X
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ৩১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

না বুঝে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিতে বারণ করলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২১, ১৯:২৮

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেছেন, বাংলাদেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানাতে এবং উন্নয়ন অগ্রযাত্রা ব্যাহত করতে অপতৎপরতা চালাচ্ছে স্বাধীনতাবিরোধী চক্র।

তিনি বলেন, দেশকে অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। তবে দেশবিরোধী চক্র সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে তৎপর। এ জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে না বুঝে কোনও বিষয়ে স্ট্যাটাস দেওয়া ও শেয়ার না করার আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে বরিশালে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি। জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন হায়দারের সভাপতিত্বে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দিনব্যাপী সেমিনারে বিভিন্ন ধর্মের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

/এএম/এমওএফ/

সম্পর্কিত

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

ফেসবুক-ইউটিউবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে যুবক আটক

ফেসবুক-ইউটিউবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে যুবক আটক

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:১৫

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মোমিনপুর গ্রামে স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। ওই নারীর বিরুদ্ধে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবার। শনিবার উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ এবং নলডাঙ্গা থানার ওসি শফিকুল ইসলাম মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ব্যক্তি আব্দুর রাজ্জাক মুদি ব্যবসায়ী। আটক নারীর নাম সালমা বেগম।

নিহতের বাবা হামেদ আলী বলেন, ‘নিহত রাজ্জাক এক ছেলে ও এক মেয়ের বাবা। ছেলেমেয়েরা পড়ালেখা করে। বেশ কিছুদিন থেকে মোমিনপুর বাজারের আসামপাড়ার তুলা নামে এক ব্যক্তির ছেলে অবিবাহিত আহমদ আলীর সঙ্গে সালমার প্রেমের সম্পর্ক হয়। বিষয়টি জানার পর রাজ্জাকের সঙ্গে সালমার মনোমালিন্য শুরু হয়। এক পর্যায়ে তারা পৃথক ঘরে থাকতো। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে রাজ্জাক তার ঘরে ঘুমিয়েছিল, সকালে তার মৃত্যুর কথা প্রচার করে সালমা। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।’ হামেদ আলীর দাবি, প্রেমের জেরে আব্দুর রাজ্জাককে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে সালমা।

ওসি জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সালমাকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। তদন্তের পর হত্যার সঠিক কারণ জানা যাবে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

পুনরায় হামলা-লুটপাটের আতঙ্কে গ্রাম ছাড়ছেন তারা

পুনরায় হামলা-লুটপাটের আতঙ্কে গ্রাম ছাড়ছেন তারা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

নারীকে বাঁচাতে যাওয়ায় সাংবা‌দি‌ককে মারধর, গ্রেফতার ১ 

নারীকে বাঁচাতে যাওয়ায় সাংবা‌দি‌ককে মারধর, গ্রেফতার ১ 

দিনাজপুরে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:১৫

দিনাজপুর সদর ও বিরল উপজেলায় বজ্রাঘাতে শিশুসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও তিন জন। তাদের মধ্যে দুই জনকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে বজ্রাঘাতের ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলো সদরের চেহেলগাজী ইউনিয়নের রামনগর মাঝাডাঙ্গা গ্রামের মৃত কামিল উদ্দীনের ছেলে বুলবুল হোসেন (৩৪) ও বিরলের রাজারামপুর ইউনিয়নের গফরাইল গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে সুজ্জাত (১২)। সুজ্জাত পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। 

আহতরা হলেন রামনগর মাঝাডাঙ্গা গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে জামাল (৩৮), একই এলাকার সিরাজুল আলীর ছেলে নাঈম (২৫) ও গফরাইল গ্রামের রবিউল ইসলাম (৪০)।

চেহেলগাজী ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য পাভেল ইমরান ও রাজারামপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জামিল উদ্দীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, বিকালে রামনগর মাঝাডাঙ্গা এলাকার আলুর ক্ষেতে কাজ করছিলেন কয়েকজন কৃষক। বজ্রাঘাত শুরু হলে তারা একটি গাছের নিচে আশ্রয় নেন। সেখানে বজ্রাঘাত হলে তিন জন আহত হন। স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে বুলবুলের লাশ উদ্ধার করে এবং বাকি দুই জনকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল হাসপাতালে পাঠায়।

এদিকে, বাবার সঙ্গে মাঠে কাজ করছিল সুজ্জাত। বৃষ্টির পাশাপাশি বজ্রাঘাতের সময় মারা যায় সে। এ ঘটনায় তার বাবা রবিউল ইসলাম আহত হয়েছেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

৪২ টাকার নিচে নামছে না পেঁয়াজের দাম

৪২ টাকার নিচে নামছে না পেঁয়াজের দাম

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে বাসের ধাক্কায় নিহত ৬

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে বাসের ধাক্কায় নিহত ৬

ত্রিশালে সড়ক দুর্ঘটনা

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮:১২

‘ব্যস্ততার কারণে কোরবানির ঈদে বাড়িতে যাওয়া হয়নি। ফলে নাতি আব্দুল্লাহর খৎনাও করানো সম্ভব হয়নি। ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে সবাই একসঙ্গে যাচ্ছিলাম। আশা ছিল, আব্দুল্লাহর খৎনা করিয়ে এলাকাবাসীকে দাওয়াত করে ধুমধাম অনুষ্ঠান করবো। কিন্তু কপালে আর সইলো না। পরিবারের বাবা, মা, ছোটবোনসহ আব্দুল্লাহ বাস দুর্ঘটনায় দুনিয়া ছেড়েই চলে গেলো। এখন বাড়ি গিয়ে বড় ভাইকে কী জবাব দেবো?’

কথাগুলো বলছিলেন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশালের চেলেরঘাটে ট্রাকের সঙ্গে বাসের ধাক্কায় নিহত ফজলুল হক ওরফে হুজু’র চাচা আব্দুর রশিদ। এই দুর্ঘটনায় নিহত ছয় জনের চার জনই ওই পরিবারের।

আব্দুর রশিদ রাস্তায় বসে বিলাপ করতে করতে জানান, নিহত ফজলুল হক তার আপন বড় ভাই কমর উদ্দিনের ছেলে। ভাতিজার পরিবারসহ তিনি ঢাকায় সবজির ব্যবসা করেন। সবাই একসঙ্গেই থাকেন। সুযোগ পেলেই তারা বাড়িতে যান। করোনার কারণে গত কোরবানির ঈদে বাড়ি যাননি। ১০ বছর বয়সী আব্দুল্লাহ প্রাইমারি স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র। আর নিহত আজমিনা (৮) প্রথম শ্রেণিতে পড়তো।

তিনি আরও জানান, ভাতিজা ফজলুর বড় শখ ছিল, গ্রামের বাড়িতে গিয়ে ছেলের খৎনা করিয়ে আত্মীয়-স্বজন ও এলাকাবাসীকে দাওয়াত করে খাওয়াবেন। এটা আর হয়ে উঠলো না। মনের দুঃখ রয়েই গেলো।

উল্লেখ্য, শনিবার (১৬ অক্টোবর) ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কের চেলেরঘাটে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের চার জনসহ ছয় জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। 

শেরপুরগামী রহিম পরিবহনের একটি বাস (ময়মনসিংহ গ ১১-০৯৪৮) ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল উপজেলার চেলেরঘাট নামক স্থানে ওভারটেকের সময় দাঁড়িয়ে থাকা বালুবাহী ড্রাম ট্রাককে (ঢাকা মেট্রো ট ১৫-৮৪৪৩) ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন ১০ জন। তাদের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে আরেকজন মারা যান।

নিহতরা হলেন- ফুলপুর উপজেলা হুজু (৩০), তার স্ত্রী ফাতেমা (২৮), ছেলে আব্দুল্লাহ (১০) ও মেয়ে আজমিনা (৮)। বাকি দুই জনের নাম-পরিচয় এখনও জানা যায়নি। আহতরা ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এর মধ্যে নিগোরকান্দা গ্রামের ফাহাদ, বাবুল ও ফুলপুর উপজেলার রফিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

/এফআর/

সম্পর্কিত

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে বাসের ধাক্কায় নিহত ৬

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে বাসের ধাক্কায় নিহত ৬

ষড়যন্ত্রকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেবে সরকার: পরিবেশমন্ত্রী

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫১

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন বলেছেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন। আবার এই সরকারের বিরুদ্ধে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। শারদীয় দুর্গাপূজায় যে ঘটনা ঘটিয়েছে তা ষড়যন্ত্রের অংশ। ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেবে সরকার।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ বাজারে প্রধান অতিথি হিসেবে উন্নয়নকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন শেষে সংক্ষিপ্ত সভায় এসব কথা বলেন তিনি। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের বাস্তবায়নে এই কাজে ব্যয় হবে ৪৪ লাখ ৪১ হাজার ৪৯০ টাকা।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, কোনও অবস্থায় দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করতে দেওয়া যাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন বিশ্বনেত্রী, মানবতার মা। আমাদের নেত্রীকে বিশ্বের সব দেশ স্বীকৃতি দিচ্ছে। কাজেই দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রাখতে হবে।

বেলা ১১টায় পরিবেশমন্ত্রী বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের মামুদতকী বাজারে উন্নয়নকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ সময় পরিবেশমন্ত্রীর সঙ্গে মৌলভীবাজার এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. অজিম উদ্দিন সরদার, বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী, বড়লেখা পৌরসভার মেয়র আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, নারী শিক্ষা একাডেমি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ একেএম হেলাল উদ্দিন এবং উপজেলা প্রকৌশলী সামসুল হক ভূঞা উপস্থিত ছিলেন।

/এএম/

সম্পর্কিত

কুমিল্লার ঘটনায় কাদের যোগসাজশ তা বের হবে: পরিবেশ মন্ত্রী

কুমিল্লার ঘটনায় কাদের যোগসাজশ তা বের হবে: পরিবেশ মন্ত্রী

কক্সবাজার সৈকতে ৪ শতাধিক প্রতিমা বিসর্জন

কক্সবাজার সৈকতে ৪ শতাধিক প্রতিমা বিসর্জন

মাগুরায় চার খুন

পুনরায় হামলা-লুটপাটের আতঙ্কে গ্রাম ছাড়ছেন তারা

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৮

চার খুনের ঘটনায় মাগুরার জগদল এখন আতঙ্কের জনপদ। হামলা-লুটপাট আর গ্রেফতার আতঙ্কে নারী-পুরুষরা গ্রাম ছাড়ছেন। প্রায় পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে জগদালের মাঝিপাড়া।

আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য জগদল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এতে মেম্বার প্রার্থী হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকালে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত হন চার জন।

সেই রোমহর্ষক ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী জগদল গ্রামের শিউলি ও শাবানা বলেন, ‘হামলাকারীরা ধারালো রামদা দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকে প্রতিপক্ষের লোকদের। একের পর এক আঘাতে রক্তাক্ত রহমান ও কবির এক পর্যায়ে হামলাকারীদের পা জড়িয়ে ধরে বাঁচার আকুতি জানায়। কিন্তু হামলাকারীদের হৃদয়ে সেই আকুতি সামান্যতম রেখাপাত করেনি। হামলাকারীরা লাথি দিয়ে রহমান ও কবিরসহ অনেককেই ফেলে দেয় পার্শ্ববতী পুকুরে। পুকুরে ফেলে দেওয়ার পর তাদের মৃত্যু নিশ্চিত করতে আবার নতুন করে শুরু হয় হামলা। অন্যদিকে রামদার আঘাতে মৃতপ্রায় সবুর মোল্লা পানি পানি বলে কাতরাতে থাকেন। প্রত্যক্ষদর্শী নারীরা পানি নিয়ে এগিয়ে গেলে তাদের প্রতি উদ্ধত হয়ে ওঠে হামলাকারীরা।’

নিহত কবিরের কলেজপড়ুয়া মেয়ে চাঁদনী আক্তার বলেন, ‘আমার বাবা মানুষের বিপদ-আপদের কথা শুনলে সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যেতেন। বাবার চাচাতো ভাইকে মারা হচ্ছে এ খবর শোনার সঙ্গে সঙ্গে বাবা ছুটে যান তাকে উদ্ধার করতে। ভাইকে উদ্ধার করতে যাওয়া মাত্রই হামলাকারীরা ঝাঁপিয়ে পড়ে বাবার ওপর। হামলাকারীদের নৃশংসতায় আমার বাবাও ফিরলো লাশ হয়ে।’

জগদল এখন আতঙ্কের জনপদ নিহত সবুরের ভাই হাবিবুর বলেন, ‘এবার দুর্বৃত্তরা একই সঙ্গে হত্যা করলো আমার দুই ভাইসহ চার জনকে। এর আগেও এই দুর্বৃত্তরাই ২০০৩ সালে আমার আরেক ভাই জরিপ মোল্লাকে হত্যা করে। প্রভাবশালীদের চাপে আমরা মামলা তুলে নিতে বাধ্য হই। জরিপ ভাইয়ের হত্যাকারীদের বিচার হলে আবারও দুই ভাইকে হারাতাম না। জানি না এবারও ন্যায়বিচার পাবো কিনা?’

অন্যদিকে, চার খুনের ঘটনায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে জগদল গ্রামে। বাড়ির আসবাবপত্র ধান, চাল, গবাদিপশু নিয়ে নিরাপদ স্থানে ছুটে যাচ্ছেন গ্রামের নারী-পুরুষ। জগদাল গ্রামের মো. সুমনের স্ত্রী-সন্তানকে দেখা গেলো তল্পি-তল্পাসহ গ্রাম ত্যাগ করতে। গ্রাম ছেড়ে যাওয়ার বিষয়ে জিজ্ঞেস করতেই তিনি বলেন, ‘আমার স্বামীসহ পরিবারের পুরুষ সদস্যরা গতকালই বাড়ি ছেড়েছে। আমি মেয়ে মানুষ। বাড়িতে একা অবস্থান করায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলাম। অন্যদিকে, পুনরায় হামলা ও লুটতরাজের ভয়ে আসবাপত্র চাল-ডাল নিয়ে গ্রাম ত্যাগ করছি।’

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র নাঈমকে দেখা গেলো, ভ্যানে করে কিছু জিনিসপত্র নিয়ে গ্রাম ছাড়তে। জিজ্ঞেস করলে সে বলে, ‘আমার বাবা-মা গতকাল সন্ধ্যায় বাড়ি ছেড়েছেন। আমি একাই বাড়িতে অবস্থান করছিলাম। বাবা কিছুক্ষণ আগে ফোন করে চাল-ডাল, আসবাবপত্র, গবাদিপশুসহ আমাকে নানাবাড়িতে যেতে বলেছে। আমি ছোট মানুষ, এত কিছু নিয়ে যাওয়া আমার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই চাল-ডাল, গবাদিপশু ফেলে রেখে শুধু কিছু আসবাবপত্র নিয়ে আমি নানাবাড়িতে যাচ্ছি।’

মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল হাসান বলেন, ‘হত্যার ঘটনায় ইতোমধ্যে জিজ্ঞাসবাদের জন্য চার জনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। সাধারণ মানুষের আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। শুধু হত্যাকাণ্ডে জড়িতদেরই গ্রেফতার করা হবে।’

উল্লেখ্য, আগামী ১১ নভেম্বর জগদল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে জগদল ৩নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার নজরুল ইসলাম প্রার্থী হবেন। একই সঙ্গে সৈয়দ হাসানও ওই ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী। প্রার্থিতা নিয়েই নজরুল ও হাসানের সমর্থকদের মধ্যে শুক্রবার বিকালে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে চার জন নিহত এবং কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন।

আরও খবর: মাগুরায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ৪

 
/এমএএ/

সম্পর্কিত

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

‘পাবজি খেলাকে কেন্দ্র করে’ স্কুলছাত্রকে হত্যা

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

আবাসিক হোটেলে গার্মেন্টসকর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ, স্বামী আটক

ইজিবাইকে ছিনতাইয়ের জন্যই কি হত্যা?  

ইজিবাইকে ছিনতাইয়ের জন্যই কি হত্যা?  

বৃষ্টি উপেক্ষা করে সোনাপাহাড়ে ৩ জনের জানাজায় হাজারো মানুষ

বৃষ্টি উপেক্ষা করে সোনাপাহাড়ে ৩ জনের জানাজায় হাজারো মানুষ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

শুধু বাহবায় বড় ক্রিকেটার হওয়া যায় না, সাদিদ প্রসঙ্গে তার মা 

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

পায়রা বন্দরের আবাসন কেন্দ্রের কক্ষে ঝুলছিল প্রকৌশলীর লাশ

ফেসবুক-ইউটিউবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে যুবক আটক

ফেসবুক-ইউটিউবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে যুবক আটক

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

২৪টি খাল ভরাট করে স্থাপনা, বৃষ্টি হলেই ডোবে বরিশাল

সাপুড়ের বাড়িতে মিললো ২৫ 'পদ্ম গোখরা' 

সাপুড়ের বাড়িতে মিললো ২৫ 'পদ্ম গোখরা' 

প্রেমিক সেজে তরুণীর সাড়ে ৭ লাখ টাকা নিয়ে গরুর খামার

প্রেমিক সেজে তরুণীর সাড়ে ৭ লাখ টাকা নিয়ে গরুর খামার

একঘণ্টার ডিসি হয়ে যা করতে বললো এসএসসি পরীক্ষার্থী

একঘণ্টার ডিসি হয়ে যা করতে বললো এসএসসি পরীক্ষার্থী

বেড়েছে এলপিজি গ্যাসের দাম, ১০ টাকার ভাড়া ১৫

বেড়েছে এলপিজি গ্যাসের দাম, ১০ টাকার ভাড়া ১৫

নিজের বাল্যবিয়ে ঠেকাতে থানায় মাদ্রাসাছাত্রীর অভিযোগ

নিজের বাল্যবিয়ে ঠেকাতে থানায় মাদ্রাসাছাত্রীর অভিযোগ

তালাকের খবর জানতে স্বামীর এলাকায় এসে গৃহবধূ খুন

তালাকের খবর জানতে স্বামীর এলাকায় এসে গৃহবধূ খুন

সর্বশেষ

ওমানে বিশ্বকাপে নামছে বাংলাদেশ, দেশে বসে থাকছেন না মুমিনুল-শান্তরাও

ওমানে বিশ্বকাপে নামছে বাংলাদেশ, দেশে বসে থাকছেন না মুমিনুল-শান্তরাও

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

স্বামীকে হত্যার অভিযোগে স্ত্রী আটক

দিনাজপুরে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

দিনাজপুরে বজ্রাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

শাহরুখপুত্রকে ধরতে পরিচিতদের সাক্ষী বানিয়েছিল এনসিবি!

শাহরুখপুত্রকে ধরতে পরিচিতদের সাক্ষী বানিয়েছিল এনসিবি!

পরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

ত্রিশালে সড়ক দুর্ঘটনাপরিবারের ৪ জনকে হারিয়ে সড়কে বসেই বিলাপ

© 2021 Bangla Tribune