X
শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১০ ফাল্গুন ১৪৩০

ছেলের মুখটা শেষবার দেখতে চান মালয়েশিয়ায় নিহত সাইফুলের বাবা-মা

আবদুল্লাহ আল মারুফ, কুমিল্লা
২৯ নভেম্বর ২০২৩, ১৯:৪৫আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ১৯:৪৫

‘আমার মানিকে আমাদের সুখের জন্য জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রবাসে শ্রমিকের চাকরি করছে। আমাদের কখনও তার কষ্ট বুঝতে দেয় নাই। আমার মানিকের মুখটা শেষবার দেখতাম চাই। তার লাশটা আপনেরা আইন্না দেন।’ কথাগুলো বলছিলেন মালয়েশিয়ায় নির্মাণাধীন ভবন ধসে নিহত কুমিল্লার দেবিদ্বারের সাইফুলের বাবা রোশন ভান্ডারী।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) স্থানীয় সময় রাত ৯টায় মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের একটি নির্মাণাধীন ভবন ধসে অপর দুই সহকর্মীর সঙ্গে মারা যান উপজেলার ফতেহাবাদ ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুরের রোশন ভান্ডারীর ছোট ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম। এ ঘটনায় বেশ কজন আহত হন এবং চার জন ভবনের নিচে আটকা পড়েন।

এ ঘটনার পর থেকে সাইফুলের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। আদরের ছোট ছেলের মৃত্যু মেনে নিতে পারছেন না বাবা-মা। তাদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠছে পরিবেশ। সরকারের কাছে তাদের একটাই চাওয়া। লাশটা যেন দ্রুত দেশে আসে। জীবিত সন্তানকে না পেলেও মরদেহটা নিজেদের কাছে এনে কবরস্থ করতে চান তারা।

সাইফুল ইসলাম বুধবার (২৯ নভেম্বর) সাইফুলের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় শোকাবহ দৃশ্য। স্বজনদের আহাজারি বাড়িটিতে এক শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি করেছে। আদরের ছোট ছেলেকে হারিয়ে বিলাপ করছেন মা আর তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করছেন ক্যানসারে আক্রান্ত সাইফুলের বাবা। তাদের আহাজারি থামাতে ভিড় করছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

সাইফুলের বাবা রোশন ভান্ডারী জানান, তিনি দুরারোগ্য ক্যানসারে ভুগছেন অনেক দিন ধরে। সোমবারও তার থেরাপির জন্য ২০ হাজার টাকা পাঠিয়েছেন সাইফুল। বুধবারে আরও টাকা পাঠাবেন জানিয়েছিলেন। এবার দেশে আসলেই বিয়ে করার কথা ছিল।

এ বিষয়ে ফতেহাবাদ ইউপির চেয়ারম্যান মো. কামরুজ্জামান মাসুদ বলেন, ‘সাইফুলের সহকর্মীরা তার মরদেহ দেশে পাঠানোর চেষ্টা করছে বলে জেনেছি। আমিও যোগাযোগ রাখছি। মরদেহ আনার জন্য সরকার ও সংশ্লিষ্টদের সদয় দৃষ্টি কামনা করছি। আশা রাখছি স্বজনরা দ্রুত মরদেহ পাবেন।’

/এমএএ/
সম্পর্কিত
মায়ের মৃত্যুতে ইতালি থেকে ফেরার পথে ছেলেসহ নিহত ২
ইউকে বাংলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে একুশের আলোচনা
তিউনিসিয়ায় নৌ-দুর্ঘটনায় নিহত আট বাংলাদেশির পরিচয় প্রকাশ
সর্বশেষ খবর
কুমিল্লা সিটি উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন চার মেয়রপ্রার্থী
কুমিল্লা সিটি উপনির্বাচনে প্রতীক পেলেন চার মেয়রপ্রার্থী
নৌকায় বিদ্যালয়, হলো সূর্যোদয়
নৌকায় বিদ্যালয়, হলো সূর্যোদয়
ইউক্রেন যুদ্ধের দুই বছর: সংঘাত, ক্রোধ আর ক্লান্তি
ইউক্রেন যুদ্ধের দুই বছর: সংঘাত, ক্রোধ আর ক্লান্তি
মাইক্রোওয়েভে করতে পারেন এই ৫ কাজ
মাইক্রোওয়েভে করতে পারেন এই ৫ কাজ
সর্বাধিক পঠিত
বাড়িওয়ালাদের তালিকা ধরে অভিযান চালাবে এনবিআর
বাড়িওয়ালাদের তালিকা ধরে অভিযান চালাবে এনবিআর
৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে অবসর সুবিধা দিতে হাইকোর্টের রায়
এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান৫ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে অবসর সুবিধা দিতে হাইকোর্টের রায়
ইউরোপে মানবপাচারে জড়িত বিমানবন্দরের কর্তারা: ডিবির হারুন
ইউরোপে মানবপাচারে জড়িত বিমানবন্দরের কর্তারা: ডিবির হারুন
বইমেলা থেকে বের করে দেওয়ায় ডিবি কার্যালয়ে গেলেন হিরো আলম
বইমেলা থেকে বের করে দেওয়ায় ডিবি কার্যালয়ে গেলেন হিরো আলম
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরভিএন্ডএফ কোরের সদস্যদের প্রস্তুত থাকতে বলেছেন সেনাপ্রধান
চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আরভিএন্ডএফ কোরের সদস্যদের প্রস্তুত থাকতে বলেছেন সেনাপ্রধান