X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বন্ধু আছে কতপ্রকার!

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২১, ১৩:৪০

নিজের বন্ধুদের দিকেই তাকান। একেকজনের স্বভাব একেকরকম। সম্পূর্ণ ভিন্ন ব্যক্তিত্বের হয়েও একজন আরেকজনের কাঁধে হাত রেখে চলার নাম বন্ধুত্ব। আজ বন্ধু দিবসে নিজের কোন বন্ধুকে কোন কাতারে ফেলা যায় সেটাই দেখে নিন এবার।

 

সদা যত্নশীল

বন্ধুদের দলে এমন একজন সবসময়ই থাকে, যে বাকিদের একেবারে অভিভাবকের মতো আগলে রাখে। শারীরিক-মানসিক যাবতীয় খেয়াল রাখার পাশাপাশি বিপদে এগিয়েও আসে সবার আগে। এমন বন্ধুর কথা চোখ বুঁজে বিশ্বাস করা যায় ও এদের পরামর্শও নেওয়া যায় নির্দ্বিধায়।

 

ফূর্তিতে অটুট

এই ধরনের বন্ধুকে দেখলে মনে হয় তার জীবনে বুঝি কোনও ঝামেলাই নেই! তারা জানে কীভাবে জীবনকে উপভোগ করতে হয়। নিজের যাবতীয় ঝুট-ঝামেলাকে পকেটে ভরে এরা বন্ধুদের মাতিয়ে রাখতেই সদা সচেষ্ট। অবশ্য এমন বন্ধুরাই কিন্তু বাবা-মায়ের ব্ল্যাক লিস্টের শীর্ষে থাকে! চেষ্টা করুন, এ টাইপের বন্ধুদের সমস্যাগুলো খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে বের করার।

 

আচমকা গায়েব

একটু আগেই দেখলেন পাশে বসে আছে, কিছুক্ষণ পরই হাওয়া! ফোনে একটু পর টুং করে বেজে উঠলো নোটিফিকেশন। বন্ধু লিখেছেন, ‘সরি দোস্ত, জরুরি কাজ পড়ে গেছে।’ এ ধরনের বন্ধুরা স্যোশাল মিডিয়াতেও তেমন একটা সরব থাকে না। নিজে থেকেও আপনার খুব একটা খোঁজ নেবে না। তবে এটাকে পুরোপুরি দোষ দেওয়া যায় না, এমনটা ঘটে বন্ধুর অন্তর্মুখী স্বভাবের কারণেই। এমন বন্ধু আবার মাঝে মাঝে আপনার উপকারে কাজ করে যাবে নিস্বার্থভাবেই।

 

ছিঁচকাদুনে

এরা অতি আবেগী। কথাবার্তা বলতে হয় মেপেমেপে। এই অনুতপ্ত, আবার পরক্ষণেই মুখ গোমড়া। এদেরকে মাঝে মাঝে ক্ষ্যাপানোর মধ্যেও আছে মজা!

 

খাওয়া এবং খাওয়া

এই প্রকার বন্ধুদের মাথাতেও একটা পাকস্থলী থাকে। দেখা হলে সবার আগে খাওয়ার প্রসঙ্গটাই নিয়ে আসবে ইনিয়ে বিনিয়ে। আপনি যদি বলেন-‘দোস্ত ভাল্লাগছে না।’ সে একগাল হেসে বলবে ‘কাচ্চি খেলে মন ভালো থাকে।’ তবে এদের কাছ থেকে জেনে নিতে পারবেন, কোন খাবারের জন্য কোন রেস্তোরাঁ বা কোন পেজটা বিখ্যাত।

 

সুপারহিরো

পরীক্ষার সাজেশন হোক, কিংবা বাবা-মায়ের কাছ থেকে বেড়াতে যাওয়ার অনুমতি- সব সমস্যার সমাধানে সিদ্ধহস্ত টাইপের বন্ধু এরা। প্রতিটি বিপদের জন্য একাধিক সমাধান মাথায় গিজ গিজ করে তাদের। বাসায় ঢোকার চাবি হারিয়ে গেলেও তাই এ ধরনের বন্ধুর কথা মাথায় আসবে সবার আগে।

 

সবসময় লেট

আপনি যতই দেরি করে কোনও গেট টুগেদারে হাজির হন না কেন, একজন আসবে আপনারও পরে (হতে পারে সেটা আপনি!) অবশ্য এ কারণে ওই বন্ধুর মধ্যে বিন্দুমাত্র অনুশোচনা দেখবেন না। শত হলেও বন্ধুই তো। বড় করে হাই তুলতে তুলতে হয়তো বলবে, এই একটু লেট হয়ে গেলো।

 

পকেট ফাঁকা যার

এই বন্ধুর পকেট সবসময় গড়ের মাঠের মতো ফাঁকা থাকে। যথারীতি বাকি বন্ধুদের পকেটগুলোকে তার কাছে ক্রেডিট কার্ডের মতো মনে হয়। তবে এ ধরনের বন্ধু আবার আপনার বিপদে নিজের সবটুকু দিয়ে ঝাঁপিয়েও পড়বে।

 

অফিশিয়াল ফটোগ্রাফার

ট্যুরে আর কেউ যাক বা না যাক, ওই বন্ধুটা যাচ্ছে কিনা তার খোঁজ সবাই নেবে। এর সঙ্গে ওর, ওর পেছনে তাকে আর সবার সঙ্গে সবার ছবি তুলতে যার একটু ক্লান্তি নেই। এমন বন্ধু থাকলে আর নিজের ফোনের মেগাপিক্সেল নিয়েও ভাবতে হবে না।

/এফএ/

সম্পর্কিত

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০০

একটি প্রাণবন্ত হাসিখুশি ত্বক আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেয়। তবে প্রায়ই অযত্নের কারণে ত্বক হারিয়ে ফেলে সজীবতা। ব্যস্ত জীবন থেকে কিছুটা সময় বের করে ত্বকের যত্ন নিতে গেলে নিচের কাজগুলো আপনাকে করতেই হবে।

 

ত্বক পরিষ্কার রাখুন

সঠিক পিএইচ-যুক্ত সাবান দিয়ে ত্বক প্রতিদিন পরিষ্কার করুন ও ত্বকে ময়েশ্চরাইজার ব্যবহার করুন। এতে ত্বক যথেষ্ট পুষ্টি পাবে এবং স্বাভাবিক আর্দ্রতা ও তৈলাক্ততা বজায় থাকবে। ত্বক থাকবে কোমল ও সুস্থ।

 

পরিমিত ও পুষ্টিকর খাবার

বলা হয়, আপনি যা খাবেন, সেটারই ছাপ দেখা যাবে ত্বকে। অর্থাৎ যতবেশি পুষ্টিকর খাবার খাবেন ত্বকও তত উজ্জ্বলতা ছড়াবে। দৈনন্দিন রুটিনে ফল এবং শাকসবজি বেশি রাখুন। ত্বকের স্বার্থে হলেও এড়িয়ে চলুন তেলজাতীয় খাবার।

 

পর্যাপ্ত পানি

ত্বকের সুস্থতার জন্য ত্বকের কোষে পানি থাকা চাই। আর এ জন্য পানি পানের বিকল্প নেই। পর্যাপ্ত পানি আমাদের শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে। যা ত্বকেও ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এতে ব্রণ বা ত্বকে সংক্রমণও কম হয়।

 

হাসিখুশি থাকুন

আমাদের মানসিক অবস্থা সরাসরি শরীরের ওপর প্রভাব ফেলে। স্বাভাবিক হাসি ত্বকের রক্তচলাচল বাড়ায়। এতে ত্বক আরও বেশি অক্সিজেন ও পুষ্টি পায়। তাই ত্বকের সৌন্দর্যে হাসুন কারণে-অকারণে।

 

হালকা ব্যায়াম না করলেই নয়

যখন আমরা নড়াচড়া একটু বেশি করি তখন আমাদের শরীরে এনডোরফিন হরমোন উৎপন্ন হয় বেশি। এটি সুখের অনুভূতি দেয়। যার ছাপ পড়ে ত্বকেও। ত্বকের যত্ন নিতে চাইলে তাই হালকা ব্যায়াম চালিয়ে যান।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

নিজেই বানান নারিকেল তেল

আপডেট : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:০১

উপমহাদেশের কিছু রেসিপিতে নারিকেল তেল না হলে চলেই না। আমাদের দেশেও অনেক অঞ্চলে নারিকেলের মালাইকারির কদর অনেক। যদি নিজেই নারিকেল থেকে তেলটা বের করে নিতে পারেন, তবে তো কথাই নেই। আর রান্নায় যেহেতু চুলে মাখার তেল ব্যবহার করা যাচ্ছে না, তাই নিরাপত্তার খাতিরে নিজেই বানিয়ে ফেলুন।

 

যেভাবে বানাবেন নারিকেল তেল

  • নারিকেল কোরানো ঝামেলার কাজ মনে হলে আছে বিকল্প। দুভাগ করা নারিকেলটাকে ওভেনে মিনিট পাঁচেক মাইক্রোওয়েভ করুন। এতে খোল থেকে নারিকেল আলাদা করাটা সহজ হয়ে যাবে।
  • নারিকেলগুলোকে ছোট টুকরো করে কাটুন। তারপর সামান্য পানি মিশিয়ে কয়েক ব্যাচে ব্লেন্ড করুন। প্রতিবারে অন্তত ২ মিনিট করে ব্লেন্ড করুন। এতে নারিকেল দুধ তৈরি হবে।
  • পাল্পটা ছেঁকে তরল অংশটুকু একটি পাত্রে নিন। অল্প আঁচে জ্বাল দিতে থাকুন।
  • কিছুক্ষণ পর তরলের মধ্যে নারিকেলগুলো দলা পাকানো শুরু করবে। এটা স্বাভাবিক। ধীরে ধীরে আরও দলা পাকিয়ে আসবে। অল্প আঁচে জ্বলতে থাকুক চুলা।
  • এক পর্যায়ে দেখবেন নারিকেল থেকে তেল আলাদা হতে শুরু করেছে। প্রায় এক ঘণ্টা পর সম্পূর্ণ তেলটাই আলাদা হবে। এরপর চুলা বন্ধ করে ঠান্ডা হতে দিন। ঠান্ডা হওয়ার পর সহজেই তেলটা ছেঁকে নিতে পারবেন।

 

নারিকেল তেলের স্বাস্থ্য উপকার

পরিমিত মাত্রায় নারিকেল তেল খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। শরীরে ভালো কোলেস্টেরলও বাড়ায় এটি। নারিকেল তেল হজমেও সহায়ক। আবার মুখগহ্বরের যত্নে নারিকেল মাউথওয়াশের কাজও করে।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

ঢাকা রিজেন্সিতে পর্যটন উৎসবে যত অফার

ঢাকা রিজেন্সিতে পর্যটন উৎসবে যত অফার

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:১৭

আসছে মটরশুঁটির মৌসুম। শীতের শস্য হিসেবে এর তুলনাই হয় না। আছে ভিটামিন এ, বি, সি, ই ও জিংক। ডায়াবেটিসসহ আরও অনেক রোগের জন্যই এটি উপকারী। এসব কারণে মৌসুম এলে মটরশুঁটি চলেও বেশ। আর সেটার সুযোগ নেয় অসাধুরা। তাই কারও কাছ থেকে বেশি পরিমাণে কেনার আগে কিংবা কেনার পর খাওয়ার আগে পরীক্ষা করে দেখে নিন, চকচকে সবুজ রঙটা প্রাকৃতিক নাকি রাসায়নিক?

 

যেভাবে পরীক্ষা করবেন

একটি স্বচ্ছ গ্লাসে পরিষ্কার পানি নিন। তাতে কিছু মটরশুঁটি রাখুন। অনেক নকল রঙ সঙ্গে সঙ্গে ঘষলেই কিন্তু বের হবে না। তাই অপেক্ষা করুন অন্তত আধা ঘণ্টা। রঙ নকল হলে দেখবেন পানি সবুজাভ হয়ে গেছে। আসল মটরশুঁটি হলে এমনটা কখনই হবে না।মটর

/এফএ/

সম্পর্কিত

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮:৩৫

‘একবেলা খেলে কিছু হবে না’ এমন ফাঁদে পড়ে যারা প্রেসক্রিপশনের বাইরে একটু বেশিই কোলেস্টেরলযুক্ত খাবার খেয়ে ফেলেন তাদের জন্যও আছে সমাধান। চলুন দেখা যাক বিশেষজ্ঞরা কী টিপস দিচ্ছেন এ নিয়ে—

 

কুসুম গরম পানি

যখনই মনে হবে তেল-চর্বি জাতীয় খাবার একটু বেশিই গিলে ফেলেছেন, খাওয়ার ৩০-৩৫ মিনিট পর থেকে কুসুম গরম পানি পান করতে শুরু করুন। বিশেষজ্ঞদের মতে, কুসুম গরম পানি খাবার দ্রুত হজম করতে সাহায্য করে। এতে অপকারী উপাদানগুলোও ভেঙে শরীর থেকে বের করে দেয়। এমনিতে সবসময়ই হালকা গরম পানি পানের পরামর্শ দিয়ে থাকেন গবেষকরা।

 

লেবু পানি

তেল-চর্বি বেশি খাওয়ার পর যদি হাঁসফাস লাগে তবে লেবু পানি হতে পারে আদর্শ। খাবারের তেলজাতীয় উপাদানগুলোকে শরীর থেকে বের করে দিতেও এর জুড়ি নেই।

 

হাঁটুন

কোলেস্টেরল কমাতে হাঁটার বিকল্প নেই। তাই যখনই মনে হবে ‘আজ একটু বেশিই হয়ে গেছে’ চটজলদি হেঁটে আসুন মিনিট বিশেকের জন্য। পাকস্থলীর কার্যকারিতাও বাড়বে এতে।

 

প্রোবায়োটিক

শরীরের ওপর চাপ পড়ে এমন খাবার একগাদা খেয়ে ফেললে প্রোবায়োটিক জাতীয় খাবার যেমন টকদই খেতে দোষ নেই। উল্টো এটি আমাদের পাকস্থলী ও হজম ব্যবস্থাকে বাগে নিয়ে আসবে। এক্ষেত্রে ভারী খাবার খাওয়ার ২০ মিনিট পর দই খেলে উপকার মিলবে বেশি।

 

ফল

খাওয়ার পর ফল খাওয়াও ভালো। তবে তা যেন হয় কমপক্ষে এক ঘণ্টা পর। এতে হজমপ্রক্রিয়ার উপকারের পাশাপাশি দূর হবে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা।

 

পরের মিলটা মেপে মেপে

এক বেলা তো চাপে পড়ে খেয়েই ফেললেন, তো পরের মিলটা হবে একদম মেপে। এক্ষেত্রে স্যুপ বা সহজপাচ্য খাবারই রাখুন পাতে।

 

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪৪

সহজ কিছু উপায়ে খাবার সংরক্ষণ করা যায় অনেকদিন। আজ জেনে নিই এমন পাঁচটি উপায়।

  • বিস্কুট, চানাচুর, মুড়ি, চিড়া ইত্যাদি অনেকদিন সংরক্ষণ করতে হয়। কিন্তু সমস্যা হলো এসব শুকনো খাবার দ্রুত নরম হয়ে যায় আর মচমচে ভাবটা থাকে না। তাই যে পাত্রে বা বয়ামে এসব শুকনো খাবার সংরক্ষণ করবেন তাতে সামান্য চিনি অথবা কিছু কাগজের টুকরো ছড়িয়ে দিন। কাগজের টুকরোগুলো মোটা এবং শুকনো হতে হবে। এতে বিস্কুট ও এ জাতীয় খাবার মচমচে থাকবে। 
  • লবণ গলে যাওয়া খুব বিরক্তিকর সমস্যা। এ সমস্যা এড়াতে লবণের পাত্রে চালের পুঁটলি রাখতে পারেন। পুঁটলিটা হবে বেশ ছোট। যেকোনো পাতলা সুতির কাপড়ে অল্প কিছু চাল নিয়ে মুখটি বন্ধ করে লবণের পাত্রে রেখে দিলেই হবে। এতে দীর্ঘদিন লবণ ঝরঝরে থাকবে, কারণ চাল আর্দ্রতা শোষণ করে দ্রুত।
  • রসুন বেশিদিন রেখে দিলে পচে যেতে থাকে। তবে একটা প্যাকেটে কিছু ছিদ্র করে তাতে রসুন ভরে প্যাকেটের মুখ আটকে রাখলে দীর্ঘদিন ভালো থাকবে রসুন।
  • হলুদ-মরিচের গুঁড়ো দীর্ঘদিন রাখলে দানা বেঁধে যায়। এ সমস্যা থেকে বাঁচতে হলুদ, মরিচ রাখার পাত্রে খানিকটা লবণ মিশিয়ে নিন। এতে গুঁড়ো দীর্ঘদিন ঝরঝরে থাকবে। আবার, ডালে দানা বাঁধা দূর করতে ডালে সামান্য সরিষার তেল মিশিয়ে রাখুন। 
  • ফ্রিজে লেবু রেখে দিলে কিছুদিন পর দেখা যায় লেবু শুকিয়ে গেছে, চিপলেও রস বের হয় না। তাই লেবু কাগজে মুড়ে একটা পলিব্যাগে ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন।

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

নিজেই বানান নারিকেল তেল

নিজেই বানান নারিকেল তেল

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

মটরশুঁটি রঙ করা কিনা বুঝবেন কী করে?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

তেল-চর্বি বেশি খেয়ে ফেললে কী করবেন?

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

খাবার দীর্ঘদিন ভালো রাখার ৫ উপায়

ঢাকা রিজেন্সিতে পর্যটন উৎসবে যত অফার

ঢাকা রিজেন্সিতে পর্যটন উৎসবে যত অফার

দুশ্চিন্তা কতভাবে শরীরের ক্ষতি করে?

দুশ্চিন্তা কতভাবে শরীরের ক্ষতি করে?

ভাতে আছে বিপদ, বিষমুক্ত করবেন যেভাবে

ভাতে আছে বিপদ, বিষমুক্ত করবেন যেভাবে

পিজ্জাবার্গ ও ডনমেক-এ একদিন

পিজ্জাবার্গ ও ডনমেক-এ একদিন

ইয়োগায় যা করা যাবে না

ইয়োগায় যা করা যাবে না

সর্বশেষ

চার তরমুজে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন শিক্ষার্থী ছামিউল্লাহর

চার তরমুজে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন শিক্ষার্থী ছামিউল্লাহর

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

ত্বকটাকে খুশি রাখতে চান?

মধ্যরাতে ঘুম থেকে তুলে যুবককে গুলি করে হত্যা

মধ্যরাতে ঘুম থেকে তুলে যুবককে গুলি করে হত্যা

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

শিগগিরই ২০ জেলায় উন্মুক্ত হচ্ছে সরকারি প্রকল্পের বিউটি পার্লার

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

৫ স্কুলছাত্রীর করোনা শনাক্ত, ক্লাস বন্ধ

© 2021 Bangla Tribune