X
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪
১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

গ্যাস বিক্রির ১৩০০ কোটি টাকা পাচ্ছে না তিতাস

সঞ্চিতা সীতু
১৪ এপ্রিল ২০২২, ০০:০৫আপডেট : ১৪ এপ্রিল ২০২২, ১৬:৫৩

বিভিন্ন মামলাজনিত কারণে বকেয়া ১৩১৬ কোটি টাকা আদায় করতে পারছে না তিতাস। এর মধ্যে দুটি বাণিজ্যিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাছেই পাবে ৭৭২ কোটি টাকা। এ টাকা আদায় করতে গিয়ে উল্টো মামলায় জড়িয়ে গেছে এই সরকারি প্রতিষ্ঠান। 

বিষয়টিকে ‘কিছুটা হাস্যকর’ বলছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন। কমিশন বলছে, এই দুই বেসরকারি কোম্পানির দাবিই অযৌক্তিক।

কমিশনের মতে, কেউ যদি গ্রিড থেকে গ্যাস নিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে সে নিজেই বিপণন করে তবে তাকে অবশ্যই বাণিজ্যিক বিদ্যুৎকেন্দ্র শ্রেণিতে যে দর আছে সেটাই পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু ওই দুই কোম্পানি সাধারণ বিদ্যুৎকেন্দ্রে যে দরে গ্যাস ব্যবহার করা হয় সে দামেই পরিশোধের দাবি করে আসছে।

‘এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনেও তারা এ বিষয়ে বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা করেছিল। কিন্তু কমিশন তাদের দাবির পক্ষে সায় না দেওয়ায় এখন উচ্চ আদালতে গেছে।’

জ্বালানি বিভাগ সূত্র জানায়, এভারেস্ট পাওয়ার এবং ইউনাইটেড পাওয়ারের কাছে ৭৭২ কোটি টাকার বকেয়া জমেছে। যা আদায় করতে পারছে না বিতরণ কোম্পানিটি।

তিতাস জানায়, ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত এ টাকা জমেছে। এর মধ্যে এভারেস্ট পাওয়ার কোম্পানির কাছে বকেয়া ৪১০ কোটি টাকা। ইউনাইটেডের কাছে বকেয়া ৩৬২ কোটি টাকা।

সম্প্রতি সরকারি কোম্পানির বকেয়া আদায় সংক্রান্ত এক বৈঠকে তিতাস গ্যাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হারুনুর রশীদ মোল্লা বিষয়টি সামনে আনেন।

তিনি বলেন, বণিজ্যিক হলেও ওই দুটি কেন্দ্র সাধারণ বিদ্যুৎকেন্দ্রের সমান দর পরিশোধ করতে চাচ্ছে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম ৪ টাকা ৪৫ পয়সা। কিন্তু বাণিজ্যিক শ্রেণিতে (ক্যাপটিভ পাওয়ার) কেউ উৎপাদন করলে তাকে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসে ১৩ দশমিক ৮৫ টাকা করে পরিশোধ করতে হয়।

জ্বালানি বিভাগের সিনিয়র সচিব মাহবুব হোসেন বৈঠকে বলেন, দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি করে বকেয়া আদায়ের উদ্যোগ নিতে হবে।

জ্বালানি বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, কেউ বাণিজ্যিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য গ্যাস নিলে তাকে সাধারণ দামে গ্যাস দেওয়া ঠিক নয়। এই সুবিধা একজনকে দিলে বাকিরাও চাইবে। সেক্ষেত্রে সরকারের হাজার কোটি টাকা লোকসান হবে।

তিনি আরও বলেন, বিদ্যুৎকেন্দ্রে কম দামে গ্যাস দেওয়ার একটি উদ্দেশ্য আছে। সরকার এর মধ্য দিয়ে শিল্পায়ন, কর্মসংস্থান বাড়াতে চায়। কিন্তু কেউ সেই দামে গ্যাস নিয়েতো ব্যবসা করতে পারে না।

/এফএ/
সম্পর্কিত
শাহজাহানপুরে গ্যাস বিস্ফোরণে দগ্ধ ৭
আগামীকাল যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না
বিদ্যুৎ উৎপাদনে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম বাড়লো
সর্বশেষ খবর
নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী: কে কোন মন্ত্রণালয়ে
নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রী: কে কোন মন্ত্রণালয়ে
যাওয়া হলো না ইতালি, পাশাপাশি কবরে শায়িত পরিবারের ৫ সদস্য
যাওয়া হলো না ইতালি, পাশাপাশি কবরে শায়িত পরিবারের ৫ সদস্য
ক্লাব কাপ হকিতে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মুখোমুখি আবাহনী-মেরিনার্স
ক্লাব কাপ হকিতে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মুখোমুখি আবাহনী-মেরিনার্স
রাসেল ঝড়ে বরিশালকে ১৫৫ রানের লক্ষ্য দিলো কুমিল্লা
রাসেল ঝড়ে বরিশালকে ১৫৫ রানের লক্ষ্য দিলো কুমিল্লা
সর্বাধিক পঠিত
বাংলাদেশ থেকে যাওয়া হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে নতুন পোর্টাল করছে ভারত
বাংলাদেশ থেকে যাওয়া হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে নতুন পোর্টাল করছে ভারত
দুই ছেলের আবদার মেটাতে গিয়ে লাশ হলেন মা’সহ ৩ জনই
দুই ছেলের আবদার মেটাতে গিয়ে লাশ হলেন মা’সহ ৩ জনই
আগুন কেড়ে নিলো ইতালি প্রবাসী মোবারকের পরিবারের সবাইকে
আগুন কেড়ে নিলো ইতালি প্রবাসী মোবারকের পরিবারের সবাইকে
বেইলি রোডের আগুনে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যু
বেইলি রোডের আগুনে অন্তত ৪৪ জনের মৃত্যু
তুরস্কের কাছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বিক্রির সিদ্ধান্তে অটল যুক্তরাষ্ট্র
তুরস্কের কাছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান বিক্রির সিদ্ধান্তে অটল যুক্তরাষ্ট্র