X
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

এক কুকুরের কামড়ে হাসপাতালে ১২ জন

আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০২১, ২০:২৯

কুমিল্লার দেবিদ্বারে এক কুকুরের কামড়ে তিন গ্রামের পাঁচ শিশুসহ অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন। সোমবার (১১ অক্টোবর) সকালে সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা একত্রিত হয়ে বাঁশ-লাঠি দিয়ে ওই কুকুরটিকে পিঠিয়ে হত্যা করে।

কুকুরের কামড়ে গুরুতর আহতরা হলেন- এলাহাবাদ ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের ইমরান (৭), রেহানা বেগম (৩৮), ফজিলাতুন্নেছা (৩০), সীমা আক্তার (২৮), খাদিজা বেগম (৪০), মোহনপুর ইউনিয়নের তানভীর (১০), ছোটনা গ্রামের সালমা (২০), কুরুইন গ্রামের ফাহিম হাসান (৯) রিশাদ (১২) জাকিয়া (৬) ও নারগিস (৫০)।

আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে দ্রুত কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে তার পরিচয় জানতে পারেননি চিকিৎসকরা।

স্থানীয়রা জানান, সোমবার সকালে একটি পাগলা কুকুর উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামে ঢুকে সামনে যাকে পেয়েছে তাকে কামড়ে আহত করেছে। এর আগের দিন কুরুইন গ্রামেও কুকুরটি একাধিক বাড়িতে ঢুকে অনেককে কামড়িয়েছে। এরপর পার্শ্ববর্তী ছোটনা গ্রামে গিয়ে কামড়াতে থাকে, আহতদের মধ্যে নারী, পুরুষ ও শিশু রয়েছেন। এ ঘটনায় আহত পাঁচ জনকে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ছয় জনকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত শিশু ইমরানের বাবা মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ছেলে মুখে কামড় দিয়ে গালের মাংস তুলে ফেলেছে। পাগলা কুকুরটি সামনে যাকে পেয়েছে তাকেই কামড়িয়েছে। ভয়ে-আতঙ্কে মানুষ ঘরের দরজা বন্ধ করে রাখেন।’

আহত সিমা আক্তার বলেন, ‘কুকুরটি সামনে এসে লাফ দিয়ে আমার নাকে কামড় দিয়েছে। এলাকার চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় কেউ সাহস করে সামনে আসেনি।’

দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল কর্মকর্তা ডা. মাহবুবা আলম জানান, পাগলা কুকুরটি আহতদের নাকে, মুখে ও গালে কামড়িয়েছে। হাসপাতালে কুকুরে কামড়ানোর ওষুধ অ্যান্টি র‌্যাবিস ভ্যাকসিন নেই। আহত পাঁচ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

উপজেলার মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘পাগলা কুকুরটি অনেক মানুষকে কামড়িয়েছে। স্থানীয়রা সবাই পিটিয়ে কুকুরটিকে মেরে ফেলেছে।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. আহাম্মদ কবীর বলেন, ‘গুরুতর আহত একজনের নাম পরিচয় জানা যায়নি। কুকুরটি লাফিয়ে লাফিয়ে সবার মুখে নাকে কামড়িয়েছে। আহতদের মধ্যে পাঁচ জনকে দেবিদ্বার ও সাত জনকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৫

দেশের বাজারে চাহিদা থাকায় অন্য বন্দরের তুলনায় সময় কম লাগায় দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে সম্প্রতি ভারত থেকে শুকনা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হচ্ছে এগুলো। 

বন্দর দিয়ে শুকনা মরিচের আমদানি বাড়ছে। এতে সরকারের রাজস্ব যেমন বাড়ছে তেমনি বন্দর কর্তৃপক্ষের আয়ও বেড়েছে। তবে পণ্যজট কাটিয়ে দ্রুত শুকনা মরিচের ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করতে পারলে আমদানি আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

হিলি স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নুর-এ আলম সিদ্দিক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দেশের বাজারে ভালো চাহিদা থাকায় ও দাম ভালো পাওয়ায় হিলি বন্দর দিয়ে ভারত থেকে শুকনা মরিচ আমদানি হচ্ছে। বগুড়া, ঢাকা ও চট্টগ্রামের আমদানিকারকরা এসব মরিচ আমদানি করছেন। কাস্টমস থেকে পণ্য ছাড়করণের কার্যক্রম সম্পন্ন করা হচ্ছে। কাস্টমসের নির্ধারিত স্লাব অনুযায়ী ১০ চাকার ট্রাকে ১৫ টন, আর ১২ চাকার ট্রাকে ২০ টন করে শুকনা মরিচ আমদানি হচ্ছে। প্রতিটন শুকনা মরিচ এক হাজার ৬০০ মার্কিন ডলার মূল্যে আমদানি করা হচ্ছে, যা একই মূল্যে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ শুল্কায়ন করছে। এতে কেজি প্রতি শুকনা মরিচের শুল্ক বাবদ পরিশোধ করতে হচ্ছে ২১ টাকা।

তিনি আরও বলেন, মূলত শুকনা মরিচ ভোমরা স্থলবন্দর দিয়েই বেশি আমদানি হয়। কিন্তু সম্প্রতি ওই বন্দরে সিন্ডিকেট করায় শুকনা মরিচের ট্রাক প্রবেশ করতে ২০ থেকে ২৫ দিন লাগছে। এ কারণে ট্রাকগুলোর ভাড়া হিসেবে বাড়তি টাকা লোকসান হিসেবে গুনতে হচ্ছে। এর ওপর গাড়িপ্রতি বেশি টাকা চাঁদা দিতে হয়। তাই আমদানিকারকরা হিলি স্থলবন্দর দিয়ে শুকনা মরিচ আমদানি করছেন।

হিলি স্থল শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা এসএম নুরুল আলম খান বলেন, অর্থবছরের প্রথম মাস (জুলাই) থেকে শুরু করে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত বন্দর দিয়ে ৭৫০ টন শুকনা মরিচ আমদানি হয়েছে, যা থেকে রাজস্ব বাবদ আয় হয়েছে এক কোটি ৫৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দুই দেশের মাঝে পণ্য আমদানি-রফতানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রয়েছে। বন্দর দিয়ে অন্যান্য পণ্যের পাশাপাশি সম্প্রতি নতুন করে শুকনা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। এতে বন্দর থেকে সরকারের রাজস্ব আয় যেমন বেড়েছে তেমনি বন্দর কতৃপক্ষের দৈনন্দিন আয়ও বেড়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

অবৈধভাবে ভারত থেকে প্রবেশকালে বাংলাদেশি আটক

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

পীরগঞ্জে হামলা: আরও ২ জন গ্রেফতার, রিমান্ডে ১৩

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

অপহরণের নামে ৮ বছর আত্মগোপনে, অবশেষে কারাগারে বৃদ্ধ

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ মৃত্যু

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:৩২

গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে উপসর্গ নিয়ে আরও চার জন মারা গেছেন। তবে করোনা আক্রান্ত কোনও রোগীর মৃত্যু হয়নি। মৃতদের মধ্যে ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনার দুই জন করে রোগী রয়েছেন। 

এ নিয়ে চলতি অক্টোবর মাসে ময়মনসিংহ মেডিক্যালে করোনা ও উপসর্গে ৯৯ জনের মৃত্যু হলো। গত জুলাই, আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসে হাসপাতালটিতে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে এক হাজার ২৬ জন মারা যান। 

হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান বলেন, করোনা ডেডিকেটেড ইউনিটে নতুন ১২ জন ভর্তিসহ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে ৬১ জন রোগী ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে আইসিউতে একজন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া সুস্থ হয়ে সাত জন হাসপাতাল ছেড়েছেন।

সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩৬ টি নমুনা পরীক্ষায় তিন জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২ দশমিক ২১ শতাংশ। এ পর্যন্ত জেলায় মোট আক্রান্ত ২২ হাজার ৭২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২১ হাজার ৪৮৪ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

১১০ দিনেই পেকেছে বিনা-১৭, কম খরচে বেশি ফলন

১১০ দিনেই পেকেছে বিনা-১৭, কম খরচে বেশি ফলন

১০ বছর যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তুলেছেন রাজাকার

১০ বছর যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তুলেছেন রাজাকার

এক জেলায় ১০ মাসে সড়কে ঝরলো ১৩৬ প্রাণ

এক জেলায় ১০ মাসে সড়কে ঝরলো ১৩৬ প্রাণ

নৌকার জনসভায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ

নৌকার জনসভায় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ

ডোবার পানিতে ঠাণ্ডা হতো মিষ্টির ছানা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:২০

অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে মিষ্টি তৈরি কাঁচামাল ছানা তৈরির ঘটনায় সাটুরিয়ার ছয়টি কারখানাকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। কারখানাগুলোকে চার দিনের মধ্যে তাদের পরিবেশ উন্নয়ন এবং স্বাস্ত্যকর উপায়ে ছানা উৎপাদনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।  

সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর মানিকগঞ্জ জেলা কার্যালয় যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করে ও অর্থদণ্ড দেন। 

সোমবার (২৫ অক্টোবর) সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আরা দড়গ্রাম ইউনিয়নের উত্তর শিমুলিয়া গ্রামের গোপাল ঘোষকে ২০ হাজার, দরগ্রাম ঘোষ পাড়ার অজিত ঘোষকে ১৫ হাজার এবং বিমল ঘোষকে ১৬ হাজার টাকাসহ মোট ৫১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই ধারায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আসাদুজ্জামান রুমেল দরগ্রাম ঘোষ পাড়ার রমেশ গোষ, খুশী মোহন ঘোষ এবং ঋণ কুমার ঘোষকে পাঁচ হাজার করে মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আরা বলেন, দণ্ডপ্রাপ্তরা অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে দুধ থেকে ছানা তৈরি করে আসছিলেন। এদের সবাইকে প্রাথমিকভাবে সাবধান করে দেওয়া হয়েছে। তারা উৎপাদিত গরম ছানা ডোবার পানিতে ঠাণ্ডা করছিল। আগামী চার দিনের মধ্যে তাদের আলাদা হাউজ তৈরির নির্দেশনা দেওযা হয়েছে। অন্যথ্যায় পুনরায় কারখানাগুলোতে অভিযান চালানোর কথা বলেন তিনি। 

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

চাপাতি দিয়ে প্রেমিকাকে কোপানোর অভিযোগ

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

হেফাজতের হরতালে সহিংসতার মামলায় কাউন্সিলর গ্রেফতার

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

ফতুল্লায় স্টিল মিলে বিস্ফোরণ, ৫ শ্রমিক দগ্ধ

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

হামলাকারীদের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর ব্যবস্থা সন্তোষজনক: ব্রিটিশ হাইকমিশনার

বাড়ির পাশে ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১১:১০

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার চরমল্লিকপুর গ্রামে পলাশ মাহমুদ (৩৩) নামে এক ফল ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। 

সোমবার (২৫ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিজ বাড়ির পাশে তাকে হত্যা করা হয়। পলাশের বাবার নাম খোকন শেখ। লোহাগড়া বাজারে তার ফলের ব্যবসা ছিল।

লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু হেনা মিলন জানান, পলাশ মাহমুদকে কী কারণে কে বা কারা হত্যা করেছে, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে আটকের চেষ্টা চলছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

পুকুরে ভেসে উঠলো বাবা-মা-মেয়ের লাশ

নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ ধরতে নদী ও সাগরে জেলেরা

নিষেধাজ্ঞা শেষে ইলিশ ধরতে নদী ও সাগরে জেলেরা

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে পিটিয়ে ও অ্যাসিড ঢেলে হত্যা

বিয়েতে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে পিটিয়ে ও অ্যাসিড ঢেলে হত্যা

আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনি সভায় বিএনপি নেতা প্রধান অতিথি

আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনি সভায় বিএনপি নেতা প্রধান অতিথি

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৫

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে শুরু হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মামলার আসামি টেকনাফ থানার বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাসসহ ১৫ জনকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে আনা হয়েছে। আজ সিনহার লাশ থেকে উদ্ধার গুলি ও জব্দ করা বিভিন্ন মালামালের রাসায়নিক পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে এই মামলার বিচারিক কার্যক্রম শুরু হবে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম জানান, মঙ্গলবার সকালে মামলার ৪৪ নম্বর সাক্ষী হিসেবে একটি মোবাইল ফোনের কর্মকর্তা আহসানুল হককে দিয়ে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। লাশ থেকে উদ্ধার গুলি ও জব্দ করা বিভিন্ন মালামালের রাসায়নিক পরীক্ষা যারা করেছেন, তাদের মধ্যে সিআইডির রাসায়নিক পরীক্ষক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, পিংকু পোদ্দারসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সাক্ষী দেবেন। এ ছাড়া মোবাইল অপারেটর কোম্পানির আরও একজন সৈকত সিপলু আজ আদালতে সাক্ষী দেবেন। আজ দ্বিতীয় দিন এই মামলায় মোট ১৭ জন সাক্ষীকে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) রাশেদ খান। তার সঙ্গে থাকা সাহেদুল ইসলাম সিফাতকে পুলিশ আটক করে। এরপর সিনহা যেখানে ছিলেন সেই নীলিমা রিসোর্টে ঢুকে তার ভিডিও দলের দুই সদস্য শিপ্রা দেবনাথ ও তাহসিন রিফাত নুরকে আটক করা হয়। পরে তাহসিনকে ছেড়ে দিলেও শিপ্রা ও সিফাতকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। এই দুজন পরে জামিনে মুক্তি পান।

সিনহা হত্যার ঘটনায় মোট চারটি মামলা হয়েছে। ঘটনার পরপরই পুলিশ বাদী হয়ে তিনটি মামলা করে। এর মধ্যে দুটি মামলা হয় টেকনাফ থানায়, একটি রামু থানায়। ঘটনার পাঁচ দিন পর অর্থাৎ ৫ আগস্ট কক্সবাজার আদালতে টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ নয় পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। চারটি মামলা তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও র‍্যাব-১৫ কক্সবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খাইরুল ইসলাম।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

বাবার নির্বাচনি কার্যালয়ের ছাদ থেকে পড়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

বাবার নির্বাচনি কার্যালয়ের ছাদ থেকে পড়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

সিনহা হত্যা মামলা: ষষ্ঠ দফায় দ্বিতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু 

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

১৫০ কোটি টাকার ফ্লাইওভারের র‌্যাম্পের পিলারে ফাটল

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

‘টাকা না দিলে জমি খারিজ করেন না ফারুক’

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

মাদক মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ড

বাবার নির্বাচনি কার্যালয়ের ছাদ থেকে পড়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

বাবার নির্বাচনি কার্যালয়ের ছাদ থেকে পড়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

পৌর মেয়রসহ ৩১ জনের বিরুদ্ধে ডাকাতির মামলা

পৌর মেয়রসহ ৩১ জনের বিরুদ্ধে ডাকাতির মামলা

নাশকতার মামলায় আসলাম চৌধুরীসহ ৫৬ জনের বিচার শুরু

নাশকতার মামলায় আসলাম চৌধুরীসহ ৫৬ জনের বিচার শুরু

স্ত্রী হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন

স্ত্রী হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন

সৈকত দখল করে রাতারাতি দোকানপাট নির্মাণ

সৈকত দখল করে রাতারাতি দোকানপাট নির্মাণ

মাইক্রোর ধাক্কায় মহাসড়কে পড়া ছাত্রকে পিষে দিলো ট্রাক

মাইক্রোর ধাক্কায় মহাসড়কে পড়া ছাত্রকে পিষে দিলো ট্রাক

সর্বশেষ

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

চাহিদা থাকায় হিলি দিয়ে আসছে শুকনা মরিচ

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

মিয়ানমারের জান্তাপ্রধানকে বাদ দিয়েই পর্দা উঠলো আসিয়ান সম্মেলনের

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ৪ মৃত্যু

ডোবার পানিতে ঠাণ্ডা হতো মিষ্টির ছানা

ডোবার পানিতে ঠাণ্ডা হতো মিষ্টির ছানা

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

নয়া পল্টনে মিছিলের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা

© 2021 Bangla Tribune