X
মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

আমরা চাই নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হোক এবং হচ্ছেও: সিইসি

আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩০

মাগুরায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় চার জন নিহতের ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের তদন্তের মাধ্যমে আইনের মুখোমুখি দাঁড় করাতে হবে বলে মন্তব্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেছেন, ‘যারা প্রকৃত অপরাধী তাদের যেন চিহ্নিত করা হয়। কোনও নিরপরাধী ব্যক্তিকে যেন এর সঙ্গে সম্পৃক্ত না করা হয়। সে বিষয়ে ভেবেচিন্তে প্রশাসনকে কাজ করতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে মাগুরা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে আলোচনা সভায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

সিইসি বলেন, ‘নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে। এটা আমরা সব সময় চাই এবং হচ্ছেও। কিন্তু নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিহিংসা পরায়ণ কার্যক্রম এবং এমন নৃশংসভাবে জীবন চলে যাওয়া খুবই ন্যক্কারজনক ঘটনা। এ ঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা জানাই। যারা নিহত হয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। তাদের পরিবার পরিজনকে আমাদের সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা নেই। একটা পরিবারের একজন সদস্য এভাবে মারা গেলে সেটা কত বেদনাদায়ক তা তারাই বুঝতে পারে। আমরা বুঝতে পারি না। এ জাতীয় ঘটনা কখনও ঘটা উচিত না।’

তিনি বলেন, ‘প্রশাসনিকভাবে নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাসহ সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি প্রার্থীরা যাতে নির্বাচনি আচরণ মেনে চলে সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। আমরা চাই, নির্বাচন সবসময় ঝঞ্ঝাট মুক্ত হবে। যে যার অবস্থানে থেকে প্রচার প্রচারণা চালাবে সেখানে কেউ বাধা দিতে পারবে না। সবার জন্য গ্রহণযোগ্য আচরণবিধি তৈরি করা আছে। সেটা যদি মেনে চলে তাহলে সংঘাতের কোনও কারণ থাকতে পারে না।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- মাগুরা জেলা প্রশাসক ড. আশরাফুল আলম, খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আব্দুর রশিদ, অতিরিক্ত ডিআইজি নাহিদুল ইসলাম, আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশনার ইউনুস আলী, পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডা. শহীদুল্লাহ দেওয়ান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওলিউল ইসলামসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, মাগুরা সদরের জগদল ইউনিয়নে দ্বিতীয় দফায় আগামী ১১ নভেম্বর ভোটগ্রহণ হবে। বর্তমান চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ও নৌকা প্রতীক পান। সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। উভয় প্রার্থীর মধ্যে নির্বাচন নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান রফিকের সমর্থক নজরুল ইসলাম মেম্বর এবং সাবেক চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলামের সমর্থক সবুর মোল্লার লোকজনের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষ হয়। এতে দুই পক্ষ ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এ সময় চার জন নিহত হন। পুলিশ প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বর্ষণে বাগেরহাটে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

ঘরে ঝুলছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

মোংলায় নদীতে ভেসে এলো নবজাতকের মরদেহ

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

সাতক্ষীরা মুক্ত দিবসে বধ্যভূমি সংরক্ষণের দাবি

মোটরসাইকেল না পেয়ে ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা

মোটরসাইকেল না পেয়ে ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হচ্ছেন সাবেক এমপি বদির চাচা

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হচ্ছেন সাবেক এমপি বদির চাচা

করোনার টিকা নিয়ে ফেরার পথে মৃত্যু 

করোনার টিকা নিয়ে ফেরার পথে মৃত্যু 

টানা বৃষ্টিতে নষ্টের শঙ্কায় দুবলার চরের ৩ কোটি টাকার শুঁটকি

টানা বৃষ্টিতে নষ্টের শঙ্কায় দুবলার চরের ৩ কোটি টাকার শুঁটকি

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বৃষ্টি, ভোগান্তিতে খেটে খাওয়া মানুষ

জাওয়াদের প্রভাবে টানা বৃষ্টি, ভোগান্তিতে খেটে খাওয়া মানুষ

কুয়েট শিক্ষক সেলিমের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন পুলিশের

কুয়েট শিক্ষক সেলিমের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন পুলিশের

সর্বশেষ

ওমিক্রনের সংক্রমণ ও ভয়াবহতা নিয়ে যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা

ওমিক্রনের সংক্রমণ ও ভয়াবহতা নিয়ে যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা

‘সংবাদপত্র রুগ্ন হয়ে পড়েছে’

‘সংবাদপত্র রুগ্ন হয়ে পড়েছে’

প্যান্ডোরা পেপার্সে ৮ বাংলাদেশির নাম

প্যান্ডোরা পেপার্সে ৮ বাংলাদেশির নাম

গ্রামপুলিশকে যৌন হয়রানি, ইউপি সচিবের ১ বছর কারাদণ্ড

গ্রামপুলিশকে যৌন হয়রানি, ইউপি সচিবের ১ বছর কারাদণ্ড

সৌদিতে কর্মীদের সমস্যা সমাধানে প্রতি মাসে যৌথসভা করার সিদ্ধান্ত

সৌদিতে কর্মীদের সমস্যা সমাধানে প্রতি মাসে যৌথসভা করার সিদ্ধান্ত

© 2021 Bangla Tribune