X
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ৪ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ইভ্যালির সার্ভারে অপরাধের ফুটপ্রিন্ট!

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৩৮

পণ্য দেওয়ার কথা বলে নেওয়া টাকার একটি হিসাব ইভ্যালির সার্ভারে পেয়েছে পুলিশ। এতে দেখা গেছে, গ্রাহকদের কাছে ৭০০ কোটি টাকারও বেশি দেনা আছে প্রতিষ্ঠানটির। এ ছাড়াও কিছু প্রতিষ্ঠান সরাসরি ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তি করে পণ্য নিয়ে ব্যবসা করার চেষ্টা করেছিল। তাদের তথ্যও পাওয়া গেছে। ইভ্যালির অর্থ আত্মসাতের চিহ্ন মিলেছে তাদের সার্ভারেই, যা পুলিশ এখন যাচাই-বাছাই করছে।

ইভ্যালিতে মোটা অঙ্কের বিনিয়োগকারী প্রায় শতাধিক, যারা বিভিন্ন সময় পণ্য পেয়ে পুনরায় বিনিয়োগ করেছেন। মূলত অফারের ফাঁদ পেতে ওই গ্রাহকদের আটকে রেখেছিল ইভ্যালি।

পুলিশ তদন্তে দেখা গেছে, প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের কাছ থেকে যে অর্থ নিয়েছে সে তথ্য সার্ভারে থাকলেও খরচে গোঁজামিল করেছে। অর্থ ব্যয়ের লিখিত যে জবাব ইভ্যালি দিয়েছে তা যাচাই করা হচ্ছে।

অপরদিকে, যেসব প্রতিষ্ঠান থেকে ইভ্যালি পণ্য নিয়েছিল তারাও প্রতিষ্ঠানটির কাছে প্রায় ২৫০ কোটি টাকা পাবে। সব মিলিয়ে প্রাথমিক তদন্তে ইভ্যালির দেনা ৯৫০ কোটি টাকারও বেশি।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট এক পুলিশ কর্মকর্তা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ইভ্যালির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মো. রাসেল বিভিন্ন প্রশ্নের লিখিত জবাব দিয়েছেন। তার দেওয়া তথ্য ও আমাদের তদন্তে প্রাপ্ত তথ্য মিলিয়ে দেখা হচ্ছে।’

গত ১৬ সেপ্টেম্বর গুলশান থানায় একজন গ্রাহক মামলা দায়ের করলে সেদিন বিকালে মোহাম্মদপুরের বাসায় অভিযান চালিয়ে ইভ্যালির সিইও রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনকে (চেয়ারম্যান) গ্রেফতার করে র‌্যাব।

১৭ সেপ্টেম্বর গুলশান থানার মামলায় ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আতিকুল ইসলামের আদালত আসামিদের তিন দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) রিমান্ড শেষে গুলশান থানা পুলিশ তাদের আদালতে সোপর্দ করলে ধানমন্ডি থানায় দায়ের করা অপর এক গ্রাহকের মামলায় রাসেলের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। একই মামলায় তার স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।

পরের মামলার এজাহারে কামরুল ইসলাম বলেছেন, ‘তিনি মেট্রো কাভারেজ, স্মার্ট ফুড অ্যান্ড বেভারেজ, ফ্রিডম এক্সপোর্ট ইম্পোর্ট বিডি ও ফিউচার আইটি নামে প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক। ইভ্যালির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে গ্রাহকদের মোট ৩৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকার পণ্য সরবরাহ করেছেন। পণ্য সরবরাহের বিপরীতে ইভ্যালি তাদের একটি চেক দিলেও সেই অ্যাকাউন্টে কোনও টাকা ছিল না। এ ঘটনায় চলতি বছরের ১২ জানুয়ারি তারা ইভ্যালির বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় একটি জিডিও (নং ৭০৬) দায়ের করেন। তবু ইভ্যালি তাদের অর্থ পরিশোধ করেনি।’

রাসেল এখনও নিজেকে নিরপরাধ ভাবেন

পুলিশ ইভ্যালির মামলা তদন্তে করতে গিয়ে রাসেল ও নাসরিনকে দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। পুলিশ যা জানতে চেয়েছে, রাসেল কোনও না কোনও উত্তর দিয়েছেন। রাসেল পুলিশকে বলেন, ‘আমি গতানুগতিক ব্যবসার বাইরে গিয়ে বেশি ছাড়ে পণ্য বিক্রি করেছি। অফার দিয়েছি। এর বাইরে কোনও অপরাধ করিনি।’

রাসেল ও নাসরিনকে মুখোমুখি জিজ্ঞাসাবাদও করেছে পুলিশ। এ সময় দুজনই ইভ্যালির বিষয়ে নিজেদের নিরপরাধ দাবি করেন। তারা বলেন, তারা ইভ্যালির অর্থ নয়ছয় করেননি। লস দিয়ে পণ্য বিক্রির এই প্রক্রিয়া দীর্ঘায়িত করে ব্র্যান্ড তৈরি করে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার বিক্রি করে তা পুষিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাদের।

ইভ্যালির সম্পদ কত?

গত তিন বছরে কী পরিমাণ সম্পদ অর্জন করেছে ইভ্যালি তার নির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি। তদন্ত সংশ্লিষ্টরা এখনও হিসাব করছেন। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলেও রাসেল বা নাসরিন সুনির্দিষ্ট তথ্য দেননি। দেশে বা দেশের বাইরে কোনও সম্পদ গড়েছেন কিনা তাও জানা যায়নি।

গ্রাহকের টাকায় প্রচার

গ্রাহকদের কাছ থেকে পণ্য বিক্রির কথা বলে নেওয়া অর্থের একটি মোটা অঙ্ক ব্রান্ডিং, প্রচার ও স্পন্সরশিপে ব্যয় করেছে ইভ্যালি।

ডিএমপির গুলশান জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার নিউটন দাস বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন ‘তিন দিনের রিমান্ডে রাসেল দম্পতি যে তথ্য দিয়েছেন, তা যাচাই করা হচ্ছে।’

 

 
 
/এফএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ইভ্যালির তদন্ত থেকে সরে এলো দুদক

ইভ্যালির তদন্ত থেকে সরে এলো দুদক

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার কারাগারে

ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার কারাগারে

লক্ষ্মীপূজা আজ

আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০২১, ০০:৩২

হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম বৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শ্রী শ্রী লক্ষ্মীপূজা আজ বুধবার (২০ অক্টোবর)। শারদীয় দূর্গা উৎসবের পর হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান ধর্মী উৎসব এই লক্ষ্মীপূজা। 

লক্ষ্মী ধনসম্পদ তথা ঐশ্বর্যের দেবী হিসেবে পূজিত হন। এ ছাড়া উন্নতি (আধ্যাত্মিক ও পার্থিব), আলো, জ্ঞান, সৌভাগ্য, দানশীলতা, সাহস ও সৌন্দর্যের দেবীও তিনি। শারদীয় দুর্গোৎসব শেষ হওয়ার পরবর্তী পূর্ণিমা তিথিতে হিন্দু সম্প্রদায় লক্ষ্মীপূজা উদযাপন করে থাকে। হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম এই ধর্মীয় উৎসবটি কোজাগরি লক্ষ্মীপূজা নামেও পরিচিত। 

রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ মন্দির, রামসীতা মন্দির, পঞ্চানন্দ শিব মন্দির, গৌতম মন্দির, রাধা মাধব বিগ্রহ মন্দির, রাধা গোবিন্দ জিও ঠাকুর মন্দিরসহ বিভিন্ন মন্দির এবং পুরান ঢাকার শাঁখারীবাজার, তাঁতীবাজার, সূত্রাপুর, ফরাশগঞ্জ, লক্ষ্মীবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় লক্ষ্মীপূজার বিভিন্ন ধর্মীয় কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে।

/এমআর/

সম্পর্কিত

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

ধূমপান প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরির কোনও বিকল্প নেই: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

ধূমপান প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরির কোনও বিকল্প নেই: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

ঢাবির সুফিয়া কামাল হলের আগুন নিয়ন্ত্রণে

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলের আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) রাতে ফায়ার সার্ভিসের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা শাহজাহান শিকদার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) রাত সোয়া ৯টায় সুফিয়া কামাল হলের ১০ তলায় আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

রাত ৯ টা ১৮ মিনিটে আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনে। এই ঘটনায় কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি বলেও তিনি জানান।

/এআরআর/এমআর/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সাহিত্যিক-শিল্পী ও সাংবাদিকদের বিক্ষোভ সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সাহিত্যিক-শিল্পী ও সাংবাদিকদের বিক্ষোভ সমাবেশ

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

সব সম্প্রদায়ের ধর্ম পালনের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে: ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি

সব সম্প্রদায়ের ধর্ম পালনের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে: ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি

পুনর্বাসনের দাবিতে ফুলবাড়ীয়া রেলওয়ে কলোনি বস্তিবাসীর বিক্ষোভ

পুনর্বাসনের দাবিতে ফুলবাড়ীয়া রেলওয়ে কলোনি বস্তিবাসীর বিক্ষোভ

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৭

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) ও গুলশান সোসাইটির মধ্যে পৃথক দুটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) রাজধানীর একটি হোটেলে এ চুক্তি সই সম্পন্ন হয়।

ঢাকার অন্যতম প্রসিদ্ধ আবাসিক কমিউনিটি গুলশান সোসাইটি। গুলশান এলাকার অধিবাসীদের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত একটি সমাজ সেবামূলক প্রতিষ্ঠান এটি। রাজউক, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, ডেসকো এবং ওয়াসার মতো সংস্থাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় ও পার্টনারশিপের মাধ্যমে নাগরিক সমস্যা সমাধানে সক্রিয় গুলশান সোসাইটি। এরই ধারাবাহিকতায় গুলশান লেকপার্ক ও গুলশান-বনানী লেক ব্যবস্থাপনার লক্ষ্যে নতুন এ সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হয়েছে।

সমঝোতা স্মারকে গুলশান সোসাইটির পক্ষে সই করেন সোসাইটির সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার শুক্লা সারওয়াত সিরাজ এবং রাজউকের পক্ষে সই করেন চেয়ারম্যান এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গৃহায়ন  ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। 

এই সমঝোতা স্মারকের ফলে রাজউকের পক্ষ থেকে গুলশান-বনানী-বারিধারা লেকের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করবে গুলশান সোসাইটি। এছাড়া রাজউকের মালিকানাধীন গুলশান লেক পার্কের ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করবে সোসাইটি। রাজউক ও গুলশান সোসাইটির এই যৌথ কার্যক্রম পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপের একটি প্রশংসনীয় দৃষ্টান্ত হিসেবে ইতোমধ্যেই স্বীকৃতি লাভ করেছে।

এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার, রাজউকের মেম্বার ডেভলপমেন্ট মেজর অব.  শামছুদ্দীন আহমেদ চৌধুরী, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মফিজুর রহমান।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গুলশান সোসাইটির সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার শুক্লা সারওয়াত সিরাজ, সমাপনী বক্তব্য রাখেন গুলশান সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট মাহিন খান। এ ছাড়া বক্তব্য রাখেন— গুলশান সোসাইটির লেক পার্ক  ম্যানেজমেন্ট কমিটির সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট হোসনে আরা আহসান ও  ইভা রহমান।

 

/এসএস/এইপএইচ/

সম্পর্কিত

লক্ষ্মীপূজা আজ

লক্ষ্মীপূজা আজ

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

ধূমপান প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরির কোনও বিকল্প নেই: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

ধূমপান প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরির কোনও বিকল্প নেই: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৫

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তারা হলেন নজরুল ইসলাম (৬০) ও তার স্ত্রী সৈয়দা তামান্না শাহেরীন (৬৩)। এছাড়া তাদের সঙ্গে তামান্নার ভাই সৈয়দ হাসান শিবলীকে একই মামলায় আসামি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুদকের উপ-পরিচালক আশীষ কুমার কুণ্ডু বাদী হয়ে সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-১-এ মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে অসৎ উদ্দেশে মানি লন্ডারিং, দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ৬ কোটি ১৭ লাখ ৩১ হাজার ৭৬৩ টাকার সম্পদ অর্জন করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন ২০০৪-এর ২৭ (১) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২-এর ৪(২) এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ১৯৪৭-এর ৫(২) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। দুদকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, দুদকের অনুসন্ধানে সাবেক প্রকৌশলী নজরুল ইসলামের স্থাবর সম্পদ হিসাবে নিজ নামীয় দলিলে পল্লবী এলাকায় জমি এবং উত্তরা দিয়াবাড়ি এলাকায় তিন কাঠার একটি জমির সন্ধান পাওয়া গেছে। এছাড়া ঝিনাইদহে হেবামূলে প্রায় তিন শতাংশ জমিসহ তার প্রায় ৩০ লাখ টাকার মোট স্থাবর সম্পত্তির সন্ধান পাওয়া গেছে। এছাড়া অস্থাবর সম্পত্তি হিসাবে ইস্টার্ন ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখা ও যমুনা ব্যাংকে ১৫টি ব্যাংক হিসাবে জামানত হিসাবে মোট ৮ কোটি টাকার তথ্য পাওয়া গেছে।

দুদক কর্মকর্তারা জানান, সাবেক প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম ১৯৮৮ সালে সহকারী প্রকৌশলী হিসাবে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরে যোগ দেন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তিনি তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। তার অস্থাবর সম্পত্তির মধ্যে সরকারি চাকরির আগে সঞ্চয় ও চাকরি জীবনের সঞ্চয় ও অন্যান্য আয় হিসাবে ২ কোটি ৩৮ লাখ ১৩ হাজার ৯৩৭ টাকা গ্রহণযোগ্য বিবেচনা করা হয়েছে। ২০১০-১১ করবর্ষে নজরুল ইসলাম তার স্ত্রী তামান্না শাহেরীনের কাছ থেকে ২ কোটি টাকা এবং ২০১৯-২০ করবর্ষে ৪ কোটি টাকাসহ ৬ কোটি টাকা দান হিসাবে গ্রহণ করার কোনও গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, অনুসন্ধানে দুদক কর্মকর্তারা জানতে পারেন প্রকৌশলী নজরুল ইসলামের স্ত্রী সৈয়দা তামান্না শাহেরীন একজন গৃহিনী। তিনি আয়ের উৎস হিসেবে খামার ও মৎস্য চাষের কথা উল্লেখ করলেও এ বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। সুতরাং তার পক্ষে স্বামী নজরুল ইসলামকে ৬ কোটি টাকা দানের বিষয়টি গ্রহণযোগ্য হিসেবে প্রতীয়মান হয়নি। এসব অর্থ ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে আয় করে এবং অবৈধ উৎস গোপন করার লক্ষ্যে নগদ এফডিআর করে মানি লন্ডারিং করা হয়েছে বলে দুদক মনে করছে।

দুদক কর্মকর্তার জানান, প্রকৌশলী সৈয়দা তামান্না শাহেরীনের নিজের নামে ঢাকার ধানমন্ডি ১৫ নম্বর সড়কের ১৭ নম্বর ভবনে একটি ফ্ল্যাটের সন্ধান পাওয়া গেছে। এছাড়া তার নামে নিকুঞ্জ আবাসিক এলাকায় ২ কাঠা ৮ ছটাক আয়তনের একটি প্লট পাওয়া গেছে। তার কোনও বৈধ আয় না থাকায় স্বামীর অবৈধ অর্থে নিজের নামে সম্পত্তি ক্রয় করে বৈধতা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। এজন্য তাকেও মামলায় আসামি করা হয়েছে।

/এনএল/জেএইচ/

সম্পর্কিত

লক্ষ্মীপূজা আজ

লক্ষ্মীপূজা আজ

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

পাঁচ কোটি ৮৮ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ২১:০৯

দেশে এ পর্যন্ত টিকা এসেছে মোট ৭ কোটি ১৫ লাখ ৭২ হাজার ৪২০ ডোজ। এর মধ্যে মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) ৫ কোটি ৮৮ লাখ ১ হাজার ৫৫ ডোজ  দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ এই মুহূর্তে টিকা মজুত আছে আর ১ কোটি ২৭ লাখ ৬৯ হাজার ৩৬২ ডোজ। এ পর্যন্ত প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৩ কোটি ৯১ লাখ ৬৮ হাজার ৯৪৮ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৯৬ লাখ ৩২ হাজার ১০৭ জন। মঙ্গলবার একদিনে দুই ডোজ মিলিয়ে দেওয়া হয়েছে মোট ৫ লাখ ৬২ হাজার ২৭৪ ডোজ টিকা। 

এগুলো দেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকা, চীনের তৈরি সিনোফার্ম, ফাইজার এবং মডার্নার টিকা।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো টিকাদান বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেওয়া তথ্যমতে, আজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ৪১ হাজার ২২৯ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে এক হাজার ১২৯ জনকে।

পাশাপাশি আজ  ফাইজারের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে ২১ হাজার ৩ জনকে এবং দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে এক হাজার ৯৭৮ জনকে।

এছাড়া সিনোফার্মের টিকা আজ  প্রথম ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ৬৮ হাজার ৫২৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন দুই লাখ ২৮ হাজার ৪০৭ জন। 

এছাড়া মডার্নার টিকা আজও  কাউকে দেওয়া হয়নি।

সারা দেশে এ পর্যন্ত টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন মোট ৫ কোটি ৫০ লাখ ৩৫ হাজার ৬৭৬ জন।

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

লক্ষ্মীপূজা আজ

লক্ষ্মীপূজা আজ

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

গুলশান সোসাইটি ও রাজউকের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

স্ত্রীসহ স্বাস্থ্যের সাবেক প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মামলা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ইভ্যালির তদন্ত থেকে সরে এলো দুদক

ইভ্যালির তদন্ত থেকে সরে এলো দুদক

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

ভবনে ৬ মাসের মধ্যে সেপটিক ট্যাংক না বসালে ব্যবস্থা: মেয়র আতিক

ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার কারাগারে

ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার কারাগারে

খুলনায় মন্দির ভাঙচুরের মামলায় তিন আসামির জামিন স্থগিত

খুলনায় মন্দির ভাঙচুরের মামলায় তিন আসামির জামিন স্থগিত

অনলাইনে ডলার কেনা-বেচা নিয়ন্ত্রণে আইনি নোটিশ

অনলাইনে ডলার কেনা-বেচা নিয়ন্ত্রণে আইনি নোটিশ

শপথ নিলেন হাইকোর্টে স্থায়ী হওয়া ৯ বিচারপতি

শপথ নিলেন হাইকোর্টে স্থায়ী হওয়া ৯ বিচারপতি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪৭

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৪৭

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সারাদেশে ৭১ মামলা, গ্রেফতার ৪৫০

‘সাম্প্রদায়িক হামলা’: সারাদেশে ৭১ মামলা, গ্রেফতার ৪৫০

জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্ট তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার এক

জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স ও পাসপোর্ট তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার এক

সর্বশেষ

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কথা স্বীকার উত্তর কোরিয়ার

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কথা স্বীকার উত্তর কোরিয়ার

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলো ২১ আরোহী

যুক্তরাষ্ট্রে বিমান বিধ্বস্ত, অলৌকিকভাবে বেঁচে গেলো ২১ আরোহী

৫ গোলে জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ, আতলেতিকোকে হারালো লিভারপুল

৫ গোলে জিতলো রিয়াল মাদ্রিদ, আতলেতিকোকে হারালো লিভারপুল

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

যুক্তরাজ্যে আবারও বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু

মেসির জোড়ায় পিএসজির রোমাঞ্চকর জয়

মেসির জোড়ায় পিএসজির রোমাঞ্চকর জয়

© 2021 Bangla Tribune