X
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ৬ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

তদবিরের চাপে সচিবালয়

আপডেট : ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:৩১

সচিবালয়ে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদোন্নতি ও পোস্টিং নিয়ে তদবিরের চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা। সচিবালয়ের ভেতর ও বাইরে কর্মরত স্টাফরাও সচিবালয়ে আসছেন তদবির করতে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, এমনকি সচিবালয়ের প্রবেশদ্বারেও এখন ভিড় লক্ষ করা যায়। সপ্তাহে একদিন (সোমবার) সচিবালয়ে দর্শনার্থী প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকলেও বিভিন্ন অজুহাতে এদিনও সচিবালয়ে প্রবেশের চেষ্টা করেন দর্শনার্থীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রীতিমতো বিরক্ত ও বিব্রত।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, করোনা মহামারি অনেকটা কেটে যাওয়ায় এ প্রবণতা বেড়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল, বিশেষ করে জেলা-উপজেলা থেকে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সচিবালয়ে আসেন বিভিন্ন প্রকার তদবির নিয়ে। সাধারণ মানুষ এলাকার রাস্তাঘাট, স্কুল কলেজ, মাদ্রাসা নির্মাণ, অনুদান, চাকরিসহ নানা তদবিরে সচিবালয়ে এলেও সরকারি কর্মচারীরা আসেন তাদের পদোন্নতির জন্য। কেউ কেউ আসেন অপেক্ষাকৃত ভালো ও সুবিধাজনক স্থানে পোস্টিং পাওয়ার জন্য। এসব তদবিরের চাপ সামাল দিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় অনেকটাই হিমশিম খাচ্ছেন। এতে তারা অনেকটা বিব্রত বলেও জানিয়েছেন। 

জানতে চাইলে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের একজন যুগ্ম-সচিব নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন,  আমি তো বিশেষ কোনও জেলার লোক নই। সরকারের উচ্চপদে আমার কোনও আত্মীয়-স্বজনও নাই। তাই তদবির করতে পারছি না। ফলে এবারও আমার অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতি হলো না। কবে হবে জানি না। তিনি জানান, সবাই হয়তো তদবির করেন না। তবে কেউ কেউ তো করেন। তারা করেন বলেই আমরা পেছনে পড়ে যাই—বিষয়টি এমন।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন উপ-সচিব জানিয়েছেন, ডিসি ফিটলিস্টে নাম আছে। তারপরও পোস্টিং পাচ্ছি না। পদের তুলনায় প্রার্থী বেশি হওয়ায় তদবিরে কাজ দেয়। তাই যাদের সামর্থ্য আছে তারা তদবির করে পোস্টিং নিয়ে চলে যাচ্ছেন। আমি পড়েই আছি। প্রশাসনে মাঠ পর্যায়ে ডিসি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদ। তাই প্রত্যাশা থাকাটাই স্বাভাবিক।

পিরোজপুর জেলা প্রশাসকের দফতরে কর্মরত এক কর্মচারী সচিবালয়ে এসেছেন তার পছন্দের জেলায় পোস্টিং পাওয়ার জন্য। এ জন্য সচিবালয়ে কেন জানতে চাইলে তিনি জানান, মন্ত্রী-এমপি দিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে ফোন বা ডিও না দিলে কাজ হবে না। আমার নিজ এলাকার এমপি সরকারের একজন মন্ত্রী। তার সঙ্গে দেখা করতে এসেছি। তাকে দিয়ে ফোন করাবো। তাই সচিবালয়ে এসেছি। দেখি পোস্টিংটা হয় নাকি?

শুধু তাই নয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এবং সচিবও বিষয়টি নিয়ে বিব্রত। কোনও মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী যখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বা সচিবকে এ ধরনের চিঠি লেখেন তখন রীতিমতো তারা বিব্রত হন। কারণ, যারা অনুরোধ করছেন বা ডিও দিচ্ছেন তারা সিনিয়র। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হয়তো এ ধরনের ডিও’র অনুরোধ রক্ষা করা সম্ভব হয় না।

পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোবারক হোসেন সচিবালয়ে এসেছেন স্থানীয় কিছু উন্নয়নমূলক কাজের দরপত্র যেন তাড়াতাড়ি হয় তার তদবির করতে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে অবস্থানরত মোবারক হোসেন জানিয়েছেন, ঢাকায় এসে তদবির করলে কাজটা দ্রুত হবে। মন্ত্রণালয়ের অনেক কাজ। তাই সরাসরি কাজটি করিয়ে নিতে স্থানীয় এমপির লিখিত চিঠি নিয়ে এসেছি স্থানীয় সরকারমন্ত্রীর কাছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সাবেক মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোশাররাফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, বিষয়টি অনৈতিকও বটে। আর আইনে তো নিষেধ করাই আছে। এরপরও যারা করেন, তারা গুরুতর অন্যায় করেন। এটি ঠিক নয়। সুশাসন প্রতিষ্ঠায়ও বিষয়টি বাধা সৃষ্টি করে।  

উল্লেখ্য, ১৯৭৯ সালের সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী কোনও সরকারি কর্মচারী তার চাকরি-সংক্রান্ত কোনও বিষয়ে প্রভাব খাটাতে পারেন না। সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা, ১৯৭৯-এর ৩০ ধারায় বলা আছে, ‘কোনও সরকারি কর্মচারী তাহার চাকরি-সংক্রান্ত কোন দাবির সমর্থনে প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে সরকার বা কোন সরকারি কর্মচারীর ওপর রাজনৈতিক বা অন্য কোনও বহিঃপ্রভাব খাটাইতে বা খাটাইবার চেষ্টা করিতে পারিবেন না।’ আইনটির ২০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনও সরকারি কর্মচারী কোনও ব্যাপারে তাহার পক্ষে হস্তক্ষেপ করার জন্য সংসদ সদস্য বা অন্য কোনও বেসরকারি ব্যক্তিকে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অনুরোধ জানাইতে পারিবেন না।’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সচিবালয়ে কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তা রাজীব দাস বলেন, তদবিরকারীদের চাপে ডিউটি করা খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। সোমবার দর্শনার্থীদের সচিবালয়ে প্রবেশাধিকার না থাকলেও নানাভাবে প্রবেশের চেষ্টা করেন। এতে আমরা বাড়তি চাপে পড়ি। ক্ষোভের সঙ্গে তিনি জানান, সচিবালয়ে কি যে মধু আছে, তা আজও বুঝলাম না।  

/এমআর/এনএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

উপ-রাষ্ট্রপতি ও উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি হিন্দু পরিষদের

উপ-রাষ্ট্রপতি ও উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি হিন্দু পরিষদের

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

উপ-রাষ্ট্রপতি ও উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি হিন্দু পরিষদের

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২১:১৮

জাতীয় সংসদে সংখ্যালঘুদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিতকরণে ৬০টি সংরক্ষিত আসন বরাদ্দ এবং একজন উপ-রাষ্ট্রপতি ও একজন উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ। একইসঙ্গে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সার্বিক নিরাপত্তার লক্ষ্যে সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন এবং জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দাবি তুলেছে সংগঠনটি। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকাল থেকে পাঁচটি দাবি নিয়ে রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে সড়ক অবরোধ করেন এর নেতাকর্মীরা।

কর্মসূচিতে পেশ করা সংগঠনের বাকি তিনটি দাবি হলো-শারদীয় দুর্গাপূজায় তিন দিনের সরকারি ছুটি ও নিম্ন মাধ্যমিক পর্যায়ে সংস্কৃত শিক্ষা পুনরায় চালু করা, সরকারি চাকরিতে ২০ শতাংশ কোটা পদ্ধতি চালুসহ হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষার্থীদের জন্য সব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষক নিয়োগ নিশ্চিত করা এবং বেদখলকৃত সব দেবোত্তর সম্পত্তি স্ব স্ব মঠ-মন্দিরে হস্তান্তরসহ বন্ধ জাদুঘরের পরিবর্তে উদ্ধারকৃত হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিমা মঠ-মন্দিরের কাছে ফেরত দেওয়া।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয় বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ। দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতদের বিচার এবং সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা চেয়ে রাজধানীর শাহবাগে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। ট্রাইব্যুনাল গঠন করে দ্রুত সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ, সংখ্যালঘু সুরক্ষা আইন প্রণয়ন এবং জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দাবি জানান তারা। অবরোধ পরবর্তী সময়ে সন্ধ্যা ৬টার দিকে মশাল মিছিল নিয়ে জাতীয় প্রেসক্লাব অভিমুখে রওনা দেন আন্দোলনকারীরা।

রাজধানীর শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বাংলাদেশ হিন্দু পরিষদ

অবরোধ কর্মসূচিতে বাংলাদেশ হিন্দু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুমন কুমার রায় বলেন, ‘আপনারা জানেন দেশব্যাপী সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর কী নারকীয় হামলা চালানো হয়েছে। প্রশাসন এক্ষেত্রে তাদের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ। রাষ্ট্র সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। সাম্প্রদায়িক হামলায় জড়িতরা বারবার পার পেয়ে যাচ্ছে। এর আগেও সাম্প্রদায়িক হামলায় সংখ্যালঘুরা বিচার পায়নি। হামলার কুশীলবরা ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যায়। আমরা চাই, হামলার নেপথ্যে যারা জড়িত তাদেরও যেন বিচারের আওতায় আনা হয়।’

জাতীয় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নীরেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের মন্তব্য, ‘দেশে সংখ্যালঘুদের ওপর এতো হামলা হলেও কোনও বিচার হয় না। বিচার হয় না বলে এর স্থায়ী প্রতিকার দেখা যায় না। হামলাকারীকে বের করে গ্রেফতার করা চূড়ান্ত সমাধান নয়। মূলহোতাকে গ্রেফতার করা হোক এবং শাস্তি দেওয়া হোক।’

হিন্দু-মুসলিম সম্প্রীতি আবারও ফিরিয়ে আনতে সরকারকে মুখ্য ভূমিকা পালনের আহ্বান জানায় জাতীয় হিন্দু সমাজ সংস্কার সমিতি।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ২০:০১

ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার ব্যয় সরকারিভাবে বহনের দাবি জানিয়েছে রোগী কল্যাণ সোসাইটি।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) রাজধানীর মগবাজার এলাকায় বাংলাদেশ রোগী কল্যাণ সোসাইটির উদ্যোগে অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে ওষুধ বিতরণ কর্মসূচিতে এ দাবি জানানো হয়।

এ সময় সংগঠনের পক্ষ থেকে তুলে ধরা প্রস্তাবনায় বলা হয়- বায়ু দূষণ বন্ধ ও মেডিক্যালের বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আধুনিকায়ন ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে। বিভাগীয়ভাবে ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা এবং সরকারি হাসপাতালে শূন্যপদে ডাক্তার নিয়োগ সম্পন্ন করতে হবে। স্বাস্থ্য বিমা বাধ্যতামূলক করার জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে উদ্যোগ এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার কথাও এসময় বলা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাপ্পি সরদার তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সময়ে উদ্বেগজনকহারে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। যদিও প্রথম ও দ্বিতীয় স্তরে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার গবেষণা সারা পৃথিবীজুড়ে অনেকটা সফল হলেও শেষ স্তরের চিকিৎসা এখনও আলোর মুখ দেখেনি। এই ক্ষেত্রে সম্প্রতি বর্তমান সরকার ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট চালু করতে যাচ্ছে। তবে ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহন করলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে।

ডা. মাহতাব হোসাইন মাজেদ বলেন, চিকিৎসা খাতে আরও বেশি গবেষণা জোরদার করা দরকার। উন্নত গবেষণার মাধ্যমে টেকসই চিকিৎসা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করা সম্ভব। পাশাপাশি সরকারি হাসপাতালগুলো দুর্নীতি বন্ধ ও চিকিৎসার মান উন্নত করতে পারলে রোগীরা সঠিক সেবা পাবে।

নুরুল আফসার বিএসসির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। কর্মসূচি উদ্বোধন করেন গণআজাদী লীগের মহাসচিব মুহাম্মদআতা উল্লাহ খান। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রোগী কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও কো-চেয়ারম্যান ডা. মুহাম্মদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ, কুটির শিল্প ও কারিগরি প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিউল আলম, রোগী কল্যাণ সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মো. সাইফুল ইসলাম, এইচএম সালাউদ্দিন কাদের।

/এসএস/এমএস/

সম্পর্কিত

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

কাওরান বাজারে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

কাওরান বাজারে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৩৩

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে কাওরান বাজার এলাকায় দুইজন এবং বনানীর সৈনিক ক্লাব এলাকায় একজন প্রাণ হারিয়েছেন। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দিনের বিভিন্ন সময়ে এসব দুর্ঘটনা দেখা দেয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহগুলো আইনি প্রক্রিয়া শেষে ঢামেক মর্গে পাঠিয়েছে ঢাকা রেলওয়ে পুলিশ।

রেলওয়ে পুলিশের এএসআই সাকলাইন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সৈনিক ক্লাব এলাকা থেকে জিন্স প্যান্ট ও শার্ট পরা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার বয়স আনুমানিক ২৪ বছর। তবে পরিচয় জানা যায়নি। রেলওয়ে পুলিশের তথ্যানুযায়ী, কমলাপুরগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে তার।

তেজগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রিয়াজ মাহমুদ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাতে তেজগাঁও রেলস্টেশন ও কাওরান বাজারের মাঝামাঝি রেলগেট এলাকায় কমলাপুরগামী ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ হারায় সবুজ শার্ট ও কালো প্যান্ট পরা এক ব্যক্তি। তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর। তবে পরিচয় জানা যায়নি।

এসআই রিয়াজ মাহমুদ জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে কাওরান বাজার কাঠপট্টি এলাকায় একটি মোবাইল ফোন দেখে আরেকটি মোবাইল ফোনে নম্বর তোলার সময় টঙ্গীগামী ট্রেনের ধাক্কায় মনসুর হেলাল (২৫) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। আশেপাশের লোকজন ট্রেন আসছে দেখে তাকে ডাকলেও তিনি বুঝতে পারেননি।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত তরুণ একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে। মিরপুরের একটি মেসে থাকতেন তিনি।

/এআইবি/আরটি/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৯

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন চারজন। যা গত ১৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে গত বছরের ৬ মে তিনজনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) মারা যাওয়া এই চারজনের মৃত্যু হয়েছে দেশের ৬৪ জেলার মধ্যে চারটি জেলায়। বাকি ৬০ জেলায় করোনাতে কারও মৃত্যু হয়নি।

মারা যাওয়া চারজনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের মুন্সিগঞ্জ ও টাঙ্গাইল, চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের বরিশাল জেলায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে।

/জেএ/এমএস/

সম্পর্কিত

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

আরও ১২৩ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

এক সপ্তাহে ৪ কোটি শিশু পাবে কৃমির ওষুধ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

সাড়ে সাত লাখ টিকা দেওয়া হয়েছে আজ

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

করোনায় মৃত্যুহীন ৫৬ জেলা

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

আপডেট : ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৩

রান্নাকে একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম হিসেবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘রন্ধনশিল্পীরা বাঙালির ঐতিহ্যবাহী রান্নার স্বাদ ও বৈচিত্র্যে নিত্য নতুন উদ্ভাবনার মধ্য দিয়ে দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্বের ভোজন-রসিকদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) মহাখালী ডিওএইচএসে রাওয়া ক্লাব মিলনায়তনে ‘লবী রহমান'স কুকিং ফাউন্ডেশনের রান্নার রেসিপি বই ‘রসনা শৈলী'র মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, রান্নায় দেশ-বিদেশের প্রণালী ও পদ্ধতির সংমিশ্রণ করে রন্ধনশিল্পে তাদের মেধা ও নিষ্ঠার পরিচয় দিচ্ছেন।

দেশের প্রখ্যাত রন্ধন বিশেষজ্ঞ লবী রহমানের তত্ত্বাবধানে সারা দেশের প্রায় দেড়শ রন্ধনশিল্পীর পাঠানো রেসিপি সম্পাদন করে এই বইটি প্রকাশ করেছে মুক্তধারা নিউইয়র্ক-ঢাকা প্রকাশনা সংস্থা।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত রন্ধনশিল্পীরা।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মো. শহীদুজ্জামান খোকন এবং আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শেফ টনি খান ও বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী আবিদা সুলতানা।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

কারিগরি শিক্ষার প্রসারে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান

কারিগরি শিক্ষার প্রসারে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান

সিলেবাস আর সংক্ষিপ্ত করার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

সিলেবাস আর সংক্ষিপ্ত করার সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত সূচিতেই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত সূচিতেই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে: শিক্ষামন্ত্রী

যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স খুলে সনদ দেওয়া হয়েছে: শিক্ষামন্ত্রী

যত্রতত্র অনার্স-মাস্টার্স খুলে সনদ দেওয়া হয়েছে: শিক্ষামন্ত্রী

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উপ-রাষ্ট্রপতি ও উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি হিন্দু পরিষদের

উপ-রাষ্ট্রপতি ও উপ-প্রধানমন্ত্রীর পদ সৃষ্টির দাবি হিন্দু পরিষদের

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

ক্যান্সার আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকারিভাবে বহনের দাবি

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কা ও কাটা পড়ে তিনজনের মৃত্যু

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

করোনাতে মৃত্যুহীন ৬০ জেলা

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

রন্ধনশৈলী একটি সৃজনশীল শিল্পকর্ম: শিক্ষামন্ত্রী

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও চকবাজার থেকে আট ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রাজনৈতিক দলগুলো পুরনো অভ্যাসে লিপ্ত, বিবৃতিতে ৪৭ নাগরিক

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

রবিবার দেশে জলবায়ু ধর্মঘট পালন করবেন পরিবেশবাদীরা

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

৫ প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীতে ট্রেন লাইনচ্যুত: সাড়ে তিন ঘণ্টা পর চলাচল স্বাভাবিক

সর্বশেষ

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

পূজামণ্ডপে হামলার চেষ্টা: যুব পরিষদের ৭ নেতাকর্মী রিমান্ডে 

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

ভারতে পাচার হওয়ার আড়াই বছর পর দেশে ফিরলো মেয়েটি

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোরে অলআউট ডাচরা

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোরে অলআউট ডাচরা

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

‘সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিতে’ কুমিল্লার ঘটনা লাইভে প্রচারের স্বীকারোক্তি

ইকবাল এতদিন কোথায় ছিল, প্রশ্ন মির্জা ফখরুলের

ইকবাল এতদিন কোথায় ছিল, প্রশ্ন মির্জা ফখরুলের

© 2021 Bangla Tribune