X
বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ৫ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ফের বেড়েছে মরিচের দাম

আপডেট : ০৯ অক্টোবর ২০২১, ২০:০০

দুই দিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম আরও বেড়েছে। চাহিদার তুলনায় আমদানি কম এবং দুর্গাপূজা উপলক্ষে ছয় দিন আমদানি বন্ধ থাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যের দাম বেড়েছে বলে দাবি দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকদের।

হিলি বন্দরে দুই দিন আগেও প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ পাইকারিতে ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছিল। বর্তমানে দাম বেড়ে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন বন্দরে মরিচ কিনতে আসা পাইকার ও সাধারণ ক্রেতারা।

ব্যবসায়ী আসা আব্দুস সাত্তার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার হিলি বন্দর থেকে কাঁচা মরিচ কিনে নিয়ে গেলাম ৭০ টাকা কেজি দরে। আজ (শনিবার) কাঁচা মরিচ কিনতে এসে দাম শুনি বেড়ে গেছে। কেজিপ্রতি ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়ে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
 
হিলি বন্দরের কাঁচা মরিচ আমদানিকারক আনোয়ার হোসেন বলেন, দেশের বাজারে কাঁচা মরিচের দাম নিয়ন্ত্রণে ভারত থেকে আমদানি করা হচ্ছে। তবে দেশটিতে বন্যার কারণে সরবরাহ কম থাকায় মরিচের দাম বাড়তি ছিল। এতে দেশের বাজারেও দাম বেড়েছে। বর্তমানে ভারতে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় সরবরাহ বাড়ছে। বন্দর দিয়েও কাঁচা মরিচ আমদানি বেশি হচ্ছে। তবে অতিরিক্ত গরমের কারণে আমদানি মরিচের মান খারাপ হয়ে যাওয়ায় দাম বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, এক কেজি কাঁচা মরিচের শুল্ক পরিশোধ করতে হচ্ছে ২৬ টাকার মতো। এদিকে দুর্গাপূজার কারণে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ছয় দিন আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে, একইভাবে দেশের অন্যান্য বন্দর দিয়েও পূজার জন্য আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে। এ সময় বন্দর দিয়ে মরিচ আমদানি বন্ধ থাকায় দেশের বাজারে সরবরাহে ঘাটতি দেখা দেবে। এমন আশঙ্কায় দেশের বিভিন্ন স্থানে মোকামগুলোতে মরিচের ব্যাপক চাহিদা তৈরি হয়েছে। এর ওপর বন্দর দিয়ে কাঁচা মরিচের আমদানি আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে। ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দাম বাড়ছে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। তবে আমদানি কিছুটা কমেছে। আজ বন্দর দিয়ে ১১টি ট্রাকে ১০২ টন আমদানি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বন্দর দিয়ে ১৪টি ট্রাকে ১৪৭ টন মরিচ আমদানি হয়েছিল।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৯

কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ট্রাকের সঙ্গে সিএনজি অটোরিকশার সংঘর্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক আব্দুল ওয়াহেদ এবং এক শিশুসহ দুজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও পাঁচ জন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিক্ষক ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মধ্যপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

পুলিশ ও আহতরা জানান, আজ সন্ধ্যার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের কাউতলী থেকে একটি সিএনজি অটোরিকশায় কসবা উপজেলার নয়নপুরে সপরিবারে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন আব্দুল ওয়াহেদ। এ সময় আখাউড়া উপজেলার ছতুরা শরিফ এলাকায় কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের সঙ্গে সিএনজি অটোরিকশাটির ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই শিক্ষক আব্দুল ওয়াহেদ (৩৫) ও হাবিবা (১৩ মাস) নামে এক শিশু নিহত হন। আহত হন- শিক্ষকের স্ত্রী স্মৃতি বেগম (৩০) ও শিশুসন্তান ওয়াকি (৫), তামিমা (১৩), রোকসানা (৩৮), কারুমাসহ (১০) পাঁচ জন।

আহতদের সবার বাড়ি নবীনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। সেখানেই তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নিহতের লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে সহকর্মীর মৃত্যুর খবর পেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষকরা হাসপাতালে ভিড় করেন।

আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিপরীত দিক থেকে আসা একটি গাড়ির লাইটের আলোর কারণে সিএনজি অটোরিকশা চালক নিয়ন্ত্রণ হারান। এতে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে সিএনজি অটোরিক্সাটি ধাক্কা মারে। এ বিষয়ে হাইওয়ে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।

 

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৮

রাজশাহীতে বিভিন্ন ব্যানারে পৃথকভাবে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও সমাবেশ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) এ সমাবেশ করা হয়। সমাবেশে দেশে যেকোনও ধরনের সাম্প্রদায়িক সহিংসতা, উসকানিমূলক কর্মকাণ্ডসহ সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তার প্রশ্নে প্রশাসনকে আরও কঠোর অবস্থানে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

দুপুরে নগরীর জিরো পয়েন্টে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সেলিম রেজা নিউটন, শিল্পী মাঈশা মরিয়াম ও মীরা সুস্মিতা প্রমুখ। ‘পৃথিবীটা মানুষের হোক ধর্ম, থাকুক অন্তরে’, ‘মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িকতার ঠাঁই নেই’, ‘ধর্মান্ধতা নিপাত যাক’, ‘ধর্ম নিয়ে অশান্তি চাই না’ স্লোগান নিয়ে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

এদিকে, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনা বিনাশকারী সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবাদী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে সিনেট ভবন চত্বরে রাবি শিক্ষক সমিতির আয়োজনে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে শতাধিক শিক্ষক অংশ নেন।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষক নেতারা বলেন, যে অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক চেতনা নিয়ে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল সেদেশ এখন মৌলবাদী শক্তির উত্থানের কারণে সহিংস হচ্ছে। ধর্মকে পুঁজি করে সংগঠিত সব সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে দ্রুত বিচার করতে হবে। 

বেলা ১১টায় রাজশাহী কলেজের বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালের সামনে রাজশাহী কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

/এএম/

সম্পর্কিত

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

আজও আসেননি চুল কেটে দেওয়া শিক্ষক, প্রতিবেদন জমা

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

ভ্যানভর্তি সরকারি চাল রেখে ইউপি সদস্যের দৌড়

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার বিষয়ে বিকালে সিদ্ধান্ত

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

রাসায়নিক কারখানায় ‘শ্বাসকষ্টে’ নারীর মৃত্যু

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৬

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম পরিবর্তন করার কোনও পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের নেই বলে জানিয়েছেন দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন। তিনি বলেছেন, ‘সংবিধানে স্পষ্ট করে বলা আছে, রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম। কয়দিন ধরে কথা হচ্ছে, আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম পরিবর্তন করবে। কিন্তু আপনারা স্পষ্ট শুনে রাখুন, রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের কোনও পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের নেই। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ সব ধর্মের মানুষ তাদের ধর্ম পালন করবে। রাষ্ট্র সব ধর্ম পালনে নিরাপত্তা দেবে।’

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিকালে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে আয়োজিত এক শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। সন্দ্বীপের সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত মুস্তাফিজুর রহমানের ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই শোকসভার আয়োজন করা হয়।

আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ‘তারেক রহমান লন্ডনে বসে বাংলাদেশ ও ইসলাম বিরোধী ষড়যন্ত্র করছে। তার চামচারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় পোস্ট করছে। যতদিন পর্যন্ত তারেক জিয়া আছে, ততদিন পর্যন্ত আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ সন্দ্বীপ। সড়কপথে কোনও যোগাযোগ নেই। অথচ বাংলাদেশের মানুষ এই দ্বীপকে এক নামে চেনে। এর কারণ প্রয়াত মুস্তাফিজুর রহমান। তিনি সন্দ্বীপকে বাংলাদেশে পরিচিত করেছেন।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সন্দ্বীপের সংসদ সদস্য মাহফুজুর রহমান মিতা। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন- চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমান, সন্দ্বীপ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার শাহজাহান প্রমুখ।

/এফআর/

সম্পর্কিত

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

শুধু প্রশাসন দিয়ে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না: নওফেল

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:০৪

কোনও সাম্প্রদায়িক শক্তি দেশের সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তিনি বলেছেন, ‘প্রশাসনের পক্ষ থেকে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। আমরা আশ্বস্ত করতে চাই, বিচলিত হওয়ার কোনও কারণ নেই, বাংলাদেশ আমার আপনার সবারই। পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে মনে করে ভীতসন্ত্রস্ত হওয়ার কারণ নেই। তবে শুধু প্রশাসন দ্বারা সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না।’

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রামের চকবাজারের চন্দনপুরা এলাকায় বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশ গুপ্তের বাসায় যান ব্যারিস্টার নওফেল। তার সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘সরকার শতভাগ তৎপর আছে। কোনোভাবেই বলতে পারব না যে, অবহেলা আছে। শতভাগ সচেষ্ট আছি। ইতোমধ্যে অনেককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আগের ঘটনাগুলোতেও গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি (রানা দাশ গুপ্ত) একজন আইনজীবী, তিনি জানেন বিচারিক প্রক্রিয়ায় দীর্ঘসূত্রিতাতো আছেই। বিচারিক প্রক্রিয়ার বাইরে যাওয়া সম্ভব নয়।’

তিনি বলেন, ‘শুধু প্রশাসন দ্বারা সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব না। এটি বাংলাদেশ নয়, পৃথিবীর বাস্তবতা। আমরা একটি সাংস্কৃতিক ও সামাজিক আন্দোলনের কথা বলছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রীতির সমাবেশ ও মিছিল করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন। সাংগঠনিভাবে দল মাঠে নেমেছে।’

নওফেল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রীতির বার্তা দিয়েছেন। সেই লক্ষ্যে শান্তি সমাবেশ করছি। সব সম্প্রদায়ের মধ্যে একটি সহমর্মিতা, সম্প্রীতি ও ভালোবাসা যদি না থাকে তাহলে দীর্ঘমেয়াদী শান্তি বজায় রাখা কঠিন। তাকে (রানা দাশ গুপ্ত) আশ্বস্ত করেছি, আমরা সম্প্রীতির পরিবেশ বজায় রাখবো। এই জন্য সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’

রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘১৯৭১ সালের পরাজিত শক্তি দেশের সংখ্যালঘুদের বিতাড়িত করতে চাচ্ছে, সেটি তাকে (নওফেলকে) বলেছি। সম্প্রতি ঘটনা ছাড়াও এই সরকারের আমলে সব ঘটনা বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এগুলো যাতে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে, সে বিষয়ে বলেছি।’

তিনি বলেন, ‘কুমিল্লার ঘটনায় ইকবাল হোসেন নামে একজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। গতকাল (বুধবার) টিভিতে দেখলাম, তার নামের আগে একটা শব্দ জুড়ে দেওয়া হয়েছে। সেটি হলো, ভবঘুরে। এই পর্যন্ত যত বড় ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত ধরেছে, তারা সবাই পাগল, ভবঘুরে। কিন্তু এই পাগলের পেছনে কে? নতুন কোরআন কোথা থেকে আনলো, কে দিলো? আর হনুমানের গদাটা এমনভাবে সরালো যাতে হাতের কিছু না হয়। সেখানে আবার নতুন কোরআন দিয়ে দিলো। এটি কোনও ভবঘুরের কাজ হতে পারে না। এর পেছনে কে? তাঁকে খুঁজে বের করতে হবে।’

রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘এটি একটি পূর্বপরিকল্পিত ঘটনা। চক্রান্তকারীরা পেছনে আছে। তাদেরকে বের করে আনার দায়িত্ব এখন রাষ্ট্র ও সরকারকেই নিতে হবে। সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনায় প্রশাসনের গাফিলতি আছে। রাজনৈতিক দলের গাফিলতি আছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশে কোনও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীকে দেখা যায়নি।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

যৌথ অভিযানে ডুবিয়ে দেওয়া হলো ৩০ জেলেনৌকা

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

মাজারের দুই খাদেমের সঙ্গে কথা বলে কোরআন নিয়ে যান ইকবাল

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ২২:১১

রংপুরের পীরগঞ্জে সনাতন ধর্মালম্বীদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়ার ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়িঘর পরিদর্শন করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গঠিত তদন্ত দলের প্রধান কমিশনের পরিচালক (অভিযোগ ও তদন্ত) মোহাম্মদ আশরাফুল আলম। 

তিনি বলেছেন, ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে সনাতন ধর্মালম্বীদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়া মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) দিনভর বড় করিমপুর মাঝিপাড়ায় ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়িঘর পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি। এ সময় তিনি বলেন, তাণ্ডবে সব হারানো পরিবারগুলো বলেছে, শঙ্কার মধ্য দিয়ে দিনযাপন করছে। তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। ভবিষ্যতে ঠিকমতো চলাফেরা, ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারবে কিনা তা নিয়ে চিন্তিত তারা।

দুপুর ১২টা থেকে বিকাল পর্যন্ত তদন্ত কমিটির দুই সদস্যকে নিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে লিখিত জবানবন্দি নিয়েছেন বলেও জানান পরিচালক আশরাফুল আলম। আগামী সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনের কাছে জমা দেবেন বলে জানান তিনি। এরপর কমিশন সুপারিশ আকারে বিষয়টি সরকারের কাছে উপস্থাপন করবে।

এক প্রশ্নের জবাবে আশরাফুল আলম বলেন, মানবাধিকার কমিশন গণমাধ্যমে বিষয়টি জানার পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কথা জানায়। সবার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বিচারের আওতায় আনা যেতো। কিন্তু এটিকে কেন্দ্র যে, তাণ্ডব চালানো হয়েছে, বাড়িঘরে আগুন দেওয়া হয়েছে; তা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। সরকার এই ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্তদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে, সহযোগিতাও করেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন এনজিও এবং মানবাধিকার সংগঠন এগিয়ে এসেছে; এটি ভালো দিক। দোষীদের চিহ্নিত করে কঠোর শাস্তি দেওয়ার আহ্বান জানাই।

/এএম/

সম্পর্কিত

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

হিলি রেলস্টেশন আবার বন্ধ ঘোষণা, দুর্ভোগে যাত্রীরা

হিলি রেলস্টেশন আবার বন্ধ ঘোষণা, দুর্ভোগে যাত্রীরা

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

‘ফেসবুক পোস্ট নিয়ে বাড়িঘরে আগুন মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

কিশোরীর সঙ্গে বাল্যবিয়ে, বরের মামলায় চেয়ারম্যান-কাজি কারাগারে

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

শিক্ষিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

পীরগঞ্জে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৩৭ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

হিলি রেলস্টেশন আবার বন্ধ ঘোষণা, দুর্ভোগে যাত্রীরা

হিলি রেলস্টেশন আবার বন্ধ ঘোষণা, দুর্ভোগে যাত্রীরা

এখনও পানিবন্দি ৩০ গ্রামের ৩৫ হাজার মানুষ

এখনও পানিবন্দি ৩০ গ্রামের ৩৫ হাজার মানুষ

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

তিস্তার পানিতে গঙ্গাচড়া-কাউনিয়ার ৪০ গ্রামের মানুষ পানিবন্দি

বাড়িতে বসতো মাদকের আসর, স্ত্রীর অভিযোগে স্বামী কারাগারে

বাড়িতে বসতো মাদকের আসর, স্ত্রীর অভিযোগে স্বামী কারাগারে

সর্বশেষ

ভুল করতে পারি, তাই বলে ছোট করা উচিত নয়: মাহমুদউল্লাহ 

ভুল করতে পারি, তাই বলে ছোট করা উচিত নয়: মাহমুদউল্লাহ 

মারা গেছেন নির্মাতা-নাট্যকার কায়েস চৌধুরী

মারা গেছেন নির্মাতা-নাট্যকার কায়েস চৌধুরী

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

সড়কে পলিটেকনিক শিক্ষকসহ নিহত ২

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

রাজশাহীতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সমাবেশ

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

‘রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তনের পরিকল্পনা আ.লীগের নেই’

© 2021 Bangla Tribune