X
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ছাত্র অধিকার পরিষদের সভাপতির শহীদ মিনা‌রে ছবি তোলা নি‌য়ে বিতর্ক

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:৪৭

কুড়িগ্রামে ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপ‌তি বিন ইয়ামীন মোল্লার কর্মী ও সমর্থকদের কাছ থেকে শহীদ মিনারে ফুলেল শুভেচ্ছা ও ছবি তোলা নিয়ে বিত‌র্কের সৃ‌ষ্টি হ‌য়ে‌ছে। শহীদ মিনারের বেদির নি‌চে সিঁড়িতে কর্মী ও সমর্থকসহ জুতা পায়ে ছ‌বি তোলা‌য় বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি। বেদির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে জুতা পা‌য়ে ছবি তোলাকে অ‌নে‌কে ‘বেদিতে জুতা পা‌য়ে দাঁ‌ড়ি‌য়ে’ শহীদ মিনারের অবজ্ঞা হ‌য়ে‌ছে দা‌বি ক‌রে ‌বিন ইয়ামীন মোল্লাসহ সং‌শ্লিষ্ট‌দের বিচার চেয়েছেন।

ত‌বে বিষয়টিকে অপপ্রচার দা‌বি ক‌রে স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠীর ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করেছেন বিন ইয়ামীন মোল্লা। তি‌নি দা‌বি ক‌রে‌ছেন, কর্মী ও সমর্থকসহ তি‌নি বেদির নি‌চে, এমন‌কি সিঁড়ির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে ছ‌বি তু‌লে‌ছেন। একজন ছাত্র হি‌সে‌বে তি‌নি কখনও শহীদ মিনার ও শহীদ‌দের অবজ্ঞা কিংবা অসম্মান কর‌তে পা‌রেন না।

বিন ইয়ামীন মোল্লার বা‌ড়ি কু‌ড়িগ্রা‌মের না‌গেশ্বরী উপ‌জেলার নেওয়া‌শী ইউ‌নিয়‌নের মোল্লাপাড়া গ্রা‌মে। তি‌নি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভা‌গের স্নাতকোত্তর শ্রেণির শিক্ষার্থী। নির্বা‌চিত হওয়ার পর নি‌জ জেলায় এটাই তার প্রথম সফর।

খোঁজ নি‌য়ে জানা যায়, ছাত্র অধিকার পরিষদের নবনির্বাচিত কমিটিতে সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর র‌বিবার (১৯ সে‌প্টেম্বর) কুড়িগ্রামে আসেন বিন ইয়ামীন মোল্লা। সকালে শহরের ঘোষপাড়ার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গ‌ণে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের কাছ থে‌কে ফু‌লেল শু‌ভেচ্ছা গ্রহণ ক‌রেন। এ সময় নেতাকর্মী‌দের নি‌য়ে ছবি তোলেন। ওই ছ‌বি‌কে বেদিতে জুতা পা‌য়ে দাঁড়া‌নো উল্লেখ করে শুরু হয় বিতর্ক। দিনভর ফেসবুকে নানা বিত‌র্কের পর অ‌নে‌কে ‌বিন ইয়ামীন মোল্লা ও তার কর্মী‌দের আই‌নের আওতায় আনার দা‌বি জানান। 

এ নি‌য়ে বাংলা ট্রিবিউ‌নের সঙ্গে কথা হয় বিন ইয়ামীন মোল্লার। ফেসবুকে ছড়া‌নো অ‌ভি‌যোগকে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র হি‌সে‌বে দেখছেন তিনি। তি‌নি ব‌লেন, আমরা জুতা পা‌য়ে শহীদ মিনা‌রের বেদিতে উ‌ঠি‌নি। এমন‌কি আমরা বেদির সিঁ‌ড়ি‌তেও উ‌ঠি‌নি। ছ‌বি‌টি ভা‌লো ক‌রে লক্ষ্য কর‌লে দেখ‌বেন, আমরা সিঁড়ির নি‌চে দাঁ‌ড়ি‌য়ে আ‌ছি।

ফেসবুকে সমা‌লোচনার বিষ‌য়ে এই ছাত্র নেতা ব‌লেন, ‘যারা এগু‌লো ছড়া‌চ্ছেন তারা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ বি‌ভিন্ন অঙ্গ সংগঠ‌নের নেতাকর্মী। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভা‌বে এগু‌লো ছড়া‌চ্ছেন তারা।’

বিন ইয়ামীন মোল্লা ব‌লেন, ‘আমা‌দের বিশ্ব‌বিদ্যালয়ের পা‌শেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার। আ‌মি শহীদ মিনা‌রে উঠার শিষ্টাচার জা‌নি। শহীদদের অসম্মানের প্রশ্নই আসে না।’

/এএম/

সম্পর্কিত

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৮

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষক এসএম গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। অর্থ আত্মসাতের মামলায় মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) খুলনার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. শহিদুল ইসলাম গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। 

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) খুলনার আইনজীবী খন্দকার মুজিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তাকে গ্রেফতার করতে না পারলে বাড়ির মালামাল ক্রোকের নির্দেশও দিয়েছেন আদালত।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, সিভিল সার্জন অফিস ও হাসপাতালে দায়িত্বে থাকাকালে এসএম গোলাম সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করেন। দুদক তার বিরুদ্ধে এক কোটি ১১ লাখ ৮৯ হাজার টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে। মামলার বাদী দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক ফয়সাল কাদের।

/এএম/

সম্পর্কিত

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

ইউপি নির্বাচন

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৩
video

এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয়ভাবে নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল বিএনপি। তবে দিনাজপুরের হিলিতে আসন্ন দ্বিতীয় দফার ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপির স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। এ ছাড়া চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে জামায়াতের এক নেতাও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। সদস্য পদেও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপির অনেকে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, খট্টামাধবপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আব্দুল মালেক; তিনি ওই ইউনিয়নের বিএনপির সদস্য। বোয়ালদাড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান মেফতাহুল জান্নাত; তিনিও জাতীয়তাবাদী দলটির সদস্য। এছাড়া আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুদ রানা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। একই ইউনিয়নেই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জামায়াতের আমিনুল ইসলাম। তিনি এর আগে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।

বোয়ালদাড় ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমাদানকারী মেফতাহুল জান্নাত বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দল থেকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দাঁড়ানো যাবে না- এমন কোনও নির্দেশনা আমি পাইনি। তবে আমি বর্তমান চেয়ারম্যান এবং এবারের নির্বাচনেও চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। আমি দলীয়ভাবে কোনও নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি না এবং তাদের কোনও সমর্থন নেই।’

মনোনয়ন জমাদানকারী আব্দুল মালেক বলেন, ‘দলীয় সিদ্ধান্ত কী এটা আমি বলতে পারবো না। তবে আমি নির্বাচন করতেছি এটা আমি জানি। এই নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোননয়নপত্র জমা দিয়েছি ও আমি নির্বাচন করবো। আমি তো দলীয়ভাবে নির্বাচন করছি না।’

আলিহাট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোননয়নপত্র জমাদানকারী মাসুদ রানা বলেন, ‘দলীয়ভাবে নির্বাচনে যাওয়ার কোনও সিদ্ধান্ত নেই, যা কেন্দ্র থেকে জানানো হয়েছে। তবে আমি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে এই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করা যাবে না- এমন নির্দেশনা দলীয়ভাবে এখনও পাইনি।’

হাকিমপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি ফেরদৌস রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয়ভাবে অংশগ্রহণ করবে না। তাই এই নির্বাচনে আমাদের দলীয় কোনও প্রতীক নেই। কেউ যদি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ান সেটি তাদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।’

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান আকন্দ বলেন, ‘উপজেলার তিন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন, স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলিয়ে ১৪ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। সাধারণ ওয়ার্ডের সদস্য পদে ১১৭ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য পদে ৩৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আগামী ২১ অক্টোবর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৬ অক্টোবর, প্রতীক বরাদ্দ ২৭ অক্টোবর। আগামী ১১ নভেম্বর ২৭টি কেন্দ্রে তিন ইউনিয়নে ভোট হবে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:৩৫

বাগেরহাটের কচুয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়ার অভিযোগে ইসমাইল হোসেন (২১) নামে এক মাদ্রাসাশিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকালে কচুয়া উপজেলার লড়ারকুল গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। দুপুরে ওই শিক্ষককে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ইসমাইল হোসেন লড়ারকুল গ্রামের মোস্তফা মৃধার ছেলে। তিনি লড়ারহাট খাদেমুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক।

কচুয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো. সেলিম মহলদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছবি বিকৃত করে একটি ফেসবুক পেজে পোস্ট দেন ইসমাইল হোসেন। বিষয়টি দেখতে পেয়ে স্থানীয় জাকির হাজরা নামে এক ব্যক্তি পুলিশে খবর দেন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

ইসমাইলের বিরুদ্ধে ফেসবুকে ছবি বিকৃত করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টার অপরাধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কচুয়া থানায় মামলা করেছেন জাকির হাজরা। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে ইসমাইলকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এসআই সেলিম মহলদার।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

টান দিলেই উঠে যাচ্ছে নতুন সড়কের কার্পেটিং

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৮

টাঙ্গাইলের সখীপুরে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে একটি সড়ক পাকা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কাজ শেষ হওয়ার ১০ দিনের মাথায় উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং। এমন দায়সারা কাজ করায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বানিয়ারসিট বাজার-দেবরাজ সড়কে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আইআরআইডিপি প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার বানিয়ারসিট বাজার থেকে দেবরাজ সড়কের এক কিলোমিটার কাঁচা সড়ক পাকা করার কাজ পায় প্রাইম ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। পাকাকরণের সময় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করেছে। 

বিটুমিন ছাড়া সড়ক পাকা করায় হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং। এখনও প্রায় ৫০ মিটার সড়ক পাকাকরণের বাকি রয়েছে। নির্মাণের সময় স্থানীয়রা বাধা দিলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। পরে স্থানীয়দের কার্পেটিং উঠানোর ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় সমালোচনা। এরপর বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এরই মধ্যে কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেন ঠিকাদার।

নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক পাকা করা হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের

কালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মন্ডল বলেন, ‘১০ দিন আগে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শেষ করেছে। পাকাকরণের কাজটি অত্যন্ত নিম্নমানের। এজন্য হাত দিয়ে টান দিলেই কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। নিম্নমানের কাজ করে ঠিকাদার উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করেছেন। এই ঠিকাদারকে দিয়ে আর কোথাও যেন কাজ করা না হয়।’  

স্থানীয় বাসিন্দা আবু হানিফ বলেন, ‘এক কিলোমিটার সড়কের ৫০ মিটার রেখেই কাজটি শেষ করা হয়েছে। এখন কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজটি করা হয়েছে। কাজের সময় অনেকে বাধা দিলেও ঠিকাদার শোনেননি। আমরা সড়কটি পুনরায় সংস্কারের দাবি জানাই।’

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী মিজানুর রহমান বলেন, ‘নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজটি করা হয়নি। কার্পেটিংয়ের কাজ করার পর শক্ত হতে কিছু সময় লাগে। কয়েকজন লোক বিভিন্ন জায়গায় কাঠ দিয়ে নতুন সড়কের কার্পেটিং উঠিয়ে ফেলেছেন। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কাজটি নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ায় কাজটি শুরু করতে সময় লেগেছে। সম্প্রতি কাজটি শেষ করেছি। যেসব জায়গায় সমস্যা হয়েছে, সেসব জায়গায় ঠিক করে দেওয়া হবে।’

স্থানীয়দের দাবি, বিটুমিন ছাড়া সড়ক পাকা করায় হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং

উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়ের প্রকৌশলী এসএম হাসান ইবনে মিজান বলেন, ‘নিম্নমাণের কাজের বিষয়টি স্থানীয়রা আমাদের জানাতে পারতেন। কিন্তু তারা ধারালো কিছু দিয়ে কার্পেটিং উঠিয়ে ফেলেছেন। এটি তারা ঠিক করেননি। সড়কের কাজ নিম্নমানের হয়নি। নিম্নমানের অভিযোগ শোনার পরপরই কর্তৃপক্ষ পাথর ও বিটুমিনসহ অন্যান্য জিনিস পাঠিয়েছেন। যেসব জায়গায় সমস্যা আছে, সেসব জায়গায় নতুন করে কার্পেটিংয়ের কাজ করা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রায় ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে আইআরআইডিপি প্রকল্পে কাজটি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

/এএম/

সম্পর্কিত

খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ টনে উন্নীত হবে: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ টনে উন্নীত হবে: খাদ্যমন্ত্রী

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

আশুলিয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন

আশুলিয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৩

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। পাইকারিতে (ট্রাকসেল) কেজিপ্রতি ১ থেকে ২ টাকা কমেছে দাম। একদিন আগেও বন্দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ প্রকারভেদে ৩৬ থেকে ৩৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়। বর্তমানে তা কমে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

এদিকে পেঁয়াজের ক্রেতা সংকটের কারণে বিক্রি না হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন আমদানিকারকরা। আবার দাম কমায় খুশি বন্দরে আসা পাইকাররা।

হিলি বন্দরে পেঁয়াজ কিনতে আসা আইয়ুব আলী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দুর্গাপূজার বন্ধের পর পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ১২ টাকার বেশি কমেছে। এতে আমাদের মতো পাইকারদের সুবিধা হয়েছে। কিন্তু পূজার বন্ধের আগে আমরা যেসব স্থানে সরবরাহ করেছি, সেখানে এখনও পর্যাপ্ত পেঁয়াজ রয়েছে। এ কারণে পার্টিরা পেঁয়াজ এখন কম দামে বিক্রি করায় লোকসানের মুখে পড়েছেন।

পেঁয়াজের দাম কমায় খুশি বন্দরে আসা পাইকাররা

ব্যবসায়ী মিরাজুল ইসলাম ও রবিউল ইসলাম বলেন, হঠাৎ করে বাজারে দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে যায়। একইভাবে ভারতে অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় সরবরাহ কমে দাম বাড়ে। এতে দেশের চাহিদা মেটাতে বাড়তি দামে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ফলে দেশের বাজারে পেয়াজের দাম বাড়তে থাকে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, পূজার ছয় দিন বন্ধ শেষে ১৭ অক্টোবর থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পুনরায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার বন্দর দিয়ে ১৩টি ট্রাকে ৩৫৫ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। পেঁয়াজ যেহেতু কাঁচামাল, তাই দ্রুত খালাস করে আমদানিকারকদের কাছে সরবরাহ করতে বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

দলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

ইউপি নির্বাচনদলীয় নির্দেশনা উপেক্ষা করে হিলিতে প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি নেতারা

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

‘ম্যানেজ’ করে চলছে ইলিশ শিকার, বেচাকেনা জমজমাট

‘ম্যানেজ’ করে চলছে ইলিশ শিকার, বেচাকেনা জমজমাট

র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতেন এনামুল 

র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতেন এনামুল 

পীরগঞ্জে হামলা: ফেসবুকে ‘ধর্ম অবমাননা’র পোস্ট দেওয়া ব্যক্তি গ্রেফতার

পীরগঞ্জে হামলা: ফেসবুকে ‘ধর্ম অবমাননা’র পোস্ট দেওয়া ব্যক্তি গ্রেফতার

‘ধর্ষণের শিকার’ প্রতিবন্ধী নারীর গর্ভপাত করানোর অভিযোগ

‘ধর্ষণের শিকার’ প্রতিবন্ধী নারীর গর্ভপাত করানোর অভিযোগ

সর্বশেষ

নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে সমুদ্রবন্দরের  সতর্কতা সংকেত

নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে সমুদ্রবন্দরের সতর্কতা সংকেত

জাতীয় উন্নয়ন প্রশাসন অ্যাকাডেমি এখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীনে

জাতীয় উন্নয়ন প্রশাসন অ্যাকাডেমি এখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অধীনে

কুয়েত নয়, উজবেকিস্তানে খেলবে বাংলাদেশ

কুয়েত নয়, উজবেকিস্তানে খেলবে বাংলাদেশ

৫৮ জেলায় করোনায় মৃত্যু নেই

৫৮ জেলায় করোনায় মৃত্যু নেই

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কোটি টাকা আত্মসাৎ, হাসপাতালের সাবেক হিসাবরক্ষকের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

© 2021 Bangla Tribune