X
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

এমপি জিন্নাহর অর্থ-সম্পদ বেড়েছে আড়াই কোটি টাকার

বগুড়া প্রতিনিধি
১২ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:৫৪আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০২৩, ২২:৫৮

বগুড়া জেলা জাতীয় পার্টির (জাপা) সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ পেশায় ব্যবসায়ী। দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য (এমপি) ছিলেন তিনি। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি জাপা প্রার্থী। জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদক তার বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছে।

এবারের হলফনামা অনুসারে ঋণ হিসাব অপরিবর্তিত থাকলেও এমপি জিন্নাহর আড়াই কোটি টাকার অর্থ-সম্পদ বেড়েছে। বর্তমানেতার অর্থ-সম্পদের পরিমাণ তিন কোটি ৬০ লাখ চার হাজার ৩৮৭ টাকার। স্ত্রীর দুই কোটি ৯১ লাখ ৪২ হাজার ৩৩০ টাকা এবং নির্ভরশীলের (সন্তান) ৫০ ভরি স্বর্ণালঙ্কারসহ এক কোটি ৫৯ লাখ ৫৫ হাজার ১৩৫ টাকা রয়েছে।

বি কম পাস জিন্নাহ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ২০১৮ সালের ২৮ নভেম্বর দাখিল করা হলফনামায় উল্লেখ করেন– কৃষি খাতে বাৎসরিক আয় দেখিয়েছেন দুই হাজার টাকা, বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট/দোকান ভাড়া এক হাজার ৮০০ টাকা, ব্যবসা থেকে তিন লাখ ১৫ হাজার ৮০০ টাকা, নগদ নিজের দেড় লাখ টাকা ও স্ত্রীর দেড় লাখ টাকা। ব্যাংকে জমা ৫০ লাখ ৬২ হাজার ৭৯৭ টাকা। যানবাহনের মধ্যে মোটরসাইকেল ৭৭ হাজার টাকা এবং ল্যান্ড ক্রুজার কার ৩৬ লাখ ৭৪ হাজার ৯৯১ টাকা। স্বর্ণালঙ্কার নিজ নামে ৭০ হাজার টাকা এবং স্ত্রীর নামে ৭০ হাজার টাকা। ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী নিজ নামে ৭০ হাজার, স্ত্রীর নামে ৬০ হাজার টাকা। আসবাবপত্র নিজ নামে ৮০ হাজার টাকা, স্ত্রীর নামে ৫৫ হাজার টাকা। নিজ নামে পিস্তল দেড় লাখ টাকা এবং রাইফেল এক লাখ টাকা। কৃষিজমি নিজ নামে ১.৪০ শতক দুই লাখ ৭০ হাজার টাকা এবং স্ত্রীর নামে .০৭ শতক এক লাখ ৪০ হাজার টাকা। অকৃষি জমি নিজ নামে এক লাখ ৮০ হাজার টাকার। টিনশেড কাঁচাপাকা বাড়ি নিজ নামে এক লাখ ৮০ হাজার টাকা এবং স্ত্রীর .০৭ শতক জমি ও বাড়ি সাত লাখ ৮০ হাজার টাকা। নিজ নামে পুকুর দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা। তখন তার ঋণ সিসি (হাইপো) ৩০ লাখ টাকা এবং মোটরকারের ঋণ ছয় লাখ ১৬ হাজার ৭৪২ টাকা ছিল। ওই সময় তার অর্থ-সম্পদ ছিল এক কোটি ছয় লাখ ৬৪ হাজার ৩৮৮ টাকার। আর স্ত্রীর নামে বারো লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

এমপি শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে গত ২৯ নভেম্বর হলফনামা দাখিল করেন। এতে দুদকে দুটি মানি লন্ডারিং আইনে মামলা তদন্তনাধীন থাকার কথা উল্লেখ করেন। অর্থ-সম্পদের বিষয়ে উল্লেখ করেন– কৃষি খাতে বছরে নিজের আয় দুই লাখ ৬১ হাজার ৬৩০ টাকা এবং নির্ভরশীলদের নামে ২৪ হাজার ৭২০ টাকা। বাড়ি/অ্যাপার্টমেন্ট/দোকান ভাড়া নিজ নামে চার লাখ ২০ হাজার ৫০০ টাকা এবং নির্ভরশীলদের ৬০ হাজার টাকা। নিজ ব্যবসা সাত লাখ টাকা, নির্ভরশীলদের ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা। শেয়ার/সঞ্চয়পত্র/ব্যাংক আমানত নিজের এক লাখ ৩৩ হাজার ৭৫৬ টাকা এবং নির্ভরশীলদের নামে তিন লাখ ২৪ হাজার ৪৮০ টাকা। নির্ভরশীলদের পেশা থেকে আয় ছয় লাখ ৭৬ হাজার টাকা। সংসদ সদস্য হিসেবে সম্মানী ভাতা ১৯ লাখ ৩৯ হাজার ৬৭৫ টাকা। নগদ নিজ নামে ৯৭ লাখ ৯৩ হাজার ২৭৬ টাকা, স্ত্রীর নামে এক কোটি ২৫ লাখ ৮৭ হাজার ১৩৪ টাকা, নির্ভরশীলের নামে ৯৩ লাখ ৫৫ হাজার ২৮২ টাকা। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা– নিজ ৭২ লাখ ৬৭ হাজার ৭৮ টাকা, স্ত্রীর নামে ৬২ লাখ ৮৩ হাজার ১৯৬ টাকা এবং নির্ভরশীলের নামে এক লাখ ৭৩ হাজার ৩৫৩ টাকা। স্ত্রীর সঞ্চয়পত্রে স্থায়ী আমানত ২৮ লাখ টাকা। যানবাহন নিজের টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার এক কোটি এক লাখ টাকা এবং স্ত্রীর একটি ট্রাক ১৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা। স্বর্ণালঙ্কার নিজের ৩০ তোলা ৭৫ হাজার টাকা, স্ত্রীর ৪০ তোলা দুই লাখ টাকা এবং নির্ভরশীলের ৫০ তোলা (মূল্য অজানা)। ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী স্ত্রীর নামে এক লাখ টাকা এবং নির্ভরশীলের নামে দুই লাখ টাকা। আসবাবপত্র নিজের নামে ৮০ হাজার টাকা, স্ত্রীর নামে এক লাখ টাকা এবং নির্ভরশীলের নামে দুই লাখ টাকা। ব্যবসায় স্থায়ী বিনিয়োগ নিজ ১৮ লাখ ৬১ হাজার ৬৭২ টাকা। কৃষি জমি নিজ নামে ৪৫ লাখ ৫০ হাজার ১৫০ টাকা মূল্যের ১৬৯৩.২২ শতক এবং স্ত্রীর নামে ২৭ লাখ ১১ হাজার ৮০০ টাকা মূল্যের ১৫৬.০৮ শতক। অকৃষি জমি নিজ নামে ১০ লাখ ৮৫ হাজার টাকা, স্ত্রীর নামে ১০ লাখ ২৬ হাজার ৫০০ টাকা। নিজ নামে দুটি ভবন এক কোটি ৮৯ লাখ ৬১ হাজার ৮০০ টাকা এবং নিজ নামে একটি ফ্ল্যাট ১৫ লাখ ৯২ হাজার ১৯৫ টাকা।

এ ছাড়া মধুমতি ব্যাংক ঢাকার মতিঝিল শাখায় ঋণ পাঁচ লাখ ২৮ হাজার ৪৫৯ টাকা এবং অগ্রণী ব্যাংক বগুড়ার মহাস্থান শাখায় ৩০ লাখ ৯০ হাজার ৮৭১ টাকা। নির্ভরশীলদের নামে অগ্রণী ব্যাংকে ৪৯ লাখ ৪৭ হাজার ১৩৫ টাকা ঋণ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় শরিফুল ইসলাম জিন্নাহর মোট অর্থ-সম্পদ ছিল এক কোটি ছয় লাখ ৬৪ হাজার ৩৮৮ টাকার। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে তা তিন কোটি ৬০ লাখ চার হাজার ৩৮৭ টাকা। গত পাঁচ বছরে অর্থ-সম্পদ বেড়েছে দুই কোটি ৫৩ লাখ ৩৯ হাজার ৯৯৯ টাকা। স্ত্রীর আগে মোট অর্থ-সম্পদ ছিল বারো লাখ ৫৫ হাজার টাকার। গত পাঁচ বছরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে, দুই কোটি ৯১ লাখ ৪২ হাজার ৩৩০ টাকায়। তার অর্থ-সম্পদ বেড়েছে দুই কোটি ৭৮ লাখ ৮৭ হাজার ৩৩০ টাকার। নির্ভরশীলের কোনও অর্থ-সম্পদ না থাকলেও বর্তমানে ৫০ তোলা স্বর্ণসহ এক কোটি ৫৯ লাখ ৫৫ হাজার ১৩৫ টাকা হয়েছে।

/এমএএ/
সম্পর্কিত
‘ভেবেছিলাম দেশের সমস্যা ক্ষণস্থায়ী, এখন আরও বেড়েছে’
সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, আ.লীগ নেতাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ
বিএনপি ফের নৈরাজ্য করলে ডাবল শিক্ষা পেয়ে যাবে: ওবায়দুল কাদের
সর্বশেষ খবর
দুই কোরবানির হাটে ক্যাশলেস লেনদেন
দুই কোরবানির হাটে ক্যাশলেস লেনদেন
কানের অফিসিয়াল লালগালিচায় ঢাকার একমাত্র মুখ
কান উৎসব ২০২৪কানের অফিসিয়াল লালগালিচায় ঢাকার একমাত্র মুখ
ফেসবুকে ‘পাত্রী চাই’ বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১
ফেসবুকে ‘পাত্রী চাই’ বিজ্ঞাপন দিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ১
১৪ দলের শরিকদের অবমূল্যায়নের অভিযোগ, সান্ত্বনা জোটনেত্রীর
১৪ দলের শরিকদের অবমূল্যায়নের অভিযোগ, সান্ত্বনা জোটনেত্রীর
সর্বাধিক পঠিত
পূর্ব তিমুরের মতো খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা
পূর্ব তিমুরের মতো খ্রিষ্টান দেশ বানানোর চক্রান্ত চলছে: শেখ হাসিনা
কবে থেকে পরিকল্পনা ও কেন কলকাতায় হত্যা, জানালো ডিবি
এমপি আনার হত্যাকবে থেকে পরিকল্পনা ও কেন কলকাতায় হত্যা, জানালো ডিবি
সেই শিক্ষকের ‘ওপরের চেহারা’ বিভ্রান্ত করেছে সহকর্মীদেরও
৩০ শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেফতারসেই শিক্ষকের ‘ওপরের চেহারা’ বিভ্রান্ত করেছে সহকর্মীদেরও
নেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডনেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না আমার ভাই এমপি হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে: মেয়র সেলিম
এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না আমার ভাই এমপি হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে: মেয়র সেলিম