X
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় গতি আনা চ্যালেঞ্জ

আপডেট : ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৩৭

প্রায় দেড় বছর পর বরিশালের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে। তবে স্বাভাবিক দিনগুলোর মতো কোলাহল ছিল না। স্বাস্থ্যবিধি মানতে উন্মুখ ছিল শিক্ষার্থীরা, একইভাবে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে গেটে নির্দেশনা দেন শিক্ষকরা। তবে করোনায় ঘরবন্দি শিক্ষার্থীদের কমেছে মানসিক ও শারীরিক বিকাশ।

দীর্ঘদিন ঘরবন্দি থাকায় শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ এবং প্রাণচাঞ্চল্য কমেছে বলে মনে করছেন শিক্ষকরা। তবে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রথম দিন ভালোভাবেই কেটেছে বলে জানিয়েছেন বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধানরা। এখন শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় গতি আনা চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন তারা।

বরিশাল জিলা স্কুল, সরকারি বালিকা বিদ্যালয় এবং সরকারি মহিলা কলেজ ও সরকারি বরিশাল কলেজসহ বেশির ভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রয়েছে হাজার হাজার শিক্ষার্থী। কিন্তু প্রথম দিন কোনও ধরনের কোলাহল ছাড়াই শিক্ষার্থীরা ক্লাস করেছে। রবিবার ক্লাস হয়েছে এসএসসি এবং ৫ম শ্রেণির পরীক্ষার্থীদের। অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস হবে সপ্তাহে একদিন।

বরিশাল জিলা স্কুলের সহকারী শিক্ষক ফাহমিদা বেগম বলেন, শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ঘরে বন্দি থাকায় তাদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশ কম হয়েছে। তাদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্যের ঘাটতি দেখা গেছে। তবে পড়াশোনায় তাদের আগ্রহ আছে। শ্রেণিকক্ষে ক্লাস নেওয়ার সময় বিষয়গুলো চোখে পড়েছে। আগে রুটিনমতো বিষয়গুলো তাদের মধ্যে গেঁথে গিয়েছিল। শ্রেণিকক্ষের পড়া তৈরি করে বাসা থেকে নিয়ে আসতো। আমরা চাই, ওই গাঁথুনিটা তাদের মাঝে ফিরিয়ে আনতে। তাদের মাঝে কোনও ধরনের পরিবর্তন এলে তা কাটিয়ে উঠতে হবে।

বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুবা হোসেন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি রক্ষায় কঠোর নির্দেশনা থাকায় শিক্ষার্থীরা ছোটাছুটি পারেনি, এ জন্য প্রাণচাঞ্চল্য ছিল না। কিছুদিন ক্লাস করার পর সব স্বাভাবিক হয়ে যাবে। আমাদের প্রধান লক্ষ্য পূর্বে লেখাপড়ার যে ক্ষতি হয়েছে, তা দ্রুত কাটিয়ে ওঠা। এ জন্য শিক্ষার্থীদের ওপর বাড়তি নজর থাকবে আমাদের। তাদেরও সেভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আসাদুজ্জামান খান বলেন, শিক্ষার্থীদের কলেজ গেট থেকে ঢুকতে দেখে চোখে পানি এসে যায়। অনেক শিক্ষার্থী গেটেই পায়ে সালাম দিয়েছে। এ অভিব্যক্তি আসলে বোঝানো যাবে না। আমরা আনন্দিত। সঙ্গে সঙ্গে আনন্দিত শিক্ষার্থীরাও। এখন আমাদের জরুরি হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় গতি আনা। এ জন্য আমি শিক্ষকদের নিয়ে সভা করে শিক্ষার্থীদের দুর্বল জায়গাগুলো চিহ্নিত করে ওসব বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দেওয়ার নির্দেশ দেবো। আমি চাচ্ছি, শিক্ষার্থীরা স্বাভাবিক দিনগুলোতে যেভাবে লেখাপড়া করে ভালো ফল করেছে, সে ধারায় ফিরে আসুক।

বিদ্যালয়ে স্বাভাবিক দিনগুলোর মতো কোলাহল ছিল না

হালিমা খাতুন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এসএম ফখরুজ্জামান বলেন, দীর্ঘ দেড় বছর পর শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীরা আসায় তাদের চেয়ে আমি বেশি খুশি হয়েছি। বিদ্যালয়ের গেট থেকে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে তাদের শারীরিক অবস্থা এবং পরিবারের সদস্যদের খবর নিয়েছি। ক্লাস শুরুর আগে প্রতিটি শ্রেণিকক্ষে গিয়ে লেখাপড়ায় সমস্যা থাকলে শিক্ষকদের জানাতে বলেছি। কোনোভাবেই লেখাপড়ায় পিছিয়ে থাকা চলবে না বলে শিক্ষার্থীদের অনুপ্রেরণা দিয়েছি। এ জন্য যত ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন দেবো।

বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজের জেলা সভাপতি ও বরিশাল সদর উপজেলার মাখরকাঠী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জহিরুল ইসলাম জাফর বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীরা ক্লাসে প্রবেশের সময় শারীরিক ভাষা বলছিল তারা অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে বের হয়ে এসেছে। প্রধান শিক্ষক থেকে শুরু করে সব শিক্ষক তাদের স্বাগত জানান। তাদের খোঁজখবর নেন। দেড় বছর পর শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দেখা আমাদের। এটা যে কত আনন্দের তা বলে বোঝাতে পারবো না। এখন আমাদের প্রধান কাজ হচ্ছে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় গতি ফিরিয়ে আনা। তাদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনা।

সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল ইসলাম বাদল এবং জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দারসহ বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। কলেজ, মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে গিয়ে স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে খুশি হন তারা। এ ধারা অব্যাহত রাখতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

নির্যাতন সইতে না পেরে গোপনাঙ্গ কেটে স্বামীকে হত্যা

নির্যাতন সইতে না পেরে গোপনাঙ্গ কেটে স্বামীকে হত্যা

এহসান এমডি রাগীবের প্রতারণা খতিয়ে দেখছে সিআইডি 

এহসান এমডি রাগীবের প্রতারণা খতিয়ে দেখছে সিআইডি 

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১৬

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় চারজন আহত হয়েছেন। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড উত্তরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। এছাড়া বারাকপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আনসারের এক সমর্থককে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে।

আহতরা হলেন- ইমরান শেখ, আহাদ শেখ, কামাল মল্লিক, আলমগীর মোল্লা ও সাগর। তাদের মধ্যে সাগর চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ আনসারের সমর্থক। 

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান উল্লাহ চৌধুরী জানান, কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় চারজন আহত হয়। তাদেরকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত সাগর জানান, সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার পর সন্ত্রাসীরা তাকে পেটাতে শুরু করে। এরপর আহতাবস্থায় ফেলে চলে যায়। 

এদিকে বাগেরহাটের শরণখোলার রায়েন্দা ইউপির রাজেশ্বায় নির্বাচনি সহিংসতায় তিনজন আহত হয়েছেন। সকাল ৮টার দিকে আহত তিনজন ফুটবল প্রতীকের মেম্বার প্রার্থী কবির খানের সমর্থক। তারা হলেন- রেজাউল, সেলিম ও বাদশা। তাদেরকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

বৃষ্টিতে ভোটকেন্দ্রের চাল দিয়ে পড়ছে পানি 

বৃষ্টিতে ভোটকেন্দ্রের চাল দিয়ে পড়ছে পানি 

প্রথমবারের মতো ভোট দিচ্ছে দেবীগঞ্জ পৌরসভার মানুষ

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:৪৯

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ভোটগ্রহণ চলছে। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। বিশেষ করে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। তবে কোনও কোনও কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারেরও দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। 

নয়টি কেন্দ্রের ৩২টি বুথে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ চলছে। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন ভোটাররা। দেবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে নয় জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৬৩ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে দলীয় প্রার্থীসহ আওয়ামী লীগের আরও চারজন দলীয় নেতাকর্মী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

নারী ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো

তারা হলেন—দেবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী (নৌকা), উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুর নেওয়াজ (মোবাইল ফোন), যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক (রেল ইঞ্জিন), যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ (ক্যারাম বোর্ড) ও পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আখতার হোসেন নিউটন (জগ)। 

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপির দুই নেতা দেবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এফ এস এম মোফাখখারুল আলম বাবু (চামচ) ও দেবীগঞ্জ পৌর যুবদলের আহ্বায়ক সরকার ফরিদুল ইসলাম (নারিকেল গাছ) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন আরও দুজন। তারা হলেন—সাংবাদিক জাকারিয়া ইবনে ইউসুফ (ইস্ত্রি মেশিন) ও মাসুদ পারভেজ (কম্পিউটার প্রতীক)।

নির্বাচন উপলক্ষে প্রশাসনের কঠোর নজরদারি লক্ষ্য করা গেছে। ভোট কেন্দ্রগুলোতে চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ছয়জন পুলিশ ও নয়জন আনসার সদস্য দায়িত্বে রয়েছেন। এ ছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, তিন প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের দুইটি ও পুলিশের চারটি ভ্রাম্যমাণ টিম টহলে রয়েছে।

বিভিন্ন জটিলতায় দেবীগঞ্জ পৌরসভায় এতদিন নির্বাচন হয়নি

রিটার্নিং অফিসার ও দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রত্যয় হাসান জানান, সকাল থেকেই শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎপর রয়েছে। 

নয়টি কেন্দ্রে নয়জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৩২ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ৬৪ জন পোলিং অফিসার নির্বাচনি দায়িত্ব পালন করছেন। নয়টি কেন্দ্রের মধ্যে দুইটিকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এবং চারটি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করা হয়েছে। পৌরসভায় মোট ভোটার ১০ হাজার ৯১৪ জন।

২০১৪ সালে দেবীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন ও দেবীডুবা ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে দেবীগঞ্জ পৌরসভা গঠন করা হয়। সীমানাসহ অন্যান্য জটিলতায় এই পৌরসভায় নির্বাচন হয়নি। এবার প্রথমবারের মতো নির্বাচন হচ্ছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

হাঁটুপানি মাড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা (ফটোস্টোরি)

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫৮

ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনায় টেকনাফের উনছিপ্রাং ও লম্বাবিল কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাস্তায় অবরোধ করে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পারভেজ চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আবু সুফিয়ান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইরফানুল হক চৌধুরী ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন। 

টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা মো. বেদারুল ইসলাম বলেন, 'উনছিপ্রাং ও লম্বাবিল কেন্দ্রে ব্যালট পেপার খুঁজে না পাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই ইউপি সদস্যর সমর্থকরা হামলা ও ভাঙচুর চালায়। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।’ 

এছাড়া টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ হাজি বশির আহমদ উচ্চ বিদ্যালয়ে জাল ভোট দেওয়ার অভিযোগে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো.ফারুক। 

এদিকে কক্সবাজারে টেকনাফের চারটি ইউনিয়নে সোমবার সকাল ৮টায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। বিভিন্ন কেন্দ্রে ঘুরে নারী ভোটারদের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

চার ইউনিয়নের নির্বাচনে চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত মহিলা ও সাধারণ সদস্য হিসেবে ৪২৮ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এতে নৌকার চার জনসহ চেয়ারম্যান ২৫ জন, সংরক্ষিত মহিলা ৬৮ জন ও সাধারণ সদস্য হিসেবে ৩৩৫ জন লড়ছেন।



/টিটি/

সম্পর্কিত

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

জুয়ার আসর থেকে ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৬

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫০

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে জুয়ার আসর থেকে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন—গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার ১নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রিন্টু (৫২), সদর উপজেলার মধ্যপাড়া গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে হুমায়ুন কবীর (৬৩), দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটের রামপাড়া গ্রামের শামীম মিয়া (৪৫), নুরপুর গ্রামের রাইনুর ইসলাম রানু সরকার (৪৫), কশিগাড়ী গ্রামের শ্রী বকুল সরকার (৪৫) এবং সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার শহিদুল ইসলাম (৪২)।

গ্রেফতারকালে তাদের কাছ থেকে নগদ তিন লাখ ৯৪ হাজার টাকা, তিনটি মোটরসাইকেল ও পাঁচটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু হাসান কবির জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে আমরা জুয়া খেলার বিভিন্ন সরঞ্জাম ও নগদ অর্থসহ প্রায় সাড়ে আট লাখ টাকার মালামাল উদ্ধার করেছি। তাদের বিরুদ্ধে জুয়া আইনে মামলার পর আজ সকালে দিনাজপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বিয়ের দিন ধর্ষণের শিকার তরুণী

বিয়ের দিন ধর্ষণের শিকার তরুণী

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

বিলীন হওয়ার পথে ৩ গ্রাম

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

‘বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কারদাতারা অন্ধকারে হারিয়ে গেছে’

যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেফতার

যৌন হয়রানির অভিযোগে পুলিশ কনস্টেবল গ্রেফতার

কক্সবাজারে নির্বাচনি সহিংসতায় নিহত ২

আপডেট : ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪:১৫

কক্সবাজারের মহেশখালী এবং কুতুবদিয়ায় নির্বাচনি সহিংসতায় দুই জন প্রাণ হারিয়েছেন। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে মহেশখালীর কুতুবজোম ইউনিয়নের নোয়াপাড়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় একজন নিহত হন।

অন্যদিকে কুতুবদিয়া উপজেলার পিলটকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র দখলের সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিতে একজন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। ঘটনার পর দুটি কেন্দ্রেই ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে। 

মহেশখালীতে দুই পক্ষের গোলাগুলিতে নিহত হন আবুল কালাম (৪০) নামে এক ব্যক্তি। এ ঘটনায় আরও সাত জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সকাল ১০টার দিকে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ কামাল ও বিদ্রোহী প্রার্থী মোশাররফ হোসেন খোকনের সমর্থকরা কেন্দ্র দখলে নেওয়ার চেষ্টা করেন। দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে এ সময় গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে আবুল কালামের মৃত্যু হয়।

মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই বলেন, কেন্দ্র দখলের চেষ্টার সময় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলিতে একজন নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাত জনকে কক্সবাজারের জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পর কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত রয়েছে।

অন্যদিকে স্থানীয়রা জানান, কুতুবদিয়া উপজেলার পিলটকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় গুলিতে স্থানীয় মো. হোসেনের ছেলে আব্দুল হালিম (৩৫) নামে একজন নিহত হয়েছেন। তিনি নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল কালামের এজেন্ট এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কর্মী।

কুতুবদিয়া থানার ওসি ওমর হায়দার নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ঘটনার পর কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত আছে বলে জানান তিনি। 

কুতুবদিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওমর হায়দার জানান, কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ ইউনিয়নের তিলককাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলি থামাতে গুলি ছোড়ে পুলিশ। এ সময় ত্রিমুখী সংঘর্ষে আবদুল হালিম নিহত হয়েছেন। তার লাশ উদ্ধার করে কুতুবদিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা রয়েছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

টেকনাফে সংঘাত, দুই কেন্দ্রে ভোট স্থগিত

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নির্যাতন সইতে না পেরে গোপনাঙ্গ কেটে স্বামীকে হত্যা

নির্যাতন সইতে না পেরে গোপনাঙ্গ কেটে স্বামীকে হত্যা

এহসান এমডি রাগীবের প্রতারণা খতিয়ে দেখছে সিআইডি 

এহসান এমডি রাগীবের প্রতারণা খতিয়ে দেখছে সিআইডি 

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

এসপি কার্যালয়ের সামনে কনস্টেবলের ২ সন্তানকে ফেলে গেলেন মা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

হাজার কোটি টাকা ফেরত চান গ্রাহকরা

১০ বছরে দুর্গাসাগরে ধরা পড়লো সবচেয়ে বড় মাছ 

১০ বছরে দুর্গাসাগরে ধরা পড়লো সবচেয়ে বড় মাছ 

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

ধাপে ধাপে সব ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে: মাউশি মহাপরিচালক

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

বাসচাপায় প্রাণ গেলো তিন বন্ধুর

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রহিমার ডিম বিক্রির টাকাও আত্মসাৎ করেছে এহসান গ্রুপ

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

রাগীবের কথার যাদুতে এহসানে জড়িয়ে নিঃস্ব শিক্ষক

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

জমি দিয়েছিলেন দাদা, বিদ্যালয়ের কক্ষ দখল করে বসবাস

সর্বশেষ

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

ভোট কেন্দ্রের বাইরে ককটেল হামলায় আহত ৪

মুফতি যুবায়েরের সন্ধান চায় তার পরিবার

মুফতি যুবায়েরের সন্ধান চায় তার পরিবার

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, নিহত ৮

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, নিহত ৮

মেয়র আতিকের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ 

মেয়র আতিকের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ 

ধারাবাহিক নাটকে ক্রিকেটার জাভেদ ওমর

ধারাবাহিক নাটকে ক্রিকেটার জাভেদ ওমর

© 2021 Bangla Tribune