X
বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২
২৬ শ্রাবণ ১৪২৯

পেশা ছাড়ছেন চট্টগ্রামের চামড়া ব্যবসায়ীরা

নাসির উদ্দিন রকি, চট্টগ্রাম
০১ জুলাই ২০২২, ২১:০৬আপডেট : ০১ জুলাই ২০২২, ২১:৫২

দীর্ঘদিন ধরে সংকটময় সময় পার করছেন চট্টগ্রামের চামড়া শিল্পে জড়িত ব্যবসায়ীরা। গত অর্ধযুগে হওয়া লোকসানের ঘানি টানতে টানতে শেষ পর্যন্ত নিরুপায় হয়ে অনেকেই পরিবর্তন করেছেন পেশা। ঈদুল আজহা ঘনিয়ে এলেও চট্টগ্রামের বৃহত্তম চামড়াপাড়া হিসেবে খ্যাত আতুরার ডিপো এলাকায় নেই আগের জৌলুস।

বৃহত্তর চট্টগ্রামের কাঁচা চামড়া আড়তদার ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য মাইনুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘চামড়া ব্যবসায় সুদিন আর নেই। গত ৫-৬ বছর ধরে এ ব্যবসা চরম সংকটের মধ্যে রয়েছে। কয়েক বছর কোরবানিতে অনেক ব্যবসায়ী লোকসানে পড়েছেন। কম টাকায় চামড়া কেনা হয়েছিল। এরপরও লবণসহ আনুষঙ্গিক ব্যয় মিলে যে খরচ হয়েছে অনেক ক্ষেত্রে ওঠে আসেনি। আবার দেখা গেলো বেশি টাকায় চামড়া বিক্রি করতে পারবো এমন আশায় আমরাও বেশি দামে চামড়া কিনেছিলাম। কিন্তু ট্যানারি মালিকরা এত দাম দিয়ে আমাদের কাছ থেকে চামড়া কেনেননি।’

তিনি বলেন, ‘ঢাকার অনেক ট্যানারির কাছে বাকিতে চামড়া বিক্রি করা হয়েছিল। এখনও তারা ওই টাকা পরিশোধ করেননি। এ কারণে লাভ তো দূরে থাক পুঁজিও আটকে গেছে। গত কয়েক বছর ধরে চরম সংকটময় পরিস্থিতির মুখে রয়েছেন চট্টগ্রামের চামড়া ব্যবসায়ীরা।’

চামড়া ব্যবসায়ী সমিতির এই নেতা আরও বলেন, ‘বৃহত্তর চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার ব্যবসায়ী সমিতিতে ১১২ জন সদস্য আছে। এরমধ্যে অন্তত ৬০ থেকে ৬৫ জন এখন আর এই পেশায় নেই। সংগঠনের একসময়ের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদসহ অসংখ্য আড়তদার গত ৪-৫ বছর ধরে ব্যবসায় নেই। যারা আছে তারাও কোনোভাবে টিকে আছেন।’

চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. মুসলিম উদ্দিন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘চামড়া ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীরা এখন ভালো নেই। ঢাকার ট্যানারি মালিকদের কাছে গত পাঁচ বছরে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের বকেয়া পড়ে আছে ২০ কোটি টাকা। গত কয়েক বছর চামড়া ব্যবসায় অনেকেই লোকসান গুনেছেন। এ কারণে অন্তত ৬০-৭০ শতাংশ ব্যবসায়ী এই ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছেন।’

তিনি আরও জানান, ‘গত বছর চট্টগ্রামে সাড়ে তিন থেকে চার লাখ চামড়া সংগ্রহ করেছিল সমিতির ব্যবসায়ীরা। এবারও একই পরিমাণ চামড়া সংগ্রহের টার্গেট আছে। একসময় চট্টগ্রামে ২২-২৩টি ট্যানারির অবস্থান থাকলেও এখন আছে মাত্র একটি। রিফ লেদার নামে ট্যানারিটি ঈদুল আজহায় ৫০-৬০ হাজারের মতো চামড়া কেনে। বাকি চামড়া ঢাকার হেমায়েতপুরে অবস্থিত ট্যানারি মালিকদের কাছে বিক্রি করা হয়।’

এদিকে, মাসুদ হোসেন নামে সমিতির অপর সদস্য বলেন, ‘ঈদুল আজহা ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গেই বেড়ে গেছে লবণের দাম। রমজানের সময় ৭৫ কেজি বস্তার লবণের দাম ছিল ৬০০ থেকে ৬২০ টাকা। একই লবণ বর্তমানে বেড়ে হয়েছে ৯০০ থেকে এক হাজার টাকা। একটি চামড়ায় ১০ কেজি লবণ প্রয়োজন হয়। এক বস্তা লবণ ৭-৮টি চামড়ায় দেওয়া যায়। হঠাৎ লবণের দাম বেড়ে যাওয়ায় কাঁচা চামড়ায় ব্যয় বাড়বে।’ কোনও কারণ ছাড়াই লবণের দাম বাড়ায় তিনি ভোক্তা অধিকারের অভিযান দাবি করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘একটি কাঁচা চামড়া কেনার পর এটিকে বিক্রির উপযোগী করতে লবণ ব্যতীত একটি চামড়ার প্রতি ফুটে ১০-১২ টাকা করে খরচ পড়ে।’

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, ‘ব্যবসা-বাণিজ্যের গুরুত্বপূর্ণ এ খাতটির নাজুক অবস্থা লক্ষ করা যাচ্ছে। একসময় চট্টগ্রামে ২২-২৩টি ট্যানারি ছিল। এখন আছে মাত্র একটি। চট্টগ্রামে সব চামড়া এসব ট্যানারি কিনে নিতো। এখন ঢাকার ট্যানারির ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে। চামড়া খাতের দুর্বল দিক চিহ্নিত করে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানাই।’

এদিকে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘চট্টগ্রামে এবার সাত লাখ ৯১ হাজার ৫০১টি পশু কোরবানি হতে পারে। এরমধ্যে গরু পাঁচ লাখ ৩৫ হাজার ৮০৩, মহিষ ৬৬ হাজার ২৩৭, ছাগল এক লাখ ৪০ হাজার ৬৭৫, ভেড়া ৪৮ হাজার ৬২৮ ও অন্যান্য পশু ৯৯টি।’

/এফআর/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
নতুন ভাড়ার তালিকা নেই গণপরিবহনে, যাত্রীদের ক্ষোভ
নতুন ভাড়ার তালিকা নেই গণপরিবহনে, যাত্রীদের ক্ষোভ
স্বস্তির ম্যাচ জিতে আফিফ-এবাদতকে প্রশংসায় ভাসালেন তামিম
স্বস্তির ম্যাচ জিতে আফিফ-এবাদতকে প্রশংসায় ভাসালেন তামিম
জাল-জালিয়াতিতে পণ্য খালাস, কারাগারে জেটি সরকার
জাল-জালিয়াতিতে পণ্য খালাস, কারাগারে জেটি সরকার
ফেনীর ওসিসহ ৬ জনের নামে যুবদল নেতার স্ত্রীর অভিযোগ
ফেনীর ওসিসহ ৬ জনের নামে যুবদল নেতার স্ত্রীর অভিযোগ
এ বিভাগের সর্বশেষ
চামড়া কিনে লোকসান
চামড়া কিনে লোকসান
গতবারের চেয়েও কম চামড়া চট্টগ্রামের আড়তে
গতবারের চেয়েও কম চামড়া চট্টগ্রামের আড়তে
প্রথম দিন জমেনি রাজারহাট, চামড়া ব্যবসায়ীরা হতাশ
প্রথম দিন জমেনি রাজারহাট, চামড়া ব্যবসায়ীরা হতাশ
বেশি দামে চামড়া কিনে বিপাকে ব্যবসায়ীরা
বেশি দামে চামড়া কিনে বিপাকে ব্যবসায়ীরা
সড়কের পাশে নষ্ট হচ্ছে চামড়া  
সড়কের পাশে নষ্ট হচ্ছে চামড়া