X
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২
১২ আষাঢ় ১৪২৯

বিমানকে ঢেলে সাজানো প্রয়োজন

আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০১৭, ১৪:১০

নাদীম কাদির সাম্প্রতিক বিদেশ সফরের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিদেশি এয়ারলাইন্স-এর ওপর আস্থা করতে হয়েছিল যা সত্যিই দুঃখজনক। তিনি যখন আমাদের বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে করে ভ্রমণ করেন তখন ওই বিমানে সাধারণ যাত্রীরাও থাকেন। দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কিছু কথা বলার সুযোগ তৈরি হয় তাদের। তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো শীর্ষ পর্যায়ের সফরের সময় দেশের নিজস্ব এয়ারলাইন্সের বিমান ব্যবহার করাটা গৌরবের।
নিয়মিত ঢাকা-লন্ডন-ঢাকা আসা যাওয়া করেন এমন যাত্রীদের অনেকে এখন বাংলাদেশ বিমানে চড়তে আতঙ্কিত বোধ করছেন এবং অন্য এয়ারলাইন্স বেছে নিচ্ছেন। এর মধ্য দিয়ে বিমানের ফ্লাইটগুলো ফাঁকা যাচ্ছে এবং রাজস্ব ক্ষতিও হচ্ছে।
সম্প্রতি শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ার পর বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যান তিনি। অতীতে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব দ্যাগ হ্যামারশোল্ডসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিই এ ধরনের দুর্ঘটনার কবলে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেওয়ার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমি মনে করি, এটাই যথেষ্ট নয়। যারা প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইট নিয়ে হেলাফেলা করেছে তারা কোনও ধরনের কৃপা পাওয়ার যোগ্য নয়। তাদেরকে দৃষ্টান্তমূলক সাজা দিতে হবে। পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমগুলোরও উচিত এ ব্যাপারে কড়া নজর রাখা।
এটি একটি বড় ধরনের জাতীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়। এমনও হতে পারে এটি প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার একটি প্রচেষ্টা ছিল। কেননা, তার সফলতা এবং নিজেদের পরিণতির কথা ভেবে প্রতিদ্বন্দ্বীরা চোখে অন্ধকার দেখছে।
লন্ডন কিংবা মালয়েশিয়া যেখান থেকেই বন্দুকের নল তাক করা হোক না কেন সেসব জায়গায়ও তদন্ত করতে হবে। কোনও কিছু বাদ রাখা যাবে না।
জন্মের সময় থেকেই বিমানের সঙ্গে ট্র্যাজেডি জড়িয়ে আছে। এ এয়ারলাইন্সটিতে এমন অনেকের আনাগোনা হয়েছে যারা দুর্নীতির মাধ্যমে নিজেদের পকেট ভারী করেছেন। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে সেইসব দুর্নীতির তথ্য। কেবল বিমান কেনার ক্ষেত্রেই নয়, এগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের খরচ নির্ধারণের ক্ষেত্রেও বড় দুর্নীতির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, কেবিন ক্রুরা স্বর্ণ চোরাচালানের পাশাপাশি লাগেজ ব্যবসার সঙ্গেও জড়িত। কয়েকজন গ্রেফতারও হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমের কাছে একবার এক কেবিন ক্রু অভিযোগ করে বলেছিলেন যে অন্য এয়ারলাইন্সের কর্মীদের তুলনায় তাদের বেতন খুব নিম্ন এবং এজন্য তারা মালামালগুলো ঢাকার বাজারে নিয়ে বিক্রি করতে বাধ্য হন। এর মানে হলো নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ বিমান দরিদ্র। কিন্তু এতটা সম্ভাবনা থাকার পরও ৪৫ বছর পর এসে কোনও এয়ারলাইন্স বন্ধ হয়ে যেতে পারে না। বরং এ এয়ারলাইন্সটির উচিত বিশ্বজুড়ে তাদের বিমানের পাখা ঝাপটে বেড়ানো। এয়ারলাইন্সটির জন্য একটি কার্যকর কাঠামো ঢেলে সাজানো দরকার।

কী প্রক্রিয়ায় তা করা যাবে সে কথা বলার আগে আপনাদেরকে আরেকটি দুর্নীতির উদাহরণ দিয়ে নিই। ঢাকা থেকে ছাড়ার আগে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ত্রুটি দেখা গিয়েছিল। ওই বিমানের দরজায় ত্রুটি ছিল। তবে লন্ডনে অবতরণের পরই তা জানানো হয়েছিল। ওই ফ্লাইটে থাকা এক যাত্রীর তথ্য অনুযায়ী, চার-পাঁচদিন ধরে যাত্রীদেরকে রাষ্ট্রীয় খরচে বিভিন্ন হোটেলে রাখা হয়েছিল এবং সেসময় কর্মকর্তারা অক্সফোর্ড স্ট্রিটে উন্মত্ত হয়ে শপিং করছিলেন।

লুফথানসা ও থাই এয়ারলাইন্সসহ বেশ কয়েকটি এয়ারলাইন্স প্রফিট শেয়ারের ভিত্তিতে বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে।

আমাদের উচিত ইউনিয়নগুলোকে ভেঙে দিয়ে বিমান থেকে বিনিয়োগ প্রত্যাহার করে নেওয়া। কেননা, যখনই এ ধরনের পরিকল্পনা করা হয়, তখনই ইউনিয়নগুলো প্রতিবাদ জানিয়ে রাস্তায় নেমে আসে। আমাদেরকে কঠোর হাতে এর মোকাবিলা করতে হবে। এয়ারলাইন্সটির সবগুলো বিমানেরই একই রং হতে হবে।

যেখানে ২০২১ সাল নাগাদ বাংলাদেশ মধ্যম-আয়ের দেশে পরিণত হতে যাচ্ছে, তাহলে কেন বিমান স্বল্পোন্নত দেশের অবস্থায় থাকবে। বিমানের জন্য নতুন নেতৃত্ব গড়ে তোলা হোক যেন ২০২১ সাল নাগাদ আমরা খ্যাতির সঙ্গে বিশ্বের অর্ধেক পথ এবং ২০৪১ সাল নাগাদ পুরো বিশ্ব পাড়ি দিতে পারি।

লেখক: সাংবাদিকতায় জাতিসংঘের ড্যাগ হ্যামারসোল্ড স্কলার এবং লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের প্রেস মিনিস্টার

*** প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব।

বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
প্রধানমন্ত্রীকন্যা পুতুলকে নিয়ে কটূক্তি, যুবক গ্রেফতার
প্রধানমন্ত্রীকন্যা পুতুলকে নিয়ে কটূক্তি, যুবক গ্রেফতার
২৭ জুলাই থেকে টরন্টো যাবে বিমান
২৭ জুলাই থেকে টরন্টো যাবে বিমান
পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত ২ যুবকের মৃত্যু
পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত ২ যুবকের মৃত্যু
ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা
ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ