাদের সঙ্গে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি। এসএমএস পাঠালেও সাড়া দেননি।

জানতে চাইলে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ব্যাংকিংয়ের পুরো ব্যবস্থাকে জিম্মি করে ফেলা হয়েছে। এক্ষেত্রে যারা ঋণখেলাপি তাদের পক্ষেই আবার আইন সংশোধন করা হয়েছে। তাদেরকে বারবার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। জনতা ব্যাংকও রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন। এই ব্যাংকেরও নীতিমালা রয়েছে যা পালন করা হয় না।

তিনি আরও বলেন, ‘পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদন ছাড়া তো এমনটা হতে পারে না। অসাধু ব্যবসায়ীরা ব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের একাংশের যোগসাজশে এমন কাজ করে। বোর্ড সদস্যদের মধ্যেও এই যোগসাজশ রয়েছে। ব্যাংকটির নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা দুর্বল। বাংলাদেশ ব্যাংকের তদারকিরও অভাব রয়েছে। ব্যর্থতার দায় তাদেরও নিতে হবে।’

/এফএ/
টাইমলাইন: জনতা ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি
২৮ জুলাই ২০২১, ১৫:০০
দুই প্রতিষ্ঠানের কাছে আটকা ৫ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা!

সম্পর্কিত

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:০১

আইনজীবী তালিকাভুক্তির (এনরোলমেন্ট) মৌখিক পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল। এর ফলে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ৫৯৭২ জন শিক্ষার্থী আইনজীবী হিসেবে দেশের বিভিন্ন আদালতে পেশা পরিচালনা করতে পারবেন।

শনিবার ( ২৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে এ ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে ৫৯৭২ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। তবে প্রয়োজনীয় নথিপত্র জমা না দেওয়ায় নয়জনের ফলাফল উইথহেল্ড রাখা হয়েছে। ৩০ দিনের মধ্যে কাগজপত্র জমা না দিলে তাদের ফলাফল বাতিল করা হবে।

এছাড়া একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের রিট আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আরও তিনজনের ফলাফল উইথহেল্ড রাখা হয়েছে।

এখন তারা তাদের সংশ্লিষ্ট আইনজীবী সমিতিতে ছয় মাসের মধ্যে মেম্বারশিপ নিয়ে আইন পেশা শুরু করতে পারবেন বলেও বার কাউন্সিল জানিয়েছে।

এর আগে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়াম ও সুপ্রিম কোর্ট জাজেস স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ধাপে ধাপে এ মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গত ২৫ জুলাই থেকে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১৫ জুলাই এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে তা স্থগিত করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর ও চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি আইনজীবী অন্তর্ভুক্তির লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সেখান থেকে উত্তীর্ণ এবং বিগত দুই পরীক্ষায় মৌখিক পরীক্ষায় আটকে পড়ারা এবার মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। কেননা, তিন ধাপের নৈবর্ত্তিক, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণরাই আইনজীবী হিসেবে প্রাকটিস করতে পারেন। একবার লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তারা তিনবার সরাসরি মৌখিক পরীক্ষার জন্য বিবেচিত হন। 

/বিআই/এমআর/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫৫

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি সমাবেশ করেছে ‘উদ্যমে উত্তরণে শতকোটি’   নামে একটি সংগঠন।

শনিবার(২৫ সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে চারটায় রাজধানী ঢাকার শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে সমাবেশ করে সংগঠনটি। এর আগে ১সেপ্টেম্বর থেকে অনলাইনে শুরু হয় আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি প্রকাশ।

সমাবেশের শুরুতে সদ্য প্রয়াত ভারতীয় প্রখ্যাত নারীবাদী লেখক, প্রশিক্ষক ও অধিকারকর্মী কমলা ভাসিনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।  সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন-মানবাধিকার কর্মী খুশি কবীর এবং সঞ্চালনা করেন- আইনজীবী ও অ্যাক্টিভিস্ট জীবনান্দ জয়ন্ত।

সমাবেশে সাঙ্গাত ও উদ্যমে উত্তরণে শতকোটির থেকে বিবৃতি পাঠ করেন সোহানা আহমেদ।

বিবৃতি পাঠকালে তিনি বলেন,  মৌলবাদ এবং স্বৈরতন্ত্রের বিরুদ্ধে আফগান নারীদের প্রতিবাদী আন্দোলনের সঙ্গে আমরা একাত্মতা প্রকাশ করছি। আমরা বিশ্বাস করি, আফগানিস্তানের নাগরিক হিসেবে সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা পাওয়ার অধিকার রয়েছে আফগানী নারীদের। শিক্ষার অধিকার, কাজ করার অধিকার, স্বাধীনভাবে শ্বাস নেবার অধিকার, নিরাপদ ও সুস্থ জীবনের অধিকার এবং সর্বোপরি মানুষ হিসেবে নিজের মতো করে বাঁচার ন্যায়সঙ্গত অধিকার তাদের রয়েছে।

এসময় সকল দেশের সরকার, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ এবং আঞ্চলিক সংস্থাসমূহের প্রতি নয়টি  দাবি উত্থাপন করেন তারা।

তাদের দাবিগুলো হলো- তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি না দেওয়া, তালেবানকে সকল প্রকার অর্থনৈতিক, সামরিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তা প্রদান বন্ধ করার ব্যবস্থা করা, বাণিজ্যিক ও অন্য কোনও স্বার্থে নারীর অধিকার যেন ক্ষুণ্ণ না হয়, তা নিশ্চিত করা ইত্যাদি।

/এমআর/

সম্পর্কিত

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৫৫

একদিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ২৫ জন। তাদের মধ্যে আজসহ টানা তিন দিন বরিশাল বিভাগে ভাইরাসটিতে কোনও প্রাণহানি হয়নি। একইসঙ্গে সঙ্গে রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগেও এই সময়ে কেউ মারা যাননি।

এর আগে গত ২৩ সেপ্টেম্বর দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একদিনে তিন বিভাগে কেউ মারা যাননি। 

অতি সংক্রমণশীল ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তাণ্ডবের পর দেশে দৈনিক নতুন শনাক্ত রোগী আর মৃত্যুর সংখ্যা গত মধ্য আগস্ট থেকে কমে আসে। যদিও দেশে মহামারিকালের ১৮ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখেছে বাংলাদেশ আগস্ট মাসেই। গত পাঁচ এবং ১০ আগস্ট একদিনে সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর থেকে ডেল্টার তাণ্ডব কমে আসে। কমে আসতে শুরু করে শনাক্ত ও মৃত্যু। 

গত পাঁচ দিন ধরে দৈনিক শনাক্তের হারও রয়েছে পাঁচ শতাংশের নিচে।

/জেএ/এনএইচ/

সম্পর্কিত

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

একদিনে ২২১ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ সাড়ে ৯ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

‘স্বস্তির ঢিলেমি’ আবারও বিপর্যয় আনতে পারে

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

টানা দুই দিন করোনায় মৃত্যুহীন বরিশাল 

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৪১

কক্সবাজারের আমারী রিসোর্ট নামে একটি হোটেল থেকে উদ্ধার হওয়া নারীর লাশের রহস্য উন্মোচন করেছে র‌্যাব। র‌্যাব বলছে, পূর্ব পরিচয়ের জেরে কক্সবাজারের সেই হোটেলে ওই তরুণীকে নিয়ে যায় সাগর নামে ্েকে যুবক। হোটেলটিতে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে তারা ওঠে। পরবর্তীতে জোরপূর্বক ধর্ষণ ও হত্যা করে এই নারীকে। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে এমনই তথ্য দিয়েছে গ্রেফতারকৃত সাগর নামের সেই যুবক।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর কাওরান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান।

তিনি বলেন, কক্সবাজারের সেই হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওঠার পর সেই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে গ্রেফতারকৃত সাগর। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয় ধস্তাধস্তি এক পর্যায়ে সাগর ভিকটিমের গলা চেপে ধরে দেয়ালে ধাক্কা দিলে ওই নারী মেঝেতে পড়ে যায়। আঘাতের কারণে মৃত্যু হয় তার। পরে সে হোটেল থেকে পালিয়ে যায়।

র‌্যাব-১০ এর একটি আভিধানিক দল রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকার সায়দাবাদ বাস স্ট্যান্ড এর টোল প্লাজার সামনে থেকে সাগর মিজি (২৪) নামের সেই যুবককে শনিবার গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছে থাকা ভিকটিমের মোবাইলসহ তিনটি মোবাইল, নগদ ১৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মাহফুজুর রহমান আরও বলেন, সাগর স্কুল-কলেজ পড়ুয়া মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কৌশলে ধর্ষণ করতো সে। একাধিক নারীকে মিথ্যা প্রেমের ফাঁদে ফেলে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে বাধ্য করেছে বলেও প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সকালে কক্সবাজারের কলাতলী এলাকার আমারই রিসোর্ট নামক হোটেলে একটি কক্ষ ভাড়া নেয় সাগর। ২০ সেপ্টেম্বর আসামির সাগর ওই তরুণীকে (২৬) নিয়ে  রুমে উঠে।  ২১ সেপ্টেম্বর সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে হোটেল কর্তৃপক্ষ রুমের ভেতর কোনও সাড়া শব্দ না পেলে কক্ষের দরজা ভেঙে মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

ট্রাংকে ভরে তরুণীর লাশ পাঠালেন ঢাকায়, ছয় বছর পর ধরা যুবক

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

কক্সবাজারে হোটেলে তরুণী ‘হত্যা’য় অভিযুক্ত ঢাকায় গ্রেফতার

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

‘এখনও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অপব্যবহার হচ্ছে’

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

মাদকবিরোধী রাজধানীতে গ্রেফতার ৫৯ জন

থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌: আইজিপি

আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:২৬

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, থানার ওসি চাইলেই হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা হতে পারেন‌। মানুষের জন্য কাজ করে তাদের হৃদয় ও মন জয় করা যায়। এটা টাকা দিয়ে কেনা যায় না। 

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা রেঞ্জের আগস্ট মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে আইজিপি এসব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, পুলিশ যত ভালো কাজ করুক না কেন একটি খারাপ কাজ সব অর্জনকে নষ্ট করে দেয়। সমাজ পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতিরও পরিবর্তন হয়। সর্বদা সমাজের পরিবর্তনশীল চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে পুলিশিং কার্যক্রম চালু রাখতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি। 

জুনিয়রদের যোগ্য করে গড়ে তোলা সিনিয়রদের দায়িত্ব উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, জুনিয়রদের জন্য ভালো উদাহরণ তৈরি করতে হবে। ভালো কাজে তাদেরকে মোটিভেট করতে হবে। তাদেরকে সুপারভাইজ করতে হবে। চাকরিতে ‘প্যাশন’ আনতে হবে। প্রত্যেক পুলিশ সদস্যের সম্মান ও মর্যাদাবোধ থাকতে হবে। 

বিট পুলিশিং একটি কার্যকর পদ্ধতি জানিয়ে পুলিশ প্রধান বলেন, বঙ্গবন্ধু প্রতিটি ইউনিয়নে থানা করার যে স্বপ্ন দেখেছিলেন মূলত বিট পুলিশিং সে লক্ষে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী ইশতেহারে ঘোষণা করেছিলেন; প্রতিটি গ্রামে শহরের সুবিধা পৌঁছে দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে প্রতিটি ইউনিয়নে অপরাধ ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় বিট পুলিশিং কার্যকর অবদান রাখতে পারে। 

আইজিপি আবারও দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে ঘোষণা করেন, কোনও পুলিশ সদস্য যদি অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে সেটা বন্ধ করতে হবে। পুলিশে কোনও অপরাধীর জায়গা নেই। আইজিপি ঢাকা রেঞ্জের বিভিন্ন ইনোভেশন কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি অন্যান্য ইউনিটেও এ ধরনের ইনোভেশনের চর্চার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। 

ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান আগস্ট মাসের সার্বিক অপরাধ পরিস্থিতি, অপরাধ ব্যবস্থাপনা, বেস্ট প্র্যাকটিসেস এবং ইনোভেশন কার্যক্রম সভায় উপস্থাপন করেন। মাদারীপুর জেলা পুলিশ আয়োজিত এ সভায় ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজিগণসহ রেঞ্জাধীন সকল জেলার পুলিশ সুপারগণ এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

/আরটি/এনএইচ/

সম্পর্কিত

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

কক্সবাজারে হোটেলে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে সাগর

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

ডেঙ্গু পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে: মেয়র আতিক

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

ছেলেরা কি সোনা-রুপার অলঙ্কার পরতে পারবে?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের দাবি বেসরকারি শিক্ষকদের

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

কেরানীগঞ্জে হেরোইনসহ গ্রেফতার ২

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

প্রত্যেকটি খালের পাড়ে ওয়াকওয়ে হবে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

একটি হাত ব্যাগ ও সৌদি আরব প্রবাসীর কান্না-হাসি

একটি হাত ব্যাগ ও সৌদি আরব প্রবাসীর কান্না-হাসি

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৫২

মাদকবিরোধী অভিযানে রাজধানীতে গ্রেফতার ৫২

দুর্গাপূজাকে ঘিরে ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পী,  উদযাপনের কিছু শর্ত শিথিল হতে পারে

দুর্গাপূজাকে ঘিরে ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পী,  উদযাপনের কিছু শর্ত শিথিল হতে পারে

নদীর দখল রোধে আবার পিলার

নদীর দখল রোধে আবার পিলার

বাউবি’র স্থগিত বিএ ও বিএসএস পরীক্ষা  শুক্রবার শুরু

বাউবি’র স্থগিত বিএ ও বিএসএস পরীক্ষা  শুক্রবার শুরু

সর্বশেষ

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

নতুন করে আইনজীবী হলেন ৫৯৭২ জন

রাস্তার মোড়ে ক্রেনে মরদেহ ঝুলালো তালেবান

রাস্তার মোড়ে ক্রেনে মরদেহ ঝুলালো তালেবান

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

করোনায় ঘরবন্দি সময় কাজে লাগিয়ে সফল উদ্যোক্তা এলিজা

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আফগান নারীদের প্রতি একাত্মতা ও সংহতি জানিয়ে ঢাকায় সমাবেশ

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

আবারও বরিশালসহ ৩ বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দিন

© 2021 Bangla Tribune