X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

দুর্গাপূজাকে ঘিরে ব্যস্ত প্রতিমাশিল্পী,  উদযাপনের কিছু শর্ত শিথিল হতে পারে

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০০

দেবী আগমনের ঘণ্টা বাজবে মহালয়ায়। আগামী ৬ অক্টোবর মহালয়া। এর সঙ্গে সঙ্গেই সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। পঞ্জিকা অনুযায়ী, দেবী এবার আসবেন ঘোড়ায় চড়ে এবং বিদায় নিবেন দোলায় চড়ে। মহালয়ার পাঁচদিন পর ইংরেজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ১১ অক্টোবর বোধনের মধ্য দিয়ে ষষ্ঠী পালিত হবে। আর ১৫ অক্টোবর হবে দেবী বিসর্জন। উৎসবকে ঘিরে তাই এখন প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছে কারিগররা।   

সনাতন ধর্ম মতে, যা কিছু দুঃখ-কষ্টের বিষয়, যেমন– বাধাবিঘ্ন, ভয়, দুঃখ-শোক, জ্বালা-যন্ত্রণা এসব থেকে ভক্তকে রক্ষা করেন দেবী দুর্গা। শাস্ত্রকাররা দুর্গা নামের অর্থ করেছেন— দুঃখের দ্বারা যাকে লাভ করা যায়, তিনিই দুর্গা। দেবী দুঃখ দিয়ে মানুষের সহ্যক্ষমতা পরীক্ষা করেন। তখন মানুষ অস্থির না হয়ে তাকে ডাকলেই তিনি তার কষ্ট দূর করেন।

ধূপ, কাশা, ঘণ্টা আর ঢাকের তালে তালে শুরু হবে শারদীয় উৎসব। তাই শেষ সময়ে চলছে দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরির কাজ। সারা দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পুরান ঢাকার শাখারিবাজারে প্রতিমা তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন সনাতন সম্প্রদায়ের পালেরা (প্রতিমা তৈরীর মূল কারিগর)। সেখানের কয়েকটি পালবাড়ি ঘুরে দেখা যায়, বেশ কয়েকজন এই পেশার সঙ্গে জড়িয়ে আছেন বাবা-দাদার আমল থেকে। প্রতিবছর তারাই মূলত প্রতিমাগুলো তৈরি করেন। কারিগরদের সঙ্গে পরিবারের বাকি সদস্যরাও তখন যুক্ত হন। প্রথমে কাঠ-বাঁশ দিয়ে ফ্রেম তৈরি করে খড় দিয়ে মূর্তির আদল তৈরি করা হয়। তার ওপর দেওয়া হয় কাদা-মাটির প্রলেপ। এভাবে একের পর এক প্রলেপ লাগিয়ে শুকাতে হয়। সব শেষে রং লাগিয়ে পোশাক ও গহনা পরানো হয়। কারিগরেরা বলছেন, প্রতিমা তৈরিতে উপকরণ হিসেবে ব্যবহৃত হয় এঁটেল মাটি, বাঁশ, কাঠ, খড়, পাটের আঁশ।

কারিগরার জানান, প্রতিমা তৈরির খরচ প্রতিবছরই বাড়ছে। বর্তমানে আকারভেদে একেকটি প্রতিমা তৈরি করতে ২০ হাজার থেকে লাখ টাকা পর্যন্ত খরচ হয়। কোনও কোনও মণ্ডপে লাখ টাকার বেশিও খরচ করেও প্রতিমা তৈরি করা হয়। কাজভেদে একেকজন কারিগর মৌসুমের প্রতি মাসে আয় করেন ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা।  তারা আরও জানান,  কোনও কোনও মণ্ডপে প্রতিমার কাঠামো তৈরি করে মাটির কাজও শেষ হয়েছে। ১০-১২ দিন  পর থেকেই শুরু হবে প্রলেপ ও রং দেওয়ার কাজ। সব কাজ শেষ হবে পূজা শুরুর দুই একদিন আগে।

স্কুল জীবন থেকে প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন হরিপদ পাল। তার প্রতিষ্ঠান শিমুলিয়া ভাস্কর শিল্পালয়। বয়সের ভারে কাজ নেওয়া কমিয়ে দিয়েছেন বর্তমানে। তাছাড়া করোনা পরিস্থিতির কারণেও কাজ আসার পরিমাণ কম বলেও জানান তিন। বর্তমানে একটি দেবীর প্রতিমা তৈরি করছেন। সেটি বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার পূজা মণ্ডপের জন্য বলে জানান তিনি। হরিপদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, যদি হাতের কাজ তৈরি করার পর পারি সম্ভব হয় তাহলে আরও দুই একটা কাজ নেব। কিন্তু এখন আর নিচ্ছি না। করোনার আগেও অনেক প্রতিমা তৈরির কাজ করেছি। কিন্তু এখন বয়সের কারণে আর আগের মতো কাজ করতে পারি না।

হরিপদ জানান, ঢাকার বনানী পূজামণ্ডপসহ সারাদেশেই অনেক প্রতিমা তৈরির কাজ করেছেন। চিকনগুনিয়া রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে আর সেখানে কাজ করা হয় না। দেশের বাইরে থেকেও আগে প্রতিমা তৈরির করার জন্য বায়না করা হতো, তবে সেটি এখন হয়না বলে জানান তিনি। ওয়াশিংটনসহ ভারতেও বায়নার কাজ করেছেন হরিপদ পাল। তিনি জানান, প্রতিমার কাজ অনেক আছে। কিন্তু করতে পারছি না বলে ফিরিয়ে দিচ্ছি।

নারায়ণগঞ্জের সুকৃতি শিল্পালয়ের প্রতিমাশিল্পী সুকুমার পাল এবার তৈরি করছেন বনানী পূজামণ্ডপের প্রতিমা। তিনি জানান, এবার চার-পাঁচটি কাজ পেয়েছি। অর্ডার কম কিন্তু যেসব আছে তাতে কাজ অনেক বেশি। তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জে চারটি প্রতিমা তৈরির কাজ আছে। আর বনানীতে একটি প্রতিমা তৈরির কাজ আছে।

প্রতিমা অঙ্গরাজ ভাস্কর শিল্পালয়ের প্রতিমাশিল্পী এস কে নন্দী জানান, আমাদের কাজ পুরদমে চলছে। আমার এখানে সাতটি প্রতিমার অর্ডার আছে। ঢাকার গোপীবাগে ভোলা নন্দগিরি আশ্রমের দুটি প্রতিমার কাজ চলছে আর সিলেটের পাঁচটি প্রতিমার কাজ করছি। গত বছরের চেয়ে এই বছর কাজ একটু বেশি। তারপরও অনেকে আমার কাছে আসছিল, কিন্তু আমার সক্ষমতা আর নেই। যার কারণে ফিরিয়ে দিতে হয়েছে। আগামিবার যদি পরিস্থিতি ভালো হয় তাহলে আরও আগে থেকে শুরু করবো কাজ।

এদিকে সারাদেশে সুষ্ঠুভাবে পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে ১৮ দফা প্রস্তাবনা সরকারকে দিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করে সেগুলো নিয়ে পর্যালোচনা হবে। এর মধ্যে গতবছর করোনা পরিস্থিতির কারণে সীমিত করা কয়েকটি শর্ত শিথিলের কথা বলা হয়েছে। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, গতবার ৩৬ দফা প্রস্তাবনা ছিল এবার কমিয়ে ১৮ দফা দিয়েছি আমরা। উৎসবের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিষয় যেগুলো গতবার ছিল না, সেগুলো এবার থাকবে। পাশপাশি সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের বিষয়গুলো নিশ্চিত করা হবে। মাস্ক ছাড়া এবারও প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না মণ্ডপে। এবারও আলোকসজ্জা, ডিজে এবং প্রতিমা বিসর্জনের সময় যে শোভাযাত্রা করা হয় সেগুলো করা যাবে না। যার যার প্রতিমা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নিকটস্থ স্থানে বিসর্জন দিবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে।

তিনি আরও বলেন, সবকিছু যেহেতু মোটামুটি খোলা সেহেতু আশা করছি অনেক মানুষ এবার পূজায় অংশ নিবে। যদিও আমরা রেস্ট্রিকশন দিয়ে রেখেছি। ৩০ তারিখের বৈঠকে কিছু জিনিস শিথিলতার বিষয়ে আমরা বলবো। প্রশাসন যেন তাতে নজরদারি রাখে সেগুলো আমরা বলবো।

 

/এফএএন/

সম্পর্কিত

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১২

সম্প্রতি পূজামণ্ডপের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচারের অভিযোগ ফেনী থেকে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ফেনী থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃতরা হলো- আহনাফ তৌসিফ মাহবুব লাবিব (২৩), আব্দুস সালাম জুনায়েদ (১৮), ফয়সাল আহমেদ আল আমিন (১৮)। সাম্প্রতিক সময়ে ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট করার উদ্দেশে নাশকতা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন উস্কানিমূলক এবং অপব্যাখ্যা মূলক কনটেন্ট ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে ‌‌।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৬

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) ফল প্রকাশ করা হয়। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় মোট উত্তীর্ণ হন ১৮ হাজার ৫৫০ জন প্রার্থী।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এনটিআরসিএ’র ২০১৯ সালের ১৫ ও ১৬ নভেম্বরের ষোড়শ শিক্ষক নিবন্ধন লিখিত পরীক্ষায় ২২ হাজার ৩৯৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হন। উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে স্কুল-২ পর্যায়ের ১ হাজার ৮০ জন, স্কুল পর্যায়ের ১৫ হাজার ২৪০ জন এবং কলেজ পর্যায়ের ৩ হাজার ৮১১ জনসহ মোট ২০ হাজার ১৩১ জন প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেন। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের চূড়ান্ত ফলাফল রবিবার (১৭ অক্টোবর)  প্রকাশ করা হয়।

স্কুল-২ পর্যায়ে ৯৯৬ জন, স্কুল পর্যায়ে ১৪ হাজার ৪৬ জন এবং কলেজ পর্যায়ে ৩ হাজার ৫০৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন। চূড়ান্তভাবে সর্বমোট ১৮ হাজার ৫৫০ জন প্রার্থী ষোড়শ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। সার্বিক পাসের হার ৯২ দশমিক ১৫ শতাংশ।

প্রার্থীরা পরীক্ষার ফলাফল http://ntrca.gov.bd এবং http://ntrca.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট থেকে রাত ১০টার পর জানতে পারবেন। তাছাড়াও টেলিটক বিডি লিমিটেড কৃতকার্য প্রার্থীদের ফলাফল এসএমএস (SMS) এর মাধ্যমে জানিয়ে দেবে।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:১১

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যেকোনও সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সারাদেশের আইনজীবীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। রবিবার (১৭ অক্টোবর) সংগঠনটির সহ-সভাপতি মুহাম্মদ শফিক উল্ল্যা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে অনুরোধ করা হয়। একইসঙ্গে পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে, কতিপয় স্বার্থান্বেষী মহল তাদের অপ-রাজনীতির উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার হীনমানসে এবং শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্টের লক্ষ্যে সাম্প্রদায়িক কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশে আবহমানকাল ধরে থাকা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এসব ঘৃণ্য কার্যকলাপের কারণে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতাদের বক্তব্য, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও পারস্পরিক উৎসবে অংশগ্রহণ বাঙালির চিরায়ত ঐতিহ্য। তাই স্বাধীনতার চেতনায় গড়ে ওঠা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যেকোনও সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে সারাদেশের আইনজীবীরা রুখে দাঁড়াবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি।’

সাম্প্রদায়িক কার্যকলাপে জড়িত অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

/বিআই/জেএইচ/

সম্পর্কিত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৪

কেন্দ্রীয়ভাবে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) এবং ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না। মূল্যায়নের মাধ্যমে ফলাফল দেওয়া হবে।  প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এমন প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে অনুমোদিত সারাংশ রবিবার (১৭ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মহাপরিচালক বলেন, ‘মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাবের সারাংশ পাঠানো হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী ওই সারাংশে অনুমোদন দিয়েছেন।’ তিনি বলেন, প্রস্তাবে বলা হয়েছিল—মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাথমিকের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ফলাফল দেওয়া হবে। একইভাবে প্রাথমিকের অন্যান্য শ্রেণির ক্ষেত্রেও মূল্যায়নের মাধ্যমে ফলাফল দেওয়া হবে।’

বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ‘আমরা প্রস্তাবে মূল্যায়ন শব্দটি রেখেছি। করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেলে বিকল্প মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফলাফল দেবে। আর করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে ও ঝুঁকি তৈরির কোনও সম্ভাবনা না থাকলে, বার্ষিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। নিজ নিজ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা নিয়ে ফলাফল দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীদের পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘এবার ইবতেদায়ি সমাপনীও হবে না। তারা আমাদের প্রস্তাবের সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে।’ 

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছিলেন, প্রাথমিকের সমাপনী (পিইসি), জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা কেন্দ্রীয়ভাবে হবে না। বার্ষিক মূল্যায়নের মতো শ্রেণি মূল্যায়ন করা হবে। আর শ্রেণি মূল্যায়নের ফল অনুযায়ী, বোর্ডের সনদ পাবেন জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীরা। আর বিদ্যালয় থেকে সনদ পাবে পিইসি পরীক্ষার্থীরা।

শিক্ষামন্ত্রী ওইদিন আরও বলেছিলেন, আমরা যেটি করতে চাইছি—সব শ্রেণির শ্রেণি সমাপনী মূল্যায়ন, যেটি চলছে। চলমান অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়ন চলছে। অষ্টম শ্রেণিরও সমাপনী মূল্যায়ন হবে। সেখানে সামষ্টিক পরীক্ষা হবে—কিছুটা অ্যাসাইনমেন্ট যেটা হচ্ছে, সেটা দিয়ে হবে। আমরা আশা করছি, সনদ এটি দিয়ে দিতে পারবো। তাদের সনদ তো একটা দিতে হবে। অষ্টম শ্রেণির পর অনেকের হয়তো পড়াশোনার সুযোগ হয় না। সেটা আমরা বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করবো। শিক্ষার্থীরা আগের মতো বোর্ডের সনদ পাবে।’

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, নিজ নিজ বিদ্যালয়ে প্রাথমিকের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হবে। করোনার এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণের বিস্তার রোধে কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। তবে শিক্ষার্থীরা আগের মতোই সনদ পাবে।’

পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি সেরকমভাবে হবে না। তবে ক্লাস সমাপনী মূল্যায়ন—অন্যান্য শ্রেণির মতো হচ্ছে এবং হবে।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছর কেন্দ্রীয়ভাবে পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো। কেন্দ্রীয়ভাবে অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষা পাবলিক পরীক্ষা হিসেবে পরিচিত। কারণ, এই পরীক্ষার সনদ দেওয়া হতো বোর্ড থেকে।

করোনার কারণে ২০২০ সালের পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ (ক্লাস প্রশোমন) করা হয়েছে। এবার কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষা না নেওয়া হলেও বার্ষিক মূল্যায়ন করা হবে নিজ নিজ বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ের মূল্যায়নের ভিত্তিতে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীরা বোর্ড সনদ পাবে। তবে পিইসি পরীক্ষার্থীরা বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণের সনদ পাবে।’

 

/এসএমএ/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৩

শিক্ষার্থীদের কাজের সুযোগ বাড়াতে ডিনেটের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস অব বাংলাদেশ (ইউল্যাব)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) মোহাম্মদপুরে ইউল্যাবের স্থায়ী ক্যাম্পাসে উভয় পক্ষের মধ্যে এই স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. সামসাদ মর্তূজা এবং ডিনেটের নির্বাহী পরিচালক এম. শাহাদাত হোসেন এতে স্বাক্ষর করেন। 

ডিনেট একটি সামাজিক উদ্যোগ যা সামাজিক প্রভাব তৈরি করতে এবং প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির জন্য গ্রামীণ ও শহুরে পরিবেশে নারী, শিশু ও যুবকদের জন্য উদ্ভাবনী পণ্য ও পরিষেবার ডিজাইন করে। 

ডিনেটের নিয়মিত ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে ইউল্যাব ও ডিনেটের মধ্যে অনবোর্ড ইন্টার্নস-এর বিষয়টি সমঝোতা স্মারকে উল্লেখ করা হয়েছে। 

উভয়পক্ষই শিক্ষার্থীদের একাডেমিক প্রোগ্রামের ফাইনাল টার্মে ইউল্যাবের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের ডিনেটে ইন্টার্ন হিসেবে নিয়োগ করতে চায়। ইন্টার্নশিপ করার জন্য শিক্ষার্থীরা একাডেমিক ক্রেডিটও পাবে।

ইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজের বিশেষ উপদেষ্টা অধ্যাপক ইমরান রহমান, ইউল্যাবের রেজিস্ট্রার লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুল ইসলাম (অব.), ইউল্যাবের ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড ক্যারিয়ার সার্ভিস অফিসের পরিচালক আবু হেনা এম রাসেলের উপস্থিতিতে এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাব কমিউনিকেশনস অফিসের সহকারী অধ্যাপক ও উপদেষ্টা মুহাম্মদ ফয়সল চৌধুরী, ডিনেটের পিপল অ্যান্ড কালচার অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রধান সৈয়দ মাজেদুর রহমান, ডিনেটের পিপল অ্যান্ড কালচার ম্যানেজার ফারজানা আহমেদ এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরতিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

রূপনগর খাল পুনরুদ্ধারে ডিএনসিসির অভিযান

সর্বশেষ

ফাতির নৈপুণ্যে পিছিয়ে পড়েও বার্সেলোনার দুর্দান্ত জয়

ফাতির নৈপুণ্যে পিছিয়ে পড়েও বার্সেলোনার দুর্দান্ত জয়

হাসপাতাল ছাড়লেন বিল ক্লিন্টন

হাসপাতাল ছাড়লেন বিল ক্লিন্টন

ভারতের প্রথম অ্যালকোহল জাদুঘরের যাত্রা শুরু

ভারতের প্রথম অ্যালকোহল জাদুঘরের যাত্রা শুরু

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

© 2021 Bangla Tribune